রাজপথের রাজনীতিতে বিএনপিকে খুঁজে পাওয়া যায় না: ওবায়দুল কাদের

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৪:২৯, অক্টোবর ৩১, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৪:২৯, অক্টোবর ৩১, ২০২০

ওবায়দুল কাদের

রাজপথের রাজনীতিতে বিএনপিকে এখন হাজার পাওয়ারের বাতি জ্বালিয়েও খুঁজে পাওয়া যায় না বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, 'বিএনপির রাজনীতি এখন ফেসবুক স্ট্যাটাস ও গণমাধ্যমেই সীমাবদ্ধ।'
শনিবার (৩১ অক্টোবর) সকালে নোয়াখালীর চৌমুহনী পৌরসভার উদ্যোগে নবনির্মিত পৌরপার্ক ও টার্মিনাল উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে একথা বলেন ওবায়দুল কাদের। আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক তার সরকারি বাসভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে অনুষ্ঠানে যুক্ত হন।

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের অভিযোগ ‘বিএনপির বিরুদ্ধে কথা বলা এবং শেখ হাসিনার তোষণের রাজনীতি’ করার বিষয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, 'শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে বিষোদগার করা এখন বিএনপির রাজনীতির রোজনামচার অংশ। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়ন ও অর্জনের কথা বললেই বিএনপির গাত্রদাহ হয়। আওয়ামী লীগ কখনোই বিএনপির বিরুদ্ধে নয়, তাদের নেতিবাচক ও অপরাজনীতির বিরুদ্ধে আওয়ামী লীগ।'

তিনি বলেন, '৭৫-এর খুনি ও খুনের মদদদাতা, গ্রেনেড হামলার খুনের মাস্টারমাইন্ড ও সাম্প্রদায়িক অপশক্তি বগলে নিয়ে যারা দেশের রাজনীতিকে বিষাক্ত করেছে, তাদের কাছে শেখ হাসিনার উন্নয়ন ও সমৃদ্ধির কথা শুনতে ভালো না লাগাই স্বাভাবিক। শেখ হাসিনার উন্নয়নের কথা শুনলে হাওয়াভবন তন্ত্রের কুশীলবদের গাত্রদাহ তো হবেই।'

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের নোয়াখালীর সাম্প্রতিক ঘটনা সম্পর্কে বলেন, 'গুটিকয়েক অপরাধীর জন্য সরকারের উন্নয়ন-অর্জন ম্লান হতে পারে না। এ ধরনের ঘটনা যেন না ঘটে। শেখ হাসিনার সরকার যেকোনও অন্যায়-অপরাধের বিরুদ্ধে অত্যন্ত কঠোর। দলীয় পরিচয়ে কেউ রেহাই পাবে না।'

তিনি বলেন, 'যতোই উন্নয়ন হোক, সবকিছু ম্লান হয়ে যায় দু-একটি ঘটনায়।' নোয়াখালীর ঘটনায় তিনি নিজে লজ্জিত বলে জানান।

জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারদের এসব অপরাধ রোধে শক্ত ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেন মন্ত্রী। তিনি বলেন, 'অপকর্মকারীরা আওয়ামী লীগের হলেও তারা যেন ছাড় না পায়।' শাস্তির পাশাপাশি এসব অপরাধীর জন্য আওয়ামী লীগের দরজা চিরতরে বন্ধ বলে উল্লেখ করেন তিনি।

ওবায়দুল কাদের বলেন, 'দেশের মানুষ সুখে আছে। করোনাকালেও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্বের কারণে জনগণের জীবন-জীবিকার ভারসাম্য তৈরি হয়েছে। দেশের অর্থনীতি পার্শ্ববর্তী দেশগুলোর চেয়ে অনেক ভালো আছে। কিন্তু বিএনপি এসব দেখে না বরং পূর্ণিমার রাতেও অন্ধকার দেখতে পায়।'

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, 'বিএনপি মহাসচিব সংসদ সদস্য নির্বাচিত হলেও তাকে সংসদে যেতে দেওয়া হয়নি। তিনি আসলে পুতুল নাচের পুতুল। বিএনপি দেউলিয়া হয়ে গেছো। তাদের আন্দোলন করতে না পারা, উপ-নির্বাচনে অংশ নিয়ে এজেন্ট না দিয়ে নির্বচনকে বিতর্কিত করার চেষ্টা থেকেই তা পরিষ্কার।' দেশের গণতন্ত্রকে মক্তিশালী করতে ইতিবাচক রাজনীতির ধারায় ফিরিয়ে আসতে বিএনপিকে আহ্বান জানান তিনি।

 

/এমএইচবি/এএইচ/

লাইভ

টপ