X
শুক্রবার, ১২ আগস্ট ২০২২
২৮ শ্রাবণ ১৪২৯

এক কমিটিতে ৯ বছর পার!

নাজমুল হুদা, শাবি
০৭ মার্চ ২০২২, ১২:১৭আপডেট : ০৭ মার্চ ২০২২, ১২:১৭

প্রায় ৯ মাস আগে বিলুপ্ত হয়েছে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের কমিটি। এরপর দীর্ঘদিনের অপেক্ষাতেও নতুন কমিটি না আসায় সাংগঠনিক কার্যক্রমে অনেকটাই ভাটা পড়েছে। কমিটিতে পদপ্রত্যাশী নেতাকর্মীদের মধ্যেও হতাশা দেখা দিয়েছে। তাদের ভাষ্যমতে, ‘নতুন কমিটির মুখ দেখা যেন এক স্বপ্ন হয়ে দাঁড়িয়েছে। একের পর এক কেন্দ্রীয় কমিটির নেতৃত্বে পরিবর্তন এলেও বিগত ৯ বছরে শাবিতে এসেছে মাত্র একটি কমিটি। কেন্দ্রে বারবার যোগাযোগ করেও কোনও পরিবর্তন আসেনি। কেন্দ্রীয় কমিটির নেতারা বিষয়টি দেখছেন বলে ঝুলিয়ে রেখেছেন।’ 

এমনকি গ্রুপিং কোন্দলে কমিটি গঠনের পর থেকেই আলোচনা-সমালোচনার শীর্ষে রয়েছে এ ইউনিট। ফলে নানান জটিলতার মধ্য দিয়ে সময় পার করছে বর্তমানের নেতাকর্মীরা। 

বিলুপ্তির পর ৯ মাস ধরে নেই কোনও কমিটি
কমিটি মেয়াদোত্তীর্ণ হবার কারণ উল্লেখ করে ২০২১ সালের ১৭ জুন শাবি ইউনিটের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করেন বর্তমান কেন্দ্রীয় সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য। এর পর প্রায় ৯ মাস ধরে অভিভাবকহীন ও কমিটিশূন্য শাবি ছাত্রলীগ। এমন পরিস্থিতিতে অনেকে হতাশ হয়ে ক্যাম্পাস ছেড়েছেন, আবার অনেকেই দেশের বাইরে পাড়ি জমিয়েছেন। অনেকে আবার ছাত্র রাজনীতি থেকে বিমুখ হয়ে ক্যারিয়ারমুখী সময় অতিবাহিত করছেন।

৯ বছরে মাত্র এক কমিটি
সর্বশেষ ২০১৩ সালের ৮ মে তৎকালীন কেন্দ্রীয় সভাপতি বদিউজ্জামান সোহাগ ও সাধারণ সম্পাদক সিদ্দিকী নাজমুল আলম শাবি ছাত্রলীগ নেতা সঞ্জীবন চক্রবর্তী পার্থকে সভাপতি এবং ইমরান খানকে সাধারণ সম্পাদক ঘোষণা দিয়ে ৭ সদস্য বিশিষ্ট কমিটির অনুমোদন দেন। গঠনতন্ত্রের নিয়ম অনুসারে ইউনিট ছাত্রলীগের কমিটির মেয়াদ থাকে এক বছর। কিন্তু ২০১৬ সালের ৮ মে ওই কমিটিকেই ১৫১ সদস্যবিশিষ্ট পূর্ণাঙ্গ কমিটি হিসেবে দেখিয়ে অনুমোদন দেন তৎকালীন সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ ও সাধারণ সম্পাদক এসএম জাকির হোসাইন। 

শাবি ছাত্রলীগের বিভিন্ন বিতর্কিত কাণ্ডে সিনিয়র নেতৃবৃন্দ ক্যাম্পাস ছাড়তে বাধ্য হন। বহিরাগত ছাত্রীকে যৌন হয়রানি ও একই ইস্যুতে সাংবাদিক পেটানোর ঘটনায় শাবি ছাত্রলীগের সভাপতি সঞ্জীবন চক্রবর্তী পার্থকে বহিষ্কার করে কমিটি স্থগিত করা হয়। পরে সহ-সভাপতি রুহুল আমিনকে ভারপ্রাপ্ত সভাপতি করে মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটিকে পুনরায় বহাল রাখেন তৎকালীন কেন্দ্রীয় সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ ও সাধারণ সম্পাদক এসএম জাকির হোসাইন। তবুও দেওয়া হয়নি নতুন কমিটি। 

