বুলবুলের আঘাতে নিহত ৪, ঘরবাড়ি ও বাঁধ ক্ষতিগ্রস্ত

Send
বাংলা ট্রিবিউন ডেস্ক
প্রকাশিত : ১১:৪৪, নভেম্বর ১০, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৫:৩৪, নভেম্বর ১০, ২০১৯

ঘূর্ণিঝড়ে লণ্ডভণ্ড ঘরবাড়িপ্রবল ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের আঘাতে খুলনা, বাগেরহাট ও পটুয়াখালীতে চার জন নিহত হয়েছেন। এছাড়া খুলনা, সাতক্ষীরা, পটুয়াখালী, ভোলা, বাগেরহাট, মোংলা, লাক্ষ্মীপুর, নোয়াখালীতে ঘর-বাড়ি বিধ্বস্ত, গাছাপালা উপড়ে পড়েছে এবং কোথাও কোথাও বাঁধ ভেঙে লোকালয়ে পানি ঢুকে পড়েছে বলে জানা গেছে। এছাড়া ফসলের ক্ষতির আশঙ্কা করা হচ্ছে। 

দিঘলিয়া ও দাকোপে নিহত ২

খুলনা প্রতিনিধি জানিয়েছেন,  দাকোপ উপজেলায় নিজ বাড়িতে গাছ চাপা পড়ে প্রমিলা মন্ডল (৫২) নামে এক নারী নিহত হয়েছে। রবিবার (১০ নভেম্বর) সকাল ৯টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। দাকোপ উপজেলা পরিষদের বুলবুল কন্ট্রোল রুমের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শেখ আব্দুল কাদের এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি জানান, শনিবার বিকালে প্রমিলা দক্ষিণ দাকোপ সরকারি সাইক্লোন সেন্টারে অবস্থান নিয়েছিলেন। রবিবার  সকালে তিনি সেখান থেকে বের হয়ে পাশেই নিজের ঘর দেখতে যান। সেখানে গিয়ে গাছ চাপা পড়ে নিহত হন।

এদিকে, ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের আঘাতে ভেঙে পড়া গাছের ডালপালা সরাতে গিয়ে তা চাপা পড়ে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। রবিবার সকালে খুলনায় দিঘলিয়া উপজেলার সেনহাটি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। তার নাম আলমগীর হোসেন (৩০)। তিনি কাটানী পাড়া ৯ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা শফি মিস্ত্রির ছেলে।

সেনহাটি ইউনিয়ন পরিষদের সচিব প্রদীপ কুমার বিশ্বাস এ তথ্য জানিয়েছেন।

কয়রায় ১৭০০ ও দাকোপে ১৭৬৫ ঘর বিধ্বস্ত

ঘূর্ণিঝড়ের আঘাতে খুলনার কয়রা উপজেলায় ১৭০০ ঘরবাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এছাড়া সড়কেই ওপর গাছপালা উপড়ে পড়ে আছে। কয়রা উপজেলা ঘূর্ণিঝড় মনিটরিং কেন্দ্রের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জাফর রানা জানান, বিভিন্ন ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানের কাছ থেকে এসব তথ্য জানা গেছে। ক্ষয়ক্ষতির তালিকা তৈরির কাজ চলছে। তবে কয়রার কোথাও লোকজন আহত হওয়ার খবর পাওয়া যায়নি।

এদিকে, দাকোপ উপজেলায় ১৭৬৫ ঘর-বাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে। এছাড়া ৭৫০টি ঘের ও পুকুর ভেসে গেছে। দাকোপ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আব্দুল ওয়াদুদ জানান, ইপজেলায় ৩১৫টি চিংড়ি ঘের ও ৪২৫টি পুকুর ভেসে গেছে। প্রচুর গাছ পালা ভেঙে ও উপরে পড়েছে। 

ঘরের ওপর গাছ পড়ে নিহত ১

বাগেরহাট প্রতিনিধি জানিয়েছেন, ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের আঘাতে ঘরের ওপর গাছ পড়ে বাগেরহাটে সামিয়া খাতুন (১৫) নামে এক কিশোরী নিহত হয়েছে। রবিবার (১০ নভেম্বর) রামপাল উপজেলার ভরসাপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এছাড়া ঘূর্ণিঝড়ের তাণ্ডবে ঘরবাড়ি-গাছপালা ও ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। বাগেরহাটের জেলা প্রশাসক মামুনুর রশীদ এসব তথ্য জানিয়েছেন।

