X
বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২
১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

যেভাবে ‘মেড ইন বাংলাদেশ’ পণ্য হলো মোবাইল-ল্যাপটপ

হিটলার এ. হালিম
২৬ মে ২০২২, ২৩:৫৯আপডেট : ২৭ মে ২০২২, ১৫:১৬

দেশে উৎপাদিত মোবাইল ফোন, ল্যাপটপ, ট্যাব ইত্যাদি প্রযুক্তি পণ্যকে কী নামে ডাকা হবে, তা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে তর্ক-বিতর্ক চলে আসছে দেশের তথ্যপ্রযুক্তি অঙ্গনে। ‘মেড ইন বাংলাদেশ’, ‘মেক ইন বাংলাদেশ’, নাকি ‘অ্যাসেমব্লিং ইন বাংলাদেশ’ লেখা হবে— এ নিয়ে আলোচনার শেষ নেই। তবে ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী এবং দেশের মোবাইল ফোন উৎপাদকরা বলেছেন, ‘মেড ইন বাংলাদেশ’-ই হবে। অন্য কোনও কিছু বলার সুযোগ নেই।

তবে ‘মেড ইন বাংলাদেশ’ পণ্য নামে ডাকার জন্য সরকারের মৌলিক শর্ত ছিল— মোবাইল, ল্যাপটপ, ট্যাব ইত্যাদিতে স্থানীয়ভাবে ৩০ শতাংশ ভ্যালু অ্যাড করতে হবে। দেশের ১৪টি মোবাইল ফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠানের মধ্যে বেশিরভাগই ৩০ শতাংশের কোটা পূরণ করতে পেরেছে। যারা এখনও পারেনি, তারা একটা প্রক্রিয়ার ভেতর রয়েছে। শিগগিরই বাকি অংশটাও পূরণ হয়ে যাবে বলে অভিমত ব্যক্ত করেছেন সংশ্লিষ্টরা।

এ বিষয়ে জানেতে চাইলে ডাক টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেন, ‘অবশ্যই মেড ইন বাংলাদেশ পণ্য বলতে হবে। মেক ইন বাংলাদেশ বা অ্যাসেমব্লিং ইন বাংলাদেশ বলার কোনও সুযোগ নেই। দেশে মোবাইল কারখানা তৈরির জন্য আমরা অনেক ধরনের সুযোগ-সুবিধা দিচ্ছি। কারখানা-সংশ্লিষ্ট এলাকাকে হাইটেক পার্ক ঘোষণা করছি। সেখানে তারা কর অবকাশ সুবিধাসহ আরও অনেক সুবিধা পাচ্ছে। ৯৪টি পণ্যের শুল্ক কমিয়ে ১ শতাংশ করা হয়েছে। যারা স্মার্টফোন, ল্যাপটপ এবং অন্যান্য যন্ত্রাংশ রফতানি করছে, তারা ১০ শতাংশ হারে প্রণোদনা পাচ্ছে।’ 

এ বিষয়ে দেশে স্থাপিত প্রথম মোবাইল ফোন তৈরির কারখানার (স্যামসাং মোবাইল) উদ্যোক্তা প্রতিষ্ঠান ফেয়ার ইলেকট্রনিকস লিমিটেডের প্রধান বিপণন কর্মকর্তা মোহাম্মদ মেসবাহ উদ্দিন বলেন, ‘মেড ইন বাংলাদেশ পণ্যের মৌলিক শর্ত হলো— স্থানীয়ভাবে ৩০ শতাংশ ভ্যালু অ্যাড করতে হবে। স্যামসাংয়ের মোবাইল কারখানা স্থাপনের শুরুর দিকে আমরা প্রায় সব যন্ত্রাংশ আমদানি করতাম। সে সময় আমরা বলতাম মেই ইন চায়না অ্যাসেমব্লিং ইন বাংলাদেশ। পরে আমরা পিসিবি নিজেরা তৈরি করতে শুরু করি। ব্যাটারি, চার্জার, মোবাইলের পর্দা এখানে তৈরি করতে শুরু করি। এখন আমাদের ভ্যালু অ্যাডিশন ৩০ শতাংশের বেশি। ফলে আমরা মেড ইন বাংলাদেশ মোবাইল বলতেই পারি।’

