X
বৃহস্পতিবার, ০৫ আগস্ট ২০২১, ২১ শ্রাবণ ১৪২৮

সেকশনস

‘চিকিৎসককে হয়রানি করায় চিকিৎসাসেবা ব্যাহতের শঙ্কা সৃষ্টি হয়েছে’

আপডেট : ১৯ এপ্রিল ২০২১, ২১:৫৪

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের সহযোগী অধ্যাপক ডা. সাঈদা শওকতকে রাস্তায় অপমান ও অপদস্থ করায় চিকিৎসা সেবায় নিয়োজিত স্বাস্থ্যকর্মীদের মধ্যে ক্ষোভের সঞ্চার করেছে। যা দেশব্যাপী চিকিৎসাসেবা ব্যাহত করার শঙ্কা সৃষ্টি করেছে বলে জানিয়েছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ)।

সোমবার ( ১৯ এপ্রিল) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ এ শঙ্কার কথা জানিয়েছে।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, দেশের এই ক্রান্তিলগ্নে দেশ সেবায় নিবেদিত চিকিৎসককে অপমান ও অপদস্থ করার কারণে চিকিৎসা সেবায় নিয়োজিত স্বাস্থ্যকর্মীদের মধ্যে ক্ষোভের সঞ্চার করেছে, যা দেশব্যাপী চিকিৎসাসেবা ব্যাহত করার শঙ্কা সৃষ্টি করেছে।

এতে বলা হয়, বিএসএমএমইউ একজন চিকিৎসককে হয়রানি করার ঘটনার প্রতিবাদ জানাচ্ছে এবং ভবিষ্যতে চলমান করোনা চিকিৎসার স্বার্থে স্বাস্থ্যকর্মীদের নির্বিঘ্নে চলাচল নিশ্চিত করার বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জোর দাবি জানাচ্ছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত ১৮ এপ্রিল আনুমানিক সাড়ে ১২টার দিকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের রেডিওলজি অ্যান্ড ইমেজিং বিভাগে কর্মরত সহযোগী অধ্যাপক ডা. সাঈদা শওকত কর্তব্যস্থল থেকে দায়িত্বপালন শেষে নিজ আবাসস্থলে ফেরত যাওয়ার পথে লকডাউনে পুলিশের টহলদলের সদস্যদের সঙ্গে কথোপকথনের চিত্র বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের নজরে এসেছে। ডা. সাঈদা শওকত দায়িত্ব পালন শেষে প্রতিষ্ঠানের লোগো সম্বলিত গাড়িতে করে যাচ্ছিলেন। কিন্তু টহলদল তার পরিচয় জানতে চাইলে তিনি চিকিৎসক ও বিএসএমএমইউতে কর্মরত বলে জানান। কিন্তু চিকিৎসক পরিচিতিকে ‘ভুয়া’ বলা হয় এবং অসৌজন্যমূলক ভাবে তাকে গাড়ি হতে নামতে বলা হয়। অথচ সে সময় তিনি তার নাম ও বিশ্ববিদ্যালয়ের লোগো সম্বলিত অ্যাপ্রোন পরিহিত অবস্থায় ছিলেন।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, দায়িত্ব পালনকারী পুলিশের আচরণে এবং তার পরিচিতি ভুয়া বলায় ডা. সাঈদা বিক্ষুব্ধ হন এবং পুলিশের সঙ্গে বাক-বিতণ্ডায় লিপ্ত হন, যার খণ্ডকালীন সচিত্র প্রতিবেদন সামাজিক মিডিয়ায় প্রচার হয়েছে।

/জেএ/এমআর/

সম্পর্কিত

করোনা আক্রান্তদের ৯৮ শতাংশের দেহে ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট: বিএসএমএমইউ

করোনা আক্রান্তদের ৯৮ শতাংশের দেহে ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট: বিএসএমএমইউ

টিকার প্রথম ডোজের আওতায় এক কোটি মানুষ

টিকার প্রথম ডোজের আওতায় এক কোটি মানুষ

অন্তঃসত্ত্বা ও প্রসূতি মায়েদের জন্য কোন টিকা কার্যকর ভাবছে স্বাস্থ্য অধিদফতর

অন্তঃসত্ত্বা ও প্রসূতি মায়েদের জন্য কোন টিকা কার্যকর ভাবছে স্বাস্থ্য অধিদফতর

আগস্টের ৪ দিনেই হাজার ডেঙ্গু রোগী

আগস্টের ৪ দিনেই হাজার ডেঙ্গু রোগী

ডা. এম এ মোহায়মেন মারা গেছেন

আপডেট : ০৫ আগস্ট ২০২১, ১৫:৪৪

দেশের অগ্রণী সামরিক কার্ডিও-থোরাসিন সার্জন মেজর জেনারেল (অব.) ডা. এম এ মোহায়মেন মারা গেছেন। মঙ্গলবার (৩ আগস্ট) বার্ধক্যজনিত রোগে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাজধানীর সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়। বুধবার (৪ আগস্ট) তাকে বনানী সামরিক গোরস্থানে তাকে দাফন করা হয়। 

