X
শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪
৬ বৈশাখ ১৪৩১

‘ব্যর্থতা’ লিটনের সাফল্যের চাবিকাঠি

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
২৪ মে ২০২২, ২০:২২আপডেট : ২৪ মে ২০২২, ২১:০১

কঠিন সময়ের কারণেই মানুষ সাফল্য উপভোগ করতে পারে– এমনটাই বলা হয়ে থাকে। সেইদিক থেকে চিন্তা করলে একজন মানুষের জীবনে কঠিন সময় আসা দরকার। সফল হতে হলে জীবনে ব্যর্থতা যেন অবশ্যম্ভাবী!  যারা ব্যর্থতা থেকে শিক্ষা নিয়ে নতুন উৎসাহে সামনে এগিয়ে যান, তারাই সফল হন। লিটন দাসের ক্যারিয়ার ঠিক এমনই। ব্যর্থতাই লিটনকে বদলে দিয়েছে, নিয়মিত পাচ্ছেন সফলতা। তাই বলাই যায় ‘ব্যর্থতা’ লিটনের সাফল্যের চাবিকাঠি!

অপার সম্ভাবনা নিয়ে জাতীয় দলে অভিষেক হয় লিটনের। কিন্তু নিজের প্রতিভা ঠিকঠাক কাজে লাগাতে ব্যর্থ হচ্ছিলেন। সংযুক্ত আরব আমিরাতের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ থেকে তাকে নিয়ে শুরু সমালোচনা। যদিও এই উইকেটকিপার ব্যাটার নিন্দুকদের সমালোচনা গায়ে মাখেননি। নিজেকে ভেঙে গড়েছেন, বদলে ফেলেছেন অনুশীলনের ধরন। তাতে মিলেছে ছন্দ, ভাসছেন রানের বন্যায়। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে চট্টগ্রাম টেস্টের পর ঢাকা টেস্টের প্রথম ইনিংসেও হেসেছে তার ব্যাট। পেয়েছেন সেঞ্চুরি।

আজ (মঙ্গলবার) ঢাকা টেস্টের দ্বিতীয় দিনের খেলা শেষে সংবাদ সম্মেলনে এসেছিলেন লিটন। সেখা্নেই তার কাছে জানতে চাওয়া হয়েছিল কার ছোঁয়ায় তার বদলে যাওয়া? এই উইকেটকিপার বললেন, ‘না কেউ কাউন্সেলিং করেনি। মানসিকভাবে শক্ত থাকা...। আসলে লোকে যখন ব্যর্থ হয়, তখনই আস্তে আস্তে উন্নতি চলে আসে। ব্যর্থ না হলে কখনও বুঝবেন না আপনার মানসিকতা কেমন।’

চারপাশ থেকে ধেয়ে আসা সমালোচনা সহজভাবে নিতে শিখে গেছেন লিটন। তির্যক সমালোচনা তাকে আর আঘাত করে না, ‘চেষ্টা সবসময় করি (ভালো করার)। কিছু সময় ব্যর্থ হই, কিছু সময় সফল হই। এটাই ক্রিকেট, এভাবেই চলতে থাকবে। সমালোচনা হবেই। আমার যেহেতু জীবনটা ক্রিকেটের সঙ্গে যুক্ত হয়ে গেছে, ভালো খেললে আপনারা বাহবা দেবেন বা জনগণ দেবে, খারাপ খেললে সেইম জিনিসটাই করবে (সমালোচনা)।’

সঙ্গে যোগ করলেন, ‘কারণ তারা চায়, আমি পারফর্ম করি। এই জিনিসটা আমাকে আর বিরক্ত করে না। আমি চেষ্টা করি, আমি কতখানি মনোযোগী অনুশীলনে, প্র্যাকটিস মেথডটা কী, আমার প্রক্রিয়াটা অনুসরণ করছি কিনা। আমি আমার প্রক্রিয়া ফলো না করলে নিজের কাছে অপরাধী লাগে, মনে হয় অনুসরণ করছি না। আমি স্রেফ আমার প্রক্রিয়া অনুসরণ করার চেষ্টা করি। ফলাফল, ওপরওয়ালার হাতে। আজ ভালো করেছি, কাল আবার খারাপ হলে হতেও পারে। এটাই মানুষের জীবন, এটা নিয়েই চলতে থাকবে।’

সাম্প্রতিক সময়ে মাঠে নামলেই রান পাচ্ছেন এই উইকেটকিপার ব্যাটার। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে চট্টগ্রাম টেস্টের প্রথম ইনিংসে ৮৮ রানের ইনিংস খেলা বাংলাদেশ ব্যাটার মিরপুর টেস্টে আরও সাবলীল। ধ্বংসস্তূপে দাঁড়িয়ে বাহারি সব শটস খেলে তুলে নেন ক্যারিয়ারের তৃতীয় সেঞ্চুরি। মূলত অনুশীলনের প্রক্রিয়া বদল করেই লিটন পাচ্ছেন সাফল্য, ‘আমার কাছে মনে হয়, আমার অনুশীলনের মেথড বদলেছে।’

