X
শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৩ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

মিসরে আড়াই হাজার বছরের পুরনো কফিনের সন্ধান

আপডেট : ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০০:২৭

মিসরে প্রাচীন এক গোরস্থানে আড়াই হাজার বছরেরও বেশি সময় আগে কবর দেওয়া ২৭টি কফিন উত্তোলন করা হয়েছে। রাজধানী কায়রোর দক্ষিণে সাক্কারা এলাকায় সদ্য সন্ধান পাওয়া একটি কূপের ভেতরে পাথরের তৈরি এসব কফিন বা শবাধারের খোঁজ মিলেছে। কর্মকর্তারা বলছেন, এ মাসের শুরুর দিকে তোলা হয় ১৩টি কফিন। তার পরে আরও ১৪টি শবাধার মাটির নিচ থেকে ওঠানো হয়েছে।

প্রত্নতত্ত্ববিদরা বলছেন, মিসরে এত ব্যাপক সংখ্যায় শবাধার এর আগে খুব কমই তোলা হয়েছে।

কফিনগুলোর যেসব ছবি প্রকাশ করা হয়েছে তাতে দেখা যাচ্ছে এগুলো কাঠের তৈরি। এসবের গায়ে নানা রঙ দিয়ে নকশা আঁকা। এগুলোর সঙ্গে ছোট ছোট বেশ কয়েকটি মমিও রয়েছে।

সাক্কারার এই সমাধিক্ষেত্রে তিন হাজার বছর ধরে মৃতদেহ কবর দেওয়া হতো। এই এলাকাটি জাতিসংঘের বিজ্ঞান ও সংস্কৃতি বিষয়ক সংস্থা ইউনেস্কো ঘোষিত বিশ্ব ঐতিহ্য এলাকা বা ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ সাইটের অন্তর্ভুক্ত।

শনিবার মিসরের পুরাতত্ত্ব মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘প্রাথমিক গবেষণায় দেখা গেছে এসব কফিন পুরোপুরি বন্ধ এবং কবর দেওয়ার পর এগুলো কখনও খোলা হয়নি।’

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, পুরাতত্ত্ব বিষয়ক মন্ত্রী খালেদ আল-আনানি এই কফিন খুঁজে পাওয়ার ঘোষণা দিতে বিলম্ব করেছেন। তিনি নিজে ওই গোরস্থানটি পরিদর্শন করে দেখার পর সদ্য আবিষ্কৃত এসব শবাধারের কথা আনুষ্ঠানিকভাবে জানানো হয়েছে।

প্রত্নতত্ত্ববিদরা ৩৬ ফুট গভীর কূপের ভেতরে নেমে এসব কফিন ওপরে নিয়ে আসেন। কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, এই কাজটি তাদের জন্য খুব একটা সহজ ছিল না।

সাক্কারা গোরস্থানে খননকাজ এখনও চলছে। বিশেষজ্ঞরা এসব কফিনের বিষয়ে আরও তথ্য সংগ্রহের চেষ্টা করছেন।

এসব কফিনে কবে কাদের কবর দেওয়া হয়েছে, কেন এগুলো কখনও খোলা হয়নি- এসব প্রশ্ন ঘিরে যেসব রহস্য তৈরি হয়েছে, কর্মকর্তারা এখন সেসব ভেদ করার জন্য কাজ করে যাচ্ছেন।

মন্ত্রণালয় বলছে, তারা আশা করছে ভবিষ্যতে এসব কফিনের রহস্য ভেদ করার পর সেগুলো সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে তুলে ধরা সম্ভব হবে।

এসব কফিনের পাশাপাশি কূপের ভেতর থেকে আরও যেসব পুরাতাত্ত্বিক সামগ্রী উদ্ধার করা হয়েছে সেগুলোও খুব সুন্দর নকশা করে তৈরি, গায়ে রঙ করা।

এর আগে ২০১৮ সালের নভেম্বর মাসে প্রত্নতত্ত্ববিদরা সাক্কারার স্টেপ পিরামিডের কাছ থেকে মমি করা বেশ কিছু প্রাণীর সন্ধান পেয়েছিলেন। এসব প্রাণীর মধ্যে রয়েছে বিড়াল, কুমির, গোখরো সাপ ও পাখি।

