X
বৃহস্পতিবার, ২৭ জানুয়ারি ২০২২, ১২ মাঘ ১৪২৮
সেকশনস

উসকানির বিষয়ে শ্রমিকদের সতর্ক থাকতে হবে: প্রধানমন্ত্রী

আপডেট : ০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ১৫:৪৭

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, কল-কারখানায় অশান্ত পরিবেশ সৃষ্টি করতে বাইরে থেকে অনেকে উসকানি দিয়ে থাকেন। এ বিষয়ে শ্রমিকদের সতর্ক থাকতে হবে। এখানে মালিক-শ্রমিক সম্পর্কটা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

বুধবার (৮ ডিসেম্বর) ‘গ্রিন ফ্যাক্টরি অ্যাওয়ার্ড ২০২০’ প্রদান এবং মহিলা কর্মজীবী হোস্টেলসহ ৮টি নবনির্মিত স্থাপনা উদ্বোধন অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে আয়োজিত  অনুষ্ঠানে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে অংশ নেন প্রধানমন্ত্রী।

শেখ হাসিনা বলেন, একটা কথা মনে রাখতে হবে, এখন বিশ্ব প্রতিযোগিতামূলক। এই প্রতিযোগিতাময় বিশ্বে শিল্প-কলকারখানা এবং উৎপাদন-রফতানি যদি সঠিকভাবে চালাতে হয় তাহলে কারখানাগুলো যাতে যথাযথভাবে চলে সেই ব্যবস্থা নিতে হবে। আর যদি সেখানে অশান্ত পরিবেশ সৃষ্টি হয় তাহলে এই রফতানিও যেমন বন্ধ হবে, তেমনি কর্মপরিস্থিতিও থাকবে না। নিজেরাও কাজ হারাবেন। তখন বেকারত্বের অভিশাপ নিয়ে ঘুরতে হবে। সেই কথাটা মনে রেখে শ্রমিকদেরও একটা দায়িত্বশীল ভূমিকা রাখতে হবে। কাজেই এখানে মালিক-শ্রমিক সম্পর্কটা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

তিনি বলেন, ‘অনেক সময় আমরা দেখি—বাইরে থেকে কিছু শ্রমিক নেতা আসেন, তারা বা কোনও কোনও মহল উসকানি দিয়ে একটা অশান্ত পরিবেশ সৃষ্টির চেষ্টা করে।’

শ্রমিক-মালিক পরস্পরের সুবিধা-অসুবিধা দেখার আহ্বান জানিয়ে সরকার প্রধান বলেন, ‘মালিকদের দেখতে হবে শ্রমিকদের অসুবিধা কি কি বা তাদের জীবন-জীবিকা যাতে সুন্দরভাবে চলে, সেই ব্যবস্থা করা। শ্রমের ন্যায্যমূল্যটা যেন তারা পায়, শ্রমের পরিবেশ যেন সুন্দর থাকে, সেটাও তাদের দেখতে হবে। আবার শ্রমিকদেরও দায়িত্ব থাকবে কারখানাটা সুন্দরভাবে যেন চলে। উৎপাদন যেন বাড়ে, সেই ব্যাপারটাও দেখতে হবে। সেদিকে লক্ষ রেখেই কিন্তু আপনাদের কাজ করতে হবে।’

শ্রমিক-মালিক সুসম্পর্কের তাগিদ দিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, ‘আমি সবসময় একটা অনুরোধই করবো আমাদের মালিক এবং শ্রমিক সকলকে, শ্রমিক-মালিকের একটা সুন্দর সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্ক থাকতে হবে।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘মালিকদের সবসময় মনে রাখতে হবে—এই শ্রমিকরা শ্রম দিয়েই কিন্তু তাদের কারখানা চালু রাখে এবং অর্থ উপার্জনের পথ করে দেয়। আবার সেই সঙ্গে শ্রমিকদেরও এই কথা মনে রাখতে হবে—কারখানাগুলো আছে বলেই তারা কাজ করে খেতে পারছেন, তাদের পরিবার-পরিজনকে পালতে পারছেন বা তারা নিজেরা আর্থিকভাবে কিছু উপার্জন করতে পারছেন।’

‘আর কারখানা যদি ঠিকমতো না চলে তাহলে নিজেদেরই ক্ষতি হবে। কাজেই যে কারখানা আপনার রুটি-রুজির ব্যবস্থা করে অর্থাৎ আপনার খাদ্যের ব্যবস্থা করে, আপনার জীবন-জীবিকার ব্যবস্থা করে সেই কারখানার প্রতি যত্নবান হতে হবে।’

অনুষ্ঠান থেকে ৩০টি প্রতিষ্ঠানকে ‘গ্রিন ফ্যাক্টরি অ্যাওয়ার্ড ২০২০’ প্রদান করা হয়। ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তন প্রান্তে এসব প্রতিষ্ঠানের মালিক-প্রতিনিধিদের হাতে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে পুরস্কার তুলে দেন শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান।

/পিএইচসি/এমএস/এমওএফ/
সম্পর্কিত
আসছে আরও ১৭টি আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস
আসছে আরও ১৭টি আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস
‘যুক্তরাষ্ট্র থেকে পাওয়া অনুদানের হিসাব দেননি শিল্পকলার ডিজি’
‘যুক্তরাষ্ট্র থেকে পাওয়া অনুদানের হিসাব দেননি শিল্পকলার ডিজি’
টিআইর রিপোর্ট পক্ষপাতদুষ্ট: তথ্যমন্ত্রী
টিআইর রিপোর্ট পক্ষপাতদুষ্ট: তথ্যমন্ত্রী
ফখরুল সাহেব একটা ‘কমিক’ করেছেন: তথ্যমন্ত্রী
ফখরুল সাহেব একটা ‘কমিক’ করেছেন: তথ্যমন্ত্রী
ইউক্রেন যুদ্ধ পরিস্থিতি

