X
বৃহস্পতিবার, ২৭ জানুয়ারি ২০২২, ১৩ মাঘ ১৪২৮
সেকশনস

তিন বছরেও শেষ হয়নি মুজিব কিল্লার কাজ, বাড়ছে মেয়াদ

আপডেট : ০৭ ডিসেম্বর ২০২১, ০০:০৯

১৭২টির সংস্কারসহ ৫৫০টি মুজিব কিল্লা নির্মাণ শেষ হওয়ার কথা চলতি বছরের ডিসেম্বরে। এর মধ্যে এ বছরের মে’তে মাত্র ৫টি কিল্লার উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। অনেকগুলোর কাজ এখনও দরপত্র পর্যায়ে। প্রকল্পটির ভৌত অগ্রগতি ১৭.২১ শতাংশ এবং আর্থিক অগ্রগতি ৪.৩৯ শতাংশ।

ঘূর্ণিঝড় ও বন্যাপ্রবণ এলাকার মানুষের নিরাপত্তার জন্য মুজিব কিল্লা নির্মাণ প্রকল্পটির ধীরগতিতে একাধিক সংসদীয় কমিটি একাধিকবার ক্ষোভ প্রকাশ করেছে। কাজের মন্থরগতির কারণ ও অনিয়ম রয়েছে কিনা খতিয়ে দেখতে একটি সাব কমিটিও গঠন করেছে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটি। সেই সাব কমিটির কাজেরও অগ্রগতি নেই।

এদিকে প্রকল্প গতিহীন হওয়ার জন্য দেরিতে কাজ শুরু ও প্রথম পরামর্শক প্রতিষ্ঠান বুয়েটকে দায়ী করেছে দুর্যোগ অধিদফতর। প্রকল্পের মেয়াদ নতুন করে এক বছর বাড়ানোর সিদ্ধান্ত হয়েছে বলেও জানায় তারা। দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় এবং সংসদীয় কমিটি সংশ্লিষ্ট ‍সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

স্বাধীনতার পর বঙ্গবন্ধুর নির্দেশনায় উপকূলীয় মানুষের জন্য দুর্যোগকালীন নিরাপত্তায় মুজিব কিল্লা বানানো হয়েছিল। দীর্ঘদিন সংস্কার না হওয়ায় অনেক কিল্লা পরিত্যক্ত হয়। বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর পরিত্যক্ত কিল্লা সংস্কারের পাশাপাশি নতুন করে আরও মুজিব কিল্লা নির্মাণের উদ্যোগ নেয়। এর অংশ হিসেবে ২০১৮ সালের ৯ অক্টোবর একনেকে ‘মুজিব কিল্লা নির্মাণ, সংস্কার ও উন্নয়ন প্রকল্প’ নেওয়া হয়।

প্রকল্পের মেয়াদকাল ছিল জুলাই ২০১৮ থেকে ডিসেম্বর ২০২১। সম্পূর্ণ রাজস্ব খাতভুক্ত এক হাজার ৯৫৭ কোটি ৪৯ লাখ টাকার এই প্রকল্পে ঘূর্ণিঝড়প্রবণ ১৬ জেলার ৬৪ উপজেলা, বন্যা ও ভাঙনপ্রবণ ২২ জেলার ৮৪ উপজেলায় বিদ্যমান ১৭২টি মুজিব কিল্লা সংস্কার ও উন্নয়ন এবং ৩৭৮টি নতুন মুজিব কিল্লায় নির্মাণসহ ৫৫০টি মুজিব কিল্লা নির্মাণ হওয়ার কথা। এর মধ্যে ‘এ’ ক্যাটাগরিতে ১৮৬টি, ‘বি’ ক্যাটাগরিতে ১৭১টি এবং ‘সি’ ক্যাটাগরিতে ১৯৩টি মুজিব কিল্লার নির্মাণ ও সংস্কার করার কথা রয়েছে।

প্রকল্পের ধীরগতি ও অনিয়ম চিহ্নিত করতে গত বছর ১২ আগস্ট দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির সদস্য মাসুদ উদ্দিন চৌধুরীকে প্রধান করে একটি সাব কমিটি গঠন করা হয়। ওই সাব কমিটিও এক বছরের বেশি সময়ে প্রতিবেদন দিতে পারেনি।

সর্বশেষ রবিবার (৫ ডিসেম্বর) অনুষ্ঠিত পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটিও মুজিব কিল্লার কাজের ধীরগতি নিয়ে আলোচনা করে। ওই কমিটির বৈঠকে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে প্রকল্পের সর্বশেষ অবস্থা তুলে ধরা হয়। সেখানে বলা হয়, কাজটির আর্থিক অগ্রগতি ৪.৫৩ শতাংশ। ব্যয় হয়েছে ৮৮ কোটি ৬৪ লাখ টাকা। ভৌত অগ্রগতি ১৭.২১ শতাংশ।

