X
মঙ্গলবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২২, ৪ মাঘ ১৪২৮
সেকশনস

বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে দেশ পুনর্গঠনে অগ্রগতির প্রশংসা ব্রিটিশ সংসদীয় দলের

আপডেট : ২৮ নভেম্বর ২০২১, ০৮:০০

(বিভিন্ন সংবাদপত্রে প্রকাশিত তথ্যের ভিত্তিতে বঙ্গবন্ধুর সরকারি কর্মকাণ্ড ও তার শাসনামল নিয়ে মুজিববর্ষ উপলক্ষে ধারাবাহিক প্রতিবেদন প্রকাশ করছে বাংলা ট্রিবিউন। আজ পড়ুন ১৯৭৩ সালের ২৮ নভেম্বরের ঘটনা।)

 

ব্রিটিশ সংসদীয় দলের নেতা ডেভিড ক্রাউজ প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করেন। তিনি বলেন, বাংলাদেশকে কল্যাণকর ভবিষ্যতের দিকে তিনি পরিচালিত করতে পারেন। ১১ দিনের সফর শেষে এদিন বাংলাদেশ ত্যাগের প্রাক্কালে তেজগাঁও বিমানবন্দরে ভিআইপি লাউঞ্জে আয়োজিত সাংবাদিক সম্মেলনে ক্রাউজ এই মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, দেশ পুনর্গঠন ও অগ্রগতির ক্ষেত্রে বঙ্গবন্ধুর মনোবল ও কঠোর পদক্ষেপ দেখে প্রতিনিধি দল মুগ্ধ হয়েছেন।

এখানে অবস্থানকালে প্রতিনিধিদল দেশের বিভিন্ন এলাকা পরিদর্শন করেন এবং সমাজের বিভিন্ন স্তরের মানুষের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। প্রতিনিধি দলের নেতা আরও বলেন, যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশ পুনর্গঠনে কাজের অগ্রগতি দেখে মুগ্ধ হয়েছেন। ক্রাউজ বলেন, বাংলাদেশের অর্থনৈতিক, সামাজিক ও মানবিক সমস্যাবলী রয়েছে। কিন্তু এত সমস্যা থাকা সত্ত্বেও দেশব্যাপী কার্যক্রমে হতাশ হননি ব্রিটিশ সংসদীয় প্রতিনিধি দল। ক্রাউজ বলেন, এই প্রতিনিধি দলের সদস্যরা বাংলাদেশের জন্য সাহায্য আনয়নের ব্যাপারে সম্ভাব্য সকল প্রচেষ্টা চালাবেন।

 

যুগোস্লাভিয়ার প্রজাতন্ত্র দিবস উপলক্ষে বঙ্গবন্ধুর বাণী

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যুগোস্লাভিয়ার প্রধানমন্ত্রীর নিকট বাণী প্রেরণ করেন। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান তাঁর বাণীতে যুগোস্লাভিয়ার প্রজাতন্ত্র দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ সরকার জনগণ ও তার নিজের পক্ষ থেকে যুগোস্লাভিয়ার সরকার ও জনগণকে অভিনন্দন জানান এবং দুই দেশের মধ্যে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্প্রীতি ও সহযোগিতা আরও জোরদার হবে বলে আশা প্রকাশ করেন।

দৈনিক বাংলা, ২৯ নভেম্বর ১৯৭৩

জাতীয়করণ বানচালে চক্রান্ত রুখে দিতে শিল্পমন্ত্রীর আহ্বান

শিল্পমন্ত্রী সৈয়দ নজরুল ইসলাম দ্ব্যর্থহীন কণ্ঠে ঘোষণা করেন, বঙ্গবন্ধুর ঘোষিত জাতীয়করণ কর্মসূচি বানচাল করতে দেওয়া হবে না। তিনি বলেন, আন্তর্জাতিক সাম্রাজ্যবাদী চক্র ও তাদের দোসররা জাতীয়করণ কর্মসূচি বানচালের ষড়যন্ত্র করছে। এদের ষড়যন্ত্র রুখতে হবে। এই দিন রমনায় অনুষ্ঠিত বাংলাদেশ ছাত্রলীগ ঢাকা নগর শাখার বার্ষিক সম্মেলনে তিনি বলেন নব্য স্বাধীনতাপ্রাপ্ত দেশগুলোর তৃতীয় পর্যায়ে ধনতান্ত্রিক অর্থনৈতিক উন্নয়ন কর্মসূচি না নেওয়া হলে সমাজতান্ত্রিক অর্থনৈতিক কর্মসূচির বাস্তবায়ন সম্ভব হবে না।

শিল্পমন্ত্রী ইন্দোনেশিয়ার দৃষ্টান্ত তুলে ধরে বলেন, সাম্রাজ্যবাদীরা সেখানে সুকর্ণ সমর্থক ছাত্র সংগঠনকে ভুল পথে চালিত করেছিল। তিনি সাম্রাজ্যবাদী শক্তির প্রচারণায় বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য ছাত্র সমাজের প্রতি আহ্বান জানান।

