কে হবেন জেমি ডের ‘নাম্বার নাইন’?

Send
তানজীম আহমেদ
প্রকাশিত : ১৯:৫৯, জানুয়ারি ১৪, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:০৭, জানুয়ারি ১৪, ২০২০

সাদ উদ্দিন, মতিন মিয়া, মাহবুবুর রহমান সুফিলজেমি ডের অন্যতম ভরসা ছিলেন নাবীব নেওয়াজ জীবন। তার ৪-১-৪-১ ফর্মেশনে জীবন ‘নাম্বার নাইন’ হিসেবে খেলেছেন। যদিও বেশিরভাগ ম্যাচে গোলবিহীন থাকতে হয়েছে এই স্ট্রাইকারকে। বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপে অসুস্থতার জন্য জীবন নেই। তার জায়গায় ‘নাম্বার নাইন’ হিসেবে কে খেলবেন?

বাংলাদেশের কোচ এই প্রশ্নের উত্তর দিতে চাইছেন না, প্রথম ম্যাচের আগ পর্যন্ত অপেক্ষা করতে চাইছেন। অনুশীলনে জেমি ডে তিনজনকে ঘুরিয়ে-ফিরিয়ে পরখ করছেন। মতিন মিয়া, মাহবুবুর রহমান সুফিল ও সাদ উদ্দিনের মধ্যে যে কেউ খেলতে পারেন ‘নাম্বার নাইন’ হিসেবে।

তিনজনই মূলত উইংয়ে খেলেন। জাতীয় দলে স্ট্রাইকার হিসেবে খেলার সুযোগ তাদের সামনে কমই আসে। এবার সুযোগ পেলে নিজেকে উজাড় করে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন তিনজনই।

সুফিল বলেছেন, ‘আমাদের তিনজনের পারফরম্যান্স কাছাকাছি। কোচই সিদ্ধান্ত নেবেন কাকে কোন পজিশনে খেলাবেন। অনুশীলনে আমাদের তিনজনকে দুই উইং এবং নাম্বার নাইন পজিশনে পরখ করেছেন তিনি। কখনও আমাকে নাম্বার নাইন খেলালে, মতিনকে রাইট উইংয়ে খেলিয়েছেন। কখনও অন্য ফর্মেশনে। আসলে আমরা সব পজিশনে খেলতে অভ্যস্ত।’

প্রথম ম্যাচে ফিলিস্তিনের বিপক্ষে গোল করা কঠিন হবে বলেই তার আশঙ্কা, ‘ফিলিস্তিন অনেক ভালো দল। ওরা শারীরিকভাবে আমাদের চেয়ে অনেক এগিয়ে। উচ্চতাও অনেক বেশি। ওদের বিপক্ষে গোল করা সহজ হবে না। যে সুযোগই পাই না কেন, কাজে লাগাতে হবে।’

অনুশীলনে লক্ষ্যভেদ নিয়ে কাজ হয়েছে। জাতীয় দলের হয়ে দুই গোল করা সুফিল আত্মবিশ্বাসী, ‘কোন অ্যাঙ্গেল থেকে কীভাবে মারলে গোল হবে, সেটা নিয়ে কাজ হয়েছে। লক্ষ্যভেদের সময় স্ট্রাইকাররা দ্রুত সিদ্ধান্ত নিতে পারে। আমরা হয়তো সিদ্ধান্ত নিতে দেরি করি। অথবা তাড়াহুড়ো করে ফেলি। যে কারণে অনেক সময় গোল মিস হয়। তবে অনুশীলনের শেষ দিন পর্যন্ত সবাইকে খুব আত্মবিশ্বাসী দেখেছি। এবার মনে হচ্ছে কিছু একটা হবে।’

বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে ভারতের বিপক্ষে গোল করা সাদ উদ্দিন যে কোনও পজিশনে খেলতে প্রস্তুত। ক্লাব ফুটবলে রক্ষণ থেকে আক্রমণ সব পজিশনে খেলা এই তরুণের কথা, ‘ফিলিস্তিনের বিপক্ষে আমি যে কোনও পজিশনে খেলতে প্রস্তুত। কোচ কাকে কোন পজিশনে খেলাবেন সেটা তার সিদ্ধান্ত। আমরা চেষ্টা করবো নিজের দায়িত্ব ভালোভাবে পালন করতে।’

ফেডারেশন কাপে বসুন্ধরা কিংসের জার্সিতে ভালো খেলেছেন মতিন মিয়া। দানিয়েল কলিনদ্রেসের সঙ্গে তার বোঝাপড়া ছিল দুর্দান্ত। সাদ-সুফিলের মতো মতিনও গোল করতে দৃঢ় প্রতিজ্ঞ।

তবে ফিলিস্তিনের বিপক্ষে ‘নাম্বার নাইন’ হিসেবে কে খেলবেন, সেটা দেখতে অপেক্ষায় থাকতেই হচ্ছে!

/টিএ/এএআর/

লাইভ

টপ