সেকশনস

দেশে করোনা ভ্যাকসিনের ট্রায়াল নিয়ে অনিশ্চয়তা কাটছে না

আপডেট : ২০ ডিসেম্বর ২০২০, ১০:১৮

দেশে করোনার ভ্যাকসিন নিয়ে যেমন আলোচনা-আগ্রহ রয়েছে, তেমনি শুরু থেকেই করোনা ভ্যাকসিনের ট্রায়াল নিয়েও আগ্রহ ছিল। আর সে আগ্রহে গতি পায় যখন চীনের সিনোভ্যাকের সঙ্গে সরকারের ট্রায়াল চুক্তি হয়। কিন্তু সিনোভ্যাক আর্থিক সহযোগিতা চাওয়ায় সে ট্রায়াল ঝুলে আছে। ট্রায়াল হওয়ার কথা ছিল সানোফিরও। প্রস্তুতিও শেষ করে এনেছিল বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ)। কিন্তু সেটাও কবে হবে, কেউ বলতে পারছে না।

এদিকে আগামী জানুয়ারি মাসে দেশে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রোজেনকার ৫০ লাখ ডোজ ভ্যাকসিন আসবে বলে আশা করছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। মন্ত্রণালয়ে জমা দেওয়া হয়েছে ভ্যাকসিন বিষয়ক জাতীয় পরিকল্পনা। সেটা চলে গেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার কাছে। দেশেও এ সংক্রান্ত সব কাজ শেষ হয়েছে। এখন কেবল ভ্যাকসিন পাওয়ার অপেক্ষা বলেও জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদফতর।

কোভিড-১৯ বিষয়ক জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটিও একাধিকবার দেশে ভ্যাকসিন ট্রায়ালের সুপারিশ করেছে। কমিটির সুপারিশ ছিল, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তালিকাতে যেসব ভ্যাকসিন শেষ ধাপে রয়েছে সেসবের ট্রায়ালেও যেন বাংলাদেশ অংশ নিতে পারে, সেই ব্যবস্থা করা। আবার বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা নিজেই সলিডারিটি ট্রায়াল নামে একটি ট্রায়াল দেবে কয়েকটি ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা দেখার জন্য।

ফরাসি ওষুধ কোম্পানি সানোফির ভ্যাকসিনের ট্রায়াল করার প্রস্তুতি নিয়েছিল বিএসএমএমইউ। তারা এজন্য অনুমোদন চেয়ে আবেদন করেছে বাংলাদেশ মেডিক্যাল রিসার্চ কাউন্সিলে (বিএমআরসি)।

জানতে চাইলে বিএসএমএমইউর উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ওরা (সানোফি) একটু পিছিয়ে দিয়েছে ট্রায়াল, একইসঙ্গে আমাদেরকেও ‘স্লো’ যেতে বলেছে। তাদের ডেডলাইন ছিল ১৫ ডিসেম্বর। কিন্তু এখন ‘ফিউ উইকস’ পেছানোর কথা বলেছে, নির্দিষ্ট করে কোনও সময় নির্ধারিত করে দেয়নি।

বিএসএমএমইউ প্রস্তুত রয়েছে কিনা জানতে চাইলে অধ্যাপক কনক কান্তি বড়ুয়া বলেন, আমরা প্রস্তুত, তবে এখন একটু অনিশ্চয়তা রয়েছে।

কোভিড-১৯ বিষয়ক জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটির সদস্য অধ্যাপক ডা. নজরুল ইসলাম বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, সিনোভ্যাকের ট্রায়ালটা হলো না, অথচ পরামর্শক কমিটি সিনোভ্যাকের ট্রায়াল দিতে সুপারিশ করেছিল। একইসঙ্গে যদি সেটা ‘ভালো’ হতো, তাহলে আমাদের দেশের কোনও কোম্পানিকেও লাইসেন্স দিতে বলা যেতে পারে ‘প্রডিউস’ করার জন্য। কারণ দেশে প্রডিউস হলে দাম কম হওয়ার সুবিধাটাও আমরা পেতাম। সিনোভ্যাকের ট্রায়ালটা হলো না, তারা যাচাই-বাছাই করতে করতে সময় পার করলো, কিন্তু প্রথমে তো তারা আর্থিক সহায়তা চায়নি—বলেন অধ্যাপক নজরুল ইসলাম।

