X
বুধবার, ২৯ মে ২০২৪
১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

‘আমাদের জন্য যারা বেইমান, ভারতের তারা বন্ধু’

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
১৯ এপ্রিল ২০২৪, ২১:১১আপডেট : ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ২৩:০৫

রাষ্ট্র সংস্কার আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক অ্যাডভোকেট হাসনাত কাইয়ুম বলেছেন, আমাদের জন্য ভারতের রাজনীতি ও পররাষ্ট্রনীতির সবচেয়ে বড় ক্ষতিকর দিক হচ্ছে, আমাদের জন্য যারা বেইমান, ভারতের জন্য তারা বন্ধু।

শুক্রবার (১৯ এপ্রিল) জাতীয় প্রেস ক্লাবের তফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়া হলে রাষ্ট্র সংস্কার আন্দোলন আয়োজিত ‘আগ্রাসন-আধিপত্যবাদ মোকাবিলায় রাষ্ট্র সংস্কারের রাজনীতি’ শীর্ষক আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন তিনি।

ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের সম্পর্কের কথা তুলে ধরে কাইয়ুম বলেন, বাংলাদেশের প্রায়রিটি হবে, ভারত আমার এখানে আসতে চায় আসবে; আমার ওপর দিয়ে যেতে যায় যাবে। কারণ আমার প্রায়রিটি তো আমার দেশ, আমার বাণিজ্য, আমার মানুষের সুবিধা, আমার যোগাযোগ। কিন্তু আমাদের দেশে যারা সরকার হিসেবে এসেছে, তারা প্রায়রিটিকে ভারতের জায়গায় নিয়ে যায়।

তিনি বলেন, ভারত বন্ধুত্বের নামে এই দেশের মানুষের সঙ্গে বেইমানি করে। তারা (ভারত) বেইমানকে এই দেশে ক্ষমতায় রাখতে পছন্দ করে। ভারতের রাজনীতি ও পররাষ্ট্রনীতির সবচেয়ে বড় ক্ষতিকর দিক হচ্ছে, আমাদের জন্য যারা বেইমান, ভারতের জন্য তারা বন্ধু। ভারতের জনগণ আমাদের বন্ধু, কিন্তু ভারত রাষ্ট্র আমাদের বন্ধু নয়। ভারত তার জনগণের কাছেও বন্ধুরাষ্ট্র নয়।’

বাংলাদেশের রাষ্ট্রক্ষমতায় যারা আছে, তাদের ক্ষমতায় থাকার কোনও অধিকার নেই মন্তব্য করে হাসনাত কাইয়ুম বলেন, বাংলাদেশের জনগণের ইচ্ছার বিরুদ্ধে তারা ক্ষমতায় থাকতে পারে অন্যের সাহায্য নিয়ে। কারণ তাদের ক্ষমতাকাঠামোর মধ্যে কোনও জবাবদিহি নেই, গণতন্ত্র নেই। এ জন্যই বাংলাদেশকে সংস্কার করে একটা গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র করতে হবে। জনগণের কাছে জবাবদিহি ও বাধ্যগত সরকার করতে হবে।

তিনি আরও বলেন, ভারতের বিজেপি যখন হিন্দুত্ববাদের কথা বলে, তখন সে হিন্দুদের বিরুদ্ধে, হিন্দু ধর্মের বিরুদ্ধে দাঁড়িয়ে কথা বলে। কিন্তু সে যেই হাতিয়ার ব্যবহার করে, সেটা হচ্ছে হিন্দুত্ববাদ। বাংলাদেশে যেমন যারা মুক্তিযুদ্ধের চেতনার কথা বলে, তারা আসলে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের কোনও মানুষ না। তারা মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে ব্যবহার করে। অতএব, এই ব্যাপারগুলো পরিষ্কার বোঝা দরকার।

রাষ্ট্র সংস্কার আন্দোলনের রাজনৈতিক সমন্বয়ক ফরিদুল হক বলেন, ভারত আমাদের ধর্মের নামে, জাতির নামে ভাগ করতে চায়। আমরা যদি ঐক্যবদ্ধ থাকি, তাহলে আমাদের ভাগ করতে পারবে না। 

দলের নির্বাহী কমিটির সদস্য প্রীতম দাশ বলেন, আমরা অর্থনৈতিকভাবে কাজ করতে চাই। কিন্তু ভারত ক্রমাগত আমাদের বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে। ব্রিটিশরা যখন এমন করতো, তখন জনগণ সেটা বুঝতো। কিন্তু ভারতের আগ্রাসন মানুষের চোখে পড়ছে না। না পড়ার কারণ হচ্ছে আমাদের শাসকগোষ্ঠী।

সভায় লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন রাষ্ট্র সংস্কার আন্দোলনের সাংগঠনিক সমন্বয়ক ইমরান ইমন। এ ছাড়া আরও উপস্থিত ছিলেন মিডিয়া ও প্রচার সমন্বয়ক সৈয়দ হাসিব উদ্দিন হোসেন প্রমুখ।

/এএজে/এনএআর/এমওএফ/
সম্পর্কিত
‘তরুণদের সুরক্ষায় তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন বৈশ্বিক মানদণ্ডে রূপান্তরের দাবি’
খাবারে সিগারেট পাওয়ার অভিযোগে হলগেটে তালা দিয়ে ভাঙচুর
খাদ্যমন্ত্রীর সঙ্গে ভারতীয় রাষ্ট্রদূতের বৈঠক
সর্বশেষ খবর
পানির দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদ মান্নার
পানির দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদ মান্নার
উৎসবমুখর পরিবেশে নির্বাচন হয়েছে: ওবায়দুল কাদের
উৎসবমুখর পরিবেশে নির্বাচন হয়েছে: ওবায়দুল কাদের
শেষ ম্যাচে মোরসালিনের দারুণ গোল
শেষ ম্যাচে মোরসালিনের দারুণ গোল
তাপপ্রবাহ স্বাস্থ্যব্যবস্থার ওপর মারাত্মক চাপ সৃষ্টি করছে: পরিবেশমন্ত্রী
তাপপ্রবাহ স্বাস্থ্যব্যবস্থার ওপর মারাত্মক চাপ সৃষ্টি করছে: পরিবেশমন্ত্রী
সর্বাধিক পঠিত
আরেক পুলিশ কর্মকর্তা ও তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে দুদকের মামলা
আরেক পুলিশ কর্মকর্তা ও তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে দুদকের মামলা
ট্রান্সকম গ্রুপের সিইও সিমিন রহমানসহ ৪ জনের রিমান্ড নামঞ্জুর
ট্রান্সকম গ্রুপের সিইও সিমিন রহমানসহ ৪ জনের রিমান্ড নামঞ্জুর
আ.লীগের ১১ এমপি খুন, বিদেশে প্রথম আনার
আ.লীগের ১১ এমপি খুন, বিদেশে প্রথম আনার
ব্যাংক বাড়ায় সুদ, টাকা যায় মানুষের পকেটে!
ব্যাংক বাড়ায় সুদ, টাকা যায় মানুষের পকেটে!
শান্তি সম্মেলনে বাইডেনের অনুপস্থিতিতে হাততালি দেবেন পুতিন: জেলেনস্কি
শান্তি সম্মেলনে বাইডেনের অনুপস্থিতিতে হাততালি দেবেন পুতিন: জেলেনস্কি