X
বুধবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২৩
১২ আশ্বিন ১৪৩০

জাবি প্রশাসনে ভারপ্রাপ্তের ‘ভূত’ 

ওয়াজহাতুল ইসলাম, জাবি 
২৬ অক্টোবর ২০২২, ১৬:৫২আপডেট : ২৬ অক্টোবর ২০২২, ১৬:৫২

দীর্ঘ আট বছর পর জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট নির্বাচিত উপাচার্য হিসেবে গত ১৩ সেপ্টেম্বর নিয়োগ পান অধ্যাপক ড. মো. নূরুল আলম। দীর্ঘদিন পর গণতান্ত্রিক উপায়ে নির্বাচিত উপাচার্য দায়িত্ব গ্রহণের পর জাবি পরিবারের সদস্যদের প্রত্যাশা ছিল প্রশাসনিক ও অ্যাকাডেমিক পর্যায়ে সব ধরনের অব্যবস্থাপনা দূর হবে। তবে দায়িত্ব গ্রহণের পর বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকটি পদের দায়িত্বে সাময়িক প্রধান ও ভারপ্রাপ্ত প্রধান নিযুক্ত করায় হতাশ হয়েছেন তারা। 

সম্প্রতি বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অধ্যাপক ড. ফরিদ আহমদ দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি চাইলে উপ-পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মো. মাসুদুর রহমানকে নিজ দায়িত্বের অতিরিক্ত দায়িত্ব হিসেবে ভারপ্রাপ্ত পরীক্ষা নিয়ন্ত্রকের দায়িত্ব দেওয়া হয়। এর আগে গাণিতিক ও ‍পদার্থ বিষয়ক অনুষদের ডিন অধ্যাপক অজিত কুমার মজুমদার অবসর প্রস্তুতিমূলক ছুটিতে যাওয়ায় উক্ত পদে পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. ফরিদ আহমেদকে ভারপ্রাপ্ত ডিন হিসেবে নিয়োগ দেন উপাচার্য।

এছাড়া উপাচার্য হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের পর বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ রফিক জব্বার হল ও আল বেরুনী হলের সাবেক প্রভোস্টদের দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি ‍দিয়ে ওই পদে রসায়ন বিভাগের অধ্যাপক ড. শাহেদ রানা ও প্রত্নতত্ত্ব বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক সিকদার মো. জুলকারনাইনকে সাময়িক দায়িত্বে প্রভোস্ট হিসেবে নিয়োগ দেন উপাচার্য।

আরও পড়ুন: ২২ ভারপ্রাপ্ত দিয়ে চলছে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়

এর আগে, সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলাম উপাচার্যের দায়িত্ব শেষ করা পর্যন্ত তার প্রশাসনে বিশ্ববিদ্যালয়ের গুরুত্বপূর্ণ ২২টি পদ ভারপ্রাপ্ত প্রধান দিয়ে পরিচালনা করেন। 

এ তালিকায় ছিল বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার ও প্রক্টরের পদটিও। গত ২ মার্চ অধ্যাপক ফারজানা ইসলামের দায়িত্ব পূর্ণ হওয়ায় আচার্যের আদেশে অধ্যাপক নূরুল আলম একাধারে উপাচার্যের অতিরিক্ত দায়িত্ব ও সাময়িক দায়িত্ব পালন করেন। উপাচার্যের এই দায়িত্ব পালনকালে চার বছরের বেশি সময় ধরে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রারের দায়িত্ব পালন করার পর অবসর প্রস্তুতিমূলক ছুটিতে যান রহিমা কানিজ। 

তবে রেজিস্ট্রার পদে নতুন কাউকে নিয়োগ না দিয়ে রহিমা কানিজকেই চুক্তিভিত্তিক রেজিস্ট্রার হিসেবে এক বছরের জন্য নিয়োগ দেন বর্তমান উপাচার্য। যা বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৬ সালের ৩০০তম সিন্ডিকেটের আলোচ্যসূচির বিবিধ (ক) এর পরীপন্থী। এতে বলা আছে, ‘এখন থেকে শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারী কোনও পর্যায়ে চুক্তিভিত্তিতে নিয়োগ দেওয়া যাবে না।’

বিশ্ববিদ্যালয় অ্যাক্টের-১২ এর ৬ ধারা অনুযায়ী, ‘উপাচার্য প্রয়োজনে উপ-উপাচার্য ও কোষাধ্যক্ষ বাদে সব পদে অনধিক ছয় মাসের জন্য ভারপ্রাপ্ত হিসেবে প্রয়োজনীয় লোকবল নিয়োগ দিতে পারেন।’  তবে পূর্বের ভারপ্রাপ্ত পদগুলোকে স্থায়ী না করে পুনরায় প্রশাসনিক ও অ্যাকাডেমিক পদগুলোতে সাময়িক ও ভারপ্রাপ্ত প্রধান হিসেবে নিয়োগ/ দায়িত্ব প্রদানের মাধ্যমে বর্তমান উপাচার্য সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলামের পথেই হাঁটছেন বলে মনে করছেন বিশ্ববিদ্যালয় সংশ্লিষ্টরা। 

