করোনা চিকিৎসায় অ্যান্টিবায়োটিকের ব্যবহার নিয়ে ডব্লিউএইচও’র হুঁশিয়ারি

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ০৫:১৭, জুন ০২, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ০৮:৩৮, জুন ০২, ২০২০

কোভিড-১৯ মহামারি মোকাবিলায় অ্যান্টিবায়োটিকের ক্রমবর্ধমান ব্যবহার ব্যাকটেরিয়ার প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে দেবে আর চূড়ান্তভাবে এর ফলে এই সংকটের সময়ে এবং তার পরেও বহু মানুষের মৃত্যু হবে বলে সতর্ক করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। সোমবার সংস্থাটির মহাপরিচালক টেড্রোস আডানোম গেব্রিয়াসিস বলেছেন, বিপুল সংখ্যক ব্যাকটেরিয়া সেগুলোর চিকিৎসায় ব্যবহৃত ওষুধ প্রতিরোধ করতে সক্ষম হয়ে উঠছে। আর করোনাভাইরাস মহামারির সময়ে অ্যান্টিবায়োটিকের ভুল ব্যবহার এই প্রবণতা আরও বাড়িয়ে দেবে বলে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে সংস্থাটি। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম গার্ডিয়ানের এক প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।টেড্রোস আডানোম গেব্রিয়াসিস

ব্যাকটেরিয়াকে ধ্বংস করাসহ এর বংশবৃদ্ধি রোধে ব্যবহৃত হয় অ্যান্টিবায়োটিক। এর কার্যক্ষমতা কমে যাওয়া বা কাজ না করাকেই অ্যান্টিবায়োটিক রেজিস্ট্যান্স বলা হয়। অ্যান্টিবায়োটিক যখন কার্যকারিতা হারায় তখন শরীরের ভেতরে থাকা জীবাণু অ্যান্টিবায়োটিকের বিরুদ্ধে বেঁচে যাওয়ার সক্ষমতা অর্জন করে। এ কারণে অ্যান্টিবায়োটিক আর কাজ করে না, রোগও সারে না।

সোমবার জেনেভায় ডব্লিউএইচও সদর দফতরে আয়োজিত এক ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে সংস্থাটির মহাপরিচালক বলেন, ‘কোভিড-১৯ মহামারিতে অ্যান্টিবায়োটিকের ব্যবহার বেড়েছে, এতে চূড়ান্তভাবে ব্যাকটেরিয়ার প্রতিরোধ ক্ষমতার হার বাড়াবে যা মহামারির সময়ে এবং এর পরে রোগ এবং মৃত্যুর বোঝা বাড়াবে।’ ডব্লিউএইচও বলছে খুব কম সংখ্যক কোভিড-১৯ রোগীদের অ্যান্টিবায়োটিকের প্রয়োজন হয়। যাদের ব্যাকটেরিয়া সংক্রমণ রয়েছে কেবল তাদেরই এটির দরকার পড়ে।

অ্যান্টিবায়োটিক প্রতিরোধক্ষমতাকে বর্তমান সময়ের সবচেয়ে জরুরি চ্যালেঞ্জ উল্লেখ করে সোমবার ডব্লিউএইচও মহাপরিচালক টেড্রোস আডানোম গেব্রিয়য়াসিস বলেন, ‘এটা স্পষ্ট যে বিশ্ব অ্যান্টিবায়োটিক ওষুধের গুরুত্বপূর্ণ ব্যবহারের ক্ষমতা হারিয়ে ফেলছে।’ কয়েকটি দেশে অ্যান্টিবায়োটিকের অতিরিক্ত ব্যবহার আর নিম্ন আয়ের দেশগুলোতে এই জীবন রক্ষাকারী ওষুধ না পাওয়া যাওয়ায় অবর্ণনীয় দুর্ভোগ ও মৃত্যুর ঘটনা ঘটছে।

/জেজে/বিএ/

লাইভ

টপ