X
বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪
৪ বৈশাখ ১৪৩১

‘নদীকে আগের অবস্থায় ফেরাতে প্রয়োজন সচেতনতা’

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
২৬ নভেম্বর ২০২২, ১৯:৫৭আপডেট : ২৬ নভেম্বর ২০২২, ১৯:৫৭

নদীর নিজস্ব গতি আছে। ব্যক্তি বা গোষ্ঠী স্বার্থে নদী দখল ও দূষণ করে এর প্রবাহে বাধা দেওয়া যাবে না। ঢাকা শহরের বর্জ্যের কারণে বালু, দেবধোলাই, নড়াই নদী ধ্বংস হয়ে গেছে। নদীকে আবার জনবসতির সম্মুখভাগে ফিরিয়ে আনতে প্রয়োজন জনসচেতনতা, সরকারের কঠোর উদ্যোগ। 

শনিবার (২৬ নভেম্বর) ওয়াটারকিপার্স বাংলাদেশ কনসোর্টিয়াম এবং বারোগ্রাম বালু নদী মোর্চার যৌথ আয়োজনে ‘বালু নদী তীরবর্তী ইটাখোলা, ত্রিমোহনী, খিলগাঁও এলাকায় দূষণমুক্ত নদীর দাবীতে বালু নদী উৎসব-২০২২’-এর দিনব্যাপী কর্মসূচী অনুষ্ঠিত হয়েছে। অনুষ্ঠানে বক্তারা এসব কথা বলেন।

এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন সুশাসনের জন্য নাগরিকের (সুজন) প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক ড. বদিউল আলম মজুমদার, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মো. হুমায়ূন কবীর, ঢাকা ওয়াসার উপব্যবস্থাপনা পরিচালক এ কে এম শহীদ উদ্দীন। ওয়াটারকিপার্স বাংলাদেশ কনসোর্টিয়ামের সমন্বয়ক শরীফ জামিলের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ‘নিজেরা করি’র সমন্বয়ক খুশি কবির। অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. আকবর হোসেন (৭৫ নম্বর ওয়ার্ড), মো. আনিসুর রহমান (২ নম্বর ওয়ার্ড), মো. আজিজুল হক (৭৪ নম্বর ওয়ার্ড), কাউন্টার পার্ট ইন্টারন্যাশনালের চিফ অব পার্টি মাইনুদ্দিন আহমেদ, রিভার অ্যান্ড ডেল্টা রিসার্চ সেন্টারের প্রতিষ্ঠাতা মোহাম্মাদ এজাজ, স্ট্যামফোর্ড বিশ্ববিদালয়ের বায়ুমণ্ডলীয় দূষণ অধ্যয়ন কেন্দ্রের (ক্যাপস) চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. আহমদ কামরুজ্জামান মজুমদার।

শরীফ জামিল বলেন, ‘বালু নদীসহ ঢাকার চারপাশের নদীগুলো দখল ও দূষণের কারণে দিন দিন ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে। নদী হয়ে পড়েছে জনবসতির পেছনের অংশ। নদীকে আবার জনবসতির সম্মুখভাগে ফিরিয়ে আনতে এই বালু নদী উৎসবের আয়োজন করা।’

বারোগ্রাম বালু নদী মোর্চার আহ্বায়ক মো. সুরুজ মিয়া বলেন, ‘ঢাকা শহরের বর্জ্যের কারণে বালু, দেবধোলাই, নড়াই নদী ধ্বংস হয়ে গেছে। আমরা এই নদীগুলোকে দূষণমুক্ত করে এবং নদী-সম্পদ রক্ষার প্রত্যয়ে দূষণমুক্ত নদীর দাবীতে আন্দোলন চালিয়ে যাবো।’

বদিউল আলম মজুমদার বলেন, ‘পরিবেশ নিয়ে সচেতন এবং বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালনা করে এমন সংগঠনগুলোর কারণে আজ পরিবেশ আন্দোলন বৈঠকখানার আলোচনা থেকে মাঠ পর্যায়ের কার্যক্রমে পরিণত হয়েছে। দূষণমুক্ত পরিবেশ, নদী ও বায়ু জনগণের প্রচেষ্টা এবং সামাজিক আন্দোলনের মাধ্যমে অর্জিত হবে।’

হুমায়ূন কবির বলেন, ‘জনপ্রতিনিধিদের দায়িত্ব হলো দূষণ ও দখলের বিরুদ্ধে সম্মিলিতভাবে প্রতিরোধ গড়ে তোলা। দলমত নির্বিশেষে সবাইকে নদী দূষণ ও দখল বন্ধে একত্রে কাজ করতে হবে। বর্তমান সরকারের গৃহীত যেকোনও প্রকল্প যেন নদী, খাল, বিল ও পরিবেশের ক্ষতি না করে সেদিকে খেয়াল রেখে প্রকল্প বাস্তবায়ন করতে হবে।’

খুশি কবির বলেন, ‘নদীর নিজস্ব গতি আছে। ব্যক্তি বা গোষ্ঠীর স্বার্থে নদীকে দখল ও দূষণ করে এর প্রবাহে বাধা দেওয়া যাবে না। পরিবেশ রক্ষায় সরকারের নীতি প্রণয়ন করা উচিত।’

 

/এসএনএস/আরকে/
সম্পর্কিত
ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরে নৌকাডুবিতে নিহত ৪
নদী রক্ষায় সামাজিক সম্পৃক্ততা বাড়াতে হবে: সংলাপে বক্তারা
উপকূলীয় অঞ্চল সমুদ্রে বিলীন হলে ঢাকার চারপাশে লবণাক্ততা বাড়বে
সর্বশেষ খবর
গলায় কই মাছ আটকে কৃষকের মৃত্যু
গলায় কই মাছ আটকে কৃষকের মৃত্যু
চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচন: কোন পদে লড়ছেন কে
চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচন: কোন পদে লড়ছেন কে
মেট্রোরেল চলাচলে আসতে পারে নতুন সূচি
মেট্রোরেল চলাচলে আসতে পারে নতুন সূচি
দাঁড়িয়ে থাকা ট্রাকে ধাক্কা লেগে মোটরসাইকেল আরোহী মামা-ভাগনে নিহত
দাঁড়িয়ে থাকা ট্রাকে ধাক্কা লেগে মোটরসাইকেল আরোহী মামা-ভাগনে নিহত
সর্বাধিক পঠিত
‘ভুয়া ৮ হাজার জনকে মুক্তিযোদ্ধার তালিকা থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে’
‘ভুয়া ৮ হাজার জনকে মুক্তিযোদ্ধার তালিকা থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে’
হজ নিয়ে শঙ্কা, ধর্ম মন্ত্রণালয়কে ‍দুষছে হাব
হজ নিয়ে শঙ্কা, ধর্ম মন্ত্রণালয়কে ‍দুষছে হাব
এএসপি বললেন ‌‘মদ নয়, রাতের খাবার খেতে গিয়েছিলাম’
রেস্তোরাঁয় ‘মদ না পেয়ে’ হামলার অভিযোগএএসপি বললেন ‌‘মদ নয়, রাতের খাবার খেতে গিয়েছিলাম’
এবার নায়িকার দেশে ‘রাজকুমার’ 
এবার নায়িকার দেশে ‘রাজকুমার’ 
‘আমি এএসপির বউ, মদ না দিলে রেস্তোরাঁ বন্ধ করে দেবো’ বলে হামলা, আহত ৫
‘আমি এএসপির বউ, মদ না দিলে রেস্তোরাঁ বন্ধ করে দেবো’ বলে হামলা, আহত ৫