স্থানীয়রা জানান, ঘূর্ণিঝড়ের আঘাতে বাগেরহাটের ৯টি উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় কাঁচা ঘরবাড়ির ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। হাজার হাজার গাছ উপড়ে ও ভেঙে পড়েছে। প্রবল বর্ষণে বাগেরহাটের নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। এতে পুকুর ও মাছের ঘের ভেসে গেছে। কৃষি বিভাগ জানায়, ৫ হাজার হেক্টর জমির আমন ধান ও শীতকালিন সবজিরর ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।

জেলা প্রশাসক  জানান, সংশ্লিষ্ট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাদের ক্ষয়ক্ষতি নিরূপণের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

লণ্ডভণ্ড সাতক্ষীরা

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি জানিয়েছেন, ঘূর্ণিঝড়ের আঘাতে লণ্ডভণ্ড হয়ে গেছে সাতক্ষীরার উপকূলীয় এলাকা। রবিবার (১০ নভেম্বর) ভোর ৫টা থেকে আঘাত হানার পর এখনও থেমে থেমে বৃষ্টি হচ্ছে। সঙ্গে চলছে ঝড়ো বাতাস।

ঘূর্ণিঝড়ে লণ্ডভণ্ড ঘরবাড়ি ও ভেঙে পড়েছে গাছউপকূলবর্তী শ্যামনগর উপজেলার গাবুরা, পদ্মপুকুর, বুড়িগোয়ালীনি, মুন্সিগঞ্জ, রমজাননগর ও কাশিমাড়িসহ আশাশুনি উপজেলার প্রতাপনগর, আনুলিয়া, খাজরা ও শ্রীউলা এলাকার অধিকাংশ কাঁচা ঘর ভেঙে গেছে। ঝড়ের তাণ্ডবে ক্ষতি হয়েছে মাছের ঘের ও ধান ক্ষেতের। রাস্তায় গাছ পড়ে থাকায় উদ্ধার কাজ শুরু করা যায়নি।

সাতক্ষীরা আবহাওয়া অফিসের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জুলফিকার আলী জানান, ‘ভারতের পশ্চিমবঙ্গের উপকূল হয়ে ঘূর্ণিঝড় বুলবুল রবিবার ভোর ৫টা থেকে ৮১ কিলোমিটার বেগে সাতক্ষীরা উপকূলে আঘাত হানে। এটার পশ্চাৎভাগ এখনও সাতক্ষীরা উপকূলে বিরাজ করছে। কেন্দ্রভাগ এখন দেশের মোংলা সুন্দরবন উপকূলে প্রবেশ করেছে। গত ২৪ ঘণ্টায়  সাতক্ষীরায় ১৪৭ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে।

এদিকে, ঝড়ের সময় গাবুরা ইউনিয়নের চকবারা গ্রামের আবুল কালাম (৬০) হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন।

ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের কারণে গাছপালা ভেঙে গেছেএছাড়া ভেটখালী ইউনিয়নের তারাণীপুরে দেয়াল চাপা পড়ে ভ্যানচালক পলাশ ও তার স্ত্রী আহত হয়েছেন। তবে হতাহতের খবর সরকারি কোনও সূত্র নিশ্চিত করতে পারেনি।

বরিশালে ঝড়ো হাওয়া ও ভারী বৃষ্টিপাত

বরিশাল প্রতিনিধি জানিয়েছেন, ঘূর্ণিঝগের প্রভা‌বে ব‌রিশা‌লে ঝড়ো হাওয়া ও ভা‌রী বৃ‌ষ্টি হ‌চ্ছে। রবিবার (১০ নভেম্বর) ভোর রা‌তে ৭০ কি‌লো‌মিটার বে‌গে ব‌রিশা‌লের ওপর দিয়ে ঝড়ো হাওয়া বাইতে শুরু করে। সঙ্গে ভারী বৃষ্টিপাত হওয়ায় শহরের বেশিরভাগ রাস্তা ডুবে গেছে। ঝড় ও বৃষ্টির কারণে ফস‌লের ক্ষ‌তি হওয়ার আশঙ্কা কর‌ছেন সংশ্লিষ্টরা।

