X
সকল বিভাগ
সেকশনস
সকল বিভাগ

কুয়েট শিক্ষকের মৃত্যু ও বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণায় বিএনপির উদ্বেগ

আপডেট : ০৪ ডিসেম্বর ২০২১, ১২:১৫

অধ্যাপক ড. মো. সেলিম হোসেনের মৃত্যু ও খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণায় গভীর উদ্বেগ ও নিন্দা প্রকাশ করেছেন খুলনা মহানগর বিএনপির নেতারা। 

এক বিবৃতিতে তারা বলেন, সাধারণ শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকের নেতৃত্বে মানসিক নির্যাতনে শিক্ষক ড. সেলিম হোসেনের মৃত্যু হয়েছে। সৃষ্ট পরিস্থিতি নিয়ে ছাত্রলীগ ও শিক্ষকরা মুখোমুখি অবস্থানে থাকা এবং দুই দফায় সিন্ডিকেট সভায় কোনও সিদ্ধান্ত না হওয়ায় কুয়েট বন্ধ ঘোষণা কোনও সমাধান নয়। করোনার কারণে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান দেড় বছর বন্ধ থাকার পর চালুর তিন সপ্তাহের মাথায় কুয়েট বন্ধ ঘোষণা একদিকে শিক্ষার্থীদের শিক্ষাজীবনকে বিঘ্নিত করবে। অন্যদিকে ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটির সুনাম ক্ষুণ্ন হবে। 

নেতৃবৃন্দ ছাত্রলীগের প্রভাব এবং আধিপত্য বিস্তারের কারণে দেশের অধিকাংশ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অস্থিরতা বিরাজ করছে বলে অভিযোগ করেন। 

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, মঙ্গলবার সকালে কুয়েট ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের লাঞ্ছনা ও অপদস্থের শিকার হওয়ার পর তিনি হৃদরোগে আক্রান্ত হন। এ সংক্রান্ত কয়েকটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। ভিডিও ফুটেজে দেখা গেছে, সাদমান নাহিয়ান সেজানের নেতৃত্বে ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতাকর্মী ক্যাম্পাসের রাস্তায় ড. সেলিম হোসেনের সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করছেন, তর্ক-বিতর্ক করছেন। পরে তারা তাকে অনুসরণ করে তড়িৎ প্রকৌশল ভবনে শিক্ষকের ব্যক্তিগত কক্ষে প্রবেশ করেন। প্রায় আধা ঘণ্টা কক্ষের ভেতর অবস্থান করে বেরিয়ে যান। পরে অধ্যাপক সেলিম হোসেন বাসায় যান। বাসায় ফেরার পর ড. সেলিম বাথরুমে যান। বেলা আড়াইটার দিকে তার স্ত্রী লক্ষ্য করেন, দীর্ঘ সময় হলেও সেলিম হোসেন বের হচ্ছেন না। এরপর দরজা ভেঙে তাকে উদ্ধার করে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ (খুমেক) হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। ছাত্রলীগ নেতারা ওই শিক্ষকের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করেন এবং হুমকি দেন। এতে তিনি প্রচণ্ড মানসিক আঘাত পান; এক পর্যায়ে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান। 

বিবৃতিতে ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত ও বিচার দাবি, অভিযুক্তদের আজীবন ছাত্রত্ব বাতিল এবং আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার দাবিসহ খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় খুলে দিয়ে শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ ফিরিয়ে আনার দাবি জানায় বিএনপি।

বিবৃতিদাতারা হলেন খুলনা মহানগর বিএনপির সভাপতি সাবেক সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম মঞ্জু, সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা মনিরুজ্জামান মনি, সাহারুজ্জামান মোর্ত্তজা, মীর কায়সেদ আলী, শেখ মোশাররফ হোসেন, জাফরউল্লাহ খান সাচ্চু, জলিল খান কালাম, সিরাজুল ইসলাম, অ্যাড. ফজলে হালিম লিটন, অ্যাড. বজলুর রহমান, অ্যাড. এস আর ফারুক, স ম আব্দুর রহমান, শেখ ইকবাল হোসেন, শেখ জাহিদুল ইসলাম, অধ্যক্ষ তারিকুল ইসলাম, অধ্যাপক আরিফুজ্জামান অপু, সিরাজুল হক নান্নু, মো. মাহবুব কায়সার, নজরুল ইসলাম বাবু, আসাদুজ্জামান মুরাদ, এস এম আরিফুর রহমান মিঠু ও ইকবাল হোসেন খোকন প্রমুখ।

 

/টিটি/
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
নরসিংদী রেল স্টেশনে সেদিন কি ঘটেছিল?
নরসিংদী রেল স্টেশনে সেদিন কি ঘটেছিল?
মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের সহ-সভাপতিকে কুপিয়েছে দুর্বৃত্তরা
মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের সহ-সভাপতিকে কুপিয়েছে দুর্বৃত্তরা
ডিম ছাড়ছে না হালদার মা মাছ, ভারী বৃষ্টির অপেক্ষা
ডিম ছাড়ছে না হালদার মা মাছ, ভারী বৃষ্টির অপেক্ষা
সুপ্রিয়া সরকারের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক
সুপ্রিয়া সরকারের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক
এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
১২০ ভরি সোনা হয়ে গেলো মাদক, চাকরি হারালেন সেই এসপি
১২০ ভরি সোনা হয়ে গেলো মাদক, চাকরি হারালেন সেই এসপি
লাখ টাকা জরিমানার পর দিনই চেম্বারে ভুয়া চিকিৎসক, ১ বছরের কারাদণ্ড
লাখ টাকা জরিমানার পর দিনই চেম্বারে ভুয়া চিকিৎসক, ১ বছরের কারাদণ্ড
পুরুষ সেজে চা দোকানির মেয়ের সঙ্গে তরুণীর প্রেম
পুরুষ সেজে চা দোকানির মেয়ের সঙ্গে তরুণীর প্রেম
কৃষক সেজে পাচারকালে সাড়ে ১৪ কেজি সোনাসহ আটক
কৃষক সেজে পাচারকালে সাড়ে ১৪ কেজি সোনাসহ আটক
টাকা নিয়ে বাগবিতণ্ডা, ছেলের হাতে বাবা খুন
টাকা নিয়ে বাগবিতণ্ডা, ছেলের হাতে বাবা খুন