দাফনের আগে পূর্ণ সামরিক শবযাত্রার পর তাকে গার্ড অব অনার দেওয়া হয়। পারিবারিকভাবে ঘনিষ্ঠ একজন দায়িত্বশীল বাংলা ট্রিবিউনকে এসব তথ্য জানান। 

সদ্য প্রয়াত ডা. এম এ মোহায়মেন ১৯৩৬ সালের ৫ ডিসেম্বর বগুড়ায় জন্মগ্রহণ করেন। সামরিক সার্জন হিসেবে তিনি আর্মি মেডিক্যাল কর্পস, পাকিস্তান আর্মি (১৯৫৯-১৯৭১) এবং আর্মি মেডিক্যাল কর্পস, বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে (১৯৭৩-১৯৯৬) দায়িত্বপালন করেন। কর্মজীবনে অবদানের জন্য এম এ মোহায়মেন জয় পদক ও সংবিধান পদক লাভ করেন। 

মৃত্যুকালে ডা. এম এ মোহায়মেন মৃত্যুকালে তার স্ত্রী নিলুফার মোহায়মেন, দুই সন্তান জায়েদ মোহায়মেন, নাঈম মোহায়মেনসহ অসংখ্য আত্মীয়স্বজন ও গুণগ্রাহী রেখে যান। 

 

/এসটিএস/এনএইচ/

সম্পর্কিত

চেকপোস্ট অমান্য করা দ্রুতগতির গাড়ি কেড়ে নিলো পুলিশ সদস্যের প্রাণ

চেকপোস্ট অমান্য করা দ্রুতগতির গাড়ি কেড়ে নিলো পুলিশ সদস্যের প্রাণ

এসএসসির ইংরেজি ভার্সনের অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশ

এসএসসির ইংরেজি ভার্সনের অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশ

জনজীবন স্বাভাবিক, সড়কে বেড়েছে মানুষের চাপ

জনজীবন স্বাভাবিক, সড়কে বেড়েছে মানুষের চাপ

ঋণগ্রহীতার গুদামেই জামানত, খেলাপি প্রতিষ্ঠানকে আবার ঋণ!

ঋণগ্রহীতার গুদামেই জামানত, খেলাপি প্রতিষ্ঠানকে আবার ঋণ!

চেকপোস্ট অমান্য করা দ্রুতগতির গাড়ি কেড়ে নিলো পুলিশ সদস্যের প্রাণ

আপডেট : ০৫ আগস্ট ২০২১, ১৫:৩৩

ঢাকা-চট্টগ্রাম হাইওয়েতে দ্রুতগতির প্রাইভেট কারের চাপায় পুলিশ কনস্টেবল রাব্বি ভূঁইয়া নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার (৫ আগস্ট) সকাল ১০টা ৫০ মিনিটে চট্টগ্রাম জেলার সাতকানিয়া থানাধীন দোহাজারী হাইওয়ে থানার সামনে পুলিশ চেকপোস্টে এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, সরকারি বিধিনিষেধ বাস্তবায়নে চেকপোস্ট পরিচালনার সময় একটি প্রাইভেট কারকে থামতে সংকেত দেওয়া হয়। এরপর চেকপোস্ট অমান্য করে দ্রুতগতিতে যাওয়ার সময় একটি প্রাইভেট কারটি দুই পুলিশ কনস্টেবলকে চাপা দেয়। এসময় ঘটনাস্থলেই কনস্টেবল রাব্বি ভূঁইয়া নিহত হন। এছাড়া কনস্টেবল মোহাম্মদ আরাফাত আহত হয়।

হাইওয়ে কুমিল্লা রিজিয়নের পুলিশ সুপার মুহাম্মদ রহমত উল্লাহ বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, চাপা দেওয়ার পর গাড়িটিকে আটক করা সম্ভব হয়েছে। কিন্তু চালক পালিয়ে গেছে। তাকে গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন।

কনস্টেবল রাব্বি ভূঁইয়া ২০১৬ সালের ১২ আগস্ট বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীতে কনস্টেবল পদে যোগদান করেন। তার গ্রামের বাড়ি নরসিংদী জেলার পলাশ থানায়। 