আবহাওয়া বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, ভোর রাত ৪টা ২০ মি‌নি‌টে ব‌রিশা‌লের ওপর দি‌য়ে ঝড় ব‌য়ে যায়। তখন এর গ‌তি‌বেগ ছিল ৭০ কি‌লো‌মিটার। এরপর থে‌কে ঘূ‌র্ণিঝ‌ড়ের প্রভা‌বে ব‌রিশালসহ উপকূল জুড়ে প্রচুর বৃ‌ষ্টি শুরু হয়।  ভোর ৬টা পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় ৭৭.৩ মি‌লি‌মিটার বৃ‌ষ্টিপাত রেকর্ড করা হ‌য়ে‌ছে।

পানি উঠে গেছে বরিশালের রাস্তায়ব‌রিশা‌লের জেলা প্রশাসক ‍এসএম অজিয়র রহমান জানান, সকাল ৮টা পর্যন্ত কোনও ক্ষয়ক্ষ‌তির খবর পাওয়া যায়‌নি। ত‌বে ফস‌লের ক্ষ‌তির আশঙ্কা কর‌ছেন। ব‌রিশা‌লের বিভাগীয় ক‌মিশনার ‍ইয়ামিন চৌধুরী জানান, গত রা‌তে ভোলার লালমোহ‌নে গাছ চাঁপা প‌রে ১২/১৩ কাঁচা ঘর বিধ্বস্ত এবং ৪/৫ জন আহত হ‌য়ে‌ছেন।

আশ্রয়কেন্দ্রে একজনের মৃত্যু

বরগুনা প্রতিনিধি জানিয়েছেন,  বরগুনা সদর উপজেলার এম বালিয়াতলী ডিএল কলেজ আশ্রয়কেন্দ্রে অসুস্থ হয়ে হালিমা খাতুন (৬৫) নামে এক নারী মারা গেছে। স্থানীয়রা জানান, হালিমা এম বালিয়াতলী ইউনিয়নের ডিএল কলেজ আশ্রয়কেন্দ্রে আশ্রয় নিয়েছিলেন। তিনি আগে থেকেই অসুস্থ ছিলেন। শনিবার রাতে তার মৃত্যু হয়েছে।

বরগুনা সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও)আনিচুর রহমান  জানিয়েছেন, হালিমা খাতুন নামের ওই নারী অসুস্থতার কারণে মারা গেছেন।

ঘর চাপা পড়ে বৃদ্ধ নিহত, ১০ গ্রাম প্লাবিত

পটুয়াখালী প্রতিনিধি জানিয়েছেন, ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জে ঘর চাপা পড়ে হামেদ ফকির (৬৫) নামে এক বৃদ্ধ নিহত হয়েছে।  শনিবার (৯ নভেম্বর) রাত ৩টার দিকে উপজেলার মাধবখালী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সরোয়ার হোসেন জানান, রাতে দমকা হাওয়ার শুরু হলে একটি রেইন্ট্রি ও একটি চাম্বল গাছ উপড়ে গিয়ে ঘরের ওপর পড়ে। এতে চাপা পড়ে ওই বৃদ্ধ ঘটনাস্থলেই মারা যান।

ঘূর্ণিঝড়ের কারণে লোকালয়ে ঢুকে পড়েছে পানিএদিকে, ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের প্রভাবে পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় লালুয়া ইউনিয়নের ক্ষতিগ্রস্ত বেড়িবাঁধ দিয়ে পানি ঢুকে ১০টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। রবিবার ভোর রাতে উপজেলার লালুয়া ইউনিয়নে এ ঘটনা ঘটে।

লালুয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শওকত হোসেন বিশ্বাস জানান, কলাপাড়া উপজেলার লালুয়া ইউনিয়নের নাওয়াপাড়া থেকে পশরবুণিয়া পর্যন্ত বেড়িবাঁধ আগেই ভাঙ ছিল। ঘূর্ণিঝড়ের কারণে পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় ওই বেড়িবাঁধ থেকে পানি প্রবেশ করে ইউনিয়নের চারিপারা, নয়াকাটা, মুন্সিপারা, চৌধুরিপাড়া, ভঞ্জুপাড়া, ১১ নং হাওলা, বানাতিপাড়া, ছোট ৫ নং, বড় ৫নং ও নাওয়াপাড়া গ্রাম প্লাবিত হয়েছে।