এই সাক্কারার অবস্থান রাজধানী কায়রো থেকে ৩০ কিলোমিটার দক্ষিণে। প্রাচীন মিসরের রাজধানী মেমফিসের লোকজন এই এলাকাটিকে তাদের গোরস্থান হিসেবে ব্যবহার করতো।

পর্যটন শিল্পকে চাঙা করতে মিসরে সম্প্রতি এ ধরনের পুরাকীর্তি খুঁজে বের করার ওপর জোর দেওয়া হয়েছে। সূত্র: বিবিসি।

/এমপি/এমওএফ/

সম্পর্কিত

লেবাননে ইরানি তেল ট্যাংকারের বহর

লেবাননে ইরানি তেল ট্যাংকারের বহর

আমিরাতের বৃহত্তম র‍্যাফেল ড্র’র ঘোষণা, পুরস্কার ১৮০ কোটি টাকা

আমিরাতের বৃহত্তম র‍্যাফেল ড্র’র ঘোষণা, পুরস্কার ১৮০ কোটি টাকা

গ্রেটার সাহারায় আইএস প্রধানকে হত্যা, বড় সাফল্য বলছে ফ্রান্স

গ্রেটার সাহারায় আইএস প্রধানকে হত্যা করেছে ফ্রান্স

পারমাণবিক আলোচনা শুরুর আগে ইরানে গুরুত্বপূর্ণ রদবদল

ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে গুরুত্বপূর্ণ রদবদল

চলে গেলেন আলজেরিয়ার সাবেক প্রেসিডেন্ট বুতেফলিকা

আপডেট : ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩:২৪

শারীরিক অসুস্থতার কারণে মারা গেছেন আলজেরিয়ার সাবেক প্রেসিডেন্ট আব্দেল আজিজ বুতেফলিকা। দীর্ঘদিন তিনি অসুস্থ ছিলেন। শুক্রবার তার মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছে আলজেরিয়ার প্রেসিডেন্ট কার্যালয়। ৮৪ বছর বয়সী সাবেক প্রেসিডেন্ট কোথায় ও কীভাবে মারা গেছেন বিষয়টি স্পষ্ট করেনি সংশ্লিষ্টরা।

২০১৩ সালে স্ট্রোক করার পর জনসমক্ষে খুবই কম দেখা গেছে তাকে। টানা দুই দশক দেশ শাসনের পর ২০১৯ সালে প্রবল বিক্ষোভের মুখে প্রেসিডেন্ট পদ থেকে পদত্যাগ করতে বাধ্য হন তিনি। শেষ দিকে তার সরকারের বিরুদ্ধে দুর্নীতি এবং দেশ পরিচালনায় ব্যর্থতার অভিযোগ তোলেন দেশটির জনগণ।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী পদে তিনি ১৬ বছর দায়িত্ব পালন করেছেন। জাতিসংঘের বিভিন্ন কর্মকাণ্ডেও সক্রিয় ছিলেন আলজেরিয়ার সাবেক এই প্রেসিডেন্ট। সাধারণ পরিষদের সভাপতি থাকাকালে ১৯৭৪ সালে তিনি ফিলিস্তিনি নেতা ইয়াসির আরাফাতকে জাতিসংঘে বক্তৃতা করার আমন্ত্রণ জানান, দক্ষিণ আফ্রিকার বর্ণবৈষম্যের বিরুদ্ধেও শক্ত অবস্থানে ছিলেন তিনি।

সূত্র: বিবিসি

/এলকে/

সম্পর্কিত

হাইতির প্রেসিডেন্ট হত্যাকাণ্ড: দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা প্রধানমন্ত্রীর

হাইতির প্রেসিডেন্ট হত্যাকাণ্ড: দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা প্রধানমন্ত্রীর

