X
রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪
৮ বৈশাখ ১৪৩১
অমর একুশে গ্রন্থমেলা ২০২৪

পিয়ারা বেগমের ‘কষ্ট জলে ভেজা’

ক্যাপ্টেন মোহাম্মদ মোসলেহউদ্দিন, পি এস সি, বি এন (অব:)
২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ০০:১৭আপডেট : ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ০০:১৭

মেঘনার তনয়া কথাসাহিত্যিক পিয়ারা বেগম রচিত ‘কষ্ট জলে ভেজা’ একটি জীবনধর্মী উপন‍্যাস। এ উপন‍্যাসের মাধ্যমে লেখক এক সংগ্রামী নারীর জীবনচিত্রের জলছবি এঁকেছেন আপন মনের মাধুরী মিশিয়ে।

গ্রামের ধনাঢ্য ব‍্যক্তি, মাধ্যমিক বিদ‍্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা এবং একই বিদ‍্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নুরুল হক, বিএসসির একমাত্র সুন্দরী কন‍্যা মনিরা বেগম ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী। স্নাতক (সম্মান) পাস করার পর এক বিয়ে বাড়িতে পরিচয় হয় সুদর্শন যুবক নেছার মাহমুদের সাথে। পরিচয় থেকে প্রণয় এবং ঘর বাঁধার পরিকল্পনা। কিন্তু বাঁধ সাধে মনিরার পিতা নুরুল হক। কারণ, নেছার একজন ব্যাংক কর্মকর্তা, অভিজাত পরিবারের সন্তান। কিন্তু গরীব ও চালচুলোহীন। এক পর্যায়ে মনিরার দৃঢ় প্রত‍্যয়ের কারণে সামাজিক মান রক্ষার্থে রাজি হোন। বিয়ের পর মেয়ের সাথে কোনোরকম সম্পর্ক ও যোগাযোগ থাকবে না এই শর্তে। মনিরাও জন্মদাতা পিতার সাথে সমস্ত সম্পর্ক ছিন্ন করে চলে আসে শ্বশুর বাড়িতে। গণিতে স্নাতকোত্তর শেষ করে গ্রামের এক হাই স্কুলে সহকারী শিক্ষক হিসেবে যোগদান করেন। নেছার মাহমুদ একটি ফ্লাট ভাড়া করে বন্ধুদের সাথে মেস করে থাকেন শহরে। সাপ্তাহিক ছুটিতে চলে আসেন প্রিয়তমা স্ত্রীর কাছে ভাসুর ছায়েদ আলী, বড় জা জরিনা বেগম এবং তাদের দুই পুত্র স্বপন ও তপনকে নিয়ে একান্নবর্তী পরিবারে সুখের সংসার গড়ে তোলে মনিরা। সজল, উজ্জ্বল এবং যমজ দুই পুত্র প্রাঞ্জল ও কাজলের গর্বিত জননী মনিরা। সবকিছু মিলিয়ে ফুলে-ফলে সজ্জিত এক সুন্দর বাগান। এরই মধ‍্যে বিনামেঘে বজ্রপাতের মতো সাপ্তাহিক ছুটিতে বাড়ি আসার পথে সড়ক দূর্ঘটনায় মারা যান নেছার মাহমুদ। এ দুঃসময়ে রাগ-অভিমান ভুলে পিতা নুরুল হক মাস্টার মনিরার পাশে এসে দাঁড়ান। বাপ-বেটি মিলে মনিরার পুত্রদেরকে শিক্ষিত করে গড়ে তোলেন। মনিরা বেগম পদোন্নতি পেয়ে হয়ে যান স্কুলের প্রধান শিক্ষক। ভাসুর পুত্র স্বপন, তপন এবং তার নিজের চার পুত্র বিয়ে করে সংসারী হয়। ভাশুর, বড় জা এবং পিতা নুরুল হক মাস্টার মৃত্যুবরণ করেন। ভাসুর পুত্র তপন এবং মনিরার মেঝ ছেলে ডাক্তার উজ্জ্বলের স্ত্রীরা দুই বোন। তাদের কুপ্ররোচনার ফলে সংসারে দেখা দেয় অশান্তি। বাড়ির জমি-জমা ভাগ করে দেন ছেলেদের মধ‍্যে। মনিরা চাকুরী থেকে অবসর গ্রহণ করেন এবং পরিচারক কৈতর ও তার স্ত্রী রাজহাসীকে নিয়ে ছেলেদের সাথে সম্পর্ক ছিন্ন করে বাস করতে থাকেন গ্রামে। একাকী জীবনের একঘেঁয়েমি পরিহার করার জন‍্য শুরু করেন সমাজকল‍্যানমূলক কর্মকাণ্ড। মৃত বড় ভাইয়ের একমাত্র পুত্র রবিন এবং তার স্ত্রী তুলি এসে পাশে দাড়ায় মনিরা বেগমের। এক পর্যায়ে মনিরা বেগম পবিত্র হজ্জ্ব পালনের ঘোষণা দেন। তার মাহরম হিসেবে হজ্জ্বে যাওয়ার ইচ্ছা পোষণ করে রবিন, তার স্ত্রী তুলি, জ্যেষ্ঠ পুত্র সজল এবং তার স্ত্রী মেডোরা। এদিকে মনিরা বেগমের অন‍্য তিন পুত্র ও পুত্র বধূদের মধ‍্যে শুভ বুদ্ধির উদয় হয় এবং তাদের সন্তান-সন্ততিসহ ছুটে আসে মনিরা বেগমের কাছে। কিন্তু মনিরা বেগম সকালে ঘুম থেকে না ওঠায়, শয়নকক্ষে প্রবেশ করে তাঁকে বিছানায় মৃত অবস্থায় দেখতে পায়। এভাবেই এক হৃদয়বিদারক পরিসমাপ্তি ঘটে এক সংগ্রামী নারীর জীবন কাহিনী।

