ইউরোপীয় শক্তিগুলোর অভিযোগ দায়িত্বজ্ঞানহীন: ইরান

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ২০:৪৯, নভেম্বর ২১, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:৪৯, নভেম্বর ২১, ২০২০

ইউরোপীয় তিনটি দেশ ইরানের বিরুদ্ধে পারমাণবিক কর্মসূচি সম্প্রসারণের অভিযোগ আনলেও তা আমলে নিচ্ছে না তেহরান। ওই কর্মসূচি নিয়ে ফ্রান্স, জার্মানি ও যুক্তরাজ্যের দেওয়া যৌথ বিবৃতিকে দায়িত্বজ্ঞানহীন ও অযৌক্তিক আখ্যা দিয়েছেন ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সায়িদ খাতিবজাদেহ। এক পাল্টা বিবৃতিতে শনিবার তিনি দাবি করেন, ২০১৫ সালে ছয় বিশ্ব শক্তির সঙ্গে স্বাক্ষরিত চুক্তি মেনেই নিজেদের কর্মসূচি এগিয়ে নিচ্ছে তেহরান। বরং ওই দেশগুলোই নিজেদের প্রতিশ্রুতি পূরণে ব্যর্থ হয়েছেন বলে পাল্টা অভিযোগ তোলেন ইরানি মুখপাত্র। কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরার প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

আন্তর্জাতিক নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের শর্তে পারমাণবিক কর্মসূচি সীমিত রাখার প্রতিশ্রুতি দিয়ে ২০১৫ সালে ছয় বিশ্ব শক্তির সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষর করে। জয়েন্ট কমপ্রিহেন্সিভ প্ল্যান অব অ্যাকশন (জেসিপিওএ) নামের এই চুক্তি থেকে ২০১৮ সালে এককভাবে যুক্তরাষ্ট্রকে প্রত্যাহার করে নিয়ে তেহরানের ওপর নিষেধাজ্ঞা পুনর্বহাল শুরু করে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রশাসন। তবে চুক্তিটি বহাল রাখার ঘোষণা দেয় চীন ও রাশিয়াসহ এতে স্বাক্ষর করা বাকি দেশগুলো।

জেসিপিওএ–তে স্বাক্ষরকারী ইউরোপীয় তিনটি দেশ ফ্রান্স, জার্মানি ও যুক্তরাজ্য যৌথভাবে ই৩ (ইথ্রি) নামে পরিচিত। এই সপ্তাহে দেশ তিনটির এক যৌথ বিবৃতিতে জানানো হয়, চুক্তিটির প্রতি তারা এখনও প্রতিশ্রুতিশীল। তবে পারমাণবিক কর্মসূচি সম্প্রসারণ করতে ইরানের সম্প্রতি নেওয়া পদক্ষেপের বিষয়ে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে ই৩। উল্লেখ্য, নতুন করে মার্কিন নিষেধাজ্ঞা আরোপের পর এক বছর পর্যন্ত পাল্টা কোনও পদক্ষেপ না নিয়ে জেসিপিওএ’র প্রতি পূর্ণ প্রতিশ্রুতিশীল থাকে ইরান। এরপর থেকে ধাপে ধাপে চুক্তিটির বিভিন্ন শর্ত থেকে সরে এসে কর্মসূচি সম্প্রসারণ শুরু করে।

আর তা নিয়ে ইউরোপীয় শক্তিগুলোর সমালোচনার জবাবে ইরানের মুখপাত্র সায়িদ খাতিবজাদেহ বলেন, ই৩’র উচিত জেসিপিওএ’র শর্তগুলো খেয়াল করা। তিনি বলেন, ‘ইসলামিক প্রজাতন্ত্র ইরানের শান্তিপূর্ণ পারমাণবিক কর্মসূচি সম্পূর্ণভাবে আন্তর্জাতিক আইনের কাঠামোর মধ্যে থেকেই পরিচালিত হচ্ছে, আর তা সম্পূর্ণ বৈধ ও আইনসম্মত এবং যে কোনও দেশের সহজাত বৈধ অধিকারের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট।’

খাতিবজাদেহ’র বিবৃতিতে বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্রের বেরিয়ে যাওয়া এবং আন্তর্জাতিক নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের পর যেসব আর্থিক সুবিধার প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল সেগুলো পূরণে ইউরোপের ব্যর্থতার পরও ইরান পারমাণবিক কর্মসূচি সম্প্রসারণে যেসব পদক্ষেপ নিচ্ছে তা চুক্তির ধারা মেনেই নিচ্ছে। তিনি বলেন, ‘জেসিপিওএ মেনেই এটা করা হচ্ছে আর ইরান সব সময়ই জোর দিয়ে বলে এসেছে অন্য পক্ষগুলো যদি জেসিপিওএ বাস্তবায়ন করে তাহলে ইরানের নেওয়া পারমাণবিক পদক্ষেপও বদলযোগ্য।’

/জেজে/

লাইভ

টপ