 

/আরটি/এনএইচ/

সম্পর্কিত

ডা. এম এ মোহায়মেন মারা গেছেন

ডা. এম এ মোহায়মেন মারা গেছেন

এসএসসির ইংরেজি ভার্সনের অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশ

এসএসসির ইংরেজি ভার্সনের অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশ

জনজীবন স্বাভাবিক, সড়কে বেড়েছে মানুষের চাপ

জনজীবন স্বাভাবিক, সড়কে বেড়েছে মানুষের চাপ

ঋণগ্রহীতার গুদামেই জামানত, খেলাপি প্রতিষ্ঠানকে আবার ঋণ!

ঋণগ্রহীতার গুদামেই জামানত, খেলাপি প্রতিষ্ঠানকে আবার ঋণ!

এসএসসির ইংরেজি ভার্সনের অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশ

আপডেট : ০৫ আগস্ট ২০২১, ১৫:২০

চলতি বছরের এসএসসি ইংরেজি ভার্সনের শিক্ষার্থীদের জন্য প্রথম ধাপে তিন সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশ করেছে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতর। মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের বুধবার (৪ আগস্ট) স্বাক্ষরিত অ্যাসাইনমেন্ট সংক্রান্ত অফিস আদেশ বৃহস্পতিবার (৫ আগস্ট) প্রকাশ করা হয়।

অফিস আদেশে জানানো হয়, কোভিড-১৯ অতিমারির কারণে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনায় জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড (এনসিটিবি) ২০২১ সালের এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারীদের জন্য পুনর্বিন্যাস করা পাঠ্যসূচির আলোকে অ্যাসাইনমেন্ট ও গ্রিড (ইংরেজি ভার্সন) প্রণয়ন করে।

যা প্রথম ধাপে তিন সপ্তাহের জন্য বিতরণ করা হলো। ইংরেজি ভার্সন অ্যাসাইনমেন্টের ক্ষেত্রেও মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের জারি করা নির্দেশনা যথাযথভাবে অনুসরণ করতে হবে।

২০২১ সালের এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণনেচ্ছু শিক্ষার্থীদের জন্য পুনর্বিন্যাস করা পাঠ্যসূচির আলোকে বিতরণ করা অ্যাসাইনমেন্ট ও গ্রিড (ইংরেজি ভার্সন) সকল শিক্ষার্থীদের প্রদান ও গ্রহণের ক্ষেত্রে সরকার ঘোষিত স্বাস্থ্যবিধি সংক্রান্ত বিধিনিষেধ যথাযথভাবে অনুসরণ করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে অনুরোধ করা হলো।

 

/এসএমএ/এনএইচ/

সম্পর্কিত

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বঙ্গবন্ধুর শাহাদত বার্ষিকী পালনের নির্দেশ

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বঙ্গবন্ধুর শাহাদত বার্ষিকী পালনের নির্দেশ

মুজিববর্ষেরই জাতীয়করণের ঘোষণা চান শিক্ষকরা

মুজিববর্ষেরই জাতীয়করণের ঘোষণা চান শিক্ষকরা

মতিঝিল আইডিয়ালের আতিকুর রহমানের বিরুদ্ধে দুর্নীতির তদন্তের নির্দেশ

মতিঝিল আইডিয়ালের আতিকুর রহমানের বিরুদ্ধে দুর্নীতির তদন্তের নির্দেশ

জালিয়াতির কারণে আরও এক মাদ্রাসার এমপিও স্থগিত

জালিয়াতির কারণে আরও এক মাদ্রাসার এমপিও স্থগিত

জনজীবন স্বাভাবিক, সড়কে বেড়েছে মানুষের চাপ

আপডেট : ০৫ আগস্ট ২০২১, ১৫:০৩

বর্ধিত লকডাউন শুরুর আগের দিন (৫ আগস্ট) রাজধানী ঢাকার জনজীবন স্বাভাবিক দেখা গেছে। রাস্তাঘাটে তেমন কোনও যানবাহনের চাপ দেখা যায়নি। তবে বিভিন্ন মোড়ে মোড়ে পরিবহনের জন্য সাধারণ মানুষকে অপেক্ষা করতে দেখা গেছে। সড়কে ছিল রিকশা, ব্যক্তিগত গাড়ি, মোটরবাইক, সিএনজির চলাচল। তবে ঢাকার বাইরে থেকে উল্লেখযোগ্য তেমন কোনও মানুষকে নগরীতে প্রবেশ করতে দেখা যায়নি। 

