X
রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৪ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

খিল দেওয়া ঘরে পড়ে ছিল মা ও দুই সন্তানের লাশ

আপডেট : ২১ মে ২০২১, ২১:৫০

বান্দরবা‌নের লামা পৌরসভার চাম্পাতলী গ্রামের কুয়েত প্রবাসী নুর মোহাম্মদের বসতঘর থেকে তার দুই সন্তান ও স্ত্রীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। লামা সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার মো. রেজওয়ানুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। শুক্রবার (২১ মে) রাতে বিষয়টি স্বজনরা জানতে পে‌রে পু‌লিশ‌কে খবর দেয়। নিহতরা হলেন প্রবাসী নুর মোহাম্মদের স্ত্রী মাজেদা বেগম (৪০), তার বড়‌ মে‌য়ে রাফি (১৩) ও ছোট মে‌য়ে নুরি (১০ মাস)।

পুলিশ ও কুয়েত প্রবাসী নুর মোহাম্মদের ছোটভাই আব্দুল খালেক জানান, নুর মোহাম্মদের শয়নকক্ষে তার স্ত্রী ও ছোট মে‌য়ে নুরির লাশ ও বড় মেয়ে রাফির লাশ তার রুমে পড়ে ছিল।

আব্দুল খালেক বলেন, সারাদিন কোনও সাড়া শব্দ না পেয়ে ও ঘরের মূল ফটকের দরজা বন্ধ থাকায় সন্ধ্যা ৭টায় ঘরের পেছনের জানালা দিয়ে ঊঁকি দিলে নুর মোহাম্মদের রুমে তার স্ত্রী ও ছোট সন্তানের লাশ প‌ড়ে থাক‌তে দেখি। বিষয়টি লামা থানাকে অবহিত করলে রাত ৮টা ১৫ মিনিটে লামা সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপারের নেতৃত্বে পুলিশ সদস্যরা ঘরের ফটক ভেঙে তা‌দের লাশগুলো উদ্ধার করে।

খবর পে‌য়ে লামা উপজেলা চেয়ারম্যান, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, লামা পৌরসভার মেয়রসহ এলাকাবাসী ঘটনাস্থ‌লে ছু‌টে আ‌সেন।

সহকারী পুলিশ সুপার মো. রিজওয়ানুল ইসলাম বলেন, লাশের প্রাথমিক সুরতহাল করা হচ্ছে। ময়নাতদন্তের জন্য লাশ তিনটি বান্দরবান জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হবে। ময়নাতদন্তের পর অনেক রহস্যই খোলাসা হবে বলে জানান তিনি।

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

বিয়েবাড়িতে ছবি তোলা নিয়ে দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষ, আহত ১৫

বিয়েবাড়িতে ছবি তোলা নিয়ে দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষ, আহত ১৫

শত কোটি টাকা ঋণ নিয়ে আত্মগোপনের ১০ বছর পর গ্রেফতার

শত কোটি টাকা ঋণ নিয়ে আত্মগোপনের ১০ বছর পর গ্রেফতার

যাত্রীবাহী গাড়িটিতে সন্ত্রাসীদের ৪০-৫০ রাউন্ড গুলিবর্ষণ

যাত্রীবাহী গাড়িটিতে সন্ত্রাসীদের ৪০-৫০ রাউন্ড গুলিবর্ষণ

হাজার কোটি টাকা ফেরত চান গ্রাহকরা

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৭:১২

ভোলায় গ্রাহকদের প্রায় হাজার কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে ইউনাইটেড মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ সোসাইটি নামের একটি প্রতিষ্ঠান। ইতোমধ্যেই পালিয়ে গেছেন প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান মঞ্জুর আলম। এতে টাকা ফেরত চেয়ে রবিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) বেলা ১১টার দিকে ভোলা আদালত সড়ক ও প্রেস ক্লাবের সামনে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ করেছেন সহস্রাধিক গ্রাহক।