কাজের গতি কম হওয়ার কারণ হিসেবে অধিদফতর থেকে জানানো হয়েছে, প্রকল্পটি ২০১৮ সালের জুলাইতে শুরু হলেও একনেকে অনুমোদন পায় ২০১৮ সালের ৯ অক্টোবর। প্রশাসনিক অনুমোদন জারি হয় ওই বছর ২০ ডিসেম্বর। অর্থাৎ মেয়াদ শুরুর ৬ মাস পর তারা কাজ শুরু করেছে।

এদিকে, পরামর্শক হিসেবে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়কে (বুয়েট) নিয়োগ দিলেও তারা কাজটি ঠিকভাবে করেনি বলে জানায় অধিদফতর। প্রকল্পের নকশা, প্ল্যান নিয়েও অনেক সময় নষ্ট করেছে বুয়েট। এসব বিষয়ে তাদেরকে চিঠি দিলেও কোনও জবাব পাওয়া যায়নি। পরে ঢাকা প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়কে (ডুয়েট) পরামর্শক নিয়োগ দেওয়া হয়। এ ছাড়া করোনা পরিস্থিতির কারণেও কাজে গতি আসেনি বলে জানায় অধিদফতর।

গত ২৩ মে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ৫টি মুজিব কিল্লা উদ্বোধন করেন। একই দিনে তিনি ৫০টির ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন।

পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির সদস্য বীরেন শিকদার বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন,  আমরা দ্রুত কাজ শেষ করতে বলেছি। এখন যে গতি তাতে মনে হয়েছে প্রকল্পের মেয়াদ বাড়ানো দরকার।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির সদস্য ও সাব কমিটির প্রধান মাসুদ উদ্দিন চৌধুরী বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, বিভিন্ন কারণে আমাদের সাব কমিটি কাজ করতে পারেনি। আগামীকাল (৭ ডিসেম্বর) আমাদের সাব কমিটির প্রথম বৈঠক হবে।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদফতরের মহাপরিচালক আতিকুল ইসলাম বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, প্রকল্পটির ধীরগতির অনেকগুলো কারণ রয়েছে। বুয়েট তাদের কাজ যথাযথভাবে করেনি। তাদের জমি সিলেকশনেও সমস্যা ছিল।

/এফএ/
সম্পর্কিত
সমৃদ্ধ অঞ্চল গড়ে তুলতে ভারতের সঙ্গে কাজ করবে বাংলাদেশ
সমৃদ্ধ অঞ্চল গড়ে তুলতে ভারতের সঙ্গে কাজ করবে বাংলাদেশ
আসছে আরও ১৭টি আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস
আসছে আরও ১৭টি আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস
‘যুক্তরাষ্ট্র থেকে পাওয়া অনুদানের হিসাব দেননি শিল্পকলার ডিজি’
‘যুক্তরাষ্ট্র থেকে পাওয়া অনুদানের হিসাব দেননি শিল্পকলার ডিজি’
টিআইর রিপোর্ট পক্ষপাতদুষ্ট: তথ্যমন্ত্রী
টিআইর রিপোর্ট পক্ষপাতদুষ্ট: তথ্যমন্ত্রী
সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সমৃদ্ধ অঞ্চল গড়ে তুলতে ভারতের সঙ্গে কাজ করবে বাংলাদেশ
নরেন্দ্র মোদিকে শেখ হাসিনার শুভেচ্ছা বার্তাসমৃদ্ধ অঞ্চল গড়ে তুলতে ভারতের সঙ্গে কাজ করবে বাংলাদেশ
আসছে আরও ১৭টি আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস
আসছে আরও ১৭টি আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস
‘যুক্তরাষ্ট্র থেকে পাওয়া অনুদানের হিসাব দেননি শিল্পকলার ডিজি’
‘যুক্তরাষ্ট্র থেকে পাওয়া অনুদানের হিসাব দেননি শিল্পকলার ডিজি’
টিআইর রিপোর্ট পক্ষপাতদুষ্ট: তথ্যমন্ত্রী
টিআইর রিপোর্ট পক্ষপাতদুষ্ট: তথ্যমন্ত্রী
ফখরুল সাহেব একটা ‘কমিক’ করেছেন: তথ্যমন্ত্রী
ফখরুল সাহেব একটা ‘কমিক’ করেছেন: তথ্যমন্ত্রী
© 2022 Bangla Tribune