তিনি প্রশ্ন রেখে বলেন, একটা ফুটবল টিম মোটেই খেলতে পারে না, তার খেলা দেখার জন্য কি কেউ স্টেডিয়ামে বসে থাকবে নাকি? অথচ বাংলাদেশে একটা ট্রায়াল হওয়া দরকার ছিল, বাংলাদেশের জনগোষ্ঠী কীভাবে ভ্যাকসিনে রিঅ্যাক্ট করবে, সেটা দেখতে হবে না? দেশে যদি ট্রায়াল হতো, তাহলে ভ্যাকসিন চুজ করার অপশন থাকতো, তাতে করে অনেক সুবিধা হতো।

যে কোনও ভ্যাকসিনের ট্রায়াল হওয়া উচিত মন্তব্য করে নজরুল ইসলাম বলেন, এমনকি অক্সফোর্ড অ্যাস্ট্রোজেনকার ভ্যাকসিনেরও ট্রায়াল হয়ে আসা উচিত। এখন লাখ লাখ মানুষকে ভ্যাকসিনকে দেওয়া হবে, কিন্তু তাদের মধ্যে যদি কেউ সাফার করে তাহলে সেটা দুঃখজনক বিষয়। তাই পরামর্শক কমিটি চেয়েছিল দেখেশুনে বাছাই করে পরীক্ষা করে নেওয়ার জন্য।

অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিনে বাংলাদেশে পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া হলে করণীয় কী হবে জানতে চাইলে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেন, এ ভ্যাকসিনে এখন পর্যন্ত তেমন কোনও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হয়নি। ভারতের জনগণ আর আমরা একই রকমের। একই আবহাওয়া, একই খাদ্যাভ্যাস। কাজেই আমরা আশা করি কোনও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হবে না।

ট্রায়াল প্রয়োজন আছে কিনা সে প্রসঙ্গে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, আমরা এখন মোর কন্সেন্ট্রেটিং এবং টিকা আসা নিয়েই ব্যস্ত।  এই মুহূর্তে ট্রায়ালের দরকার পড়ে না। অ্যাস্ট্রোজেনকার টিকার আর ট্রায়াল দরকার নেই, ভারত, আমেরিকা ও যুক্তরাজ্যে ট্রায়াল হয়েছে। কিন্তু অন্যগুলো ট্রায়াল হলে ভালো হতো কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমরা যদি এখান থেকেই টিকা পেতে থাকি, তাহলে আর অন্যগুলোর দরকার হবে না।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ট্রায়াল খুব দরকার ছিল। তবে সেটা আরও আগে হওয়া উচিত ছিল, তাতে করে অনেক ‘বেনিফিট’ আসতো বাংলাদেশের। ‘সময়ের একফোঁড়, অসময়ের দশফোঁড়’ মন্তব্য করে তিনি বলেন, প্রথম যখন সিনোভ্যাকের অফার এলো, আমরা সেটা নিয়ে বসে থাকলাম, নানান রকমের অজুহাত দিলাম। তখন চীন চিঠি দেয়, ট্রায়ালের বিষয়ে কিছু না জানালে তারা তাদের অফার ফেরত নেবে। তখন মন্ত্রণালয় তাড়াহুড়ো করে ফিরতি জবাব দেয়। কিন্তু ততদিনে সিনোভ্যাক ব্রাজিল, ইন্দোনেশিয়ায় ট্রায়াল শুরু করেছে। এত দেশে যখন চলে গেছে, তখন তো তাদের আর বাংলাদেশকে তোয়াক্কা করার দরকার নাই, এভাবেই ট্রায়ালের সুযোগ আমরা হাতছাড়া করেছি। এখন সানোফির সঙ্গে বিএসএমএমইউর কথা হচ্ছে, বিএমআরসি থেকে আরও তথ্য চাওয়া হয়েছে। সেটাও কবে হয় সে নিয়েও কিছুটা বোধহয় সমস্যা হচ্ছে।