মানববন্ধনে গ্রাহকরা বলেন, ২০০৬ থেকে ২০২০ সাল পর্যন্ত আড়াই হাজার গ্রাহকের কাছ থেকে আমানত হিসেবে এক হাজার কোটি টাকা নেয় ইউনাইটেড মাল্টিপারপাস। ওই টাকা দিয়ে মঞ্জুর আলম তার শ্বশুর আব্দুল খালেক, স্ত্রী রোজিনা, ভাই ইউছুফসহ কয়েক আত্মীয়ের নামে-বেনামে ঢাকাসহ বিভিন্ন স্থানে প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলেন। এক পর্যায়ে লভ্যাংশ দেওয়া বন্ধ করে দেয় প্রতিষ্ঠানটি। এরপর গ্রাহকরা তাদের আমানতের টাকা ফেরত চাইলে স্ত্রীসহ পালিয়ে যান মঞ্জু। পুলিশ তার শ্বশুর আব্দুল খালেক ও মঞ্জুসহ তিন ভাইকে গ্রেফতার করেছে। ইতোমধ্যে টাকা আত্মসাতের অভিযোগে মঞ্জু ও তার স্বজনদের বিরুদ্ধে ১৬টি মামলা হয়েছে।

ভুক্তভোগী গ্রাহকরা আরও বলেন, তাদের টাকা দিয়ে মঞ্জু তার নিজের ও স্বজনদের নামে ২৭টি প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলেন। এখন টাকা ফেরত দিচ্ছে না। আমরা আমাদের টাকা ফেরত চাই।

/এফআর/

সম্পর্কিত

শত কোটি টাকা ঋণ নিয়ে আত্মগোপনের ১০ বছর পর গ্রেফতার

শত কোটি টাকা ঋণ নিয়ে আত্মগোপনের ১০ বছর পর গ্রেফতার

এহসান গ্রুপে ৪০ লাখ টাকা রেখেছেন সাবেক পুলিশ কর্মকর্তা

এহসান গ্রুপে ৪০ লাখ টাকা রেখেছেন সাবেক পুলিশ কর্মকর্তা

১০ বছরে দুর্গাসাগরে ধরা পড়লো সবচেয়ে বড় মাছ 

১০ বছরে দুর্গাসাগরে ধরা পড়লো সবচেয়ে বড় মাছ 

ধাপে ধাপে সব ক্লাসের সংখ্যা বাড়ানো হবে: মাউশি মহাপরিচালক

ধাপে ধাপে সব ক্লাসের সংখ্যা বাড়ানো হবে: মাউশি মহাপরিচালক

ঢাকার সঙ্গে উত্তর-দক্ষিণবঙ্গের রেল যোগাযোগ স্বাভাবিক

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৭:১২

তিন ঘণ্টা ১২ মিনিট পর ঢাকার সঙ্গে উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলের রেল যোগাযোগ স্বাভাবিক হয়েছে। সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় বিকল হওয়া রংপুর এক্সপ্রেস ট্রেনের ইঞ্জিন সরিয়ে নেওয়া পর রবিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) বিকাল ৩টা ৪২ মিনিটে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়। 

স্থানীয় সূত্র জানায়, বিকল হওয়া রংপুর এক্সপ্রেস ট্রেনের ইঞ্জিন সরানোর পর কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস যাওয়ার মধ্য দিয়ে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়। এর আগে বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্বপ্রান্ত থেকে আসা রিলিফ ইঞ্জিন দিয়ে রংপুর এক্সপ্রেস ট্রেনকে সরিয়ে নেওয়া হয়।

উল্লাপাড়া রেলওয়ে স্টেশনের মাস্টার মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, বিকালে বিকল ট্রেনটি রিলিফ ইঞ্জিন দিয়ে উল্লাপাড়া স্টেশন থেকে রংপুরে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে উল্লাপাড়া ও লাহিড়ীমোহনপুর রেল স্টেশনের মধ্যবর্তী এলাকার ৩২ নম্বর রেল সেতুর পাশে রংপুর এক্সপ্রেসের ইঞ্জিন বিকল হয়ে পড়ে। এতে ঢাকার সঙ্গে উত্তর এবং দক্ষিণবঙ্গের রেল চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। পরে উল্লাপাড়া থেকে একটি লাইফ ইঞ্জিন গিয়ে ট্রেনটিকে প্রথমে উল্লাপাড়া স্টেশনে নিয়ে যায়। বিকালে ১৪টি বগিসহ রংপুর এক্সপ্রেস ট্রেনকে ইঞ্জিন দিয়ে গন্তব্যে নেওয়া হয়। বর্তমানে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক।

