আবারও ফিরছি ২২ গজের ঠিকানায়: সাকিব

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৯:২৮, অক্টোবর ২৯, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:০৯, অক্টোবর ২৯, ২০২০

বিজ্ঞাপন চিত্রে এভাবেই উপস্থাপন করা হয় সাকিবকে।সাকিব আল হাসানের এক বছরের নিষেধাজ্ঞা শেষ হয়ে গেছে। এবার তার মাঠে ফেরার পালা। সাকিবও জানিয়েছেন, মাঠে ফিরতে তিনি কতটা মুখিয়ে। নিজের ফেসবুক পেজে বিজ্ঞাপন চিত্রের স্লোগান দিয়ে ২২ গজে ফেরার বার্তা দিয়েছেন আজ। পাশাপাশি গত এক বছরের খারাপ সময়টাতে যারা সঙ্গে ছিলেন, তাদেরকেও ধন্যবাদ দিয়েছেন বিশ্বের অন্যতম সেরা এই ক্রিকেটার।

অনৈতিক প্রস্তাব পেয়ে বিষয়টি গোপন রাখায় গত বছরের ২৯ অক্টোবর সাকিবকে নিষিদ্ধ করে আইসিসি। দুই বছরের নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হলেও এর মধ্যে এক বছরের শাস্তি স্থগিত করে রেখেছিল ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা। হিসেব অনুযায়ী আজ থেকে সাকিব মুক্ত।

বৃহস্পতিবার সকালে নিজের করা একটি বিজ্ঞাপনের ভিডিও পোস্ট করেছেন ফেসবুকে। সেখানেই লিখেছেন, ‘খেলবে টাইগার, জিতবে টাইগার স্লোগান মনে নিয়ে, আবারও ফিরছি ২২ গজের ঠিকানায়।’

সাকিবের ফেরাকে কেন্দ্র করেই নির্মাণ করা হয়েছে এই বিজ্ঞাপন চিত্রটি। সেখানে সাকিবকে বলতে শোনা যায়, ‘আমি সাকিব আল হাসান। এই ২২ গজই আমার ঠিকানা। কঠিন সময় যাচ্ছে। কিন্তু ফিরবো আরও কঠিন হয়ে। চেষ্টা করে চলেছি রাত-দিন অবিরাম লাল-সবুজ গায়ে মাঠে ফিরতে।’

তিনি আরও বলেছেন, ‘‘এ কদিন ১১ জনের দলে না থাকলেও আছি টাইগারদের সাথেই। সবচেয়ে বড় ফ্যান হয়ে। মনে একটাই স্লোগান- ‘খেলবে টাইগার, জিতবে টাইগার’। সাথে আছেন তো?’’

এক বছরের নিষেধাজ্ঞার পুরোটা সময়ই সাকিব ভক্তরা সরব ছিলেন। তাই সাকিবের মুক্তির আনন্দে ভক্তদের মাঝে যেন ঈদের খুশি। সেই সকল ভক্তদের ধন্যবাদ দিতেও ভুল করেননি সাকিব, ‘এতদিন কঠিন সময়ে আমার পাশে ছিলেন বলে ধন্যবাদ সবাইকে। ভবিষ্যতেও সাথে থাকবেন তো?’

২৭ সেপ্টেম্বর নিউ ইয়র্কে সুধী সমাবেশে যোগ দিয়েছিলেন তিনি। সেখানে নিষেধাজ্ঞা নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে সাকিব বলেছিলেন, 'আমার মতো ভুল যেন কেউ না করে।'

নিষেধাজ্ঞার সময়টা কেমন কেটেছে সেটি উল্লেখ করে সাকিব বলেছেন, 'পরিবারকে সময় দিয়েছি। আপনারা জানেন, প্রথম সন্তানকে সময় দিতে পারিনি। দ্বিতীয় সন্তান সেটা পেয়েছে। বেবি সিটিং করেছি। আর অবশ্যই ক্রিকেটকে মিস করেছি।'

গত এক বছরে সাকিব বাংলাদেশের হয়ে বেশ কিছু আন্তর্জাতিক ক্রিকেট মিস করেছেন, তবুও নিজেকে ভাগ্যবান ভাবতে পারেন। কেননা করোনার প্রকোপে বাংলাদেশ দলের অনেকগুলো আন্তর্জাতিক সিরিজই স্থগিত হয়েছে। গত অক্টোবরে সাকিবের নিষেধাজ্ঞার পর সাকিবকে ছাড়া মাত্র তিনটি সিরিজ খেলেছে বাংলাদেশ দল। এর মধ্যে ২০১৯ সালের নভেম্বরে ভারতের বিপক্ষে টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি সিরিজ, ২০২০ সালের জানুয়ারিতে পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজ ও চলতি বছরের মার্চে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজে খেলতে পারেননি সাকিব। সব মিলিয়ে বাংলাদেশ তাকে পায়নি চার টেস্ট, তিন ওয়ানডে ও সাতটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচে।

/আরআই/এফআইআর/

লাইভ

টপ