X
মঙ্গলবার, ২৫ জানুয়ারি ২০২২, ১১ মাঘ ১৪২৮
সেকশনস

মুশফিকের বিদায়ের পর সাকিবের ফিফটি

আপডেট : ০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ১৭:৩৯

শুরুর ধাক্কার পর দারুণভাবে প্রতিরোধ গড়েছিলেন মুশফিকুর রহিম। শেষ দিন ফলোঅন করতে নামলে পাকিস্তানের মাথা ব্যথার কারণও হয়ে দাঁড়ান তিনি। চা পানের বিরতির আগে সেই মুশফিকুর রহিমের বিদায়টা হয়েছে রান আউটে। পাকিস্তানের বিপক্ষে দ্বিতীয় ইনিংসে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৬ উইকেটে ১৯৮ রান। টেস্ট বাঁচানোর লড়াইয়ে এখনও ১৫ রানে পিছিয়ে বাংলাদেশ। ক্যারিয়ারের ২৬তম ফিফটি তুলে সাকিব আল হাসান ব্যাট করছেন ৬১ রানে। সঙ্গে মেহেদী মিরাজ ১৪ রানে ব্যাট করছেন। 

অবশ্য ফিফটি করার দিনে টেস্টে ৪ হাজার রান ও ২০০ উইকেটের ডাবল ক্লাবে ষষ্ঠ খেলোয়াড় হিসেবে নাম লিখিয়েছেন তিনি। যে ক্লাবে রয়েছেন গ্যারি সোবার্স, ইয়ান বোথাম, কপিল দেব, জ্যাক ক্যালিস ও ড্যানিয়েল ভেট্টোরিদের মতো অলরাউন্ডাররা। অবশ্য কিংবদন্তির কাতারে সাকিব ছিলেন দ্রততম। সাকিবের এই কীর্তি করতে লেগেছে ৫৯টি ম্যাচ। ইয়ান বোথামের লেগেছে ৬৯, স্যার গ্যারি সোবার্সের ৮০, কপিল দেবের ১০১ ও জ্যাক ক্যালিসের ১০২ ম্যাচ। 

৮৭ রানে প্রথম ইনিংসে গুটিয়ে যাওয়ার পরই বাংলাদেশকে ফলোঅনে পাঠায় পাকিস্তান। জবাবে শুরুর তিন ওভার কোনও বিপদ ঘটেনি। বিপদের শুরু চতুর্থ ওভার। হাসান আলীর ভেতরে ঢুকে পড়া বলে বোল্ড হয়ে ফিরেছেন মাহমুদুল হাসান জয়। অভিষেক টেস্টে দুই ইনিংসেই হতাশ করলেন এই তরুণ। প্রথম ইনিংসে শূন্য রানে ফিরে এই ইনিংসে করেছেন মাত্র ৬ রান।

ম্যাচ বাঁচানোর লড়াইয়ে সঙ্গী সাদমান ইসলামও ব্যাটিংটা করলেন দায়িত্বজ্ঞানহীনভাবে। শাহীনের দুর্দান্ত বোলিংয়ের সামনে বাজে ফুটওয়ার্কের খেসাড়ত দেন এলবিডাব্লিউতে। দুই ইনিংসেই ব্যর্থ সাদমান ফেরেন ২ রানে। অধিনায়ক মুমিনুলও আশার প্রতীক হতে পারেননি তার পর। হাসান আলীর বলে লেগ বিফোরের আবেদনে আম্পায়ার আঙুল তুললেও এই আউট নিয়ে রিভিউ নিয়েছিলেন। পরে এই রিভিউতেই সময় যায় বেশ কিছুক্ষণ। ব্যাট আগে নাকি প্যাড আগে- এই সংশয়ে রিপ্লে দেখা হচ্ছিল বার বার। শেষ পর্যন্ত অনফিল্ড আম্পায়ারের সিদ্ধান্তই বহাল থেকেছে। এর পর শাহীনের বলে স্লিপে ক্যাচ দিয়ে ফিরেছেন নাজমুল (৬)। বাজে ব্যাটিংয়ে ৮.১ ওভারেই পড়েছে  ৪ উইকেট!

দ্রুত টপের ৪ উইকেট হারানোর পর লিটন-মুশফিক মিলে প্রতিরোধ গড়ার চেষ্টায় ছিলেন। তাদের দৃঢ় চেতা ব্যাটিং ভালো কিছুর সম্ভাবনাও জাগিয়ে তুলছিল। দ্বিতীয় সেশনে ৭৩ রানের দারুণ এই জুটি ভাঙে লিটন দাসের কাণ্ডজ্ঞানহীন ব্যাটিংয়ে। সাজিদের ঘূর্ণিতে শট খেলার তাড়নায় স্কয়ার লেগে ক্যাচ তুলে ফিরেছেন ৪৫ রানে। তার ৮১ বলের ইনিংসে ছিল ৭টি চার।

দারুণ এই জুটি ভাঙার পর মুশফিক সাকিবকে নিয়েও পুনরায় প্রতিরোধ গড়েছিলেন। মুশফিক ধীরস্থির ভাবে খেললেও সাকিব ছিলেন মারকুটে। দুজনের ৪৯ রানের জুটিটা আশা জাগানিয়াও হয়ে উঠেছিল। দারুণ এই জুটি ভাঙে সাকিব-মুশফিক ঝুঁকিপূর্ণভাবে অপ্রয়োজনীয় রান নিতে গেলে। ডাইভ দিয়েও শেষ রক্ষা করতে পারেননি মুশফিক। যখন রিজওয়ান স্টাম্প ভাঙেন, স্ট্রাইকিং প্রান্তে তখনও ব্যাট বাতাসে ভাসানো ছিল তার। তাতে ১৩৬ বল খেলা মুশফিককে থেমে যেতে হয় ৪৮ রানেই!    

