বাদশাহ ফয়সালের কাছে বঙ্গবন্ধুর তারবার্তা

Send
উদিসা ইসলাম
প্রকাশিত : ০৮:০০, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ০৮:০০, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০২০

ককককক(বিভিন্ন সংবাদপত্রে প্রকাশিত তথ্যের ভিত্তিতে ১৯৭২ সালে বঙ্গবন্ধুর সরকারি কর্মকাণ্ড ও তার শাসনামল নিয়ে ধারাবাহিক প্রতিবেদন প্রকাশ করছে বাংলা ট্রিবিউন। আজ পড়ুন ওই বছরের ২৬ সেপ্টেম্বরের ঘটনা।)

প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সৌদি আরবের বাদশাহ ফয়সালের কাছে পাঠানো এক তারবার্তায় বাংলাদেশের হজযাত্রীদের হজের অনুমতিদানের আহ্বান জানান। ১৯৭২ সালের ২৬ সেপ্টেম্বর পাঠানো  তারবার্তায় বলা হয়, বাংলাদেশের অধিকাংশ মানুষ ধর্মভীরু মুসলমান এবং তারা কঠোরভাবে ইসলামের অনুশাসন পালন করে থাকেন। তাদের অনেকেরই জীবনে হজ পালন করাটা পরম কাম্য। ২৭ সেপ্টেম্বরের সব কয়টি জাতীয় দৈনিকে এই তারবার্তার কথা প্রকাশ করা হয়।

তারবার্তায় বঙ্গবন্ধু বলেন, ‘ভিসা মঞ্জুর করার জন্য আপনার সরকার যদি বাংলাদেশে কোনও কর্মকর্তা প্রেরণ করতে চান, তাহলে তাকে বাংলাদেশ সাদরে গ্রহণ করবে এবং তার সব সুযোগ-সুবিধার ব্যবস্থাও করা হবে।’ বঙ্গবন্ধু আরও জানান যে, বাদশাহ ফয়সালের আপত্তি না থাকলে বাংলাদেশের হাজিদের দেখাশুনার জন্য বাংলাদেশের সরকার একটি সরকারি প্রতিনিধি দল সৌদি আরবে পাঠানোর ব্যবস্থা করতে চায়। উল্লেখ্য, বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সেপ্টেম্বর মাসের ১২ তারিখে সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে এক বার্তা পাঠান। সেখানে তিনি বাংলাদেশের জনগণকে হজ পালনের অনুমতি দানের জন্য অনুরোধ করেন। বঙ্গবন্ধু তারবার্তায় অবিলম্বে অনুকূল জবাব পাঠানের জন্য বাদশাকে অনুরোধ করেন।

ঙিঙৃকককককআওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সংসদের সভা

২৭ সেপ্টেম্বর বিকাল চারটায় গণভবনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সংসদের সভা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা। আওয়ামী লীগ প্রধান বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান অনুষ্ঠেয় এ সভায় সভাপতিত্ব করবেন। সভায় সংগঠনের ছাড়াও দেশে খাদ্যদ্রব্যের মূল্য, রাজনৈতিক এবং অর্থনৈতিক পরিস্থিতির বিষয়ে আলোচনা করা হবে বলে জানা গেছে। এদিকে তার আগে ২৬ সেপ্টেম্বর সার্কিট হাউস রোডে ঢাকা নগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সংসদের সভা, নগর আওয়ামী লীগের সভাপতি গাজী গোলাম মোস্তফার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। সভায় ঢাকা নগর জীবনের বিভিন্ন সমস্যা এবং সাংগঠনিক বিষয়ে আলোচনা করা হয়।

দুর্নীতিবাজ আমলাদের রেহাই নেই

কয়েকদিনের মধ্যেই দুর্নীতি পরায়ন কিছু বড় বড় আমলাকে চাকরি থেকে বহিষ্কার করা হতে পারে। সরকারি প্রশাসনকে সম্পূর্ণরূপে দুর্নীতিমুক্ত করার জন্য সরকারি অভিযানের ফলে তাদের চাকরি থেকে বহিষ্কার করা হবে। উল্লেখ করা হয় যে, দুর্নীতি পরায়ন পদস্থ সরকারি অফিসারদের তালিকা বর্তমান সরকারের পরীক্ষার জন্য দেওয়া হয়েছে। দুর্নীতি পরায়ন সরকারি আমলাদের এই তালিকাটি চূড়ান্ত সিদ্ধান্তের জন্য প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কাছে পেশ করা হবে। চলতি মাস শেষ হওয়ার আগেই দুর্নীতি পরায়ন ও অযোগ্য অফিসারদের তালিকা প্রকাশ করা হতে পারে বলেও পত্রিকার খবরে প্রকাশ করা হয়।

কয়েক মাস আগে সরকারের গঠিত উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন একটি কমিটি সরকারি অফিসারদের বিরুদ্ধে দুর্নীতি ও অযোগ্যতা সম্পর্কিত বিভিন্ন অভিযোগ পরীক্ষা করে দেখেছেন। এই কমিটি সরকারি, আধা-সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত ও অন্যান্য করপোরেশনের পদস্থ অফিসারদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগ সম্পর্কে পরীক্ষা করে দেখার কথা। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান দেশের জনগণের কল্যাণে আত্মনিয়োগের জন্য সরকারি কর্মচারীদের বারবার আহ্বান জানিয়েছেন। পাকিস্তানি আমলাতান্ত্রিক মনোভাব সম্পূর্ণরূপে পরিহার করে দেশ ও জনগণের প্রকৃত সেবকের  ভূমিকায় এগিয়ে আসার জন্য তিনি সরকারি অফিসারদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে আসছিলেন বরাবরই।

ককককককন্যায্য মূল্যের দোকান প্রস্তুত

পহেলা অক্টোবর থেকে সারাদেশে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য সামগ্রী বিক্রির জন্য ৯ হাজার ৭২০টি ন্যায্য মূল্যের দোকান চালু হওয়ার প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থা সম্পন্ন হয়েছে। এইদিনে সমবায় ও পল্লী উন্নয়ন মন্ত্রী শামসুল হকের সঙ্গে সংবাদ সংস্থা এনা প্রতিনিধির এক সাক্ষাৎকারে মন্ত্রী এ কথা বলেন। তিনি জানান, বাংলাদেশের প্রতিটি ইউনিয়নে কমপক্ষে একটি করে ন্যায্য মূল্যের দোকান খোলা হবে। এসব দোকানে স্বল্প ও সীমিত আয়ের লোকদের কাছে  চাল, গম, কাপড়, ভোজ্যতেল, কেরোসিন তেল এবং এ জাতীয় আরও কয়েকটি নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যসামগ্রী কম দামে নির্ধারিত মূল্যে বিক্রি করা হবে। এছাড়া ন্যায্য মূল্যের দোকানগুলোতে কমপক্ষে ২৩ হাজার লোকের কর্মসংস্থান হবে।

 

/এপিএইচ/

লাইভ

টপ
X