সিম্ফনি মোবাইল ফোনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং মোবাইল ফোন আমদানিকারক অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক জাকারিয়া শহিদ বলেন,‘আমাদের দেশে মোবাইল ফোন তৈরির ১৪টি কারখানা রয়েছে। এসব কারখানা মানুফ্যাকচারিং (সিকেডি) এবং অ্যাসেমব্লিং (এসকেডি) কাট্যাগরিতে কারখানার অনুমতি পেয়েছে। আমাদের জানা মতে, ১০টি প্রতিষ্ঠান মোবাইল তৈরি করছে। তারা দেশে পিসিবি, চার্জার, ব্যাটারি, হেডফোন তৈরি করছে। ফলে তারা বলতেই পারে মেড ইন বাংলাদেশ। ৪টির মতো প্রতিষ্ঠান (মোবাইল কারখানা) এখনও সব শর্ত পূরণ করতে পারেনি।’

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, সব মোবাইল ফোন কারখানা প্রায় ২২ থেকে ২৬ শতাংশ স্থানীয়ভাবে ভ্যালু অ্যাড করছে। কিছু কিছু প্রতিষ্ঠানের এই শতাংশ ১৮। তবে ১৮-এর নিচে কারও নেই বলে সবার অভিমত। স্থানীয় শ্রমিক-কর্মী, বিদ্যুৎ, নিজেদের ভবন ইত্যাদিও এই ভ্যালু চেইনের অংশ। ফলে মেড ইন বাংলাদেশ বলাই যায়। যারা এখনও পুরোপুরি শর্ত পূরণ করতে পারেনি, তারা প্রক্রিয়ার মধ্যে রয়েছে।  

ওয়ালটন ডিজি-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক লিয়াকত আলী ভূঁইয়ার কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এনবিআরের একটা নিয়ম দেওয়া আছে, মেইড ইন বাংলাদেশ পণ্য বলতে হলে স্থানীয়ভাবে ওই পণ্যে ৩০ শতাংশ ভ্যালু অ্যাড করতে হবে। ওয়ালটনের পণ্যে এই হার ৩০ শতাংশের বেশি।’

তিনি বলেন, ‘আমরা সব ধরনের শর্ত পূরণ করেই মেড ইন বাংলাদেশ পণ্য বলছি।’

জানা গেছে, ওয়ালটন পিসিবি, মাদারবোর্ড, মাউস, কি-বোর্ড, পেন ড্রাইভসহ আরও অনেক কিছু তৈরি করে।  

উল্লেখ্য, ওয়ালটন, স্যামসাং, নকিয়া, ভিভো, সিম্ফনি, আইটেল, টেকনো, ইনফিনিক্স, লাভা, লিনেক্স, অপো, রিয়েলমি, মাইসেল, ডিটিসি, ফাইভস্টার, উইনস্টার, শাওমি, প্রোটন ইত্যাদি মোবাইল দেশে তৈরি হচ্ছে।

 

/এপিএইচ/
আর্জেন্টিনার সঙ্গে হেরেও ম্যাচ শেষে হাসলো পোল্যান্ড
আর্জেন্টিনার সঙ্গে হেরেও ম্যাচ শেষে হাসলো পোল্যান্ড
আর্জেন্টিনার জয়ে উৎসবমুখর পুরান ঢাকা
আর্জেন্টিনার জয়ে উৎসবমুখর পুরান ঢাকা
নয়া পল্টনে সমাবেশের অনুমতি চেয়ে দুই বার চিঠি দিয়েছে বিএনপি
আইজিপির সঙ্গে সাক্ষাৎ করবে প্রতিনিধি দলনয়া পল্টনে সমাবেশের অনুমতি চেয়ে দুই বার চিঠি দিয়েছে বিএনপি
পোল্যান্ডের গোলরক্ষক যা করেছেন, গত ৪ বিশ্বকাপেও তা কেউ করতে পারেননি
পোল্যান্ডের গোলরক্ষক যা করেছেন, গত ৪ বিশ্বকাপেও তা কেউ করতে পারেননি
সর্বাধিক পঠিত
লুট হওয়া ১১ অস্ত্র মিয়ানমার থেকে ফেরত পাওয়ার আশা বিজিবির
লুট হওয়া ১১ অস্ত্র মিয়ানমার থেকে ফেরত পাওয়ার আশা বিজিবির
রিট করার পরামর্শ দিয়েছেন হাইকোর্ট
ইসলামী ব্যাংকের ৩০ হাজার কোটি টাকা ঋণরিট করার পরামর্শ দিয়েছেন হাইকোর্ট
তিনি সাধারণ শিক্ষার্থীদের নেতা
তিনি সাধারণ শিক্ষার্থীদের নেতা
৪ ডিসেম্বর থেকে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ ট্রেন চলাচল বন্ধ
৪ ডিসেম্বর থেকে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ ট্রেন চলাচল বন্ধ
টিভিতে আজকের খেলা (৩০ নভেম্বর ২০২২)
টিভিতে আজকের খেলা (৩০ নভেম্বর ২০২২)