প্রণোদনা প্যাকেজে সাংবাদিকদের সুরক্ষায় দিকনির্দেশনা না থাকায় ডিইউজের উদ্বেগ

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২২:৫৮, এপ্রিল ০৫, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ০০:২২, এপ্রিল ০৬, ২০২০

ডিইউজেপ্রধানমন্ত্রী ঘোষিত প্রণোদনা প্যাকেজে গণমাধ্যম কর্মীদের আর্থিক নিরাপত্তায় সুনির্দিষ্ট কোনও দিকনির্দেশনা না থাকায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন (ডিইউজে)-এর একাংশের সভাপতি কুদ্দুস আফ্রাদ ও সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ আলম খান তপু। রবিবার (৫ এপ্রিল) গণমাধ্যমে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ উদ্বেগ জানান তারা। একইসঙ্গে বেতন ভাতা পরিশোধ না করে করোনাভাইরাসের কারণে মানবজমিন, আলোকিত বাংলাদেশ ও দৈনিক জনতাসহ বেশ কয়েকটি দৈনিক পত্রিকার প্রিন্ট ভার্সন বন্ধ করে দেওয়াতেও উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন তারা।

বিবৃতিতে তারা বলেন, যে গণমাধ্যমের কল্যাণে দেশবাসীর সঙ্গে প্রতিনিয়ত প্রধানমন্ত্রীসহ সরকার ও প্রশাসনের কর্তারা যোগাযোগ করে চলেছেন, এই কঠিন জীবণ-মরণের দুর্যোগকালেও তাদের বিষয়ে আলাদা আর্থিক সুরক্ষার কোনও তথ্য না থাকায় সাংবাদিক সমাজ ব্যথিত হয়েছেন।

এর আগে শনিবার (৪ এপ্রিল) বিকালে ডিইউজের নির্বাহী কমিটির ভার্চুয়াল সভায় মানবজমিন, আলোকিত বাংলাদেশ ও দৈনিক জনতাসহ বেশ কয়েকটি দৈনিক পত্রিকার প্রিন্ট ভার্সন বন্ধ রাখাসহ সরকারি ছুটি চলাকালে কর্তব্যরত সাংবাদিকদের সঙ্গে কোথাও কোথাও পুলিশের দুর্ব্যবহার এবং বিভিন্ন গণমাধ্যমে সাংবাদিকদের স্বাস্থ্য সুরক্ষার জন্যে কোনও ধরনের উদ্যোগ না নেওয়ায় ডিইউজে নেতারা উদ্বেগ জানান।

বিজ্ঞপ্তিতে সংগঠনের সভাপতি কুদ্দুস আফ্রাদ বলেন, করোনা সংক্রমণের মাঝে অনেক গণমাধ্যম সাংবাদিক ছাঁটাই করেছে, যা শ্রম আইন ও মানবিক চেতনার পরিপন্থী। এসব বিষয়ে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণের জন্যে সরকারের দ্রুত হস্তক্ষেপ কামনা করেন তিনি।

করোনাভাইরাসের মতো কঠিন দুর্যোগের মধ্যেও অনেক গণমাধ্যম প্রতিষ্ঠান সাংবাদিকদের স্বাস্থ্য সুরক্ষার জন্যে ন্যূনতম উদ্যোগ গ্রহণ করেনি। ইতোমধ্যে করোনায় আক্রান্ত হয়ে দুই ফটোসাংবাদিক চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এ পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্য সুরক্ষার জন্যে প্রয়াজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের জোরালো দাবি জানান ডিইউজের সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ আলম খান তপু ।

সভায় বিভিন্ন গণমাধ্যমে বেতন-ভাতা বকেয়া থাকায় উদ্বেগ প্রকাশ করে দ্রুত এসব সাংবাদিকের বকেয়া পরিশোধের আহ্বান জানানো হয়। সাংবাদিকদের নিরাপদে কর্মস্থলে আনা নেওয়ার জন্যে পরিবহন সুবিধা নিশ্চিতেরও দাবি জানানো হয়।

ডিইউজের সভাপতি কুদ্দুস আফ্রাদের সভাপতিত্বে এই ভার্চুয়াল সভায় ডিইউজে নেতৃবৃন্দসহ বিভিন্ন ইউনিটের প্রতিনিধিরা অংশ নেন।

/টিএন/এমওএফ/

লাইভ

টপ