‘কার্যকর’ প্রমাণের আগেই প্রস্তুত থাকবে মডার্নার ১০ কোটি টিকা: ফাউচি

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৫:৫৫, জুন ০৫, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৬:০৬, জুন ০৫, ২০২০

কার্যকর বলে প্রমাণ হোক বা না হোক, এ বছরের শেষ নাগাদ যুক্তরাষ্ট্রের হাতে মার্কিন কোম্পানি মডার্নার তৈরি কোভিড-১৯ টিকার অন্তত ১০ কোটি ডোজ প্রস্তুত থাকবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন মার্কিন জাতীয় সংক্রামক রোগ ইন্সটিটিউটের পরিচালক অ্যান্থনি ফাউচি। তার আশা, ২০২১ সালের শুরুতে এ তালিকায় আরও কয়েক কোটি ডোজ টিকা যুক্ত হবে। আমেরিকান মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশন সাময়িকীর সঙ্গে এক প্রশ্নোত্তর পর্বে ফাউচি এসব কথা বলেন।

ফাউচি

বিভিন্ন দেশে করোনা প্রতিরোধী টিকা ও ওষুধ আবিষ্কারের প্রচেষ্টা চলছে। বিশেষজ্ঞরা আভাস দিয়েছেন, নিরাপদ ও কার্যকর রোগ প্রতিরোধী টিকা উদ্ভাবনে ১২-১৮ মাস সময় লাগতে পারে। এ পর্যন্ত মাত্র কয়েকটি টিকা পরীক্ষামূলকভাবে মানবদেহে প্রয়োগ করা হয়েছে। এগুলোর মধ্যে এগিয়ে রয়েছে মার্কিন ওষুধ প্রস্তুতকারক কোম্পানি মডার্না এবং ব্রিটিশ-সুইডিশ কোম্পানি অ্যাস্ট্রাজেনেকার ভ্যাকসিন।

মঙ্গলবার, সম্ভাব্য টিকা নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে মডার্নার টিকা নিয়ে আশা প্রকাশ করেন ফাউচি। তিনি বলেন, গ্রীষ্মের মাঝামাঝি সময়ের মধ্যে বায়োটেক কোম্পানি মডার্নার তৈরি টিকাগুলো দিয়ে স্বেচ্ছাসেবীদের শরীরে চূড়ান্ত পর্যায়ের (তৃতীয় ধাপে) পরীক্ষা চালানো হবে। জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে বিভিন্ন জায়গায় এ নিয়ে প্রস্তুতি চলছে বলে জানান তিনি।  

‘তৃতীয় ধাপের পরীক্ষাই মূলত প্রকৃত পরিস্থিতির জানান দেবে। আশা করি, জুলাইয়ের প্রথম সপ্তাহে এ ধাপের পরীক্ষা শুরু হবে। অনেক বেশি তথ্য সংগ্রহের জন্য আমরা সাধ্যমতো চেষ্টা চালিয়ে যাব।’ বলেন ফাউচি। তিনি জানান, তৃতীয় ধাপে প্রায় ৩০ হাজার মানুষের মধ্যে মডার্নার টিকা নিয়ে পরীক্ষা চালানো হবে। তাদের বয়স হবে ১৮ থেকে ৫৫ বছরের মধ্যে।

ফাউচি আরও জানান, মডার্নার এ টিকা কার্যকরী কিনা তা পুরোপুরি নিশ্চিত হওয়ার আগেই নভেম্বর-ডিসেম্বর নাগাদ ১০ কোটি ডোজ তৈরি করে রাখার পরিকল্পনা করা হয়েছে; যেন এটি কার্যকর বলে প্রমাণ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই তা ব্যবহার করা যায়।

/এফইউ/

লাইভ

টপ