নগরীর বিভিন্ন এলাকা ঘুরে এমন চিত্র দেখা গেছে। 

সকালে আব্দুল্লাহপুর এলাকায় গিয়ে দেখা গেছে, মানুষের চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে। ব্যক্তিগত গাড়ি, বিভিন্ন পণ্যবাহী ট্রাক, মোটরবাইক, রিকশা ও সিএনজি চলাচল করছে। কোনও গণপরিবহন চলাচল করেনি। তবে ঢাকার বাইরে থেকে কিছু ব্যক্তিগত গাড়ি, অ্যাম্বুলেন্স যোগে বেশ কিছু মানুষকে নগরীতে প্রবেশ করতে দেখা গেছে। পুলিশের চেকপোস্টগুলোতে কোনও তল্লাশি করা না হলেও তা সংকুচিত করে রাখা হয়েছে। ফলে সেসব চেকপোস্টগুলোতে তীব্র যানজট দেখা গেছে।

অপরদিকে সকালে অফিসগামী মানুষকে ভোগান্তিতে পড়তে দেখা গেছে। লকডাউনের মধ্যে সরকারি-বেসরকারি অফিসগুলো বন্ধ থাকার কথা থাকলেও অধিকাংশ চালু রেখেছে কর্তৃপক্ষ। কিন্তু কর্মীদের যাতায়াতের জন্য কোনও পরিবহন ব্যবস্থা রাখা হয়নি। ফলে অফিসে যেতে তীব্র ভোগান্তিতে পড়তে হয়েছে এসব মানুষকে।

নগরীর সায়েদাবাদের চিত্রও একই দেখা গেছে। কোনও পরিবহন না পেয়ে সেখান থেকে ভ্যানগাড়িতে করে মানুষকে অফিসে যেতে দেখা গেছে। ফলে ভাড়া গুনতে হয়েছে কয়েকগুণ। সাধারণ মানুষের অভিযোগ, অফিসগুলো তাদের যাতায়াতের কোনও পরিবহন ব্যবস্থা রাখেনি।

খিলগাঁও রেলগেট থেকে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের যাচ্ছেন কর্মচারী ইয়াসির আরাফাত। তিনি বলেন, কোনও পরিবহন ব্যবস্থা নেই। তাই বাধ্য হয়ে ভ্যানগাড়িতে করে যাচ্ছি। ২০ টাকার ভাড়া ৬০ টাকা নেওয়া হচ্ছে। এছাড়া আমাদের কোনও উপায় নেই।

সকালে কুড়িল ফ্লাইওভারের গোঁড়ায় একটি পুলিশের একটি চেকপোস্ট দেখা গেছে। তবে ট্রাফিক পুলিশের কোনও সদস্যকে সেখানে যানবাহন চেক করতে দেখা যায়নি। 

একই চিত্র দেখা গেছে বাড্ডা ইউরোপের সামনে। সেখানেও দুটি চেকপোস্ট রয়েছে। তাতে পুলিশ রয়েছেন কিন্তু কোনও যানবাহনকে তল্লাশি করতে দেখা যায়নি। তবে চেকপোস্টগুলো সংকোচিত থাকায় ওই এলাকায় যানজট দেখা গেছে।

জানতে চাইলে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির মহাসচিব ও ঢাকা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক খন্দকার এনায়েত উল্যাহ বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, লকডাউনে কোনও পরিবহন চলাচল করছে না। মাঝপথে পোশাকশ্রমিকদের কথা বিবেচনা করে একদিনের জন্য চালু করা হয়েছিল। বর্তমানে গণপরিবহন চলাচল বন্ধ রয়েছে।

 

/এসএস/এনএইচ/

সম্পর্কিত

ডিএসসিসি’র নির্বাহী প্রকৌশলী তানভীর আহমদ বরখাস্ত

ডিএসসিসি’র নির্বাহী প্রকৌশলী তানভীর আহমদ বরখাস্ত

ফুলবাড়িয়া বাস টার্মিনালে তাণ্ডবের প্রতিবাদ নেতাদের

ফুলবাড়িয়া বাস টার্মিনালে তাণ্ডবের প্রতিবাদ নেতাদের

ফুলবাড়িয়ায় পরিবহন শ্রমিকদের মাঝে ত্রাণ বিতরণে বিশৃঙ্খলা

ফুলবাড়িয়ায় পরিবহন শ্রমিকদের মাঝে ত্রাণ বিতরণে বিশৃঙ্খলা

হেলেনা জাহাঙ্গীরের দুই সহযোগীর ৭ দিনের রিমান্ড চায় পুলিশ

হেলেনা জাহাঙ্গীরের দুই সহযোগীর ৭ দিনের রিমান্ড চায় পুলিশ

জনতা ব্যাংকের ঋণ কেলেঙ্কারি পর্ব-৩

ঋণগ্রহীতার গুদামেই জামানত, খেলাপি প্রতিষ্ঠানকে আবার ঋণ!

