লকডাউন অমান্য করে গ্রেফতার ফুটবল তারকা

Send
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত : ০১:৪৮, মার্চ ২৮, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ০২:০০, মার্চ ২৮, ২০২০

নোলবার্তো ‘নোব্বি’ সোলানোতাকে ধরা হয় পেরুর সর্বকালের অন্যতম সেরা ফুটবলার। পেরুর ফুটবল ইতিহাসে তিনিই প্রথম ফুটবলার যিনি খেলেছেন ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে। ১৯৯৮ সালে নিউক্যাসল ইউনাইটেডে সাইন করার পর ক্লাবটির তারকা খেলোয়াড় বনে যান। পেরুর ক্রীড়া ইতিহাসে তিনিই প্রথম ক্রীড়াবিদ যার বিয়ে সরাসরি সম্প্রচার হয়েছে টেলিভিশনে। আর এমন একজনই কিনা করোনাভাইরাসের জন্য লকডাউন অমান্য করে গ্রেফতার হলেন পুলিশের হাতে!

পেরুর টেলিভিশন চ্যানেল আরপিপি জানায়, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় সরকার ঘোষিত লকডাউন অমান্য করায় ৪৫ বছর বয়সী সাবেক উইঙ্গার নলবার্তো ওরফে নোব্বি সোলানোকে গ্রেফতার করে লিমার পুলিশ আটকে রাখে লা মোলিনা থানায়। পরে অবশ্য ছাড়া পেয়ে যান তিনি। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ, করোনাভাইরাস সংক্রমণে রুখতে সরকার যে অবশ্য পালনীয় ঘরবন্দি থাকার আইন জারি করেছে তিনি সেটি না মেনে একটি পার্টিতে গিয়েছিলেন।সোলানো অবশ্য স্বীকার করেননি যে তিনি গ্রেফতার হয়েছিলেন। বলেছেন, স্ত্রী ও ছেলে-মেয়েদের নিয়ে  থানায় গিয়েছিলেন পুলিশের সঙ্গে এবং পুলিশকে বুঝিয়ে-শুনিয়ে চলে এসেছেন। তার বক্তব্য, ‘আমার বাড়ি থেকে ৫০ গজ দূরে এক প্রতিবেশীর বাড়িতে লাঞ্চ করতে গিয়েছিলাম। সেখানে সব মিলিয়ে আমরা ৬/৭ জন ছিলাম। সবাই নিরাপদে ছিলাম। ছেলে-মেয়েরা একটু দৌড়াদৌড়ি করছিল। হঠাৎই কেউ একজন গানের সুর শুনে চালাকি করে জানিয়ে দেয় টেলিভিশন চ্যানেলকে। খ্যাতিমানদের এই হয় আরকি, সবসময় মানুষ আপনাকে চোখে চোখে রাখে!’

সোলানো করোনাভাইরাস বিশ্বজুড়ে কী ভয়ঙ্কর পরিস্থিতি সৃষ্টি করেছে সেটি জানেন, এটির ভয়াবহতা জানেন বলেই সরকারের আইন মেনে স্বেচ্ছায় ঘরবন্দি থাকছেন। দেশ লকডাউন করে দেওয়ায় পেরুর প্রেসিডেন্টকে ধন্যবাদ জানিয়ে জাতীয় ফুটবল দলের সহকারী ম্যানেজার বলেছেন, ‘ প্রেসিডেন্টকে ধন্যবাদ যে আগেই তিনি ব্যবস্থা নিয়েছেন। এতে  ইতালি ও স্পেনের মতো সংক্রমণ ছড়াতে পারবে না এই ভাইরাস।’

দক্ষিণ আমেরিকার দেশগুলোর মধ্যে করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে সবচেয়ে কঠোর ব্যবস্থা নিয়েছে পেরু সরকার। বার্তা সংস্থা এএফপি জানায়, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে স্বেচ্ছায় ঘরে থাকার আইন ভাঙায় সে দেশে এ পর্যন্ত ১৮০০০ মানুষকে গ্রেফতার করা হয়েছে। দেশটিতে ৫৮০ জনের করোনা সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। মৃতের সংখ্যা ৯। পেরুর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কার্লোস মোলিনা বলেছেন, যারা আইন ভাঙছে তাদের জন্য একটি তালিকা তৈরি করছে সরকার এবং অপরাধীদের তিন বছর পর্যন্ত কারাদণ্ড ভোগ করতে হতে পারে।

 

/পিকে/

লাইভ

টপ