একদিন আগে বাংলাদেশের প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গো বলেছিলেন, কোনটা করতে হবে আর কোনটা নয়, লিটন এখন তা জানেন। সেটার সূত্র ধরে লিটনের কাছে জানতে চাওয়া হয়, তিনি এখন কী কী করেন না? লিটন অবশ্য রহস্য রেখে দিলেন, ‘খুব কঠিন এটা বলা যে কী কী করি না বা কী বদলেছে। আমার কাছে মনে হয়, প্র্যাকটিসের মেথড বদলেছে, তা বলতে পারি। কীভাবে সফল হলাম বা কেন হচ্ছি, এই জিনিসটা আমার ভেতরেই থাক।’

অনুশীলনে কী বদলেছেন সেটাও জানাতে চাইলেন না এই ব্যাটার, ‘কীভাবে বিশ্লেষণ দেবো এটা আমি! মানে, আমি এখন কীভাবে বিশ্লেষণ দেবো যে কী বদল হয়েছে। আপনি তো বুঝবেনও না যে কোন প্র্যাকটিস কেমন। আমি এটার বিশ্লেষণ দিতে পারবো না।’

সাফল্যের পেছনে অবশ্য বাংলাদেশের সাবেক ব্যাটিং পরামর্শক অ্যাশওয়েল প্রিন্সের ভূমিকার কথা জানিয়েছেন লিটন। ক্রিজে নেমে নির্দিষ্ট সময় মেপে ব্যাটিংয়ের পরামর্শ দিয়েছেন প্রিন্স। তার এই পরামর্শে সাফল্য পাচ্ছেন এই উইকেটকিপার, ‘অবশ্যই আমি এখন বুঝি যে টেস্ট ক্রিকেটের ধরনটা কেমন। কতক্ষণ ধরে ব্যাটিং করলে রান বড় হবে। আমার মনে হয়, সে (প্রিন্স) জিনিসগুলো আমাকে বুঝিয়েছিল। তা অনেকটাই আমার জন্য কাজের এবং আমি ওই জিনিসটাই অনুসরণ করি এখনও পর্যন্ত।’

/আরআই/কেআর/
সম্পর্কিত
আইপিএল নিয়ে আফসোস আছে শরিফুলের
চোট কাটিয়ে অনুশীলনে সৌম্য, ফিরেছেন লিটনও
বিশ্বকাপ নিয়ে বেশি মাতামাতি না করতে শান্তর অনুরোধ
সর্বশেষ খবর
ভারতের লোকসভা নির্বাচনের ভোটগ্রহণ চলছে
ভারতের লোকসভা নির্বাচনের ভোটগ্রহণ চলছে
রেলক্রসিংয়ে রিকশায় ট্রেনের ধাক্কা, বাবার মৃত্যু মেয়ে হাসপাতালে
রেলক্রসিংয়ে রিকশায় ট্রেনের ধাক্কা, বাবার মৃত্যু মেয়ে হাসপাতালে
যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের পুরস্কার পেলেন কুবির চার শিক্ষার্থী
যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের পুরস্কার পেলেন কুবির চার শিক্ষার্থী
গরমে বেড়েছে অসুখ, ধারণক্ষমতার তিন গুণ বেশি রোগী হাসপাতালে
ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালগরমে বেড়েছে অসুখ, ধারণক্ষমতার তিন গুণ বেশি রোগী হাসপাতালে
সর্বাধিক পঠিত
সয়াবিন তেলের দাম পুনর্নির্ধারণ করলো সরকার
সয়াবিন তেলের দাম পুনর্নির্ধারণ করলো সরকার
ডিএমপির ৬ কর্মকর্তার বদলি
ডিএমপির ৬ কর্মকর্তার বদলি
পিএসসির সদস্য ড. প্রদীপ কুমারকে শপথ করালেন প্রধান বিচারপতি
পিএসসির সদস্য ড. প্রদীপ কুমারকে শপথ করালেন প্রধান বিচারপতি
নিজ বাহিনীতে ফিরে গেলেন র‍্যাবের মুখপাত্র কমান্ডার মঈন
নিজ বাহিনীতে ফিরে গেলেন র‍্যাবের মুখপাত্র কমান্ডার মঈন
পরীমনির বিরুদ্ধে ‘অভিযোগ সত্য’, গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির আবেদন
পরীমনির বিরুদ্ধে ‘অভিযোগ সত্য’, গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির আবেদন