X
বৃহস্পতিবার, ১৫ এপ্রিল ২০২১, ২ বৈশাখ ১৪২৮

সেকশনস

‘অন্তঃসত্ত্বা হবেন’ বলে কথিত কবিরাজ দম্পতির অভিনব প্রতারণা

আপডেট : ০৪ মার্চ ২০২১, ০৯:৫৯

সন্তান লাভের আশায় বগুড়া দুপচাঁচিয়া উপজেলার বড়নিলাহালী গ্রামে কথিত কবিরাজ দম্পতির প্রতারণার শিকার হয়েছেন অর্ধশত গৃহবধূ। ভুক্তভোগীরা এ ব্যাপারে প্রতিকার পেতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও থানার ওসির কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। গ্রেফতার এড়াতে প্রতারক দম্পতি বাড়িতে তালা দিয়ে আত্মগোপন করেছে।

জয়পুরহাটের ক্ষেতলাল উপজেলার আইমাপুর গ্রামের জাহাঙ্গীর আলমের স্ত্রী মোছা. মৌসুমিসহ (৩০) সাত নিঃসন্তান গৃহবধূ অভিযোগ করেন, বিয়ের দীর্ঘদিন পরও সন্তান না হওয়ায় হতাশায় ভুগছিলেন তারা। লোকমুখে জানাতে পারেন, বগুড়ার দুপচাঁচিয়া উপজেলার গুণাহার ইউনিয়নের বড়নিলাহালী গ্রামের কবিরাজ দম্পতি জান্নাতুন খাতুন (৭০) ও তার স্বামী সেকেন্দার আলী চৌধুরীর কাছে চিকিৎসা নিলে সন্তান লাভ করা যাবে। এ খবরে তারা ওই দম্পতির কাছে চিকিৎসা নিতে আসেন। তাদের সবাইকে পাউডার জাতীয় ওষুধ দেওয়া হয়। আর এ ওষুধ পানি মিশিয়ে খাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়। চিকিৎসা ফি হিসেবে প্রত্যেকের কাছে ১৫ থেকে ২০ হাজার টাকা নেওয়া হয়েছে।

ভুক্তভোগীরা আরও জানান, বাড়ি ফিরে তারা ওষুধ সেবন করেন। ৩০ থেকে ৫০ দিনের মধ্যে তাদের পেট ফুলে যায়। এছাড়া অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার মতো অনুভব হয়। এরপর তারা ওই কবিরাজ দম্পতির কাছে গেলে তাদের ভুয়া প্রেগন্যান্সি টেস্ট করানো হয়। এরপর কবিরাজ সন্তান প্রত্যাশী নারীদের অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার সুখবর দেন। কবিরাজের দেওয়া রিপোর্ট খুশি হয়ে তারা নিজ নিজ বাড়িতে ফেরেন। পরবর্তীতে সন্তান ধারনের আর কোনও লক্ষ্মণ দেখা না দিলে ওই নারীদের মনে সন্দেহ জাগে। তারা নিশ্চিত হতে গাইনি বিশেষজ্ঞের কাছে যান। চিকিৎসক পরীক্ষা করে জানান, তাদের পেটে বাচ্চা নেই। কথিত কবিরাজ দম্পতি তাদের এক ধরনের হরমোন ওষুধ খেতে দিয়েছিলো। যা খেয়ে তাদের পেট ফুলে বাচ্চা আসার মতো অনুভব হয়েছে।

প্রতারণার শিকার নারীরা প্রতিকার পেতে দুপচাঁচিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও দুপচাঁচিয়া থানার ওসি হাসান আলীর কাছে লিখিত অভিযোগ করেন। ঘটনাটি জানাজানি হলে কবিরাজ দম্পতি জান্নাতুন খাতুন ও সেকেন্দার আলী চৌধুরী বাড়িতে তালা দিয়ে আত্মগোপন করেন।

ওসি হাসান আলী জানান, বিষয়টি দুঃখজনক। সন্তান না হওয়ার যন্ত্রণা থেকে রক্ষা পেতে সরল বিশ্বাসে গৃহবধূরা এ ধরনের প্রতারণার শিকার হয়েছেন। বিষয়টি তদন্ত সাপেক্ষে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

দুপচাঁচিয়া উপজেলার বড়নিলাহালী গ্রামে গিয়ে দেখা গেছে, কবিরাজ দম্পতির বাড়ির দরজায় তালা ঝুলছে।

স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য আনারুল হক তালুকদার ও গ্রামবাসী জানান, কথিত কবিরাজ জান্নাতুন হাতে বড় লোহার বালা হাতে দিয়ে এবং তার স্বামী সেকেন্দার আলী চৌধুরী নিজেদের কবিরাজ দাবি করে দীর্ঘদিন ধরে এই অপচিকিৎসা দিয়ে আসছে। গ্রামবাসী তাদের এই চিকিৎসা বিশ্বাস না করলেও শুধু দুপচাঁচিয়া উপজেলা নয়, বগুড়া জেলার বিভিন্ন এলাকা ও আশপাশের জেলার নিঃসন্তান নারীরা ওই কবিরাজের বাড়িতে ভিড় করেন। তারা বিশ্বাস করে ফি হিসেবে টাকা দিলে তা আত্মসাৎ করা হয়। কবিরাজ দম্পতি অন্তত অর্ধশত নিঃসন্তান নারীর কাছে মোটা অঙ্কের টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। এখন গ্রেফতারের ভয়ে বাড়ি থেকে পালিয়ে গেছে। গ্রামবাসী প্রতারক কবিরাজ দম্পতিকে অবিলম্বে গ্রেফতার ও তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করতে প্রশাসনের কঠোর হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

 

 