আপডেট : ০৫ আগস্ট ২০২১, ১৫:০০

ব্যাংকিং খ্যাতের নিয়ম-নীতি তোয়াক্কা না করে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানকে মাত্রাতিরিক্ত ঋণ ও অনৈতিক সুবিধা দিয়েছে জনতা ব্যাংক। ব্যাংকটির আর্থিক কেলেঙ্কারি নিয়ে বাংলা ট্রিবিউন-এর ধারাবাহিক প্রতিবেদনের আজ থাকছে তৃতীয় পর্ব।

নীতিমালা ভেঙে এমকেট্রেড ইন্টারন্যাশনালকে শত কোটি টাকা ঋণ দিয়েছে জনতা ব্যাংকের যশোরের এম কে রোড করপোরেট শাখা। এতে প্রতিষ্ঠানটির ৬৬ কোটি ৫০ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে। ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের যোজসাজশেই এ অনিয়ম ঘটেছে। সরকারের একটি বিশেষায়িত প্রতিষ্ঠানের প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে এসেছে। বাংলা ট্রিবিউনের কাছে পৌঁছা একাধিক প্রতিবেদনে এ তথ্য পাওয়া গেছে।

তাতে দেখা গেছে, ক্যাশ ক্রেডিট হাইপোথিকেশন-এর (সিসি হাইপ) বিপরীতে কোনও মালামাল নেই। এ ছাড়া লোন এগেইনস্ট ইমপোর্ট মার্চেন্ডাইজ (লিম) ঋণের বিপরীতে মালামাল গোডাউনে না রেখে আত্মসাৎ করা হয়েছে। পাশাপাশি প্লেজ মালামালের গুণগত মান নষ্ট হওয়াতেও ব্যাংকের ক্ষতি হয়েছে।

নিরীক্ষায় ব্যাংকটির ঋণ সংক্রান্ত নথি পর্যালোচনায় দেখা যায়, ২০১৬ মালের ১৮ আগস্টের স্টক রিপোর্ট অনুযায়ী ৯৫টি লিমের বিপরীতে আমদানিকৃত মালামাল গোডাউনে নেই। পণ্য বিক্রির টাকা গ্রাহক ঋণ হিসাবে জমা না করে আত্মসাৎ করেছে। এতে ব্যাংকের ক্ষতি হয়েছে প্রায় ৪৫ কোটি ২১ লাখ টাকা।

আরও দেখা গেছে, স্টক রিপোর্ট অনুযায়ী সাত কোটি টাকার ঋণসীমার বিপরীতেও কোনও জামানত নেই। জামানতের মালামাল গ্রাহক বিক্রি করে দিয়েছেন।

গ্রাহকের অনুকূলে ১৫ কোটি টাকার সিসি (প্লেজ) ঋণের বিপরীতে সরবরাহকৃত ১৫ কোটি ৫৭ লাখ টাকার মালামালের মধ্যে ১২ কোটি ৯২ লাখ টাকা মূল্যের টিএসপি এবং এমওপি সার ২০১১ ও ২০১২ সালে মজুতকৃত বলে এর গুণগত মান নষ্ট হয়। সবমিলিয়ে তিনটি ঋণ বাবদ গ্রাহকের কাছে ব্যাংকের মোট পাওনা প্রায় সাড়ে ৬৬ কোটি টাকা। এরপরও এমকেট্রেড ইন্টারন্যাশনালের বিরুদ্ধে আইনানুগ পদক্ষেপ গ্রহণ করেনি ব্যাংক।

আরও দেখা যায়, গুদামে মালামাল না থাকার পরও ওই গ্রাহককে ঋণ নবায়ন করা হয়েছে। প্রধান কার্যালয় ও আঞ্চলিক কার্যালয় বিষয়টি জেনেও কোনও পদক্ষেপ নেয়নি। উল্টো প্রতিবছর প্লেজ ঋণ নবায়ন করেছে।

নথিতে আরও বলা হয়েছে, আমদানিকৃত মালামাল ব্যাংকের গুদামে না রেখে শাখার কর্মকর্তারা চরম দায়িত্বহীনতার পরিচয় দিয়েছেন।