ঢাকাকে নিজেদের অবস্থান জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র-রাশিয়া

আপডেট : ২৬ জানুয়ারি ২০২২, ২২:০১

ইউক্রেন সীমান্তে সেনা সমাবেশ করছে রাশিয়া। শুধু তা-ই নয়, পার্শ্ববর্তী দেশ বেলারুশেও রুশ সৈন্য মোতায়েন করা হয়েছে। যাতে প্রয়োজনে ওই দেশ থেকেও আক্রমণ করা যায়। পূর্ব ইউরোপের দেশ ইউক্রেনকে সহায়তা করার জন্য যুক্তরাষ্ট্র ও ন্যাটো জোট একসঙ্গে কাজ করছে। এরকম যুদ্ধ পরিস্থিতির মধ্যে বাংলাদেশের সঙ্গেও যোগাযোগ করছে ওয়াশিংটন ও মস্কো। ইতোমধ্যে আমেরিকা তাদের আনুষ্ঠানিক অবস্থান জানিয়ে ডিমারশে লেটার দিয়েছে বাংলাদেশকে। অন্যদিকে বুধবার (২৬ জানুয়ারি) রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত আলেকজান্ডার ম্যানটিটস্কি পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেনের সঙ্গে দেখা করে তার দেশের অবস্থান ব্যাখ্যা করেছেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে পররাষ্ট্র সচিব বাংলা ট্রিবিউনকে বুধবার সন্ধ্যায় বলেন, ‘দুপক্ষই তাদের অবস্থান জানিয়েছে।’

এ প্রেক্ষাপটে বাংলাদেশ কী অবস্থান নেবে জানতে চাইলে পররাষ্ট্র সচিব বলেন, ‘আমরা যেকোনও সংঘাতের বিরোধী। আমরা মনে করি আলোচনার মাধ্যমে শান্তিপূর্ণ অবস্থানে পৌঁছানো সম্ভব। আমরা আশা করি সব পক্ষ সংঘাত পরিহার করে নিজেদের মধ্যে আলোচনার মাধ্যমে একটি সমাধানে আসবে।’

এ বিষয়ে জানতে চাইলে সাবেক পররাষ্ট্র সচিব শহীদুল হক বলেন, সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়ন ভেঙে যাওয়ার পর থেকে ওই অঞ্চলটিতে রাষ্ট্র গঠন প্রক্রিয়া আগেও স্থিতিশীল ছিল না, এখনও নেই। নতুন স্নায়ুযুদ্ধের প্রেক্ষাপটে ইউক্রেনে সংঘাতময় পরিস্থিতি বিশ্বকে আরও অস্থিতিশীল করতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেন তিনি।

এ বিষয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একজন কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, ইউক্রেনের সঙ্গে বাংলাদেশের দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক কম কিন্তু বহুপক্ষীয় ব্যবস্থায় বাংলাদেশকে এ বিষয়ে সম্পৃক্ত করার জন্য উভয়পক্ষ অনুরোধ করবে।

তিনি বলেন, নিউ ইয়র্কে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে বিষয়টি আলোচিত হবে না। কারণ, আমেরিকা ও রাশিয়া উভয়ই ভেটো ক্ষমতার অধিকারী। সেক্ষেত্রে সাধারণ অধিবেশনে বিষয়টি নিয়ে আলোচনার সম্ভাবনা বেশি। যার সদস্য বাংলাদেশ। আবার জেনেভাতে মানবাধিকার কাউন্সিলে ইউক্রেন বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করার চেষ্টা করতে পারে। সেখানেও ৪৭ সদস্যবিশিষ্ট কাউন্সিলে সদস্য হিসেবে রয়েছে বাংলাদেশ।

রাশিয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হলে বাংলাদেশের কী সমস্যা হতে পারে জানতে চাইলে আরেকজন কর্মকর্তা বলেন, রাশিয়ান প্রযুক্তিতে রূপপুর পারমাণবিক কেন্দ্র তৈরি হচ্ছে। এর কাজ অনেকটা শেষ। এক্ষেত্রে কী প্রভাব পড়বে সেটি নিষেধাজ্ঞা আরোপের আগে বলা মুশকিল।

/এসএসজেড/এমআর/এমওএফ/
সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
আসছে আরও ১৭টি আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস
আসছে আরও ১৭টি আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস
‘যুক্তরাষ্ট্র থেকে পাওয়া অনুদানের হিসাব দেননি শিল্পকলার ডিজি’
‘যুক্তরাষ্ট্র থেকে পাওয়া অনুদানের হিসাব দেননি শিল্পকলার ডিজি’
টিআইর রিপোর্ট পক্ষপাতদুষ্ট: তথ্যমন্ত্রী
টিআইর রিপোর্ট পক্ষপাতদুষ্ট: তথ্যমন্ত্রী
ফখরুল সাহেব একটা ‘কমিক’ করেছেন: তথ্যমন্ত্রী
ফখরুল সাহেব একটা ‘কমিক’ করেছেন: তথ্যমন্ত্রী
বিতর্কিত নির্বাচন করতেই এই আইন করা হচ্ছে: সুজন
বিতর্কিত নির্বাচন করতেই এই আইন করা হচ্ছে: সুজন
© 2022 Bangla Tribune