ভারতে রহস্যজনক জ্বরে শিশুসহ ৬৮ জনের মৃত্যু

ভারতে রহস্যজনক জ্বরে শিশুসহ ৬৮ জনের মৃত্যু

জয়লাভ, কারাবরণ কিংবা মৃত্যু ছাড়া পথ নেই: বলসোনারো

জয়লাভ, কারাবরণ কিংবা মৃত্যু ছাড়া পথ নেই: বলসোনারো

জেলখানায় আত্মহত্যার চেষ্টা বলিভিয়ার সাবেক প্রেসিডেন্টের

জেলখানায় আত্মহত্যার চেষ্টা বলিভিয়ার সাবেক প্রেসিডেন্টের

অস্ট্রেলিয়া-যুক্তরাষ্ট্র থেকে রাষ্ট্রদূতদের ডেকে পাঠালো ফ্রান্স

আপডেট : ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:৩৬

পারমাণবিক সাবমেরিন চুক্তি স্বাক্ষরের প্রতিবাদে অস্ট্রেলিয়া ও যুক্তরাষ্ট্র থেকে দেশের নিজেদের রাষ্ট্রদূতদের ডেকে পাঠিয়েছে ফ্রান্স। শুক্রবার এক বিবৃতিতে ফরাসি পররাষ্ট্রমন্ত্রী জ্যঁ ইভে ল দ্রিঁয়া জানান, প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁর অনুরোধেই রাষ্ট্রদূতদের ডাকা হয়েছে। মিত্র দেশ থেকে রাষ্ট্রদূত ডেকে পাঠানোর ঘটনা ফ্রান্সের ক্ষেত্রে বিরল।

গত বুধবার অত্যাধুনিক প্রতিরক্ষা প্রযুক্তি ভাগাভাগি করে চীনকে মোকাবিলায় বিশেষ নিরাপত্তা চুক্তি স্বাক্ষরের ঘোষণা দেয় যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য ও অস্ট্রেলিয়া। এই চুক্তির ফলে প্রথমবারের মতো পারমাণবিক ক্ষমতাসম্পন্ন সাবমেরিন তৈরি করতে পারবে অস্ট্রেলিয়া।

এর আগে, অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে ফ্রান্সের বিপুল অঙ্কের একটি চুক্তি ছিল। যে চুক্তির আওতায় অস্ট্রেলিয়াকে পারমাণবিক শক্তিচালিত সাবমেরিন সরবরাহ করার কথা ছিল প্যারিসের। কিন্তু ত্রিদেশীয় চুক্তির ফলে ফ্রান্সের কাছ থেকে আর সাবমেরিন নেবে না অস্ট্রেলিয়া। আর এতেই ক্ষুব্ধ এমানুয়েল ম্যাক্রোঁর প্রশাসন।

মিত্র দেশের কাছ থেকে এমন চুক্তিকে অপ্রত্যাশিত আচরণ উল্লেখ করেছেন ফরাসি পররাষ্ট্রমন্ত্রী। ত্রিদেশীয় পারমাণবিক সাবমেনি চুক্তি স্বাক্ষরের বিষয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন পিঠে ছুরিকাঘাত করেছেন এবং তিনি সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মতো আচরণ করছেন বলেও নিন্দা জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী জ্যঁ ইভে ল দ্রিঁয়া।

/এলকে/

সম্পর্কিত

কাবুলে ড্রোন হামলাকে ‘মর্মান্তিক ভুল’ বললো যুক্তরাষ্ট্র

কাবুলে ড্রোন হামলাকে ‘মর্মান্তিক ভুল’ বললো যুক্তরাষ্ট্র

ফ্রান্সের ২৪টি পুরাতন বিমান কিনতে যাচ্ছে ভারত

ফ্রান্সের ২৪টি পুরাতন বিমান কিনতে যাচ্ছে ভারত

দাবানল থেকে 'জেনারেল শেরম্যান'কে রক্ষায় বিশেষ ব্যবস্থা

দাবানল থেকে 'জেনারেল শেরম্যান'কে রক্ষায় বিশেষ ব্যবস্থা

সৌদিকে বিপুল অঙ্কের সামরিক সরঞ্জাম দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র

সৌদিকে বিপুল অঙ্কের সামরিক সরঞ্জাম দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র

আফগান মেয়েদের মাধ্যমিক শিক্ষা নিষিদ্ধ করলো তালেবান

আপডেট : ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:২২

আফগানিস্তানের মাধ্যমিক পর্যায়ের স্কুলে খুলছে শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) থেকে। ছেলে শিক্ষর্থীরা ক্লাসে ফিরতে পারলেও মাধ্যমিক স্তরের মেয়ে শিক্ষার্থীদের ঘরে থাকার নির্দেশ দিয়েছে তালেবান সরকার।