/এমআর/এফএএন/এমএমজে/

সম্পর্কিত

এক মাসে টিকা নিলেন প্রায় ৩৮ লাখ

এক মাসে টিকা নিলেন প্রায় ৩৮ লাখ

এক বছরে শনাক্ত সাড়ে পাঁচ লাখ ছাড়ালো

এক বছরে শনাক্ত সাড়ে পাঁচ লাখ ছাড়ালো

আগের সপ্তাহের তুলনায় বেড়েছে শনাক্ত ও সুস্থতার হার, কমেছে মৃত্যু

আগের সপ্তাহের তুলনায় বেড়েছে শনাক্ত ও সুস্থতার হার, কমেছে মৃত্যু

কমেছে শনাক্ত, বেড়েছে মৃত্যু

কমেছে শনাক্ত, বেড়েছে মৃত্যু

‘জামিন প্যাকেজে’র অফারে বিচারপ্রার্থীর ৭ লাখ টাকা হাওয়া!

‘জামিন প্যাকেজে’র অফারে বিচারপ্রার্থীর ৭ লাখ টাকা হাওয়া!

অগ্নিঝরা ৬ মার্চ: বাংলার উপত্যকা জ্বলছে

অগ্নিঝরা ৬ মার্চ: বাংলার উপত্যকা জ্বলছে

যে এলাকায় এখনও পানযোগ্য নিরাপদ পানির হাহাকার

যে এলাকায় এখনও পানযোগ্য নিরাপদ পানির হাহাকার

জুনের মধ্যে সরবে বিমানবন্দরের পরিত্যক্ত উড়োজাহাজ

জুনের মধ্যে সরবে বিমানবন্দরের পরিত্যক্ত উড়োজাহাজ

বেড়েই চলেছে চালের দাম

বেড়েই চলেছে চালের দাম

নতুন শনাক্ত বাড়ছেই

নতুন শনাক্ত বাড়ছেই

মোটরসাইকেলে জেলার গণ্ডি পেরোতে পারবে না পুলিশ

মোটরসাইকেলে জেলার গণ্ডি পেরোতে পারবে না পুলিশ

অর্থপাচার থামছে না, কঠোর আইন চায় তদন্ত সংস্থাগুলো

অর্থপাচার থামছে না, কঠোর আইন চায় তদন্ত সংস্থাগুলো

সর্বশেষ

নারীর মৃত্যুতে অক্সফোর্ড ভ্যাকসিনের একটি ব্যাচ বাতিল করলো অস্ট্রিয়া

নারীর মৃত্যুতে অক্সফোর্ড ভ্যাকসিনের একটি ব্যাচ বাতিল করলো অস্ট্রিয়া

‘৭ মার্চের ভাষণে উজ্জীবিত হয়ে মানুষ স্বাধীনতা যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছিল’

‘৭ মার্চের ভাষণে উজ্জীবিত হয়ে মানুষ স্বাধীনতা যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছিল’