তবে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি রেজওয়ানুল হক শোভন ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রব্বানী দায়িত্বে থাকাকালীন কেন্দ্রীয় মিলনায়তনে এক কর্মী সম্মেলন হয়েছিল। এর পাশাপাশি কেন্দ্র থেকে পদপ্রত্যাশীদের সিভি সংগ্রহ করেছিল কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ। তারপরও শাবি ইউনিটের নতুন কমিটি ঘোষণা করতে পারেনি কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদ।

এর বাইরে অনুষদ ও বিভাগগুলোতে কমিটি ঘোষণা করতে সক্ষম হয়েছিল শাবি ছাত্রলীগ। তবে গ্রুপগুলো নিজেদের মধ্যে সমঝোতা আসতে  না পেরে হল কমিটি দিতে ব্যর্থ।

ছাত্ররাজনীতিতে সক্রিয় আট গ্রুপ
নিজেদের মধ্যে কোন্দলে বিভক্ত হয়ে চলছে শাবি ছাত্রলীগের রাজনীতি। বর্তমানে ক্যাম্পাসের অভ্যন্তরে ছয়টি এবং ক্যাম্পাসের বাইরে দুটি গ্রুপ সক্রিয় রয়েছে। এছাড়া একাধিক সাব-গ্রুপও সক্রিয় অবস্থানে রয়েছে। ফলে কর্মীর চেয়ে নেতার সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে। তৈরি হয়েছে এক ধরনের বিশৃঙ্খলা। দীর্ঘদিন ধরে কমিটি না থাকায় নেতাদের ক্যাম্পাস ত্যাগে গ্রুপের নেতৃত্বেও এসেছে রদবদল। এর প্রেক্ষিতেই গ্রুপের মধ্যেই দেখা দিচ্ছে সাব-গ্রুপিং। মধ্যম পর্যায়ের নেতাকর্মীরা গ্রুপের নেতৃত্বে স্থানীয়দের মানছে না এমন অভিযোগও রয়েছে অনেকের। এমনকি গ্রুপগুলো বিভক্ত হয়ে জাতীয় দিবস পালন, মিছিল-মিটিং, শোডাউন, কেন্দ্রীয় নেতাদের জন্মদিন পালনসহ বিভিন্ন কর্মকাণ্ড পরিচালনা করছে।

জানা যায়, পৃথক গ্রুপগুলোর নেতৃত্বে রয়েছে খলিলুর রহমান, আশরাফ কামাল আরিফ, সজিবুর রহমান, মামুন শাহ, সুমন সরকার, তারেক হালিমী, মুনকির কাজীসহ আরও অনেকে। মূল গ্রুপগুলোর বাইরে ‘গ্রুপ লিডারদের সঙ্গে কোন্দলে’ অভ্যন্তরীণ বেশ কিছু সাব গ্রুপ তৈরি হয়েছে, যা সম্প্রতি তৈরি হওয়া নেতাদের নেতৃত্বে চলে।   

কমিটি আনতে চলছে লবিং-তদবির
বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্ররাজনীতিতে এ সংকটপূর্ণ অবস্থা কাটিয়ে উঠতে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ ও  সিলেটের স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দের সঙ্গে যোগাযোগ চালিয়ে যাচ্ছে পদপ্রত্যাশীরা। বিশেষ করে সিলেটের স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাদেরকে অনুসরণ করে চলে শাবি ছাত্রলীগ। তাদের হাত ধরে কমিটিতে জায়গা করে নিতে চলছে নানা সমীকরণ।