শুক্রবার (১৭ সেপ্টেম্বর) তালেবান সরকারের শিক্ষা মন্ত্রণালয় ঘোষণা জানিয়েছে, সপ্তম থেকে দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষা কার্যক্রম চালু হচ্ছে। পুরুষ শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা তাদের নিজ নিজ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন। তবে নারী শিক্ষক এবং শিক্ষার্থীরা ফিরতে পারবেন কিনা, এ বিষয়ে কিছু জানানো হয়নি। তালেবান সরকারের এই আদেশে বহু শিক্ষার্থী ঝড়ে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে।

তালেবানের অন্তর্বর্তী সরকারের কর্মকর্তারা বলেছেন, এবারের তালেবান শাসনামল ১৯৯৬-২০০১ সালের সময়ের মতো হবে না। ওই সময় নারী শিক্ষা নিষিদ্ধ ছিল। কিন্তু এবার তালেবান প্রতিশ্রুতি দিয়েছে যে, মেয়েদেরকে পড়াশোনার সুযোগ দেওয়া হবে। এদিকে বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সুযোগ দিলেও ক্লাসে ছেলে-মেয়েদের আলাদা বসার আদেশ দিয়েছে অন্তর্বর্তী সরকার।

আফগানিস্তান অ্যানালিটিস নেটওয়ার্কের সহ-পরিচালক কেট ক্লার্ক বলেন, তালেবান ক্ষমতা দখলের পর নারীদের শিক্ষা ও কাজের সুযোগ দেওয়ার কথা বললেও তা থেকে সরে আসছে। প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন করছে না গোষ্ঠীটি।

/এলকে/
টাইমলাইন: আফগানিস্তান সংকট
১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:৪১
আফগান মেয়েদের মাধ্যমিক শিক্ষা নিষিদ্ধ করলো তালেবান
১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২২:১৮

সম্পর্কিত

কাবুলে ড্রোন হামলাকে ‘মর্মান্তিক ভুল’ বললো যুক্তরাষ্ট্র

কাবুলে ড্রোন হামলাকে ‘মর্মান্তিক ভুল’ বললো যুক্তরাষ্ট্র

আফগান নারী মন্ত্রণালয় এখন তালেবানের ‘পাপ ও পুণ্য’ মন্ত্রণালয়

আফগান নারী মন্ত্রণালয় এখন তালেবানের ‘পাপ ও পুণ্য’ মন্ত্রণালয়

বৃদ্ধ ও গৃহপালিত পশু ছাড়া কেউ নেই, যেন এক ভুতুড়ে শহর

বৃদ্ধ ও গৃহপালিত পশু ছাড়া কেউ নেই, যেন এক ভুতুড়ে শহর

কাবুলে ড্রোন হামলাকে ‘মর্মান্তিক ভুল’ বললো যুক্তরাষ্ট্র

আপডেট : ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৪৩

কাবুলে মার্কিন ড্রোন হামলায় শিশুসহ ১০ বেসামরিক নিহতের ঘটনা স্বীকার করেছে যুক্তরাষ্ট্র। সামরিক বাহিনীর সেন্ট্রাল কমান্ডের তদন্তে উঠে এসেছে, আফগান আইএস-এর আত্মঘাতী হামলাকারীকে হত্যার উদ্দেশে চালানো ড্রোন হামলাটি ভুলবশত বেসামরিকদের টার্গেট করা হয়। এমন ঘটনাকে ‘মর্মান্তিক ভুল’ অ্যাখা দিয়েছেন জেনারেল ম্যাকেঞ্জি।

যুক্তরাষ্ট্রের স্থানীয় সময় শুক্রবার (১৭ সেপ্টেম্বর) এক বিবৃতিতে মার্কিন সেনাবাহিনীর মেরিন শাখার শীর্ষ নির্বাহী জেনারেল ফ্র্যাঙ্ক ম্যাকেঞ্জি এই ঘটনাকে ‘দুঃখজনক ভুল’ উল্লেখ করে বলেন, ‘আমাদের তদন্তে জানা গেছে কাবুলে ওই হামলা ভুল ছিল।’

মার্কিন সেন্ট্রাল কমান্ডের তদন্ত জানা গেছে, গত ২৯ আগস্ট জঙ্গি গোষ্ঠী আইএস-কের হামলাকারীর গাড়ি লক্ষ্য করে চালানো ড্রোন হামলায় এক ত্রাণ সহায়তা কর্মীসহ তার পরিবারের ৯ সদস্য প্রাণ হারান। এর মধ্যে ৭ শিশু ছিল।

