X
বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪
৯ শ্রাবণ ১৪৩১

আত্মহত্যা প্রতিরোধে ফান্ড গড়ে তোলার আহ্বান

ঢাবি প্রতিনিধি
০৭ জুন ২০২৪, ১৯:০৯আপডেট : ০৭ জুন ২০২৪, ২৩:৪০

আত্মহত্যা প্রতিরোধে ‘সুইসাইডাল প্রিভেনশন ফান্ড’ গড়ে তোলার আহ্বান জানিয়েছেন বিশিষ্টজনরা। তারা বলছেন, বিভিন্ন কাজে আর্থিক ব্যয় হচ্ছে। সেখানে বিভিন্ন ফান্ড থেকে টাকাও আসে। কিন্তু মানসিক স্বাস্থ্য সচেতনতা নিয়ে কাজ করতে হলে নিজের পকেট থেকে টাকা খরচ করতে হয়। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাসহ সবাই মানসিক স্বাস্থ্য খাতে ব্যয় করতে বলছে। এই খাতে ব্যয় হোক, সেটা এখন বৈশ্বিক স্লোগান। তাই আমাদের প্রয়োজনে মাটির ব্যাংকে টাকা ফেলে হলেও এই ফান্ড গঠন করতে হবে, এর প্রয়োজনীয়তা নিয়েও প্রচার চালাতে হবে।

শুক্রবার (৭ জুন) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ডাকসু ক্যাফেটেরিয়ায় এক আলোচনা সভায় বক্তারা এ আহ্বান জানান। আত্মহত্যা প্রতিরোধে জনসচেতনতা বাড়াতে কাজ করা সংগঠন ‘এন্টি-সুইসাইডাল স্কোয়াডে’র দ্বিতীয় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে এ সভার আয়োজন করা হয়। এতে অংশ নেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃবিজ্ঞান বিভাগে অধ্যাপক ড. জোবাইদা নাসরীন, ব্রাইটার টুমোরো ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি জয়শ্রী জামান, আঁচল ফাউন্ডেশনের সভাপতি তানসেন রোজ, বাংলা ট্রিবিউনের সিটি এডিটর উদিসা ইসলাম, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মনোবিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক সৈয়দ তানভীর রহমান প্রমুখ।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, অনিয়ম করার কারণে শরীর আমাদের বিপরীতে প্রতিক্রিয়া দেয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মধ্যে ৮০ শতাংশ শিক্ষার্থীদের মাঝে দেখা যায়। বিশ্ববিদ্যালয়ে আসার পর বডি শেমিং, কমিউনিকেশন স্কিলে ঘাটতি, যৌন হয়রানিসহ বিভিন্ন কারণে তারা মানসিকভাবে অসুস্থ হয়ে পড়ে। এছাড়াও রয়েছে পরিবারের প্রত‌্যাশা পূরণের চাপ। এসব চাপকে উপেক্ষা করে পছন্দের ক্যারিয়ারে আমাদের এগিয়ে যেতে হবে। সত্যিকার অর্থে যারা ভালো চান, তাদের পরামর্শ নিয়ে ক্যারিয়ার নির্ধারণ করতে হবে। সুইসাইড প্রতিরোধ কারও একার কাজ নয়, সবার সম্মেলিত কাজ। আপনার আশপাশের বিষণ্ন মানুষটির খোঁজ নেওয়ার মাধ্যমে আপনিই কাজটি করতে পারেন।

অনুষ্ঠানে মনোবিজ্ঞানী সৈয়দ তানভীর রহমান বলেন, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের কারণে মানুষ আরও বেশি হতাশায় ভুগছে। কারণ সে সেখানে দেখছে সবাই সুখী, শুধু সে নিজেই সমস্যায় রয়েছে। এ থেকে উত্তরণের জন্য তরুণদের নিয়ে গ্রুপ আলোচনা করা, সেখানে সে জানতে পারে, সে নিজে একা নয়, তার এই সমস্যা আরো অনেকেরই রয়েছে। যার ফলে সে অন্যভাবে ভাবতে শেখে। মানসিক স্বাস্থ্যকে বাদ দিয়ে কখনোই শারীরিক স্বাস্থ্য ভালো হবে না।

/ইউএস/
সম্পর্কিত
শিক্ষার্থীদের ধন্যবাদ জানিয়েছে ঢাবি কর্তৃপক্ষ
কঠোর হবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী, চলবে গ্রেফতার অভিযানও
কোটা আন্দোলন: সাংবাদিক ও পুলিশসহ ৫০ জন ঢামেকে চিকিৎসা নিয়েছেন
সর্বশেষ খবর
কূটনীতিকরা স্তম্ভিত, বলেছেন বাংলাদেশের পাশে আছেন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী
কূটনীতিকরা স্তম্ভিত, বলেছেন বাংলাদেশের পাশে আছেন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী
সংঘাতে ডিএনসিসির ২০৫ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি
সংঘাতে ডিএনসিসির ২০৫ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি
নাটকীয় হারে আর্জেন্টিনার অলিম্পিক যাত্রা শুরু
নাটকীয় হারে আর্জেন্টিনার অলিম্পিক যাত্রা শুরু
‌‌‘আন্দোলনকে ঢাল হিসেবে নিয়ে নারকীয় ধ্বংসযজ্ঞ চালিয়েছে বিএনপি-জামায়াত’
‌‌‘আন্দোলনকে ঢাল হিসেবে নিয়ে নারকীয় ধ্বংসযজ্ঞ চালিয়েছে বিএনপি-জামায়াত’
সর্বাধিক পঠিত
ধারণা ছিল একটা আঘাত আসবে: প্রধানমন্ত্রী
ধারণা ছিল একটা আঘাত আসবে: প্রধানমন্ত্রী
চাকরিতে কোটা: প্রজ্ঞাপনে যা আছে
চাকরিতে কোটা: প্রজ্ঞাপনে যা আছে
কোটা নিয়ে রায় ঘোষণার আগে যা বলেছিলেন প্রধান বিচারপতি
কোটা নিয়ে রায় ঘোষণার আগে যা বলেছিলেন প্রধান বিচারপতি
কোটা আন্দোলন: প্রধানমন্ত্রীর বর্ণনায় ক্ষয়ক্ষতির চিত্র 
কোটা আন্দোলন: প্রধানমন্ত্রীর বর্ণনায় ক্ষয়ক্ষতির চিত্র 
কারফিউ বা সান্ধ্য আইন কী 
কারফিউ বা সান্ধ্য আইন কী