/এফএস/

সম্পর্কিত

বিপুল পরিমাণ গাঁজাসহ আটক ২

বিপুল পরিমাণ গাঁজাসহ আটক ২

নগরবাসীর প্রতি ডিএমপি’র আহ্বান

নগরবাসীর প্রতি ডিএমপি’র আহ্বান

একবছরে পুলিশে আইজিপির যত উদ্যোগ

একবছরে পুলিশে আইজিপির যত উদ্যোগ

নারায়ণগঞ্জ ক্লাবের বিরুদ্ধে ভ্যাট ফাঁকির অভিযোগ

নারায়ণগঞ্জ ক্লাবের বিরুদ্ধে ভ্যাট ফাঁকির অভিযোগ

পুকুরে পাওয়া গেলো শুটারগান

পুকুরে পাওয়া গেলো শুটারগান

মামুনুলকে খুঁজে পাচ্ছে না পুলিশ

মামুনুলকে খুঁজে পাচ্ছে না পুলিশ

ট্রাকের সঙ্গে সংঘর্ষে সিএনজির ২ যাত্রী নিহত

ট্রাকের সঙ্গে সংঘর্ষে সিএনজির ২ যাত্রী নিহত

ঢাকায় নেওয়া হলো করোনা আক্রান্ত বাদশাকে

ঢাকায় নেওয়া হলো করোনা আক্রান্ত বাদশাকে

কুড়িয়ে পাওয়া বোমা বিস্ফোরণে শিশু নিহত, আহত ২

কুড়িয়ে পাওয়া বোমা বিস্ফোরণে শিশু নিহত, আহত ২

‘জরুরি প্রয়োজন’ ওড়না ডেলিভারি, ডাক্তারকে খেজুর গিফট

‘জরুরি প্রয়োজন’ ওড়না ডেলিভারি, ডাক্তারকে খেজুর গিফট

সর্বশেষ

চিকিৎসায় সহযোগিতার আহ্বান শাবির সাবেক শিক্ষার্থী সুব্রতর

চিকিৎসায় সহযোগিতার আহ্বান শাবির সাবেক শিক্ষার্থী সুব্রতর

বিপুল পরিমাণ গাঁজাসহ আটক ২

বিপুল পরিমাণ গাঁজাসহ আটক ২

ডিএসসিসির ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে ১১ মামলা

ডিএসসিসির ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে ১১ মামলা

রাশিয়ার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা জারি করলো যুক্তরাষ্ট্র

রাশিয়ার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা জারি করলো যুক্তরাষ্ট্র

ভার্চুয়াল কোর্টে জামিন পেলেন ২৩৬০ জন

ভার্চুয়াল কোর্টে জামিন পেলেন ২৩৬০ জন

স্বাস্থ্যবিধি মানা হচ্ছে না নারায়ণগঞ্জের অনেক গার্মেন্টস কারখানায়

স্বাস্থ্যবিধি মানা হচ্ছে না নারায়ণগঞ্জের অনেক গার্মেন্টস কারখানায়

নগরবাসীর প্রতি ডিএমপি’র আহ্বান

নগরবাসীর প্রতি ডিএমপি’র আহ্বান

বদলে গেছে বিএসএমএমসি, কী আছে এই মেডিক্যাল কলেজে?

বদলে গেছে বিএসএমএমসি, কী আছে এই মেডিক্যাল কলেজে?

বার্সেলোনা দলে ফিরেছেন ফাতি

বার্সেলোনা দলে ফিরেছেন ফাতি

স্বর্ণালংকার ছিনিয়ে নেওয়ার পর নারীকে ধর্ষণচেষ্টা

স্বর্ণালংকার ছিনিয়ে নেওয়ার পর নারীকে ধর্ষণচেষ্টা

করোনা রোগীদের দ্রুত সেরে উঠতে সহযোগিতা করে হাঁপানির ওষুধ

করোনা রোগীদের দ্রুত সেরে উঠতে সহযোগিতা করে হাঁপানির ওষুধ

রোজা সম্পর্কিত স্টিকার আনলো ইনস্টাগ্রাম

রোজা সম্পর্কিত স্টিকার আনলো ইনস্টাগ্রাম

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

বিপুল পরিমাণ গাঁজাসহ আটক ২

বিপুল পরিমাণ গাঁজাসহ আটক ২

পুকুরে পাওয়া গেলো শুটারগান

পুকুরে পাওয়া গেলো শুটারগান

ট্রাকের সঙ্গে সংঘর্ষে সিএনজির ২ যাত্রী নিহত

ট্রাকের সঙ্গে সংঘর্ষে সিএনজির ২ যাত্রী নিহত

ঢাকায় নেওয়া হলো করোনা আক্রান্ত বাদশাকে

ঢাকায় নেওয়া হলো করোনা আক্রান্ত বাদশাকে

কুড়িয়ে পাওয়া বোমা বিস্ফোরণে শিশু নিহত, আহত ২

কুড়িয়ে পাওয়া বোমা বিস্ফোরণে শিশু নিহত, আহত ২

স্ত্রীকে দেখতে হাসপাতালে যাচ্ছিলেন, পৌঁছালেন লাশ হয়ে

স্ত্রীকে দেখতে হাসপাতালে যাচ্ছিলেন, পৌঁছালেন লাশ হয়ে

প্রথমদিনে সারাদেশে লকডাউন মোটামুটি সফল

প্রথমদিনে সারাদেশে লকডাউন মোটামুটি সফল

সরকারি চাল পাচার: খাদ্যগুদাম কর্মকর্তা ও নৈশপ্রহরী গ্রেফতার

সরকারি চাল পাচার: খাদ্যগুদাম কর্মকর্তা ও নৈশপ্রহরী গ্রেফতার

Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.
© 2021 Bangla Tribune