X
বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪
৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

কদমতলীতে মাদকের আস্তানায় অভিযান, গ্রেফতার ১৪

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
১১ জুন ২০২৪, ০৩:০৪আপডেট : ১১ জুন ২০২৪, ০৩:০৪

রাজধানীর কদমতলী এলাকার মাদকের বিভিন্ন আস্তানায় অভিযান চালিয়ে মাদক করবারি জরিনার প্রধান সহযোগীসহ চার জনকে গ্রেফতার করা হয়।

রবিবার (৯ জুন) মাদক নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর (ডিএনসি) ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি) দিনব্যাপী এ সাঁড়াশি অভিযান চালায়। এ সময় মাদক সেবনের অভিযোগে ১০ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে অর্থদণ্ড ও কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

সোমবার (১০ জুন) রাতে ডিএনসির এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়।

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের ঢাকা মেট্রো (দক্ষিণ) কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক সুব্রত সরকার শুভ জানান, মাদক নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের ঢাকা মেট্রো (দক্ষিণ) কার্যালয়ের উপপরিচালক মোহাম্মদ মামুন ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জাহাঙ্গীর আলমের নেতৃত্বে ডিএনসির একাধিক টেম কদমতলী এলাকার বিভিন্ন মাদক স্পটে অভিযান চালানো হয়।

এ সময় মাদক কারবারি ও একাধিক মামলার আসামি জরিনা বেগম ও তার মেয়ে তানিয়া পালিয়ে গেলেও চার জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তারা হলো নদী (৫০), ফরিদা (৫৫), কুলসুম বেগম (৪০) ও রাবেয়া খাতুন ৫৫)। এ সময় তাদের কাছ থেকে ৫০ পিস ইয়াবা, ২৫০ গ্রাম গাঁজা এবং মাদক বিক্রির ৫০ হাজার টাকা জব্দ করা হয়। পাশাপাশি ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে তাদের বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড ও অর্থদণ্ড দেওয়া হয়।

তিনি আরও বলেন, কদমতলীতে কুখ্যাত মাদক কারবারি জরিনার আস্তানায় অভিযান চালানোর সময় তার দুই ছেলে রাব্বি (২৫) ও মো. রোহান নেতৃত্বে (২২), ও মেয়ে তানিয়ার (২৪) নেতৃত্বে ৭০ থেকে ৭৫ জন নারী ও পুরষ ইটপাথর ও লাঠিসোঁটা নিয়ে অভিযানিক দলের সদস্যদের ওপর হামলা চালায়। এতে ডিএনসির সিপাই হাফিজুর রহমান গুরুতর আহত হয় এবং জরিনা আক্তারকে (৫৬) তারা ছিনিয়ে নিয়ে যায়।

পলাতক মাকদ কারবারিদের গ্রেফতারে অভিযান চলমান রয়েছে বলেও জানান ডিএনসির এই কর্মকর্তা।

/এবি/এনএআর/
সম্পর্কিত
কাপাসিয়ায় আসামি ছিনিয়ে নেওয়ায় ইউপি চেয়ারম্যান গ্রেফতার
অটোরিকশা চালকের মামলায় স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা কারাগারে 
যশোরে শিশু ধর্ষণের মামলায় দুজন গ্রেফতার
সর্বশেষ খবর
নিরাপত্তা হুমকির মুখে পরমাণু অস্ত্রভাণ্ডারকে উন্নত করছে ন্যাটো
নিরাপত্তা হুমকির মুখে পরমাণু অস্ত্রভাণ্ডারকে উন্নত করছে ন্যাটো
‘সুপার এইট’ মিশনে বাংলাদেশের সামনে এবার ডাচরা
‘সুপার এইট’ মিশনে বাংলাদেশের সামনে এবার ডাচরা
বাংলাদেশে ১০ শিশুর মধ্যে ৯ জনই পারিবারিক সহিংসতার শিকার: ইউনিসেফ
বাংলাদেশে ১০ শিশুর মধ্যে ৯ জনই পারিবারিক সহিংসতার শিকার: ইউনিসেফ
ঈদসংখ্যা
ঈদসংখ্যা
সর্বাধিক পঠিত
ড. ইউনূসের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হতে পারে: দুদক পিপি
ড. ইউনূসের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হতে পারে: দুদক পিপি
অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা, আমরা বাংলাদেশের সার্বভৌমত্বকে সম্মান করি: ডোনাল্ড লু
অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা, আমরা বাংলাদেশের সার্বভৌমত্বকে সম্মান করি: ডোনাল্ড লু
কাঁপছে সেন্টমার্টিন, আকাশে উড়ছে যুদ্ধবিমান
কাঁপছে সেন্টমার্টিন, আকাশে উড়ছে যুদ্ধবিমান
‘কমিশনার ১৭০ কোটি টাকা মাফ করে দেন, এনবিআরের চেয়ারম্যান কোথায়?’
‘কমিশনার ১৭০ কোটি টাকা মাফ করে দেন, এনবিআরের চেয়ারম্যান কোথায়?’
সীমান্তে গুলি চালাতে পারে বিএসএফ, সতর্ক করে বিজিবির মাইকিং
সীমান্তে গুলি চালাতে পারে বিএসএফ, সতর্ক করে বিজিবির মাইকিং