X
সকল বিভাগ
সেকশনস
সকল বিভাগ

ঢাবিতে সান্ধ্যকালীন কোর্স নিয়ন্ত্রণে নীতিমালা প্রায় চূড়ান্ত

আপডেট : ০৪ জানুয়ারি ২০২২, ০৯:০৫

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে(ঢাবি) সান্ধ্যকালীন কোর্সগুলো নিয়ন্ত্রণে নীতিমালা প্রায়ই চূড়ান্ত বলে জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য  ও নীতিমালা তৈরি কমিটির প্রধান অধ্যাপক এ এস এম মাকসুদ কামাল। সোমবার(৩জানুয়ারি) তিনি বাংলা ট্রিবিউনকে  দেওয়া সাক্ষাৎকারে এ তথ্য জানান তিনি।

অধ্যাপক এ এস এম মাকসুদ কামাল বলেন, অনিয়ন্ত্রিতভাবে সান্ধ্যকালীন কোর্সগুলো যেন না হয় সে বিষয়ে নীতিমালা তৈরি করছি। সেই নীতিমালার আলোকে স্কিল ডেভেলপমেন্টের জন্য যে প্রফেশনাল প্রোগ্রামগুলো থাকা দরকার, সেই প্রোগ্রামগুলোর অনুমোদন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে দেওয়া হবে। আগে বিভাগ ও ইনস্টিটিউট ভিত্তিক যে অনিয়ন্ত্রিত প্রোগ্রামগুলো হতো তা আমরা বন্ধ রাখবো। কিন্তু যেগুলো দেশ-রাষ্ট্রের জন্য প্রয়োজন আছে সেগুলো চালু রাখবো।

কবে নাগাদ নীতিমালা চূড়ান্ত হবে জানতে চাইলে তিনি বলেন, নীতিমালা প্রায়ই চূড়ান্ত, সভায় উত্থাপনের পর অনুমোদন দেওয়া হবে।

উল্লেখ্য, বিশ্ববিদ্যালয়ের ৩৫টি বিভাগ ও ইনস্টিটিউটে সান্ধ্য কোর্স আছে। মাস্টার্স, ডিপ্লোমা, সার্টিফিকেট, ট্রেনিং কোর্সসহ অনিয়মিত এসব কোর্সের সংখ্যা ৬৯। এর মধ্যে ৫১টি মাস্টার্স, চারটি ডিপ্লোমা, সাতটি সার্টিফিকেট আর সাতটি ট্রেনিং কোর্স। বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়মিত কোর্সের বাইরে ১০৫টি ব্যাচে এসব কোর্সে বছরে ৭ হাজার ৩০২ শিক্ষার্থী ভর্তি হন। এসব কোর্সের ক্লাস নেন ৭২৫ শিক্ষক।

সবচেয়ে বেশি সান্ধ্য কোর্স আছে ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদে। এ অনুষদের নয়টি বিভাগের প্রতিটিতেই চালু আছে এই সুযোগ। এসব কোর্সে প্রতি বছর ৪৫টি ব্যাচে ২ হাজার ৯৬৫ শিক্ষার্থী ভর্তি হন। ক্লাস নেন ২৩০ শিক্ষক।

২০১৯ সালের ৯ ডিসেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫২তম সমাবর্তনে সভাপতির বক্তব্যে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বিশ্ববিদ্যালয়গুলোয় সান্ধ্যকালীন কোর্স বন্ধের আহ্বান জানানো পর এই ধরনের কোর্সের যৌক্তিকতা যাচাইয়ে ডিন পর্যায়ের একটি কমিটি গঠন করা হয়।ওই কমিটি গত বছর সান্ধ্য কোর্স পরিচালনা পদ্ধতির বিভিন্ন অসঙ্গতি তুলে ধরে পরিচালনা নীতিমালা প্রণয়নের সুপারিশপূর্বক একটি প্রতিবেদন জমা দেয়। পাশাপাশি নীতিমালা প্রণয়নের আগ পর্যন্ত সান্ধ্য কোর্সে শিক্ষার্থী ভর্তি বন্ধের সুপারিশ করা হয়।

যৌক্তিকতা যাচাই কমিটির প্রতিবেদনেও প্রচলিত পরিচালনা পদ্ধতি সংস্কারে বিভিন্ন সুপারিশ করা হয়। এ সুপারিশ অ্যাকাডেমিক কাউন্সিলে উত্থাপিত হলে পক্ষে-বিপক্ষে তুমুল বিতর্কে লিপ্ত হন শিক্ষকরা।এরপর সান্ধ্য কোর্স বিষয়ক যুগোপযোগী নীতিমালা প্রণয়নে একটি উচ্চপর্যায়ের কমিটি গঠন করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। ওই কমিটিতে দুজন উপ-উপাচার্য, কোষাধ্যক্ষ, সব অনুষদের ডিন ও দুজন ইনস্টিটিউট পরিচালককে সদস্য করা হয়।

/এমআর/এমএস/
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
জয়নুল আবেদিনের শিল্পকর্ম সৃজনশীল কাজে নিরন্তর অনুপ্রেরণা যোগাবে: রাষ্ট্রপতি
জয়নুল আবেদিনের শিল্পকর্ম সৃজনশীল কাজে নিরন্তর অনুপ্রেরণা যোগাবে: রাষ্ট্রপতি
আবারও ‘অচেনা’ প্রাণীর আক্রমণ, শিশু-নারীসহ আহত ৪০
আবারও ‘অচেনা’ প্রাণীর আক্রমণ, শিশু-নারীসহ আহত ৪০
রক্তচাপ বেড়েছে বুঝবেন যেসব লক্ষণে
রক্তচাপ বেড়েছে বুঝবেন যেসব লক্ষণে
বৈদেশিক মুদ্রা ব্যবহারে সতর্ক হওয়ার পরামর্শ মেট্রোপলিটন চেম্বারের
বৈদেশিক মুদ্রা ব্যবহারে সতর্ক হওয়ার পরামর্শ মেট্রোপলিটন চেম্বারের
এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
নজরুলের সাম্যবাদ অনুপস্থিত, তাই মানুষে মানুষে যুদ্ধ: বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক
নজরুলের সাম্যবাদ অনুপস্থিত, তাই মানুষে মানুষে যুদ্ধ: বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক