X
মঙ্গলবার, ১৫ জুন ২০২১, ১ আষাঢ় ১৪২৮

সেকশনস

করোনা মোকাবিলায় ভারতকে ফাউচির তিন পরামর্শ

আপডেট : ০৭ মে ২০২১, ২১:০৫

করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউয়ে বিপর্যস্ত ভারত। দেশটিতে প্রতিনিয়ত বাড়ছে সংক্রমণ। এই অবস্থায় ভারতের করোনা দুর্যোগ নিয়ন্ত্রণে তিনটি পরামর্শ দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞা ড. অ্যান্থনি ফাউচি।সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে অ্যান্থনি ফাউচি বলেন, ভারতকে মহামারি ঠেকাতে অবিলম্বে পরিকাঠামোকে ঢেলে সাজাতে হবে। প্রয়োজনে সেনাকেও মোতায়েন করতে হতে পারে। যদি তাতেও সুফল দেখা না যায়, তাহলে বন্ধুরাষ্ট্রগুলোর একযোগে এগিয়ে আসা উচিত।

ভারতকে নিয়ে উদ্বেগের কারণ ব্যাখ্যা করতে গিয়ে ফাউচি জানান, ভারতের এখনকার পরিস্থিতি অনেকটা গত বছরের যুক্তরাষ্ট্রের মতো। আগের বছর শীতের শুরুতে আমাদের দেশে দৈনিক সংক্রমণ ৩ লাখ ছুঁয়েছিল। প্রতিদিন ৪ হাজার নাগরিক মারা যেতেন৷

যুক্তরাষ্ট্র যেভাবে মহামারি মোকাবিলা করেছে তা অনুসরণের পরামর্শ দিয়ে ফাউচি বলেন, এটা নিশ্চিত যে, সংক্রমণ ঠেকাতে পূর্ণ লকডাউন করতেই হবে। অন্তত যে সব জায়গায় কাতারে কাতারে মানুষের মৃত্যু হচ্ছে, সেখানে বন্ধের কড়াকড়ি বাড়াতে হবে। এটা ছ’মাস করার দরকার নেই৷ সংক্রমণের শৃঙ্খলটা ভাঙাই জরুরি। তাই দুই থেকে সর্বোচ্চ চার সপ্তাহ লকডাউন করলেই আক্রান্তের গ্রাফ নেমে আসবে।

তবে লকডাউনই চূড়ান্ত ওষুধ নয়। বরং, ফাউচি দাবি, এটা প্রথম ধাপ। দ্বিতীয় ধাপেই আসবে ভ্যাকসিনেশন। তিনি যোগ করেন, ‘ঠিক এই সময়ই টিকাকরণ কর্মসূচির হার বাড়াতে হবে। যত দ্রুত এবং যত বেশি সম্ভব মানুষকে ভ্যাকসিনের ডোজ দেওয়াটা জরুরি।’

কিন্তু ভারতের নড়বড়ে স্বাস্থ্য পরিকাঠামোয় সেই কাজ বাস্তবায়ন কঠিন মেনে নিয়ে মার্কিন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ বলেন, ভারতের মিডিয়া ঘেঁটে এটুকু বুঝেছি যে, ওখানে হাসপাতালে বেডের মারাত্মক সংকট চলছে। এ ছাড়া অন্যান্য সরঞ্জামের জোগানেও ঘাটতি রয়েছে। যে কারণে যুক্তরাষ্ট্র অক্সিজেন সিলিন্ডার ও জেনারেটর কিংবা পিপিই কিট রফতানি করে বন্ধুর মতো ভারতের পাশে দাঁড়িয়েছে।

চীনের তুলনা টেনে ফাউচি বলেন, গত বছর ওখানে কোভিডের বাড়াবাড়ি শুরু হয়েছিল। তখন আমি দেখেছিলাম, কীভাবে ওরা সেনাদের ফিল্ড হাসপাতালের মতো অস্থায়ী হাসপাতাল তৈরি করে পরিষেবা চালু রেখেছে৷ যুক্তরাষ্ট্রেও ন্যাশনাল গার্ড করোনা মোকাবিলায় সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছিল। ভারতও অস্থায়ী হাসপাতাল তৈরি, ভ্যাকসিন সরবরাহের ক্ষেত্রে সেনাকে কাজে লাগাতে পারে।

করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে তরুণদের আক্রান্ত হওয়ার বিষয়ে তিনি বলেন, ভাইরাসের চরিত্র বদলেছে এটা আমরা সবাই জেনে গেছি। ভারতে এর দু’টো ভ্যারিয়েন্ট এসেছে। একটা ‘বি১১৭’— যেটা মূলত নয়াদিল্লিতে ছড়িয়ে পড়েছে। অন্যটা ‘৬১৭’, যা মহারাষ্ট্রে সংক্রমণ বাড়াচ্ছে৷ এই দু’টি ভ্যারিয়েন্টই দ্রুত বিস্তার লাভ করতে পারে। যেটা গতবছর উহানের স্ট্রেইন-কে করতে দেখা যায়নি। ফলে তরুণেরা ব্যাপকভাবে সংক্রামিত হচ্ছেন। তা ছাড়া নয়া ভাইরাস আগের থেকে অনেক বেশি শক্তিশালী ও ক্ষতিকর৷ যে কারণে সংক্রামিতের শরীরে অক্সিজেনের ঘাটতি লক্ষ করা যাচ্ছে। এটা আগের বছর দেখা যায়নি।সূত্র: দ্য ওয়াল

/এএ/

সম্পর্কিত

উত্তর প্রদেশে হামলার শিকার বয়স্ক মুসলিম, কাটা হলো দাড়ি

উত্তর প্রদেশে হামলার শিকার বয়স্ক মুসলিম, কাটা হলো দাড়ি

এসডিজি বাস্তবায়নে অগ্রগতির শীর্ষ তিনে বাংলাদেশ

এসডিজি বাস্তবায়নে অগ্রগতির শীর্ষ তিনে বাংলাদেশ

এরদোয়ান-বাইডেন রুদ্ধদ্বার বৈঠক

এরদোয়ান-বাইডেন রুদ্ধদ্বার বৈঠক

খুলনা বিভাগে শনাক্ত ৪০ হাজার ছাড়ালো, মৃত্যু ৭২৬

খুলনা বিভাগে শনাক্ত ৪০ হাজার ছাড়ালো, মৃত্যু ৭২৬

বাসমতি চালের যৌথ মালিকানায় সম্মত পাকিস্তান ও ভারতের রফতানিকারকরা

বাসমতি চালের যৌথ মালিকানায় সম্মত পাকিস্তান ও ভারতের রফতানিকারকরা

কুড়িগ্রামে সংক্রমিত এলাকায় ‘রেসট্রিকটেড মোড’

কুড়িগ্রামে সংক্রমিত এলাকায় ‘রেসট্রিকটেড মোড’

মার্কিন সাংবাদিককে মুক্তি দিলো মিয়ানমার জান্তা

মার্কিন সাংবাদিককে মুক্তি দিলো মিয়ানমার জান্তা

ভারত নিয়ে যে বার্তা দিলো ইসরায়েলের নতুন সরকার

ভারত নিয়ে যে বার্তা দিলো ইসরায়েলের নতুন সরকার

বাইডেনের সঙ্গে বৈঠকের আগে নমনীয় এরদোয়ান

বাইডেনের সঙ্গে বৈঠকের আগে নমনীয় এরদোয়ান

নোভাভ্যাক্সের টিকা ৯৩ শতাংশ কার্যকর

নোভাভ্যাক্সের টিকা ৯৩ শতাংশ কার্যকর

ফরিদপুরে শনাক্তের হার ৫৫.৬৭ শতাংশ, জায়গা নেই আইসিইউতে

ফরিদপুরে শনাক্তের হার ৫৫.৬৭ শতাংশ, জায়গা নেই আইসিইউতে

যশোরে ২৩০টি নমুনা পরীক্ষায় ৯০ জনের করোনা শনাক্ত

যশোরে ২৩০টি নমুনা পরীক্ষায় ৯০ জনের করোনা শনাক্ত

সর্বশেষ

উত্তর প্রদেশে হামলার শিকার বয়স্ক মুসলিম, কাটা হলো দাড়ি

উত্তর প্রদেশে হামলার শিকার বয়স্ক মুসলিম, কাটা হলো দাড়ি

আবার এসেছে আশার ‘আষাঢ়’

