লকডাউন ভেঙে অসুস্থ ছেলেকে দেখতে যাওয়ায় জরিমানা

Send
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত : ২১:৫৪, এপ্রিল ০২, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২১:৫৪, এপ্রিল ০২, ২০২০


জেরোম বোয়াটেং।ছেলে গুরুতর অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি। তার ওপর করোনা মহামারিতে চলছে লকডাউন। এমন জটিল পরিস্থিতিতে ছেলের কাছেই থাকতে চাইবে যে কোন বাবা। অথচ সেই দায়িত্ব পালন করতে গিয়েই ঘটেছে বিপত্তি। সরকারি আইন ভেঙে ঘর থেকে বের হওয়ায় জরিমানা গুণতে হচ্ছে বায়ার্ন মিউনিখ ডিফেন্ডার জেরোম বোয়াটেংকে।

সংক্রমণ ঠেকাতে জার্মানিতে সবার আগে লকডাউনে গেছে বাভারিয়া রাজ্য। আর এই রাজ্যেরই রাজধানী মিউনিখ। বোয়াটেং যে পরিস্থিতিতে জরিমানার মুখোমুখি হয়েছেন, তাতে তিনি মোটেও খুশি নন। বরং বিষয়টিকে বলেছেন দুঃখজনক।

বোয়াটেং বাস্তব পরিস্থিতির কথা তুলে ধরে জার্মান সংবাদমাধ্যম বিল্ডকে বলেছেন, ‘আমার ভুলটা ছিল আমি ক্লাবের কাউকে বিষয়টি জানাইনি। কিন্তু ওই মুহূর্তে আমার ভাবনায় শুধুই আমার ছেলে ছিল।’ 

চার বছরের ছেলে অসুস্থ হয়ে ভর্তি ছিল হাসপাতালে। বাবাকে দেখার জন্যেই সে ছিল কাতর। সেই আবদার মেটাতে মিউনিখ থেকে বহু দূরের সেই হাসপাতালে ছুটে যান বোয়াটেং। ছেলের অসুস্থতা নিয়ে তিনি বলেছেন, ‘ছেলেটার শরীর খুব খারাপ ছিল। একজন ছেলে যদি বাবাকে দেখার জন্য আকুতি জানায়। সেটা যখনই হোক, আমি যাবোই।’

এর পরেই তিনি বললেন, ‘ওর জন্য আমি যে কোন শাস্তি মাথা পেতে নেবো। কারণ সে আমার সন্তান। আমি দেখতে চাই, কোন বাবা এই সময়ে তার ৪ বছরের ছেলের জন্য ছুটে যাবে না?  এ জন্য যদি শাস্তি পেতেই হয়, তাহলে আমি সিদ্ধান্তকে সম্মান জানাই। তবে আমার কাছে বিষয়টা দুঃখজনক।’

বায়ার্ন মিউনিখ অবশ্য সরকারি আইন ভাঙার বিষয়টিকেই গুরুত্ব দিচ্ছে। তারা বলছে, সরকারি বিধি-নিষেধ ভেঙেছেন বোয়াটেং। এ জন্য তাকে জরিমানা করা হলেও ক্লাব সেই অঙ্কটা প্রকাশ করেনি। তবে সেই অর্থ দিয়ে দেওয়া হবে মিউনিখের একটি হাসপাতালে।

/এফআইআর/

লাইভ

টপ