মিরপুরে শেষ দিন সকালের শুরুতেই প্রথম ইনিংস শেষ হয় বাংলাদেশের। ৭ উইকেটে ৭৬ রানে খেলতে নেমে পাকিস্তানের বিপক্ষে ফলোঅন এড়াতে পারেনি।

ফলোঅন এড়াতে ১০১ রান করলেই হতো। কিন্তু দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টের শেষ দিনের সকালটা শুরু হয় লক্ষ্যহীন ব্যাটিংয়ে। তাইজুল, খালেদের পর সাজঘরে ফিরে যান সাকিব আল হাসানও! প্রতিষ্ঠিত ব্যাটসম্যান হিসেবে টিকে থাকার বিন্দুমাত্র দৃঢ়তা দেখাতে পারেননি সাকিব।

সকালে শাহীনের প্রথম ওভারের পর দ্বিতীয় ওভারে আসেন সাজিদ খান। গতকাল যার স্পিন বিষে নীল হওয়া, সেই স্পিনারই সাজঘরে পাঠালেন তাইজুলকে। সাজিদের ঘূর্ণিতে লেগবিফোরের আবেদন উঠলে অনফিল্ড আম্পায়ার আঙুল তুলে দেন। পরে রিভিউ নিয়েও শেষ রক্ষা হয়নি।

পরের ওভারে নতুন নামা খালেদ আহমেদও ফিরেছেন রানের খাতা না খুলে। শাহীনের ইয়র্কার লেন্থের বলে বোল্ড হন এই পেসার। সাকিব অপরপ্রান্তে থাকলেও মেরে খেলায় বেশি মনোযোগী ছিলেন। শট খেলতে গিয়েই শর্ট কভারে ক্যাচ তুলে দেন। ফলাফল সাকিব ৫৪ বলে ৩৩ রানে ফিরতেই শেষ হয়ে যায় বাংলাদেশের প্রথম ইনিংস। এখন ২১৩ রানে পিছিয়ে থেকে ফলোঅনে ব্যাট করছে স্বাগতিকরা।

বৃষ্টিতে প্রায় দুদিন ভেসে যাওয়ার পর গতকালই জমে উঠে ঢাকা টেস্ট। বাংলাদেশের বাজে ব্যাটিংই কাল হয়ে দাঁড়ায়। পাকিস্তান ৩০০ রানে প্রথম ইনিংস ঘোষণার পর শেষ বিকালে লন্ডভন্ড হয়ে যায় ব্যাটিং অর্ডার। চতুর্থ দিন ৭৬ রান তুলতেই স্বাগতিকরা হারায় ৭ উইকেট।

প্রথম ইনিংসে ঘূর্ণিজাদুতে সাজিদ খান ৪২ রানে নিয়েছেন ৮ উইকেট! যা টেস্টে বাংলাদেশের বিপক্ষে কারও সেরা বোলিং। একটি নেন শাহীন আফ্রিদি।

/এফআইআর/
সম্পর্কিত
সাকিব-গেইলদের ব্যাটিং নিয়ে চিন্তিত সুজন
সাকিব-গেইলদের ব্যাটিং নিয়ে চিন্তিত সুজন
টানা জয়ে শীর্ষে চট্টগ্রাম
টানা জয়ে শীর্ষে চট্টগ্রাম
বিপিএলে প্রথমবার ‘কনকাশন সাব’
বিপিএলে প্রথমবার ‘কনকাশন সাব’
বিপিএল: স্ট্রেচারে করে মাঠ ছাড়লেন ফ্লেচার
বিপিএল: স্ট্রেচারে করে মাঠ ছাড়লেন ফ্লেচার
সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সাকিব-গেইলদের ব্যাটিং নিয়ে চিন্তিত সুজন
সাকিব-গেইলদের ব্যাটিং নিয়ে চিন্তিত সুজন
টানা জয়ে শীর্ষে চট্টগ্রাম
বিপিএল-২০২২টানা জয়ে শীর্ষে চট্টগ্রাম
বিপিএলে প্রথমবার ‘কনকাশন সাব’
বিপিএলে প্রথমবার ‘কনকাশন সাব’
বিপিএল: স্ট্রেচারে করে মাঠ ছাড়লেন ফ্লেচার
বিপিএল: স্ট্রেচারে করে মাঠ ছাড়লেন ফ্লেচার
৪০০ উইকেটে সাকিবের ‘ডাবল’ রেকর্ড
৪০০ উইকেটে সাকিবের ‘ডাবল’ রেকর্ড
© 2022 Bangla Tribune