আবার এসেছে আশার ‘আষাঢ়’

মিসরে মুসলিম ব্রাদারহুডের ১২ সদস্যের মৃত্যুদণ্ড বহাল

মিসরে মুসলিম ব্রাদারহুডের ১২ সদস্যের মৃত্যুদণ্ড বহাল

মেসি গোল পেলেও জিততে পারেনি আর্জেন্টিনা

মেসি গোল পেলেও জিততে পারেনি আর্জেন্টিনা

সন্ত্রাসবাদে অভিযুক্ত কানাডার সেই হামলাকারী

সন্ত্রাসবাদে অভিযুক্ত কানাডার সেই হামলাকারী

গোল মিসের মহড়ায় পয়েন্ট হারালো স্পেন

গোল মিসের মহড়ায় পয়েন্ট হারালো স্পেন

ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের ঝুঁকি,  যুক্তরাজ্যে লকডাউন প্রত্যাহার হবে দেরিতে

ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের ঝুঁকি, যুক্তরাজ্যে লকডাউন প্রত্যাহার হবে দেরিতে

অবশেষে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির ‘তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন’

পরীমণিকে ধর্ষণ-হত্যাচেষ্টাঅবশেষে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির ‘তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন’

ইয়াবা-স্বর্ণ ও টাকাসহ তিন রোহিঙ্গা গ্রেফতার

ইয়াবা-স্বর্ণ ও টাকাসহ তিন রোহিঙ্গা গ্রেফতার

বায়ু শক্তিকে উদযাপনের দিন আজ

অপার সম্ভাবনায় গুরুত্ব কমবায়ু শক্তিকে উদযাপনের দিন আজ

স্পর্শকাতর সিদ্ধান্তের মুখে ইসরায়েলের নতুন সরকার

স্পর্শকাতর সিদ্ধান্তের মুখে ইসরায়েলের নতুন সরকার

৩২ লাখ টাকা সহায়তা পেলেন মোংলা বন্দরের শ্রমিক-কর্মচারীরা

৩২ লাখ টাকা সহায়তা পেলেন মোংলা বন্দরের শ্রমিক-কর্মচারীরা

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

উত্তর প্রদেশে হামলার শিকার বয়স্ক মুসলিম, কাটা হলো দাড়ি

উত্তর প্রদেশে হামলার শিকার বয়স্ক মুসলিম, কাটা হলো দাড়ি

এসডিজি বাস্তবায়নে অগ্রগতির শীর্ষ তিনে বাংলাদেশ

এসডিজি বাস্তবায়নে অগ্রগতির শীর্ষ তিনে বাংলাদেশ

এরদোয়ান-বাইডেন রুদ্ধদ্বার বৈঠক

এরদোয়ান-বাইডেন রুদ্ধদ্বার বৈঠক

বাসমতি চালের যৌথ মালিকানায় সম্মত পাকিস্তান ও ভারতের রফতানিকারকরা

বাসমতি চালের যৌথ মালিকানায় সম্মত পাকিস্তান ও ভারতের রফতানিকারকরা

মার্কিন সাংবাদিককে মুক্তি দিলো মিয়ানমার জান্তা

মার্কিন সাংবাদিককে মুক্তি দিলো মিয়ানমার জান্তা

ভারত নিয়ে যে বার্তা দিলো ইসরায়েলের নতুন সরকার

ভারত নিয়ে যে বার্তা দিলো ইসরায়েলের নতুন সরকার

বাইডেনের সঙ্গে বৈঠকের আগে নমনীয় এরদোয়ান

বাইডেনের সঙ্গে বৈঠকের আগে নমনীয় এরদোয়ান

নোভাভ্যাক্সের টিকা ৯৩ শতাংশ কার্যকর

নোভাভ্যাক্সের টিকা ৯৩ শতাংশ কার্যকর

‘বিশ্বের সবচেয়ে বড় পরিবার’ প্রধানের মৃত্যু

‘বিশ্বের সবচেয়ে বড় পরিবার’ প্রধানের মৃত্যু

রাম মন্দির ট্রাস্টের বিরুদ্ধে ভূমি জালিয়াতির অভিযোগ

রাম মন্দির ট্রাস্টের বিরুদ্ধে ভূমি জালিয়াতির অভিযোগ

© 2021 Bangla Tribune