জবাবে জনতা ব্যাংক বলেছে, ২০১৭ সালের ১ ফেব্রুয়ারি পর্ষদের ৪৬০তম সভায় অনুমোদন এবং বাংলাদেশ ব্যাংকের ২০১৭ সালের ২ মার্চের অনাপত্তিক্রমে ৪৮টি কিস্তিতে পরিশোধের শর্তে গ্রাহকের লিম দায় পুনঃতফসিল করা হয়।

গ্রাহক নিয়মিত কিস্তি পরিশোধ না করায় ঋণটি বিএল শ্রেণিকৃত হয়। সিসি (হাঃ) ঋণের মালামালের মালিকানা যেহেতু গ্রাহকের, তাই মালিক তা বিক্রি করে দেয়। গ্রাহকের প্লেজ গুদামে রক্ষিত মালামাল বিক্রি করে ঋণ হিসাবে জমা করা হয়।

ব্যাংকটির এমন জবাবে সন্তুষ্ট নয় নিরীক্ষা দল। তারা জানায়, মালামাল আত্মসাতের জন্য গ্রাহকের বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা দায়ের না করে পুনঃতফসিল করা ঠিক হয়নি। এমনকি দায়ীদের বিরুদ্ধে প্রশাসনিক ব্যবস্থাও নেওয়া হয়নি।

সিক্স সিজনসের কাছে ২০০ কোটি
অধিগ্রহণকৃত ঋণ বারবার পুনঃতফসিলের সুবিধা দিয়েও মেসার্স সিক্স সিজনস অ্যাপার্টমেন্ট লিমিটেডকে দেওয়া ঋণের প্রায় দুই শ’ কোটি টাকা আদায় করা যায়নি। দায়ের তুলনায় জামানত কম হওয়ায় এতে ব্যাংকটির ক্ষতি হয়েছে ১৯৭ কোটি ২১ লাখ টাকারও বেশি।

ওই প্রতিষ্ঠান ২০১৩ সালের ১৯ অক্টোবর হতে ব্যবসা শুরু করলেও নিরীক্ষার সময় পর্যন্ত গ্রাহক কোনও টাকা পরিশোধ করেনি।

২০১৬ সালের ২২ ডিসেম্বর ২৪ কোটি ৪২ লাখ টাকার পরিবর্তে নামমাত্র ডাউন পেমেন্ট ৩০ লাখ টাকা দিয়ে দ্বিতীয়দফায় ঋণ পুনঃতফসিলি করা হয়। এরপরও গ্রাহকের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। 

জনতা ব্যাংক বলেছে, সিক্স সিজনস অ্যাপার্টমেন্ট লিমিটেডের অনুকূলে সকল নিয়ম মেনে ঋণ মঞ্জুর হয়েছে। ঋণ আদায়ের ব্যাপারে গ্রাহকের সাথে নিয়মিত যোগাযোগ করা হচ্ছে।

নিরীক্ষা প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ব্যাংক কর্তৃপক্ষের জবাব গ্রহণযোগ্য নয়। কারণ গ্রাহকের ব্যবসার অভিজ্ঞতা ও আর্থিক সামর্থ্য যাচাই না করে বাববার পুনঃতফসিল করে কালক্ষেপণ করা এবং ঋণের দায় বাড়ানো আইনসম্মত নয়।

খেলাপি প্রতিষ্ঠানকে আবারও ঋণ!
‘স্বভাবগত খেলাপি’ গ্রাহক মেসার্স লিতুন ফেব্রিক্স লিমিটেডকে বারবার পুনঃতফসিল দিয়ে ঋণ মঞ্জুর করেছে জনতা ব্যাংক। এতে ব্যাংকটির প্রায় ৭২ কোটি ৮৮ লাখ টাকা ক্ষতি হয়েছে।

লিতুন ফেব্রিক্সের ঋণের নথি নিরীক্ষা করে দেখা যায়, ২০০২ সালের ২৮ অক্টোবর অনুষ্ঠিত ব্যাংকের পর্ষদের ৭৬৫তম সভায় ওই গ্রাহকের অনুকূলে ১৩ কোটি ৮৯ লাখ টাকা প্রকল্প ঋণ এবং ২০০৩ সালের ৪ ডিসেম্বর ৫ কোটি টাকা সিসি (হাঃ) ঋণ মঞ্জুর করে পরে সাত কোটি টাকায় বর্ধিত করা হয়।

বাংলাদেশ ব্যাংকের ২০১২ সালের সার্কুলার অনুযায়ী ঋণ পুনঃতফসিলের পর নতুন ঋণ পেতে হলে বিদ্যমান স্থিতির ১৫ শতাংশ কম্প্রোমাইজড এমাউন্ট গ্রহণ ছাড়াই ২০১৫ সালের ৫ নভেম্বর  বিএমআরই ঋণ বাবদ ৩৩ কোটি ৭০ লাখ টাকা ঋণ মঞ্জুর করা হয়। যা ঋণ মঞ্জুরি ক্ষমতা বিধির পরিপন্থী। তদুপরি কম্প্রোমাইজড এমাউন্ট ৩৩ দশমিক ৮৮১ কোটি টাকার পরিবর্তে মাত্র দুই কোটি টাকা আদায় করা হয়।

ঋণ মঞ্জুরের পর বাংলাদেশ ব্যাংকের অনাপত্তি না নিয়ে এবং বন্ধকিকৃত সম্পত্তির দলিলায়ন না করে ব্যাংকের এমডির নির্দেশনায় ২০১৫ সালের ২২ নভেম্বর পাঁচ কোটি টাকা এবং একই বছরের ১ ডিসেম্বর আট কোটি টাকা ঋণ বিতরণ করা হয়। বিতরণকৃত ঋণের দায়ভার ব্যবস্থাপনা পরিচালক এড়াতে পারেন না বলেও নথিতে উল্লেখ করা হয়েছে।

জনতা ব্যাংক বলেছে, গ্রাহকের আবেদন, ক্রেডিট কমিটির সুপারিশের পরিপ্রেক্ষিতে পর্ষদে লিতুন ফেব্রিক্স লিমিটেডের অনুকূলে ডাউনপেমেন্ট ও কম্প্রোমাইজড এমাউন্ট গ্রহণের বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের অনাপত্তি গ্রহণ সাপেক্ষে ঋণ মঞ্জুর করা হয়।

পরে বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রবিধি ও নীতি বিভাগ বিশেষ বিবেচনায় নিতুন ফেব্রিক্সের অনুকূলে নতুন ঋণ প্রদানের ক্ষেত্রে ব্যাংকার-গ্রাহক সম্পর্কের ভিত্তিতে কম্প্রোমাইজড এমাউন্ট গ্রহণের পরামর্শ দেয়। এক্সিট পলিসির আওতায় সুদ মওকুফের জন্য আবেদন করেছে গ্রাহক, যা প্রক্রিয়াধীন।

নিরীক্ষা প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বাংলাদেশ ব্যাংকের অনাপত্তি গ্রহণ করা হয়েছে কিনা সে সম্পর্কে কোনও মন্তব্য দেওয়া হয়নি। এ ছাড়া বাংলাদেশ ব্যাংকের যে সূত্র উল্লেখ করা হয়েছে তারও প্রমাণ পাওয়া যায়নি। প্রায় ১৬ মাস পার হলেও ঋণের অর্থ আদায়ের অগ্রগতি সম্পর্কে নিরীক্ষাকে জানায়নি ব্যাংক।

অনিয়মগুলোর বিষয়ে অর্থ মন্ত্রণালয়ের সচিব বরাবর অগ্রিম অনুচ্ছেদ জারি করা হয় এবং তাগিদপত্র দেওয়া হয়। ২০১৯ সালের ১৮ মার্চ সচিব বরাবর আধাসরকারি পত্র দেওয়া হলেও জবাব পাওয়া যায়নি।

এ বিষয়ে জনতা ব্যাংকের চেয়ারম্যান বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘এ বিষয়ে আমি কথা বলতে পারবো না।’

বিষয়টি নিয়ে জানতে চাওয়া হলে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র সিরাজুল ইসলাম বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘অডিট অধিদফতর এই অভিযোগ দিয়েছে। বাংলাদেশ ব্যাংকেরও নিজস্ব অডিট উইং রয়েছে। বাংলাদেশ ব্যাংক যখন কোনও ব্যাংকে অডিটে যায় তখন এক্সটারনাল-ইন্টারনাল অডিট সব দেখে। এরপর পদক্ষেপ নেয়।’

/এফএ/

সম্পর্কিত

করোনা আতঙ্কের মধ্যেই ডেঙ্গুর আশঙ্কাজনক রূপ

করোনা আতঙ্কের মধ্যেই ডেঙ্গুর আশঙ্কাজনক রূপ

টানা ডিউটিতে ‘ক্লান্ত’ পুলিশ

টানা ডিউটিতে ‘ক্লান্ত’ পুলিশ

কাকরাইলে গ্যারেজের আগুন নিয়ন্ত্রণে

কাকরাইলে গ্যারেজের আগুন নিয়ন্ত্রণে

কাকরাইলে গাড়ির গ্যারেজে আগুন

কাকরাইলে গাড়ির গ্যারেজে আগুন

সর্বশেষ

সোয়া দুই কোটি টাকা ভ্যাট দিলো গুগল

সোয়া দুই কোটি টাকা ভ্যাট দিলো গুগল

ডা. এম এ মোহায়মেন মারা গেছেন

ডা. এম এ মোহায়মেন মারা গেছেন

শেখ কামাল ক্রীড়া পুরস্কারে সালাউদ্দিন-রোমানদের উচ্ছ্বাস

শেখ কামাল ক্রীড়া পুরস্কারে সালাউদ্দিন-রোমানদের উচ্ছ্বাস

চেকপোস্ট অমান্য করা দ্রুতগতির গাড়ি কেড়ে নিলো পুলিশ সদস্যের প্রাণ

চেকপোস্ট অমান্য করা দ্রুতগতির গাড়ি কেড়ে নিলো পুলিশ সদস্যের প্রাণ

শেখ কামালের জন্মবার্ষিকীতে স্মারক ডাক টিকিট উদ্বোধন

শেখ কামালের জন্মবার্ষিকীতে স্মারক ডাক টিকিট উদ্বোধন

স্থগিত হতে যাচ্ছে পরীমণির সদস্যপদ?

স্থগিত হতে যাচ্ছে পরীমণির সদস্যপদ?

এসএসসির ইংরেজি ভার্সনের অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশ

এসএসসির ইংরেজি ভার্সনের অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশ

আগামী রবিবার ব্যাংক বন্ধ, সোম ও মঙ্গলবার লেনদেন ৩টা পর্যন্ত

আগামী রবিবার ব্যাংক বন্ধ, সোম ও মঙ্গলবার লেনদেন ৩টা পর্যন্ত

জনজীবন স্বাভাবিক, সড়কে বেড়েছে মানুষের চাপ

জনজীবন স্বাভাবিক, সড়কে বেড়েছে মানুষের চাপ

ঋণগ্রহীতার গুদামেই জামানত, খেলাপি প্রতিষ্ঠানকে আবার ঋণ!

জনতা ব্যাংকের ঋণ কেলেঙ্কারি পর্ব-৩ঋণগ্রহীতার গুদামেই জামানত, খেলাপি প্রতিষ্ঠানকে আবার ঋণ!

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে ১০ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে যানজট

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে ১০ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে যানজট

ডিএসসিসি’র নির্বাহী প্রকৌশলী তানভীর আহমদ বরখাস্ত

ডিএসসিসি’র নির্বাহী প্রকৌশলী তানভীর আহমদ বরখাস্ত

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

করোনা আক্রান্তদের ৯৮ শতাংশের দেহে ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট: বিএসএমএমইউ

করোনা আক্রান্তদের ৯৮ শতাংশের দেহে ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট: বিএসএমএমইউ

টিকার প্রথম ডোজের আওতায় এক কোটি মানুষ

টিকার প্রথম ডোজের আওতায় এক কোটি মানুষ

অন্তঃসত্ত্বা ও প্রসূতি মায়েদের জন্য কোন টিকা কার্যকর ভাবছে স্বাস্থ্য অধিদফতর

অন্তঃসত্ত্বা ও প্রসূতি মায়েদের জন্য কোন টিকা কার্যকর ভাবছে স্বাস্থ্য অধিদফতর

আগস্টের ৪ দিনেই হাজার ডেঙ্গু রোগী

আগস্টের ৪ দিনেই হাজার ডেঙ্গু রোগী

টিকা নিয়ে আরও গবেষণার তাগিদ

টিকা নিয়ে আরও গবেষণার তাগিদ

এক ভবনে কত হাসপাতাল?

এক ভবনে কত হাসপাতাল?

অ্যাম্বুলেন্স থেকে রোগীকে হাসপাতালে নেয় না কেউ!

অ্যাম্বুলেন্স থেকে রোগীকে হাসপাতালে নেয় না কেউ!

৭৭৫ জন জনবল চেয়েছে ডিএনসিসির করোনা হাসপাতাল

৭৭৫ জন জনবল চেয়েছে ডিএনসিসির করোনা হাসপাতাল

দেশের ১৮ হাসপাতালে অতিরিক্ত রোগী

দেশের ১৮ হাসপাতালে অতিরিক্ত রোগী

সরকারি ৫ হাসপাতালে অতিরিক্ত রোগী

সরকারি ৫ হাসপাতালে অতিরিক্ত রোগী

© 2021 Bangla Tribune