ফ্ল্যাটের গ্রিল কেটে চুরি, ‘অভিনেতা’ গ্রেফতার

Send
রাফসান জানি
প্রকাশিত : ২২:৩১, এপ্রিল ১০, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২২:৪৬, এপ্রিল ১০, ২০২০

অভিনেতা জিসানরাজধানীর সেন্ট্রাল রোডের একটি ফ্ল্যাটের গ্রিল কেটে সোনার গহনা, নগদ টাকা এবং ল্যাপটপ চুরির ঘটনায় চার জনকে গ্রেফতার করেছে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) সদস্যরা। চক্রের মূল হোতা মো. হাসান ওরফে জিসান। গ্রেফতার হওয়া তার সহযোগীরা হলেন মো. আনোয়ার হোসেন, ভ্যান চালক মো. আব্দুল আলীম ও চোরাই সোনার ক্রেতা মো. লিখন শেখ। জানা গেছে গ্রেফতার জিসান কয়েকটি নাটক ও টেলিফিল্মে অভিনয় করেছেন।

বৃহস্পতিবার (৯ এপ্রিল) রাজধানীর ধানমন্ডি, হাজারীবাগ এবং লালবাগ এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়। জিসানের বাসা থেকে চুরি যাওয়া চেইন, আংটিসহ কিছু সোনার গহনা, নগদ ২০ হাজার টাকা এবং চুরি যাওয়া ল্যাপটপ উদ্ধার করা হয়।

পরে শুক্রবার (১০ এপ্রিল) তাদের আদালতে উপস্থিত করা হলে, দু’জন স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। পুলিশের পক্ষ থেকে রিমান্ড না চাওয়ায় প্রত্যেককে কারাগারে পাঠান আদালত।

গত ৩১ মার্চ ভোরে সেন্ট্রাল রোডের একটি ফ্ল্যাটের (বাসিন্দারা ফ্ল্যাটে ছিলেন না) গ্রিল কেটে সোনার গহনা, নগদ টাকা এবং ল্যাপটপ চুরির ঘটনায় দায়ের করা মামলায় তাদের গ্রেফতার করে গোয়েন্দা পুলিশ। প্রাথমিক পর্যায়ে সিসিটিভি ফুটেজ বিশ্লেষণ করে দু’জনকে শনাক্ত করা হয়। পরবর্তীতে অভিযান চালিয়ে চার জনকে গ্রেফতার করা হয়।

গোয়েন্দা পুলিশ দক্ষিণ বিভাগের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার শামসুল আরেফিন বলেন, এই চোরচক্রের মূল হোতা মো. হাসান (জিসান)। তিনি নিজেকে অভিনয় শিল্পী পরিচয় দিয়েছেন। কয়েকটি নাটক এবং টেলিফিল্মে সে অভিনয় করেছে। তার একটি ইউটিউব চ্যানেলও আছে। যার নাম Bayati bari (বয়াতি বাড়ি)।

ইউটিউব চ্যানেলটিতে দেখা গেছে, দুটি ভিডিও রয়েছে। একটি নাটকের ক্লিপ। নাটকের নাম ‘অসমাপ্ত’। নাজমুল হক বাপ্পী পরিচালিত নাটকে জিসানকে অভিনয় করতে দেখা গেছে। এছাড়া ইউটিউব চ্যানেলে একটি শর্ট ফিল্ম রয়েছে। নাম ‘শিকার’। শর্ট ফিল্মটিতে অভিনয় ও প্রযোজনা করেছেন জিসান নিজেই।

জিসান ও তার দুই সহযোগীঅতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার শামসুল আরেফিন জানান, সিসিটিভি ফুটেজ দেখে শনাক্তের পর প্রথমে জিসানকে গ্রেফতার করা হয়। পরবর্তীতে দুই সহযোগী মো. আনোয়ার হোসেন এবং ভ্যান চালক মো. আব্দুল আলীমকে গ্রেফতার করা হয়। চুরি করা সোনা সে আজিমপুরের একজন এবং নারায়ণগঞ্জের একজনের কাছে বিক্রি করে বলে জানায়। পরবর্তী সময় চোরাই সোনার ক্রেতা মো. লিখন শেখকে তার আজিমপুরের বাসা থেকে গ্রেফতার করা হয় এবং তার বাসা থেকে একটি চুরি যাওয়া আংটি এবং চুড়ির ভাঙা অংশ উদ্ধার করে জব্দ করা হয়।

তদন্ত সংশ্লিষ্টরা জানান, অভিনেতা হিসেবে পরিচয় দেওয়া জিসান সেন্ট্রাল রোডের বাসায় গত ৩১ মার্চ চুরি করার পর আরও একবার ওই বাসার অন্য ফ্ল্যাটে চুরি করতে গিয়েছিলেন। কিন্তু লোকজন থাকায় চুরি করতে পারেননি। এরপর বাংলা মোটরের একটি বাসায় চুরি করতে গিয়ে নিচে পড়ে যান জিসান। পড়ে গিয়ে কোমরে ব্যাথা পান। বাংলা মোটরেও চুরি করতে পারেননি।

এ পর্যন্ত কতগুলো বাসায় চুরি করেছে এ বিষয়ে সঠিক তথ্য না দিলেও ধানমন্ডি থানায় ২০১৪ সালে জিসানের বিরুদ্ধে একটি চুরির মামলা হয়েছিল বলে জানিয়েছেন ডিবি দক্ষিণের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার শামসুল আরেফিন। এই চক্রের সঙ্গে জড়িত বাকিদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলে জানান তিনি।

/টিটি/

সম্পর্কিত

লাইভ

টপ