আর সাংগঠনিক প্রেক্ষাপটে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সঙ্গেও লাগাতার যোগাযোগ তো আছেই। ঢাকাতে সরাসরি গিয়ে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দের সঙ্গেও লাগাতার লবিং চালিয়ে যাচ্ছেন পদপ্রত্যাশীরা। তবু নতুন কমিটি গঠন নিয়ে কোনও গ্রিন সিগন্যাল না পেয়ে এক ধরনের হতাশার মধ্যে দিয়ে সময় পার করছেন তারা।

এদিকে কে হচ্ছেন শাবি ছাত্রলীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক? কারা পাচ্ছেন নতুন নেতৃত্ব? এ নিয়ে চলছে নানা যুক্তিতর্ক। নেতাকর্মীদের মধ্যে পদপ্রত্যাশীদের নিয়ে চলছে বিভিন্ন আলোচনা-সমালোচনা। তাছাড়া পদপ্রত্যাশীরাও নিজ নিজ অবস্থানকে জোরালো বলে মনে করছেন। পদপ্রত্যাশীদের অনেকে বলছেন, ঊর্ধ্বতনরা যাকে যোগ্য মনে করছেন তারাই আসবেন নেতৃত্বে।

শিক্ষামন্ত্রীর সিলেটে আগমনে আশ্বাসের বার্তা
এদিকে ভিসিবিরোধী আন্দোলনসহ নানা ইস্যু নিয়ে সম্প্রতি সিলেট ও শাবি পরিদর্শন করেছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দিপু মনি। বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্বিক পরিস্থিতি ও ইউনিট ছাত্রলীগের অবস্থা নিয়ে সিলেটে এসে সার্কিট হাউজে গ্রুপ নেতাদের সঙ্গে আলোচনায় বসেন শিক্ষামন্ত্রী। এতে নতুন কমিটি নিয়ে পদপ্রত্যাশী নেতাকর্মীদের মধ্যে আশা তৈরি হয়েছে। নতুন কমিটি ঘোষণার আশ্বাসও পেয়েছেন বলে অনেকেই জানিয়েছেন বেশ কয়েকজন গ্রুপ নেতা।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক শাবি ছাত্রলীগের এক নেতা বলেন, শাবিতে কমিটি নেই, বিষয়টি নিয়ে সিলেট সার্কিট হাউজে শিক্ষামন্ত্রী আমাদের সঙ্গে আলোচনা করেছেন।

শিগগিরই নতুন কমিটি নিয়ে গুঞ্জন
এদিকে শিগগিরই নতুন কমিটি ঘোষণা হতে পারে বলে ক্যাম্পাসে গুঞ্জন উঠেছে। এর প্রেক্ষিতে কমিটিতে নিজের জায়গা নিশ্চিতকরণে পদপ্রত্যাশীরাও ঢাকামুখী হচ্ছেন। নিজেদের বলয় থেকে ও সম্পর্কের জায়গা থেকে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাদের সঙ্গে তারা গড়ে তুলছেন সখ্যতা।

পদপ্রত্যাশী যারা
কমিটিতে স্থান করে নিতে যারা এগিয়ে রয়েছেন তাদের অনেকেরই নাম উঠে এসেছে বিভিন্ন সূত্র থেকে। ছাত্রলীগের বিভিন্ন সূত্রে জানা যায়, সর্বশেষ বিলুপ্ত কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাফিজ আল আসাদ, পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক খলিলুর রহমান, সদস্য আশরাফ কামাল আরিফ, সদস্য মোশারফ হোসেন, উপ-দফতর সম্পাদক সজিবুর রহমান সজিব, ফিরোজ আলম ভূঁইয়া, মামুন শাহ, মুনকীর কাজী, খালেদ সাইফুল্লাহ ইলিয়াস, আব্দুল্লাহ আল রোমান, মাহবুবুর রহমান, ফারহান রুবেল, রাকিবুল হাসান মিলন, শাহাদাত হোসেন সীমান্ত, মেহেদী হাসান স্বাধীন, তারেক হালিমী, সুমন চন্দ্র সরকার, তায়েফ হুসাইন, রাজীব সরকার, সুমন মিয়া, শাহরিয়ার স্বপন, রোহিতুজ্জামান নাজমুল, রায়হান মিয়া, সাজ্জাদ হোসেন, ইফতেখার আহমেদ রানাসহ বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীরা আসন্ন কমিটিতে জায়গা করে নিতে ব্যস্ত রয়েছেন। তবে এসব পদ প্রত্যাশী নেতাকর্মীদের অনেকেরই বিরুদ্ধে যৌন হয়রানি, সাধারণ শিক্ষার্থীদের মারধর, টেন্ডারবাজি, চাঁদাবাজি, মাদক সেবন ও ব্যবসা, র‌্যাগিং, আবাসিক হলের কক্ষ দখল ও ভাঙচুর, ফাউ খাওয়াসহ নানা অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকার অভিযোগ রয়েছে ।