রামগতিতে ২৫ ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি জাডিনয়েছেন, লক্ষ্মীপুরের রামগতিতে ঘূর্ণিঝড় বুলবুলির আঘাতে মেঘনা নদীর পাড়ে ২৫টি ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে। রামগতি উপজেলা র্নিবাহী কর্মর্কতা আব্দুল মমিন জানান, ২৫টি কাঁচা ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে। রবিবার সকাল থেকে বৃষ্টির সঙ্গে দমকা হাওয়া বয়ে যাচ্ছে। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বৃষ্টির পরিমাণ বাড়ছে। এছাড়া এখন পর্যন্ত  বড় ধরনের ক্ষয়ক্ষতির খবর পাওয়া যায়নি।

ভোলায় ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত, আহত ১৫

ভোলা প্রতিনিধি জানিয়েছেন, ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের তাণ্ডবে লালমোহন ও চরফ্যাশন উপজেলার অন্তত ২২টি ঘর বিধ্বস্ত ও ১৫ জন আহত হয়েছেন। বেশকিছু গাছপালা উপড়ে ও ভেঙে পড়েছে।

ঘূর্ণিঝড়ের কারণে ভেঙে পড়েছে ঘর

চরফ্যাশনের ইউপি চেয়ারম্যান সালাম হাওলাদার এবং মনপুরা উপজেলার কলাতলীর চরের খবর দিয়েছেন চেয়ারম্যান আমানত উল্লাহ আলমগীর জানান, ভোলায় কোথাও হালকা আবার কোথাও মাঝারি বৃষ্টিপাত হচ্ছে। বড় ধরনের কোনও ক্ষতির খবর পাওয়া যায়নি। তবে চরফ্যাশনের ঢালচর, মনপুরা উপজেলার চরমোজাম্মেল, কলাতলীর চর ও তমুজুদ্দিন উপজেলার চর জহিরুদ্দিনের নিম্নাঞ্চল ৩-৪ ফুট উচ্চতার জলোচ্ছ্বাসে প্লাবিত হয়েছে।

শনিবার রাতে লালমোহনের পশ্চিম চর উমেদ, ধলিগৌরনগর ও লর্ডহাডিঞ্জ ইউনিয়ন এবং চরফ্যাশনের ওসমানগঞ্জ ও এওয়াজপুর ইউনিয়নে ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হয়ে বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন বলে খবর পাওয়া গেছে। এদের মধ্যে একজনের অবস্থা অশঙ্কাজনক।

লালামোহন উপজেলা নির্বাহী অফিসার হাবিবুর হাসান রুমি বলেন, 'আমরা লর্ডহাডিঞ্জ ইউনিয়নের রায়চাঁদ এলাকায় গাছ পড়ে একজন আহত হওয়ার খবর পেয়েছি। লালমোহনের আহত একজনকে ভোলা সদর হাসপাতালে আনা হয়েছে।'

আরও পড়ুন:

বুলবুল এখন নিম্নচাপ, নামলো মহাবিপদ সংকেত

 

সাতক্ষীরায় তাণ্ডব চালিয়ে মোংলা-বাগেরহাটের দিকে বুলবুল (ভিডিও)

আশ্রয়কেন্দ্রে উপকূলবাসী

উপকূলে ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত

সুন্দরবন দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করবে ‘বুলবুল’

‘বুলবুল’ মোকাবিলায় সরকার ও দল সর্বোচ্চ প্রস্তুত: ওবায়দুল কাদের

আশ্রয়কেন্দ্রে যাচ্ছেন উপকূলবাসী

‘বুলবুল’ মোকাবিলায় সাতক্ষীরায় সেনা মোতায়েন

স্বাস্থ্য বিভাগের ছুটি বাতিল, দুর্যোগ মোকাবিলায় ৮ নির্দেশনা

ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ মোকাবিলায় প্রস্তুত সরকার: নৌ প্রতিমন্ত্রী

দুর্গতদের যেকোনও প্রয়োজনে ৯৯৯-এ কল করার অনুরোধ

 সারাদেশে নৌ চলাচল বন্ধ

 

 

/এসটি/

লাইভ

টপ