ডেইলি অবজারভার, ২৯ নভেম্বর ১৯৭৩

যেকোনও সময় তদন্ত রিপোর্ট পেশ

প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নির্দেশ মোতাবেক বিশেষ তদন্ত কাজের জন্য আদমজী জুটমিল দুদিন ধরে বন্ধ থাকার পর এই দিন দুপুর দুইটা থেকে আবার চালু হওয়ার কথা। বিশেষ তদন্ত কমিটির চেয়ারম্যান প্রদত্ত এক বিজ্ঞপ্তিতে মিলের শ্রমিক ও কর্মচারীকে যথাসময়ে কাজে যোগদানের নির্দেশ দেওয়া হয়। বিশেষ তদন্ত কমিটির সেক্রেটারি প্রদত্ত অপর এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের সদস্যদের নিয়ে আকস্মিকভাবে আদমজী জুটমিল পরিদর্শনে যান এবং কতিপয় নির্দেশ দেন। তার নির্দেশ মোতাবেক জুট মিলসের জেনারেল ম্যানেজার মাহাতাব উদ্দিনকে মিল থেকে সরিয়ে বাংলাদেশ জুট মিল করপোরেশনে ন্যস্ত করা হয়। এ ছাড়া তিন নম্বর মিলের ম্যানেজার আহমেদকে দুই নম্বর মিলের ম্যানেজার এ আজম ও প্রশাসন বিভাগীয় ম্যানেজার আজিজুর রহমানকে সাসপেন্ড করা হয়। তদন্ত কমিটি আদমিনস জুট মিলের সমস্যাবলী পরীক্ষা করে যেকোন দিন প্রধানমন্ত্রীর কাছে রিপোর্ট পেশ করবে বলে জানানো হয়।

 

আরব শীর্ষ সম্মেলনের চূড়ান্ত ঘোষণাপত্র

আরব শীর্ষ সম্মেলনে ১৯৬৭ সালের যুদ্ধে অধিকৃত সকল আরব এলাকা থেকে ইসরায়েলের সৈন্য প্রত্যাহারের দাবিতে অটল থাকার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। তিন দিনব্যাপী সম্মেলন এদিন শেষ হয়। সম্মেলনে চূড়ান্ত ঘোষণাপত্রে বলা হয়, মধ্যপ্রাচ্যে স্থায়ী শান্তির প্রধান শর্ত হলো ইসরায়েল কর্তৃক দখলকৃত আরব ভূখণ্ড প্রত্যর্পণ। ঘোষণাপত্রে বলা হয়, ইসরায়েল যতদিন জেরুজালেমসহ সকল অধিকৃত এলাকা পরিত্যাগ না করবে, যতদিন ফিলিস্তিনের অধিবাসীদের অধিকার প্রতিষ্ঠা না হবে, ততদিন পশ্চিম এশিয়ায় বিস্ফোরণমুখী পরিস্থিতি এবং নতুন করে যুদ্ধবিগ্রহ অব্যাহত থাকবে। আরব প্রধানরা গেরিলা নেতা ইয়াসির আরাফাতের মর্যাদা সম্পর্কে ঐকমত্যে পৌঁছেছেন। তারা আরাফাতকে ফিলিস্তিনের জনসাধারণের মুখপাত্র বলে স্বীকার করেন এবং প্রস্তাবিত শান্তি সম্মেলনে তার অংশগ্রহণের পথ উন্মুক্ত করেন।

 

 

/এফএ/
সম্পর্কিত
কাল শুরু ডিসি সম্মেলন, গুরুত্ব পাচ্ছে ১২ ইস্যু
কাল শুরু ডিসি সম্মেলন, গুরুত্ব পাচ্ছে ১২ ইস্যু
ডিজিটাল সিকিউরিটি আইন নিয়ে জাতিসংঘের সঙ্গে আলোচনা করছে সরকার
ডিজিটাল সিকিউরিটি আইন নিয়ে জাতিসংঘের সঙ্গে আলোচনা করছে সরকার
নির্বাচন পরিচালনায় শুধু সরকারি কর্মচারী চায় আওয়ামী লীগ
নির্বাচন পরিচালনায় শুধু সরকারি কর্মচারী চায় আওয়ামী লীগ
ইসি গঠনে আইনের জন্য সরকারকে ধন্যবাদ রাষ্ট্রপতির
ইসি গঠনে আইনের জন্য সরকারকে ধন্যবাদ রাষ্ট্রপতির

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
কাল শুরু ডিসি সম্মেলন, গুরুত্ব পাচ্ছে ১২ ইস্যু
কাল শুরু ডিসি সম্মেলন, গুরুত্ব পাচ্ছে ১২ ইস্যু
ডিজিটাল সিকিউরিটি আইন নিয়ে জাতিসংঘের সঙ্গে আলোচনা করছে সরকার
ডিজিটাল সিকিউরিটি আইন নিয়ে জাতিসংঘের সঙ্গে আলোচনা করছে সরকার
নির্বাচন পরিচালনায় শুধু সরকারি কর্মচারী চায় আওয়ামী লীগ
নির্বাচন পরিচালনায় শুধু সরকারি কর্মচারী চায় আওয়ামী লীগ
ইসি গঠনে আইনের জন্য সরকারকে ধন্যবাদ রাষ্ট্রপতির
ইসি গঠনে আইনের জন্য সরকারকে ধন্যবাদ রাষ্ট্রপতির
‘পৃথিবীর কোনও শক্তিধর রাষ্ট্রই এ দেশের ভবিষ্যৎ নির্ধারণের ক্ষমতা রাখে না’
‘পৃথিবীর কোনও শক্তিধর রাষ্ট্রই এ দেশের ভবিষ্যৎ নির্ধারণের ক্ষমতা রাখে না’
© 2022 Bangla Tribune