আত্মসাতের মামলায় ঢাকা ব্যাংকের কর্মকর্তাসহ ৩ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র অনুমোদন

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৬:৩২, জানুয়ারি ২১, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৬:৩৪, জানুয়ারি ২১, ২০২০




দুদক লোগোঢাকা ব্যাংকের ফেনী শাখার সাত কোটি পাঁচ লাখ ৬৯ হাজার টাকা আত্মসাতের মামলায় ব্যাংকটির দুই কর্মকর্তাসহ তিন জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র অনুমোদন দিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। মঙ্গলবার (২১ জানুয়ারি) কমিশনের সভায় অভিযোগপত্র অনুমোদন দেওয়া হয়। শিগগিরই অভিযোগপত্র আদালতে দাখিল করা হবে বলে জানায় দুদকের জনসংযোগ বিভাগ।



আসামিরা হলেন ঢাকা ব্যাংক ফেনী শাখার সাবেক প্রিন্সিপাল অফিসার ও ক্রেডিট ইনচার্জ গোলাম সাঈদ রাশেব, সাবেক ক্যাশ ইনচার্জ আব্দুস সামাদ ও ফেনীর ছাগলনাইয়া থানার দক্ষিণ বল্লভপুরের বাসিন্দা আজিম খন্দকার।

দুদক জানায়, এ বিষয়ে মামলায় ২০১৭ সালের ১৯ মার্চ। ফেনী থানায় দায়ের হওয়া মামলার নম্বর-৩৩।

অনুমোদিত অভিযোগপত্রে বলা হয়েছে, আসামি গোলাম সাঈদ সাত বছর ৯ মাস ঢাকা ব্যাংকের ফেনী শাখায় কর্মরত ছিলেন। এ সময়ে তিনি গ্রাহকদের বিশ্বাস অর্জন করেন। ব্যাংকের ক্রেডিট ইনচার্জ ও এলসি খোলার দায়িত্বে থাকায় গ্রাহকদের বিভিন্ন কাগজপত্র তৈরি ও সংরক্ষণের দায়িত্বও ছিল তার। ক্রেডিট অফিসার হিসেবে দায়িত্ব পালনের সময়ে প্রচলিত রীতি অনুযায়ী বিভিন্ন ঋণ গ্রহীতার কাছ থেকে প্রতিটি ঋণের বিপরীতে কিছু সই চেক লোন ডকুমেন্টের সঙ্গে সংরক্ষণ করতেন তিনি। এছাড়া গ্রাহকদের সঙ্গে সুসম্পর্ক থাকায় তিনি তাদের কাছ থেকে বিভিন্ন সময়ে ঋণ হিসাব সমন্বয়ের কথা বলে অগ্রিম চেক নিতেন। পরে তিনি তার মেকার আইডি ব্যবহার করে যেসব গ্রাহকের চেক তার কাছে ছিল তাদের হিসাবে অন্য গ্রাহকের টাকা স্থানান্তর করে সাত কোটি পাঁচ লাখ ৬৯ হাজার আত্মসাৎ করেন। এ কাজে তাকে সহায়তা করেন আব্দুস সামাদ ও আজিম খন্দকার। এ ঘটনায় দণ্ডবিধির ৪০৯/৪২০/৪৬৭/৪৬৮/৪৭১/১০৯ ধারাসহ ১৯৪৭ সালের দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনের ৫(২) ধারায় মামলা হয়। তদন্তকালে অপরাধ প্রমাণিত হওয়ায় আসমিদের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র অনুমোদন করা হয়েছে।

দুদক জানায়, মামলার তদন্ত কর্মকর্তা দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয় নোয়াখালীর উপপরিচালক জাহাঙ্গীর আলম।

/ডিএস/টিটি/

লাইভ

টপ