যে কারণে ট্র্যাকস্যুট পরেন ক্লপ

Send
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৫:৩৯, মে ২২, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৫:৪০, মে ২২, ২০২০

লিভারপুল কোচ ইয়ুর্গেন ক্লপপ্রিমিয়ার লিগের বেশিরভাগ কোচকেই স্যুট-টাই পরে দেখা যায় ডাগআউটে। কেউ যদি এই বেশে নাও আসেন, পরেন বাহারি ধাঁচের পোশাক। প্রতি ম্যাচেই নতুন সাজে দেখা যায় তাদের। তবে এই জায়গায় পুরোপুরি ব্যতিক্রম ইয়ুর্গেন ক্লপ। লিভারপুল কোচকে শুধু ট্র্যাকস্যুট পরেই দেখা যায়। কিন্তু কেন? সেই রহস্য্ই এবার উন্মোচন করেছেন জার্মান কোচ।

জার্মান দুই ক্লাব মেইঞ্জ ও বরুসিয়া ডর্টমুন্ড হয়ে এখন লিভারপুলের কোচের দায়িত্বে ক্লপ। ইংলিশ ক্লাবটির সব ম্যাচেই ডাগআউটে তার গায়ে থাকে ট্র্যাকস্যুট। আগের দুই ক্লাবেও একইভাবে আসতেন ম্যাচে। কারণ হিসেবে তিনি জানিয়েছেন, এই বেশ তার ভালো লাগে, তাছাড়া নিজের পরিচয়ও বহন করেন তিনি ট্র্যাকস্যুট পরে। একই সঙ্গে তিনি প্রশংসা করেছেন পেপ গার্দিওলার বেশভূষার।

২০০১ সালে জার্মান ক্লাব মেইঞ্জ দিয়ে কোচিং ক্যারিয়ারের সঙ্গে শুরু তার ট্র্যাকস্যুটের গল্পের। মেইঞ্জের খেলোয়াড় হিসেবে ক্যারিয়ার শেষে করেই শুরু করেছিলেন কোচিং। কোনও পরিকল্পনা ছাড়া লকার রুমে গিয়ে পাওয়া ট্র্যাকস্যুট পরে সেই যে ডাগআউটে দাঁড়ালেন, এখনও চলছেই।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ানে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ক্লপের বর্ণনা, ‘আগের দিন ছিলাম খেলোয়াড়, আর পরদিন হয়ে গেলাম কোচ। দুই দিন আগে ক্লাব ছেড়ে যাওয়া একজনের ট্র্যাকস্যুট খুঁজে পেয়েছিলাম লকার রুমে। সেটা এমনকি আমার গায়ে ঠিকমতো লাগেওনি। আমার আসলে সব নজর ছিল ম্যাচের দিকে। আমি কখনও ভাবিনি আমাকে দেখতে কেমন লাগছে।’

অবশ্য ট্র্যাকস্যুট না পরার চেষ্টাও করেছিলেন ডর্টমুন্ডে থাকার সময়। কিন্তু পারেননি, কারণ ট্র্যাকস্যুটেই তিনি আরাম অনুভব করেন, “আমি জানি বিষয়টা খুব ভালো নয়, কারণ আমরা মানুষজনের সামনে কাজ করি। তবে বরুসিয়া ডর্টমুন্ড যাওয়ার পর ভেবেছিলাম, ‘আমার সম্ভবত এটা বদলাতে হবে’। আমি কয়েকবার জিন্স ও শার্ট পরে গিয়েছিলাম মাঠে। কিন্তু আমি একটুও আরাম পাইনি।”

সুন্দর পোশাক পরার বিষয়টিকে মোটেও খারাপ চোখে দেখেন না ক্লপ। বরং এর জন্য আছে তার প্রশংসা। ম্যানচেস্টার সিটির কোচ গার্দিওলাকে উদাহরণ হিসেবে সামনে আনলেন লিভারপুল কোচ, ‘আমার মতে সবচেয়ে সুন্দর বেশভূষা কোচ হলেন পেপ গার্দিওলা। তিনিই যাই পরেন, দেখে মনে হয় তার জন্য তৈরি হয়েছে। তিনি কিন্তু স্যুট পরেন না, ক্যাজুয়াল থাকেন।’

পোশাক নয়, ক্লপের কাছে ম্যাচের ফলই সবকিছু, ‘পোশাক হচ্ছে আমাদের চরিত্রের একটি অংশ। আপনি যা কিছু পরতে পারেন, তবে সেটি মোটেও গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নয়। শেষ পর্যন্ত ম্যাচটাকেই গণনা করা হয়। তবে দুশ্চিন্তার কিছু নেই: আপনি স্যুট কিংবা ট্র্যাকস্যুট যে কোনও কিছু পরেই বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হতে পারেন। শুধু আরামে থাকতে হবে এই যা।’

/কেআর/

লাইভ

টপ