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের সদস্যরা বলছেন- গুরুত্বপূর্ণ পদগুলোতে স্থায়ীপ্রধানের পরিবর্তে ভারপ্রাপ্ত প্রধান নিয়োগ দিয়ে উপাচার্য তার নিজের বলয় সৃষ্টির চেষ্টা করছেন ।  

বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন জাবি সংসদের সাধারণ সম্পাদক অমর্ত্য রায় বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়কে অটোমেশনের আওতায় নিয়ে আসার মতো দক্ষতা প্রশাসন এখন পর্যন্ত দেখাতে পারেনি। উল্টো  সব জায়গায় ভারপ্রাপ্ত প্রধান দিয়ে কাজ চালানোর চেষ্টা চলছে। এ কারণে অফিসগুলো তাদের কাজের দায়বদ্ধতা নিতে চায় না। একজন আরেকজনের কাছে যেতে বলে বলে শুধু ঘোরায়। এছাড়া স্বৈরাচারী স্ট্রাকচারের বহিঃপ্রকাশ ভারপ্রাপ্ত দিয়ে চালানো। আমরা আশা করবো, নতুন উপাচার্য খুব দ্রুতই এসব বিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেবেন।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের দর্শন বিভাগের অধ্যাপক রায়হান রাইন বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের গুরুত্বপূর্ণ পদগুলোতে ভারপ্রাপ্ত প্রধান নিয়োগ দেওয়ার অর্থ হলো ক্ষমতাকে নিজের কেন্দ্রীভূত করে রাখা। অফিসগুলোতে ভারপ্রাপ্ত প্রধান থাকলে যেকোনও কাজ তার পরিপূর্ণতা পায় না। যেহেতু সাময়িক সময়ের জন্য তারা দায়িত্ব পান, তাই কাজের গুরুত্ব কম থাকে। দায়িত্ব পালনকারে কোনও সমস্যা হলে তার দায়ও কেউ নিতে চান না।’

নতুন করে কেন ভারপ্রাপ্ত ও সাময়িক প্রধান নিয়োগ করা হচ্ছে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক নূরুল আলম বলেন, ‘আমি সাময়িকভাবে দায়িত্ব দিয়েছি। সিন্ডিকেট থেকে আমাকে এই দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। এইতো এক-দুই সিন্ডিকেট পরে সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এগুলোকে স্থায়ী করে দেওয়া হবে।’

/টিটি/
সম্পর্কিত
জাবির লোকপ্রশাসন বিভাগের নবীনবরণ ও বিদায় সংবর্ধনা
জাবি উপাচার্য নিয়োগে অনৈতিক প্রভাবের অভিযোগ, বিএনপিপন্থিদের নিন্দা
জা‌বির সি‌নেটে শিক্ষক প্রতি‌নি‌ধি নির্বাচ‌নের তফ‌সিল ঘোষণা
সর্বশেষ খবর
যে কারণে থাকছে না ৩ দিনের ইন্টারনেট প্যাকেজ
যে কারণে থাকছে না ৩ দিনের ইন্টারনেট প্যাকেজ
বিলুপ্তপ্রায় ছোট মাছ সংরক্ষণে ভূমিকা রাখছে ‘লাইভ জিন ব্যাংক’
বিলুপ্তপ্রায় ছোট মাছ সংরক্ষণে ভূমিকা রাখছে ‘লাইভ জিন ব্যাংক’
চট্টগ্রামে বৃহত্তম জশনে জুলুস কাল, নেতৃত্ব দেবেন তাহের শাহ
চট্টগ্রামে বৃহত্তম জশনে জুলুস কাল, নেতৃত্ব দেবেন তাহের শাহ
ইরাকে বিয়ের অনুষ্ঠানে অগ্নিকাণ্ড, বর-কনেসহ শতাধিক মৃত্যু
ইরাকে বিয়ের অনুষ্ঠানে অগ্নিকাণ্ড, বর-কনেসহ শতাধিক মৃত্যু
সর্বাধিক পঠিত
বিশ্বকাপের দল ঘোষণা পেছালো বিসিবি
বিশ্বকাপের দল ঘোষণা পেছালো বিসিবি
বিদেশি পর্যটকদের জন্য বাংলাদেশের ট্যুরিস্ট ভিসা যেন সোনার হরিণ
বিদেশি পর্যটকদের জন্য বাংলাদেশের ট্যুরিস্ট ভিসা যেন সোনার হরিণ
অজ্ঞাত লাশ নিজের মেয়ের বলে দাফন, ৪ দিন পর জীবিত উদ্ধার
অজ্ঞাত লাশ নিজের মেয়ের বলে দাফন, ৪ দিন পর জীবিত উদ্ধার
তুলে নেওয়ার ৩৩ ঘণ্টা পর বনানী থানায় সেই প্রকৌশলী 
তুলে নেওয়ার ৩৩ ঘণ্টা পর বনানী থানায় সেই প্রকৌশলী 
বৌদ্ধ সন্ন্যাসী সেজে যুক্তরাষ্ট্রে যাওয়ার চেষ্টা, অবশেষে কারাগারে
বৌদ্ধ সন্ন্যাসী সেজে যুক্তরাষ্ট্রে যাওয়ার চেষ্টা, অবশেষে কারাগারে