কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র বন্ধে সম্মত জার্মানির ৪টি রাজ্য

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৪:১৬, জানুয়ারি ১৬, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৫:১০, জানুয়ারি ১৬, ২০২০

জার্মানির চারটি রাজ্যের নেতা ও চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা ম্যার্কেল বিদ্যুৎকেন্দ্রে বাদামি কয়লার (ইগনাইট) ব্যবহার ধাপে ধাপে বন্ধের বিষয়ে একমত হয়েছেন। এই বিষয়ে তাদের মধ্যে একটি চুক্তি স্বাক্ষর হয়েছে। চুক্তি অনুসারে সরকার রাজ্যগুলোকে ৪০ বিলিয়ন ইউরো প্রদান করবে। চুক্তিটি হাতে পাওয়ার দাবি করে ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স এখবর জানিয়েছে।

জার্মান সরকার ২০৩৮ সালের মধ্যে সবগুলো কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র বন্ধ করার পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে। ২০৩০ সালের মধ্যে গ্রিন হাউস গ্যাস নিঃসরণ ৫৫ শতাংশ কমিয়ে আনার লক্ষ্যে এই পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করা হবে।

১৫ জানুয়ারি তিন পৃষ্ঠায় নথিতে বাদামি কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্রগুলো বন্ধের নির্দিষ্ট সময়সীমা এবং ক্ষতিপূরণ কত দেওয়া হবে তা উল্লেখ করা হয়নি।

নথি অনুসারে, ম্যার্কেল ও ব্রান্ডেনবার্গ, স্যাক্সনি, নর্থ রাইন ওয়েস্টফালিয়া ও স্যাক্সনি-আনহাল্ট রাজ্যের নেতারা বাদামি কয়লার ব্যবহার বন্ধের একমত হয়েছেন। বিদ্যুৎকেন্দ্রে কয়লা ব্যবহার বন্ধ হলে সংশ্লিষ্ট খনিগুলোও বন্ধ হয়ে যাবে। এতে করে অর্থনৈতিক স্থবিরতা আসতে পারে।

এতে বলা হয়েছে, ২০২৬ ও ২০২৯ সালের মধ্যে সরকার পুনবির্বেচনা করে দেখবে বিকল্প সূত্র থেকে পর্যাপ্ত বিদ্যুৎ উৎপাদনে সক্ষমতা রয়েছে কিনা। এর মধ্য দিয়ে ২০৩৫ সালের তিন বছর পূর্বেই কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র বন্ধের বিষয়টির বাস্তবতা জানা সম্ভব হবে।

বৃহস্পতিবার অর্থমন্ত্রী পিটার আল্টমায়ের, পরিবেশমন্ত্রী ভেঞ্জা শুলজ ও বাণিজ্যমন্ত্রী ওলাফ শুলজ চুক্তির বিষয়টি জানাবেন। কয়লার ব্যবহার বন্ধের সময়সীমা ও ক্ষতিপূরণের বিষয়টি সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে আলোচনার পর জানানো হবে।

/এএ/

লাইভ

টপ