ব্যাংক খাতে ৯ বছরে অনিয়ম বেড়েছে ১৬ গুণের বেশি

ব্যাংক খাতে ৯ বছরে অনিয়ম বেড়েছে ১৬ গুণের বেশি

৭ মার্চের ভাষণ সারা বিশ্বে স্বাধীনতার প্রামাণ্য দলিল: তাপস

৭ মার্চের ভাষণ সারা বিশ্বে স্বাধীনতার প্রামাণ্য দলিল: তাপস

শেষ মুহূর্তে বেনজেমার গোলে হার এড়ালো রিয়াল মাদ্রিদ

শেষ মুহূর্তে বেনজেমার গোলে হার এড়ালো রিয়াল মাদ্রিদ

সমাবেশের বক্তব্যের জন্য বিএনপি নেতা মিনুর দুঃখ প্রকাশ

সমাবেশের বক্তব্যের জন্য বিএনপি নেতা মিনুর দুঃখ প্রকাশ

উইঘুর গণহত্যার অভিযোগ  অযৌক্তিক ও মিথ্যা: চীন

উইঘুর গণহত্যার অভিযোগ  অযৌক্তিক ও মিথ্যা: চীন

বাংলাদেশের হার ছাপিয়ে আলোচনায় পিটারসন

বাংলাদেশের হার ছাপিয়ে আলোচনায় পিটারসন

কে কত বড় নেতা, সবাইকে আমি চিনি: কাদের মির্জা

কে কত বড় নেতা, সবাইকে আমি চিনি: কাদের মির্জা

‘ভারতের সঙ্গে খুলছে বাণিজ্যের নতুন দুয়ার’

‘ভারতের সঙ্গে খুলছে বাণিজ্যের নতুন দুয়ার’

ইউপি সদস্যকে গুলি করে হত্যা

ইউপি সদস্যকে গুলি করে হত্যা

৮ ইস্যুতে বাংলাদেশ-ভারত সচিব পর্যায়ের বৈঠক সোমবার

৮ ইস্যুতে বাংলাদেশ-ভারত সচিব পর্যায়ের বৈঠক সোমবার

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

‘জামিন প্যাকেজে’র অফারে বিচারপ্রার্থীর ৭ লাখ টাকা হাওয়া!

‘জামিন প্যাকেজে’র অফারে বিচারপ্রার্থীর ৭ লাখ টাকা হাওয়া!

মোটরসাইকেলে জেলার গণ্ডি পেরোতে পারবে না পুলিশ

মোটরসাইকেলে জেলার গণ্ডি পেরোতে পারবে না পুলিশ

অর্থপাচার থামছে না, কঠোর আইন চায় তদন্ত সংস্থাগুলো

অর্থপাচার থামছে না, কঠোর আইন চায় তদন্ত সংস্থাগুলো

ইনস্পায়ার ফিটনেস বাই সোহেল তাজ

ইনস্পায়ার ফিটনেস বাই সোহেল তাজ

এনআইডি জালিয়াতি:  ২০ কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে প্রতারক চক্র

এনআইডি জালিয়াতি: ২০ কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে প্রতারক চক্র

জরুরি চিকিৎসা সামগ্রী আমদানিতে শুল্ক মওকুফের দাবি

জরুরি চিকিৎসা সামগ্রী আমদানিতে শুল্ক মওকুফের দাবি

ভুয়া এনআইডি তৈরি করে ব্যাংক লোন নিতো তারা

ভুয়া এনআইডি তৈরি করে ব্যাংক লোন নিতো তারা

পুলিশের কাছ থেকে তদন্তভার যে কারণে ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে

শিক্ষানবিশ আইনজীবীর মৃত্যুপুলিশের কাছ থেকে তদন্তভার যে কারণে ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে

ড্রোন যেভাবে মশা মারবে

ড্রোন যেভাবে মশা মারবে

দৃশ্যমান হচ্ছে শাহজালাল বিমানবন্দরের তৃতীয় টার্মিনালের অবকাঠামো

১৪ মাসে নির্মাণ ১১ শতাংশদৃশ্যমান হচ্ছে শাহজালাল বিমানবন্দরের তৃতীয় টার্মিনালের অবকাঠামো


[email protected]
© 2021 Bangla Tribune
Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.