আগে বিপণন কর্মকর্তা, পরে ক্রিকেটার রোহান মুস্তফা!

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২০:২৬, ফেব্রুয়ারি ১৯, ২০১৬ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:৩২, ফেব্রুয়ারি ১৯, ২০১৬

রোহান মুস্তফা।এশিয়া কাপের বাছাই পর্বের উদ্বোধনী ম্যাচে জয় পেয়েছে আরব আমিরাত। যেখানে ব্যাটে বলে অলরাউন্ড নৈপুণ্য দেখিয়েছেন আমিরাতের ক্রিকেটার রোহান মুস্তফা। পেশায় বিপণন কর্মচারী নিজের পরিচয় তুলে ধরে শুক্রবার ম্যাচ শেষে আমিরাতের ক্রিকেটের চিত্র তুলে ধরে বলেন, ‘আমিরাত ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গে ক্রিকেটারদের যদি পেশাদারী চুক্তি হয় তাহলে আমাদের পুরো চিত্রই বদলে যাবে। কারণ আমাদের খেলোয়াড়রা বিভিন্ন ক্ষেত্রে চাকুরি করে এবং সন্ধ্যা ৬টার পরে এসে অনুশীলন করে ক্রিকেট খেলে। এটি অত্যন্ত কঠিন কাজ। আমি নিজেই একজন বিপণন কর্মকর্তা। সারাদিন কাজ করে এসে ক্রিকেট খেলা অত্যন্ত কঠিন। কেন্দ্রীয় চুক্তির আওতায় পড়লে নিবিষ্ট চিত্তে ক্রিকেটে মনোযোগ দিতে পারবো।’
আজকের ম্যাচে আফগানিস্তানের বিপক্ষে ওপেনিং করেছেন পাকিস্তান বংশোদ্ভূত এই ক্রিকেটার। এ নিয়ে তিনি বলেন, ‘আমাকে ওপেনার হিসেবে নামতে দেখে আমার দলের সবাই আশ্চর্য হয়েছে। আমিরাতের পক্ষে আমি কখনই ওপেন করিনি। কয়েক দিন আগে হল্যান্ডের বিপক্ষে হারার পর একটি ম্যাচে কোচকে আমি বলেছিলাম আমাকে ওপেনার হিসেবে পাঠাতে। আমাকে তিনি জিজ্ঞেস করেছিলেন- ‘তোমার কি আত্মবিশ্বাস আছে।’ উত্তরে আমি বলেছিলাম ৫টি বল পেলেই যথেষ্ট। আমি সেগুলো মাঠের বাইরে পাঠিয়ে দেবো।’

নিজের খেলা ইনিংস নিয়ে মুস্তফা বলেন, ‘কয়েক দিন আগে আমিরাতের সেরা ক্লাব দলের বিপক্ষে আমি এ ধরনের একটি ইনিংস খেলেছিলাম। ৭০ রান করেছিলাম এবং সেই স্মৃতিটা মাথায় নিয়েই আমি আজ খেলতে নামি। সাধারণত আমি এত বিধ্বংসী ইনিংস খেলি না। আর কোচ এবং ম্যানেজার সবাই আমাকে সেই সাহস দিয়েছেন যে তুমি যদি আউটও হয়ে যাও তাহলে এ নিয়ে চিন্তা করো না। তুমি নিজের খেলা খেলো। আগামী ম্যাচে এর কোনও প্রভাব পড়বে না।’

আমিরাতের ক্রিকেটের সার্বিক অবস্থা তুলে ধরে মুস্তফা বলেন, ‘আমিরাত ক্রিকেটে একটি পালাবদলের সময় চলছে। আমাদের বিখ্যাত খেলোয়াড় খুররাম খান এবং সাকিব আলী অবসর নেওয়ার পর নতুন ক্রিকেটার আসছে। আমার মনে হয় আমরা যেহেতু যথেষ্ট টি-টোয়েন্টি খেলি। সে হিসেবে আমরা শক্তিশালী দল।’

নিজের পরিচিতি তুলে ধরে কষ্টের জীবন নিয়েও কথা বলেন এই ক্রিকেটার। বলেন, ‘আমার জন্ম পাকিস্তানে। আমি খুব ছোট বেলায় আমিরাতে চলে যাই। ১২ বছর বয়সে আমার বাবা মারা যান। অনেক কষ্ট করে ক্রিকেটের সঙ্গে যুক্ত হয়েছি। এখন মনে হয় আমার সময় এসেছে। আমি আমিরাতের হয়ে খেলার স্বপ্ন পূরণ করছি।’

/আরএম/এফআইআর/

লাইভ

টপ