X
বুধবার, ২১ এপ্রিল ২০২১, ৮ বৈশাখ ১৪২৮

সেকশনস

২৬ মাস ধরে তৃতীয় বর্ষে, পরীক্ষার দাবিতে অনশনে ২ শিক্ষার্থী

আপডেট : ০১ মার্চ ২০২১, ০৯:২৮

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) তৃতীয় বর্ষের (৪৬তম ব্যাচ) চূড়ান্ত পরীক্ষার দাবিতে আমরণ অনশনে বসেছেন একই বর্ষের দুই শিক্ষার্থী। 

রবিবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) বিকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন প্রশাসনিক ভবনের প্রধান ফটকের সামনে তারা কর্মসূচি শুরু করেন। 

অনশনরত শিক্ষার্থীরা

অনশনে থাকা দুই শিক্ষার্থী হলেন- প্রাণিবিদ্যা বিভাগের নুর হোসাইন এবং ভূগোল ও পরিবেশ বিভাগের নাঈম শেখ। তাদের সঙ্গে একই বর্ষের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীরা একাত্মতা প্রকাশ করেন।

২৬ মাস ধরে তৃতীয় বর্ষে থাকলেও এখনও চূড়ান্ত পরীক্ষা দিতে না পারায় এ কর্মসূচি পালন করতে বাধ্য হয়েছেন বলে জানান তারা। আগামী রোজার ঈদের আগে যেকোনও মূল্যে তৃতীয় বর্ষের চূড়ান্ত পরীক্ষা নেওয়ার দাবি জানিয়েছেন তারা।

অনশনে থাকা শিক্ষার্থী নুর বলেন, ‘গত তিন বছর ধরে তৃতীয় বর্ষে পড়ে আছি। পরীক্ষার জন্য উপাচার্যকে স্মারকলিপি দিলে তিন কার্যদিবসের মধ্যে সিদ্ধান্ত জানানোর কথা বলেন তিনি। এক মাস হলেও কোনও উত্তর আসেনি। আমরা হতাশার মধ্যে দিন কাটাচ্ছি। এ হতাশার কারণে যদি কেউ দুর্ঘটনা ঘটায় তখন এর দায়িত্ব কি বিশ্ববিদ্যালয় নেবে?’

শিক্ষার্থী নাঈম শেখ বলেন, ‘আমরা মানসিকভাবে বিপর্যস্ত। একদিকে পরিবারের দায়িত্ব আরেকদিকে স্নাতক শেষ করতে না পারা। এমন পরিস্থিতিতে মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছি। আমরা যেকোনও মূল্যে ঈদের আগে পরীক্ষা শেষ করতে চাই। সেটা হোক অনলাইনে বা অফলাইনে। তা না হলে এটা আমাদের জন্য চাপ হয়ে যাবে।’

পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর আ স ম ফিরোজ উল হাসানসহ প্রক্টরিয়াল টিম, প্রাধ্যক্ষ্য কমিটির সভাপতি মোতাহার হোসেন এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের ঊর্ধ্বতন শিক্ষকরা এসে অনশনরত শিক্ষার্থীদের বুঝানোর চেষ্টা করেন। কিন্তু অনশনরত শিক্ষার্থীরা পরীক্ষার তারিখ না দেওয়া পর্যন্ত এখানে থাকবেন বলে জানান।

অনশনরত শিক্ষার্থীরা

এর আগে তৃতীয় বর্ষের চূড়ান্ত পরীক্ষার দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেন শিক্ষার্থীরা। কোনও সাড়া না পাওয়ায় ২ ফেব্রুয়ারি পরীক্ষা নেওয়ার জন্য উপাচার্য বরাবর একটি স্মারকলিপি দেন তারা। উপাচার্য তিন কার্যদিবসের মধ্যে সিদ্ধান্ত জানাবেন বললেও এক মাসেও কোন সিদ্ধান্ত দেন নি বলে জানান অনশনরত শিক্ষার্থী নাঈম শেখ।

এ ব্যাপারে উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলামে সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

 

 

 

/এসটি/

সম্পর্কিত

মসজিদ নির্মাণ নিয়ে প্রতিপক্ষের হামলায় নিহত ১

মসজিদ নির্মাণ নিয়ে প্রতিপক্ষের হামলায় নিহত ১

লকডাউনে বাঙ্গি চাষিদের মাথায় হাত

লকডাউনে বাঙ্গি চাষিদের মাথায় হাত

ধানে চিটা, কৃষকের মাথায় হাত

ধানে চিটা, কৃষকের মাথায় হাত

করোনায় ফরিদপুরে ৪ জনের মৃত্যু 

করোনায় ফরিদপুরে ৪ জনের মৃত্যু 

ট্রাক-মোটরসাইকেল সংঘর্ষে নিহত ১

ট্রাক-মোটরসাইকেল সংঘর্ষে নিহত ১

সালথা তাণ্ডব: সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান গ্রেফতার

সালথা তাণ্ডব: সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান গ্রেফতার

পোশাক শ্রমিককে সঙ্ঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ

পোশাক শ্রমিককে সঙ্ঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ

পরিত্যক্ত বাড়ি থেকে সরকারি চাল জব্দ

পরিত্যক্ত বাড়ি থেকে সরকারি চাল জব্দ

বিদ্যুৎস্পৃষ্টে সহকর্মীর মৃত্যু, গার্মেন্টস শ্রমিকদের বিক্ষোভ

বিদ্যুৎস্পৃষ্টে সহকর্মীর মৃত্যু, গার্মেন্টস শ্রমিকদের বিক্ষোভ

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলরের মৃত্যু

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলরের মৃত্যু

কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর স্নাতক ভর্তি পরীক্ষার তারিখ চূড়ান্ত

কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর স্নাতক ভর্তি পরীক্ষার তারিখ চূড়ান্ত

হেফাজতের মামলায় এবার উপজেলা জাপা সভাপতি গ্রেফতার

হেফাজতের মামলায় এবার উপজেলা জাপা সভাপতি গ্রেফতার

সর্বশেষ

করোনায় মারা গেলে বীমা কর্মকর্তার পরিবার কত টাকা পাবে?

করোনায় মারা গেলে বীমা কর্মকর্তার পরিবার কত টাকা পাবে?

লোকসানের শঙ্কায় পেঁয়াজ ব্যবসায়ীরা

লোকসানের শঙ্কায় পেঁয়াজ ব্যবসায়ীরা

১৪০ কোটি টাকার ওষুধ কেনার সিদ্ধান্ত

১৪০ কোটি টাকার ওষুধ কেনার সিদ্ধান্ত

এপ্রিলে ভ্যাট রিটার্ন দেননি প্রায় দেড় লাখ ব্যবসায়ী

এপ্রিলে ভ্যাট রিটার্ন দেননি প্রায় দেড় লাখ ব্যবসায়ী

মহারাষ্ট্রে ট্যাংকারে লিক, হাসপাতালে অক্সিজেনের অভাবে ২২ রোগীর মৃত্যু

মহারাষ্ট্রে ট্যাংকারে লিক, হাসপাতালে অক্সিজেনের অভাবে ২২ রোগীর মৃত্যু

‘আ.লীগের সকল নেতাকর্মীর মূল্যবোধে আঘাত করেনি নূর’

‘আ.লীগের সকল নেতাকর্মীর মূল্যবোধে আঘাত করেনি নূর’

আগামী বাজেট দরিদ্র মানুষের জন্য: অর্থমন্ত্রী

আগামী বাজেট দরিদ্র মানুষের জন্য: অর্থমন্ত্রী

‘রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন বাংলাদেশের গুরুত্বপূর্ণ অগ্রাধিকার’

‘রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন বাংলাদেশের গুরুত্বপূর্ণ অগ্রাধিকার’

কাল থেকে নন ব্যাংকিং আর্থিক প্রতিষ্ঠানও খোলা

কাল থেকে নন ব্যাংকিং আর্থিক প্রতিষ্ঠানও খোলা

মহাসড়কে বসবে এক্সেল লোড নিয়ন্ত্রণ কেন্দ্র

মহাসড়কে বসবে এক্সেল লোড নিয়ন্ত্রণ কেন্দ্র

হেফাজত নেতাদের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহিতার মামলার দাবি ইনুর

হেফাজত নেতাদের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহিতার মামলার দাবি ইনুর

ক্যান্ডিতে নাজমুল পেলেন ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি

ক্যান্ডিতে নাজমুল পেলেন ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মসজিদ নির্মাণ নিয়ে প্রতিপক্ষের হামলায় নিহত ১

মসজিদ নির্মাণ নিয়ে প্রতিপক্ষের হামলায় নিহত ১

লকডাউনে বাঙ্গি চাষিদের মাথায় হাত

লকডাউনে বাঙ্গি চাষিদের মাথায় হাত

ধানে চিটা, কৃষকের মাথায় হাত

ধানে চিটা, কৃষকের মাথায় হাত

করোনায় ফরিদপুরে ৪ জনের মৃত্যু 

করোনায় ফরিদপুরে ৪ জনের মৃত্যু 

ট্রাক-মোটরসাইকেল সংঘর্ষে নিহত ১

ট্রাক-মোটরসাইকেল সংঘর্ষে নিহত ১

সালথা তাণ্ডব: সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান গ্রেফতার

সালথা তাণ্ডব: সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান গ্রেফতার

পোশাক শ্রমিককে সঙ্ঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ

পোশাক শ্রমিককে সঙ্ঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ

পরিত্যক্ত বাড়ি থেকে সরকারি চাল জব্দ

পরিত্যক্ত বাড়ি থেকে সরকারি চাল জব্দ

বিদ্যুৎস্পৃষ্টে সহকর্মীর মৃত্যু, গার্মেন্টস শ্রমিকদের বিক্ষোভ

বিদ্যুৎস্পৃষ্টে সহকর্মীর মৃত্যু, গার্মেন্টস শ্রমিকদের বিক্ষোভ

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলরের মৃত্যু

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলরের মৃত্যু

Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.
© 2021 Bangla Tribune