এ উপন‍্যাসের মাধ‍্যমে লেখক উপস্থাপন করেছেন বর্তমান সমাজের অসংখ‍্য মনিরা বেগমকে। যাঁরা সমস্ত জীবন নিজেকে উজাড় করে নিবেদিত প্রাণে কাজ করে যান পরিবারের সদস‍্যদের জন্য। নিজের সুখকে বিসর্জন দিয়ে সন্তানদের লেখাপড়া শিখিয়ে প্রতিষ্ঠিত করেন। শেষ বয়সে এই ছেলেমেয়েদের দ্বারা প্রত‍্যাখিত হয়ে অতিবাহিত করে একাকী জীবন। পরিশেষে মনিরা বেগমের মতো নীরব প্রতিবাদ জানিয়ে চিরতরে বিদায় নেন এ নিষ্ঠুর পৃথিবী  থেকে। এ যেন  “কষ্ট জলে ভেজা” আমাদের  সমাজের মনিরা বেগমদের চিরায়িত জীবন পরিক্রমা।

কথাসাহিত্যিক পিয়ারা বেগম এ উপন‍্যাসের মাধ‍্যমে পাঠকের কাছে আমাদের সমাজের নারীদের অবস্থান এবং বাংলার চিরাচরিত পারিবারিক সমস‍্যাগুলো উপস্থাপন করেছেন। তিনি এ কাজ করতে গিয়ে মনিরা বেগমকে নারী সমাজের প্রতিনিধি হিসেবে উপস্থাপন করেছেন সার্থকভাবে। উপন‍্যাসটির ঘটনা প্রবাহের গতি, ধারাবাহিকতা, সহজ-সরল, প্রাঞ্জল ভাষার ব‍্যবহারে মুন্সিয়ানার ছাপ বিদ্যমান। মাঝে মাঝে মেঘনার আঞ্চলিক ভাষার ব‍্যবহার উপন‍্যাসটিকে পাঠকের কাছে উপভোগ‍্য করেছেন।

/জেড-এস/
সম্পর্কিত
ভুটানি ভাষায় বঙ্গবন্ধুর ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’ গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন
বইমেলা শেষ, কবে স্বরূপে ফিরবে সোহরাওয়ার্দী উদ্যান?
ব্রহ্মপুত্রপাড়ে পণ্ডিত বইমেলা, থাকবেন ক্ষুদ্র জাতি-গোষ্ঠীর সাহিত্যিক ও শিল্পী
সর্বশেষ খবর
জাবির ডিন নির্বাচন ১৫ মে
জাবির ডিন নির্বাচন ১৫ মে
সার্বভৌমত্ব রক্ষায় বাংলাদেশ সবসময় প্রস্তুত: প্রধানমন্ত্রী
সার্বভৌমত্ব রক্ষায় বাংলাদেশ সবসময় প্রস্তুত: প্রধানমন্ত্রী
হাইকোর্টে ফের মিন্নির জামিন আবেদন
হাইকোর্টে ফের মিন্নির জামিন আবেদন
আগের চেয়েও অনেক বেশি ফিট আমির
আগের চেয়েও অনেক বেশি ফিট আমির
সর্বাধিক পঠিত
ফেসবুকে উসকানিমূলক পোস্ট, হিন্দু মহাজোট ‘নেতা’ পুলিশ হেফাজতে
ফেসবুকে উসকানিমূলক পোস্ট, হিন্দু মহাজোট ‘নেতা’ পুলিশ হেফাজতে
জানা গেলো বেইলি রোডে আগুনের ‘আসল কারণ’
জানা গেলো বেইলি রোডে আগুনের ‘আসল কারণ’
চট্টগ্রামে ভূমিকম্প, মাত্রা ৩ দশমিক ৭
চট্টগ্রামে ভূমিকম্প, মাত্রা ৩ দশমিক ৭
কেএনএফের গুলিতে সেনাসদস্য নিহত, কেঁদে কেঁদে স্ত্রী বললেন আমার ৩ সন্তানকে কে দেখবে?
কেএনএফের গুলিতে সেনাসদস্য নিহত, কেঁদে কেঁদে স্ত্রী বললেন আমার ৩ সন্তানকে কে দেখবে?
আজকের আবহাওয়া: ৩ বিভাগে বৃষ্টির আভাস
আজকের আবহাওয়া: ৩ বিভাগে বৃষ্টির আভাস