X
সোমবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২২
২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

‘ধনী তোষণনীতি বাদ দিয়ে ড্যাপ সংশোধন করুন’

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৭:৪১আপডেট : ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৭:৫৬

ঢাকা মহানগর বিশদ অঞ্চল পরিকল্পনা (ড্যাপ)-এ ধনী তোষণনীতি অবলম্বন করার অভিযোগ এনে এটিকে সংশোধনের দাবি করেছে বাংলাদেশ স্থপতি ইনস্টিটিউট (বাস্থই)।

ড্যাপ নিয়ে দেশের স্থপতি ও নগরবিদদের সামগ্রিক পর্যালোচনা সাপেক্ষে মূল্যায়ন ও প্রতিক্রিয়া জানানোর জন্য একটি  অংশীজন সম্মেলন  অনুষ্ঠানে তারা এ দাবি জানান।

অনুষ্ঠানে বাস্থইয়ের ড্যাপ বিষয়ক ওয়ার্কিং গ্রুপের আহ্বায়ক স্থপতি ইকবাল হাবিব জানান, যেখানে বাংলাদেশ ইমারত নির্মান বিধিমালা-২০০৮ অনুযায়ী, যে জমিতে ৮ তলা ভবন নির্মাণ করা যেতো, সেখানে বর্তমান বিশদ অঞ্চল পরিকল্পনা অনুযায়ী ৪-৬ তলা ভবন করা যাবে।

তিনি অভিযোগ করেন, ঢাকা মহানগরীর মাত্র এক শতাংশ এলাকায় সর্বোচ্চ এফএআর  (ভবনের মেঝের অনুপাত) দেওয়া হয়েছে, যার পরিমাণ ৫ থেকে ৬। বসুন্ধরা আবাসিক এলাকা, জলসিঁড়ি আবাসন এলাকা, ঝিলমিল,  গুলশান এলাকার জন্য যে এফএআর  খসড়া ড্যাপের চেয়ে বাড়ানো হয়েছে। যারা ৪ এর ওপরে পেয়েছেন, তারা সবাই গুলশান, বারিধারা, ধানমন্ডি এলাকার মানুষ। এর দ্বারা ধনী তোষণ করা হয়েছে। আর তুলনামূলক অনুন্নত এলাকা যেমন- মোহাম্মদপুর, বাড্ডা, শংকর, আদাবর, টোলারবাগ এলাকায় এফএআর  দেওয়া হয়েছে সবচেয়ে কম। 

তিনি বলেন, ‘ঢাকার বিকেন্দ্রীকরণের জন্য দরকার  আশেপাশের এলাকার উন্নয়ন। কিন্তু ঢাকার আশেপাশে গাজীপুর এফএআর  দেওয়া হয়েছে ১.৯,আশুলিয়ায় ১.৪, পূবাইলে ১.৭, কাচপুরে ১.৭ , রূপগঞ্জও কালিগঞ্জ ১.৩, কেরানীগঞ্জ ১.২-১.৪, ঢাকা মহানগরীর ৬৪ শতাংশ জমিকে ১.১-২ এফএআর  দেওয়া হয়েছে। এফএআরের সঙ্গে দুই গুণ করলেই কত তলা ভবন করা যাবে, সে সম্পর্কে জানা যাবে।’

তিনি ড্যাপ সংশোধন ও বাস্তবায়নে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের বোর্ড পুনর্গঠনের দাবি জানান।

তিনি বলেন, ‘ড্যাপের কাঙ্ক্ষিত জনঘনত্ব ২০০ থেকে ২৫০ জন অনুযায়ী, ঢাকার কেন্দ্রীয় অঞ্চলে ২০৩৫ সালে নেট আবাসিক জনঘনত্ব হবে ৩৯০ জন। অথচ ড্যাপের প্রাক্কালন অনুযায়ী ঢাকায় প্রতি একরে মানুষ থাকবে ৫৩১ জন,  যার মানে ১৪১ জন মানুষ আবাসন পরিকল্পনার বাইরে থাকবে।’

বাস্থইয়ের সভাপতি স্থপতি মোবাশ্বের হোসেন বলেন, ‘এ পরিকল্পনার লক্ষ্য ঢাকায় যারা আছে, তারা যেন সুস্থ সুন্দরভাবে থাকতে পারে।  কিন্তু ড্যাপ পর্যালোচনা করে আমরা দেখলাম, সবার আবাসনের কথা ভাবা হয়নি। যে পরিকল্পনা করা হয়েছে— তাতে ঢাকা থেকে বহু লোককে চলে যেতে হবে। জনসংখ্যার একটি বড় অংশকে কীভাবে বের করে দিতে হবে, কীভাবে চলে যেতে বলা হবে, সে প্রশ্নটি করতে চাই।’        

তিনি আরও বলেন, ‘ঢাকায় লোক আসা বন্ধ করা যাবে না। আর আমি যদি ঢাকায় বাড়ি  না বানাই, তাহলে ঢাকায় মানুষ আসবে না, এ চিন্তা অমূলক। ঢাকায় যতদিন আয় থাকবে, ততদিন মানুষ আসবেই। তখন মানুষ বেশির ভাগ বস্তিতে বসবাস করবে। প্রয়োজনে ফুটপাতে শুয়ে থাকবে। ঢাকায় আসা বন্ধ করতে হলে ঢাকার চারপাশে উন্নয়ন করতে হবে।’    

অনুষ্ঠানে বাস্থইয়ের সাধারণ সম্পাদক ফারহানা শারমিন, সহ-সভাপতি খান মো. মুস্তফা পলাশসহ প্রমুখ  উপস্থিত ছিলেন।

 

/আরএইচ/এপিএইচ/
কানাডায় যাচ্ছেন মুহিবুল্লাহর পরিবারের আরও ১০ সদস্য
কানাডায় যাচ্ছেন মুহিবুল্লাহর পরিবারের আরও ১০ সদস্য
নতুন উদ্যোক্তাদের জন্য বৈশ্বিক প্রতিযোগিতার আয়োজন ইও বাংলাদেশের
নতুন উদ্যোক্তাদের জন্য বৈশ্বিক প্রতিযোগিতার আয়োজন ইও বাংলাদেশের
দুই স্বাস্থ্য কর্মকর্তার বিরুদ্ধে দুদকের মামলা
দুই স্বাস্থ্য কর্মকর্তার বিরুদ্ধে দুদকের মামলা
অনুমতি নেই এমন জায়গায় বিএনপিকর্মীদের জড়ো হতে দেবে না ডিএমপি
অনুমতি নেই এমন জায়গায় বিএনপিকর্মীদের জড়ো হতে দেবে না ডিএমপি
সর্বাধিক পঠিত
ছাত্রলীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক পদে আলোচনায় যারা
ছাত্রলীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক পদে আলোচনায় যারা
সিঁড়ি থেকে পড়ে গেছেন পুতিন, অসুস্থতা নিয়ে বাড়ছে জল্পনা
সিঁড়ি থেকে পড়ে গেছেন পুতিন, অসুস্থতা নিয়ে বাড়ছে জল্পনা
নেতানিয়াহুকে সতর্ক করলেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী
নেতানিয়াহুকে সতর্ক করলেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী
বাতিল হচ্ছে বিমানবন্দরের পুরনো সব প্রটোকল পাস, চাইলেই মিলবে না আর
বাতিল হচ্ছে বিমানবন্দরের পুরনো সব প্রটোকল পাস, চাইলেই মিলবে না আর
রিজভীর বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা
ময়লার গাড়ি ভাঙচুর মামলারিজভীর বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা