বাংলাদেশি শান্তিরক্ষীর বিরুদ্ধেও যৌন নিপীড়নের অভিযোগ

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৫:১১, জানুয়ারি ৩০, ২০১৬ | সর্বশেষ আপডেট : ১৮:৫২, জানুয়ারি ৩০, ২০১৬

ইউরোপীয় সেনা এবং জাতিসংঘের শান্তিরক্ষীদের বিরুদ্ধে নতুন করে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ উঠেছে। মধ্য আফ্রিকান প্রজাতন্ত্রের (কার) নিপীড়িত ১২ শিশু এই অভিযোগ করেছে। যাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে, তাদের মধ্যে ২জন বাংলাদেশি শান্তিরক্ষীও রয়েছেন। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ডেইলি মেইল খবরটি নিশ্চিত করেছে। বিভিন্ন সময়ে জাতিসংঘ মিশনে অংশগ্রহণকারী সেনাদের বিরুদ্ধে যৌন নির্যাতনের অভিযোগ উঠলেও এবারই প্রথম অভিযুক্তদের জাতীয়তা প্রকাশ করলো সংস্থাটি।

ডেইলি মেইলের খবরে বলা হয়েছে, বাংলাদেশ, গণতান্ত্রিক কঙ্গো প্রজাতন্ত্র, মরক্কো, নাইজার এবং সেনেগালের আট সেনা এবং দুই পুলিশের বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ উঠেছে। এদের মধ্যে নাইজারের চার সেনা, বাংলাদেশের দুই সেনা, মরেক্কো ও কঙ্গোর একজন করে সেনা এবং সেনেগালের দুই পুলিশ রয়েছে। গতবছরের জানুয়ারি থেকে অক্টোবরের মধ্যে ওই যৌন নির্যাতনের ঘটনাগুলো ঘটেছিল বলে জাতিসংঘ মহাসচিবের সহকারী টনি বানবুরি জানিয়েছেন।

টনি বানবুরি

এদিকে রয়টার্সের খবরে বলা হয়েছে, নিউ ইয়র্কে নতুন এই যৌন নিপীড়নের অভিযোগ নিয়ে বলতে গিয়ে আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন বানবুরি। তিনি বলেন, ‘যারা শান্তি ও স্থিতিশীলতা রক্ষায় নিয়োজিত তারা কী করে এমন কাজ করে তা বোধগম্য নয়’। দোষীদের সর্বোচ্চ শাস্তির আওতায় নেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেওয়ার পাশাপাশি নিপীড়িতদের সব রকম সহায়তা দেওয়ারও অঙ্গীকার করেন তিনি।

রয়টার্সের খবরে বলা হয়েছে, ১২ শিশুর মধ্যে ৬ জন ফ্রান্ম, জর্জিয়া এবং অন্য একটি ইউরোপীয় দেশের সেনাদের বিরুদ্ধে নিপীড়নের অভিযোগ করেছে। অন্য ৬ জন অভিযোগ করেছে বাংলাদেশ, কঙ্গো, নাইজার এবং মরক্কোর শান্তিরক্ষীদের বিরুদ্ধে। সবমিলে ২০১৫ সালে এমন ২২টি অভিযোগ পাওয়ার কথা জানিয়েছে জাতিসংঘ।

জাতিসংঘ শান্তি মিশন

রয়টার্স জানিয়েছে, কঙ্গো এবং নাইজারকে এসব অভিযোগের কথা জানানো হলে তারা কোন প্রতিক্রিয়া না জানানোর কারণে জাতিসংঘ নিজে ওই দুই দেশের শান্তিরক্ষীদের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ তদন্ত করছে। আর বাংলাদেশসহ অন্য দেশগুলো নিজেরাই এইসব অভিযোগ খতিয়ে দেখছে। সূত্র: ডেইলি মেইল, রয়টার্স

/বিএ/

লাইভ

টপ