দুবাই বলে সৌদিতে পাঠানোর প্রতারণায় গ্রেফতার ২

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ০১:৪৮, সেপ্টেম্বর ১৬, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ০১:৫১, সেপ্টেম্বর ১৬, ২০২০

গ্রেফতারের প্রতীকী ছবিএক তরুণীকে দুবাইয়ের একটি অভিজাত হাসপাতালে আয়ার চাকরি দেওয়ার কথা বলে সৌদিতে পাঠায় ফাতেমা ওভারসিস নামের একটি প্রতিষ্ঠান। এরপর ওই তরুণীকে একটি সৌদির বাসায় গৃহকর্মীর কাজ দেওয়া হয়। কিন্তু কিছুদিন পরই তার ওপর অকথ্য নির্যাতন নেমে আসে। শুধু তাই নয়, কয়েক মাস কাজ করলেও তাকে কোনও বেতন ও টাকা পয়সা দেয়া হয়নি।

ভুক্তভোগী তরুণীর অভিযোগের প্রেক্ষিতে মঙ্গলবার( ১৫ সেপ্টেম্বর) বিকেলে রাজধানীর বনানীর ১০ নম্বর রোডে থাকা প্রতিষ্ঠানটিতে অভিযান চালিয়েছে র‌্যাব।

অভিযানে নেতৃত্ব দেন র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পলাশ কুমার বসু। এসময় অ্যাজেন্সিটির মালিক কবির হোসেন ও সহযোগী সোহাগকে আটক করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে মানবপাচার আইনে মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পলাশ কুমার বসু জানান, এজেন্সিটি মুলত ওই তরুণীর সঙ্গে প্রতারণা করেছে। তারা তাকে প্রথমে দুবাই পাঠানোর কথা বলেছিল। শর্ত ছিল তাকে সেখানে একটি হাসপাতালে ভাল কাজ দেবে। কিন্তু  বিমানবন্দরে নেওয়ার পর তাকে জানানো হয় সৌদিতে পাঠানো হচ্ছে। বাধ্য হয়ে ওই তরুণীও সৌদিতে যান এবং সেখানে গৃহকর্মীর কাজ নেন। কিন্তু যে বাসাটিতে কাজ দেয়া হয়েছিল সেখানে তাকে নানাভাবে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করা হয়। শুধু তাই নয়, কয়েক মাস কাজ করানো হলেও কোনও বেতন দেওয়া হয়নি। তাকে মাঝে মাঝে কোন খাবারও দেয়া হতো না।

তরুণীটির পরিবারের অভিযোগের প্রেক্ষিতে ফাতেমা ওভারসিসে অভিযান চালানো হয় এবং ২ জনকে আটক করা হয়। তাদের বিরুদ্ধে মানবপাচার আইনে মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

 

/আরজে/এফএএন/

লাইভ

টপ