এ বিষয়ে ম্যাকেঞ্জি বলেন, মার্কিন গোয়েন্দারা ত্রাণ সহায়তা কর্মীর একটি ব্যক্তিগত গাড়িকে শনাক্ত করে ড্রোন হামলা চালানোর আট ঘণ্টা আগে ভেবেছিলেন, গাড়িটি আইএস-কের কোনও আত্মঘাতী হামলাকারীর।

গত ২৬ আগস্ট কাবুল বিমানবন্দর দিয়ে যখন উদ্ধার অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছিল তখন আত্মঘাতী বোমা হামলা চালায় আফগান আইএস। এতে ১৭০ জনের বেশি মানুষ প্রাণ হারান। এর মধ্যে ১৩ মার্কিন সেনা রয়েছে। এরপরই হামলাকারীর বিরুদ্ধে প্রতিশোধ নিতে যুক্তরাষ্ট্রের ড্রোন অভিযান পরিচালনায় বেসামরিক মানুষ নিহত হন।

/এলকে/
টাইমলাইন: আফগানিস্তান সংকট
১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৩৯
কাবুলে ড্রোন হামলাকে ‘মর্মান্তিক ভুল’ বললো যুক্তরাষ্ট্র
১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২২:১৮

সম্পর্কিত

অস্ট্রেলিয়া-যুক্তরাষ্ট্র থেকে রাষ্ট্রদূতদের ডেকে পাঠালো ফ্রান্স

অস্ট্রেলিয়া-যুক্তরাষ্ট্র থেকে রাষ্ট্রদূতদের ডেকে পাঠালো ফ্রান্স

আফগান মেয়েদের মাধ্যমিক শিক্ষা নিষিদ্ধ করলো তালেবান

আফগান মেয়েদের মাধ্যমিক শিক্ষা নিষিদ্ধ করলো তালেবান

আফগান নারী মন্ত্রণালয় এখন তালেবানের ‘পাপ ও পুণ্য’ মন্ত্রণালয়

আফগান নারী মন্ত্রণালয় এখন তালেবানের ‘পাপ ও পুণ্য’ মন্ত্রণালয়

দাবানল থেকে 'জেনারেল শেরম্যান'কে রক্ষায় বিশেষ ব্যবস্থা

দাবানল থেকে 'জেনারেল শেরম্যান'কে রক্ষায় বিশেষ ব্যবস্থা

ফ্রান্সের ২৪টি পুরাতন বিমান কিনতে যাচ্ছে ভারত

আপডেট : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২৩:৪৮

বিমানবাহিনীর শক্তি বাড়াতে ফ্রান্স থেকে ২৪টি পুরতান ‘মিরাজ-২০০০’ যুদ্ধ বিমান কিনতে যাচ্ছে ভারত। ফ্রান্সের দাসো অ্যাভিয়েশনের তৈরি এই বিমানগুলো।

ভারত সরকার বলছে, নিজেদের বিমান বাহিনী- আইএএফ এর জন্য বিমানগুলো আনা হবে। চতুর্থ প্রজন্মের বিমান বাহিনীকে শক্তিশালী করে গড়ে তুলতে নানা পদক্ষেপ নিয়েছে মোদি সরকার। এরই ধারাবাহিকতায় ফ্রান্সের তৈরি যুদ্ধ বিমান কেনার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে।

এই মডেলের বিমানগুলো প্রায় সাড়ে তিন দশক আগে রাজীব গান্ধী সরকারের সময় ভারতীয় বিমানবহরে যোগ হয়েছিল। ২০১৯ সালে পাকিস্তানের বালাকোটে জঙ্গিশিবিরের হামলাতেও ব্যবহৃত হয় এই যুদ্ধবিমান।

কিন্তু কেন এমন ‘সেকেন্ড হ্যান্ড’ যুদ্ধবিমান কিনছে ভারত? সরকার থেকে জানানো হয়েছে, এখন পর্যন্ত মিরাজ-২০০০ বিমানগুলোর ‘পারফরম্যান্স’ যথেষ্ট ভাল।

