X
বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪
৩ বৈশাখ ১৪৩১

সাম্রাজ্যবাদী শক্তি রুখে দেওয়ার আহ্বান শিল্পী সমাজের

ঢাবি প্রতিনিধি
১৫ ডিসেম্বর ২০২৩, ১৫:০৮আপডেট : ১৫ ডিসেম্বর ২০২৩, ১৫:০৮

তরুণ প্রজন্মের প্রতি সাম্রাজ্যবাদী শক্তি রুখে দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে সাম্রাজ্যবাদবিরোধী শিল্পী সমাজ। শুক্রবার (১৫ ডিসেম্বর) সকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্র (টিএসসি) পায়রায় আয়োজিত সাম্রাজ্যবাদবিরোধী চিত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তারা এই আহ্বান জানান।

‘দেশ আমার, সিদ্ধান্ত আমার, নির্ভয়ে চলো বাংলাদেশ’-শ্লোগান নিয়ে সাম্রাজ্যবাদবিরোধী চিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন করে সাম্রাজ্যবাদবিরোধী শিল্পী সমাজ। সহযোগিতায় রয়েছে ক্যাম্পেইন অ্যাডভোকেসি প্রোগ্রাম।

অনুষ্ঠানের শুরুতে জাতীয় সংগীত গাওয়া হয়। এরপর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক অধ্যাপক সীতেশ চন্দ্র বাছার মুক্তিযোদ্ধাদের হাতে পতাকা তুলে দেন। তারপর উপস্থিত মুক্তিযোদ্ধাদের পক্ষ থেকে সাম্রাজ্যবাদবিরোধী শিল্পী সমাজের সদস্য সচিব অধ্যাপক নিসার হোসেনের হাতে পতাকা তুলে দেওয়া হয়। এরপর মুক্তিযোদ্ধা জহির উদ্দিন জালাল, আহসানুল হক মিনু, হেলাল তসলিম, দেওয়ান কামাল ও সামসুদ্দোহা উদ্বোধনী প্লেকার্ড সই করে প্রদর্শনীর উদ্বোধন ঘোষণা করেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্যে অধ্যাপক নিসার হোসেন বলেন, বাংলাদেশের শিল্পী সমাজ সব সময়ই অন্যায় অনিয়মের বিরুদ্ধে কাজ করছে। গত কয়েক দশক ধরে তাদের সঙ্গে সাধারণ মানুষের সেই যোগাযোগ নেই। কারণ শিল্পীরা সব সময় প্রতিকূল পরিস্থিতিতে কাজ করে থাকে। আমাদের মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের শক্তি দীর্ঘদিন রাজনৈতিক ক্ষমতায় থাকায় সেই প্রতিকূল পরিস্থিতি নেই। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে সাম্রাজ্যবাদী শক্তি আবারও মাথাচাড়া দিয়ে দেশের শাসন ব্যবস্থাকে অস্থিতিশীল করতে চাচ্ছে। সেই জন্য আমরা আবারও একত্রিত হয়েছি।

তিনি বলেন, আমাদের দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানগুলোও মুক্তিযুদ্ধবিরোধী মানুষের দখলে চলে যাচ্ছে। তাই সব জায়গা থেকে সর্ব মহলের মানুষকে সচেতন করতে হবে। যাতে আমাদের মুক্তিযুদ্ধের জায়গাটাকে জলাঞ্জলি না দেয়।

সাম্রাজ্যবাদবিরোধী চিত্রাঙ্কন

ঢাবি নীল দলের শিক্ষকদের পক্ষ থেকে সংহতি জানিয়ে দেওয়া বক্তব্যে অধ্যাপক ড. সীতেশ চন্দ্র বাছার বলেন, আজ যারা মানবতার কথা বলে, গণতন্ত্রের কথা বলে, তারা সারা বিশ্বের মানুষকে অত্যাচারের পক্ষে কাজ করেছে, সেই ইতিহাস তাদের রয়েছে। তাদের নিজেদের দেশের মানবাধিকারের কথা বলি, তাদের দেশে মত প্রকাশের স্বাধীনতার কথা যদি বলি, তাদের জনগণ যদি তাতে ভোট দেন, তার পার্সেন্টেজ কত হবে তা ভাববার বিষয় রয়েছে। তাদের নিজেদের দেশে মানবাধিকারের প্রশ্ন রয়েছে, সেখানে তারা বহির্বিশ্বে এসে মানবাধিকারের কথা বলে। স্বাধীনতা যুদ্ধে আমাদের ২০ লাখ মানুষ জীবন দিয়েছিল, ২ লাখ মা-বোন ইজ্জত দিয়েছিল, পঁচাত্তর সালে যখন জাতির পিতাকে হত্যা করা হয়েছিল তখন মানবাধিকার কোথায় ছিল?

তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশের দ্বাদশ জাতীয় নির্বাচনের প্রাক্কালে তাদের যেই পদক্ষেপ, তা সত্যিই আমাদের ভাবায়। মার্কিন সাম্রাজ্যবাদের বিরুদ্ধে সব সময়ই সকল দেশের শিল্পী সমাজ এগিয়ে এসেছে। এই উদ্যোগের জন্য দেশের শিল্পী সমাজকে ধন্যবাদও জানান তিনি।

মুক্তিযোদ্ধা জহির উদ্দিন জালাল বলেন, বাংলাদেশ যখন স্বাধীনতার সূর্য দেখছিল, ঠিক তখনই সাম্রাজ্যবাদী শক্তি আমেরিকা সপ্তম নৌ-বহর পাঠিয়েছিল স্বাধীনতাকে বাধাগ্রস্ত করার জন্য। আজ দেখতে পাচ্ছি মার্কিন সাম্রাজ্যবাদ বিভিন্ন দেশে মুসলিমদের ওপর গণহত্যা চালিয়েছে। এখন তারা আবার বাংলাদেশের ওপর চোখ ফেলেছে। আজ সাম্রাজ্যবাদবিরোধী শিল্পী সমাজ যেই চিত্র তুলে ধরেছে, এই রকম চিত্র মুক্তিযুদ্ধের সময় আমাদের অনুপ্রাণিত করতো।

মুক্তিযোদ্ধা আহসানুল হক মিনু বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় বিশ্বের বুকে বাংলাদেশের গর্ব। আমরা যুদ্ধ করেছিলাম ১৯৭১সালে, তোমরা যুদ্ধ করবে এই ২৩ তারিখে। যারা তোমাদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যেতে বাধা প্রদান করে তাদের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াবে তোমরা, দেশের সাধারণ মানুষের পক্ষে দাঁড়াবে তোমরা।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে এতে সংক্ষিপ্ত সাংস্কৃতিক পরিবেশনা করা হয়। এই প্রদর্শনী চলবে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত।

/আরআইজে/
সম্পর্কিত
সাক্ষীতেই আটকে আছে বর্ষবরণে যৌন হয়রানি মামলার বিচার
মঙ্গল শোভাযাত্রা ১৫ মিনিট পেছালো
বর্ষবরণে চারুকলায় শেষ মুহূর্তের ব্যস্ততা
সর্বশেষ খবর
অ্যাটলেটিকোকে বিদায় করে ১১ বছর পর সেমিফাইনালে ডর্টমুন্ড
চ্যাম্পিয়নস লিগঅ্যাটলেটিকোকে বিদায় করে ১১ বছর পর সেমিফাইনালে ডর্টমুন্ড
অবিশ্বাস্য প্রত্যাবর্তনে বার্সাকে কাঁদিয়ে সেমিফাইনালে পিএসজি
চ্যাম্পিয়নস লিগঅবিশ্বাস্য প্রত্যাবর্তনে বার্সাকে কাঁদিয়ে সেমিফাইনালে পিএসজি
গাজীপুরে ব্যাটারি কারখানায় বয়লার বিস্ফোরণে চীনা প্রকৌশলীর মৃত্যু, অগ্নিদগ্ধ ৬
গাজীপুরে ব্যাটারি কারখানায় বয়লার বিস্ফোরণে চীনা প্রকৌশলীর মৃত্যু, অগ্নিদগ্ধ ৬
নারিনকে ছাপিয়ে বাটলার ঝড়ে রাজস্থানের অবিশ্বাস্য জয়
নারিনকে ছাপিয়ে বাটলার ঝড়ে রাজস্থানের অবিশ্বাস্য জয়
সর্বাধিক পঠিত
ঘরে বসে আয়ের প্রলোভন: সবাই সব জেনেও ‘চুপ’
ঘরে বসে আয়ের প্রলোভন: সবাই সব জেনেও ‘চুপ’
উৎসব থমকে যাচ্ছে ‘রূপান্তর’ বিতর্কে, কিন্তু কেন
উৎসব থমকে যাচ্ছে ‘রূপান্তর’ বিতর্কে, কিন্তু কেন
ফরিদপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ গেলো ১৩ জনের
ফরিদপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ গেলো ১৩ জনের
চুরি ও ভেজাল প্রতিরোধে ট্যাংক লরিতে নতুন ব্যবস্থা আসছে
চুরি ও ভেজাল প্রতিরোধে ট্যাংক লরিতে নতুন ব্যবস্থা আসছে
প্রকৃতির লীলাভূমি সিলেটে পর্যটকদের ভিড়
প্রকৃতির লীলাভূমি সিলেটে পর্যটকদের ভিড়