কমিটি গঠনে কেন্দ্রের পাইপলাইনে শাবি
কমিটি গঠনের বিষয়ে এই ইউনিট ছাত্রলীগ পাইপলাইনে রয়েছে বলে জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ। যদিও ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্যকে একাধিকবার মুঠোফোনে যোগাযোগ করেও বক্তব্য পাওয়া যায়নি। তবে শাবি ইউনিটের দায়িত্বে থাকা কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সাজ্জাদ হোসেন বলেন, দেশের অনেক ইউনিটে ছাত্রলীগের কমিটি নেই। বিষয়টা আমরা অবগত রয়েছি। ইউনিটগুলোর কমিটি ঘোষণা চলমান রয়েছে। শাবির কমিটির বিষয়টিও আমরা অবগত রয়েছি।

তিনি আরও বলেন, শাবি ইউনিটের কমিটি গঠনের বিষয়টি পাইপলাইনে রয়েছে। শিগগিরই নতুন কমিটি হবে। তবে নতুন কমিটি নিয়ে যাতে কোনও বিতর্ক সৃষ্টি না হয় সে জন্য যোগ্য ও পরিশ্রমী কর্মীদের দিয়ে কমিটি দেওয়ার কাজ চলছে। এসময় এ ইউনিটের কমিটি গঠনে যোগ্য নেতৃত্ব বাছাইয়ে শিগগিরই শাবি ক্যাম্পাসে কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ সফর করবে বলে জানান তিনি। 

 

 

/টিটি/
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
রাজধানীর যেসব এলাকায় আজ মার্কেট-দোকানপাট বন্ধ
রাজধানীর যেসব এলাকায় আজ মার্কেট-দোকানপাট বন্ধ
ইউরোপের বৃহৎ পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে আবারও গোলাবর্ষণ, জাতিসংঘের উদ্বেগ
ইউরোপের বৃহৎ পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে আবারও গোলাবর্ষণ, জাতিসংঘের উদ্বেগ
কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের হলে চুরির সময় আটক ৩
কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের হলে চুরির সময় আটক ৩
বাড়ির পাশে ছুরিকাঘাতে যুবক নিহত
বাড়ির পাশে ছুরিকাঘাতে যুবক নিহত
এ বিভাগের সর্বশেষ
বিদ্যুৎ সাশ্রয়ে শাবিতে সপ্তাহে একদিন অনলাইন ক্লাস 
বিদ্যুৎ সাশ্রয়ে শাবিতে সপ্তাহে একদিন অনলাইন ক্লাস 
নুরকে ৭ কার্যদিবসের মধ্যে আদালতে হাজিরের নির্দেশ
নুরকে ৭ কার্যদিবসের মধ্যে আদালতে হাজিরের নির্দেশ
মোটরসাইকেল থেকে ছিটকে পড়া শাবি শিক্ষার্থী আইসিইউতে
মোটরসাইকেল থেকে ছিটকে পড়া শাবি শিক্ষার্থী আইসিইউতে
ধুনট ছাত্রলীগের সা. সম্পাদকের বিরুদ্ধে ছাত্রীকে অপহরণের অভিযোগ
ধুনট ছাত্রলীগের সা. সম্পাদকের বিরুদ্ধে ছাত্রীকে অপহরণের অভিযোগ
শিক্ষা ক্ষেত্রে অনেক বাধার দেয়াল রয়েছে: দীপু মনি
শিক্ষা ক্ষেত্রে অনেক বাধার দেয়াল রয়েছে: দীপু মনি