ফরাসি বিমানবাহিনীর ব্যবহৃত ওই ২৪টি মিরাজ যুদ্ধবিমানের দাম পড়বে মাত্র ২ কোটি ৭০ লাখ ইউরো, যা ভারতীয় রুপিতে ২৩৫ কোটি টাকা। অর্থাৎ একটি রাফাল যুদ্ধবিমানের দামের পাঁচ ভাগের এক ভাগেই ২৪টি মিরাজ যুক্ত হবে ভারতীয় বিমানবাহিনীতে।

সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস, আনন্দবাজার

/এলকে/

সম্পর্কিত

অস্ট্রেলিয়া-যুক্তরাষ্ট্র থেকে রাষ্ট্রদূতদের ডেকে পাঠালো ফ্রান্স

অস্ট্রেলিয়া-যুক্তরাষ্ট্র থেকে রাষ্ট্রদূতদের ডেকে পাঠালো ফ্রান্স

মোদির জন্মদিনে দুই কোটি টিকা প্রয়োগের রেকর্ড ভারতের

মোদির জন্মদিনে দুই কোটি টিকা প্রয়োগের রেকর্ড ভারতের

সম্পর্কের উন্নতি চাইলে সীমান্তের সেনা প্রত্যাহার করুন: চীনকে ভারত

সম্পর্কের উন্নতি চাইলে সীমান্তের সেনা প্রত্যাহার করুন: চীনকে ভারত

তৃতীয় ডোজের প্রয়োজনীয়তার কোনও প্রমাণ নেই: আদর পুনাওয়ালা

তৃতীয় ডোজের প্রয়োজনীয়তার কোনও প্রমাণ নেই: আদর পুনাওয়ালা

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

লেবাননে ইরানি তেল ট্যাংকারের বহর

লেবাননে ইরানি তেল ট্যাংকারের বহর

আমিরাতের বৃহত্তম র‍্যাফেল ড্র’র ঘোষণা, পুরস্কার ১৮০ কোটি টাকা

আমিরাতের বৃহত্তম র‍্যাফেল ড্র’র ঘোষণা, পুরস্কার ১৮০ কোটি টাকা

গ্রেটার সাহারায় আইএস প্রধানকে হত্যা, বড় সাফল্য বলছে ফ্রান্স

গ্রেটার সাহারায় আইএস প্রধানকে হত্যা করেছে ফ্রান্স

পারমাণবিক আলোচনা শুরুর আগে ইরানে গুরুত্বপূর্ণ রদবদল

ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে গুরুত্বপূর্ণ রদবদল

দুর্ঘটনায় ভিড় করলে ২৩ হাজার টাকা জরিমানা

দুর্ঘটনায় ভিড় করলে ২৩ হাজার টাকা জরিমানা

ইদলিবে আরও সেনা এবং সামরিক সরঞ্জাম পাঠালো তুরস্ক

ইদলিবে সামরিক উপস্থিতি বাড়ালো তুরস্ক

আসাদের সঙ্গে বৈঠক পুতিনের

আসাদের সঙ্গে বৈঠক পুতিনের

কোনও হুমকি সহ্য করা হবে না: ইরান

কোনও হুমকি সহ্য করা হবে না: ইরান

জেনারেল সিসির আমন্ত্রণে মিসরে ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী

জেনারেল সিসির আমন্ত্রণে মিসরে ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী

সর্বশেষ

হেফাজত নেতা মুফতি রিজওয়ান রফিকী গ্রেফতার

হেফাজত নেতা মুফতি রিজওয়ান রফিকী গ্রেফতার

কবি শিমুল খান, চলছে উপন্যাসেরও প্রস্তুতি!

কবি শিমুল খান, চলছে উপন্যাসেরও প্রস্তুতি!

টেকনাফে শঙ্কায় প্রার্থী ও ভোটাররা 

টেকনাফে শঙ্কায় প্রার্থী ও ভোটাররা 

‘সম্মানহানি’র প্রতিবাদে ১১ সাংবাদিক নেতার সংবাদ সম্মেলন

‘সম্মানহানি’র প্রতিবাদে ১১ সাংবাদিক নেতার সংবাদ সম্মেলন

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনে ৬০ জনের চাকরির সুযোগ

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনে ৬০ জনের চাকরির সুযোগ

© 2021 Bangla Tribune