/এএম/

সম্পর্কিত

চাঁদাবাজির অভিযোগে ২ পুলিশ সদস্যকে প্রত্যাহার

চাঁদাবাজির অভিযোগে ২ পুলিশ সদস্যকে প্রত্যাহার

সিরাজগঞ্জে ইঞ্জিন বিকল, উত্তর-দক্ষিণবঙ্গের রেল যোগাযোগ বন্ধ

সিরাজগঞ্জে ইঞ্জিন বিকল, উত্তর-দক্ষিণবঙ্গের রেল যোগাযোগ বন্ধ

বেনাপোল ইমিগ্রেশনে ভারতফেরত বাংলাদেশির মৃত্যু

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৬:৩৮

ভারত থেকে চিকিৎসা নিয়ে দেশে ফেরার সময় বেনাপোল ইমিগ্রেশনে আব্দুর রহিম (৪৮) নামের এক বাংলাদেশির মৃত্যু হয়েছে। তিনি ঢাকার দক্ষিণখান এলাকার হোলান রোডের বাসিন্দা জহিরুল হকের ছেলে।

রবিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) দুপুরে ভারত থেকে বেনাপোল আসার পর পাসপোর্টের কার্যক্রম শেষ করেন। এরপর ইমিগ্রেশন কাস্টমস থেকে বের হওয়ার মুহূর্তে অসুস্থবোধ করলে আকস্মিক মেঝেতে পড়ে যান। এতে তিনি মাথায় আঘাত পান।

কুলি আকবার আলী বলেন, ‘‘ভারত থেকে বেনাপোল চেকপোস্টের নো ম্যান্সল্যান্ডে এলে ওনার লাগেজ নিয়ে ইমিগ্রেশন আসছিলাম। তখন তিনি আমাকে বলেছিলেন, ‘শরীরটা ভালো লাগছে না’। দুই মিনিট বিশ্রাম নিয়ে ইমিগ্রেশনে এসে নিজের পাসপোর্টের অফিসিয়াল কাজ করে বের হয়ে আসছিলেন। হঠাৎ মেঝেতে পড়ে যান তিনি। এর কিছুক্ষণ পরেই তিনি মারা যান।’’

বেনাপোল ইমিগ্রেশনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আহসান হাবিব বলেন, ‘রবিবার দুপুরে ভারত থেকে চিকিৎসা নিয়ে আব্দুর রহিম নামের এক বাংলাদেশি দেশে ফেরেন। ইমিগ্রেশনে আসার পর তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরে ইমিগ্রেশনে কার্যক্রম শেষ করে বের হওয়ার সময় মেঝেতে পড়ে যান এবং ওই সময় তার মৃত্যু হয়।’

/এফআর/

সম্পর্কিত

সোমবার খুলনা বিভাগের ৯৫ কেন্দ্রে ইভিএমে ভোট

সোমবার খুলনা বিভাগের ৯৫ কেন্দ্রে ইভিএমে ভোট

বাগেরহাটে ইউপি নির্বাচনে সব কেন্দ্রই ঝুঁকিপূর্ণ

বাগেরহাটে ইউপি নির্বাচনে সব কেন্দ্রই ঝুঁকিপূর্ণ

দেড় বছর পর দর্শনা ইমিগ্রেশন চেকপোস্টের কার্যক্রম শুরু

দেড় বছর পর দর্শনা ইমিগ্রেশন চেকপোস্টের কার্যক্রম শুরু

যশোরে তিন ফুট উচ্চতার বর-কনের ধুমধামে বিয়ে

যশোরে তিন ফুট উচ্চতার বর-কনের ধুমধামে বিয়ে

হিলির ২১ মন্দিরে চলছে প্রতিমা তৈরির কাজ

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৬:৩৭

কয়েকদিন পরই শারদীয় দুর্গাপূজা। এ উপলক্ষে দিনাজপুরের হিলিতে মন্দিরে মন্দিরে চলছে প্রতিমা তৈরির কাজ। গতবার সীমিত পরিসরে হলেও এবার করোনা পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক হওয়ায় বড় পরিসরে পূজা উদযাপনের আশা করছে কমিটি। গতবারের চেয়ে কাজ বাড়ায় খুশি প্রতিমা তৈরির কারিগররা।

হিলিতে গত বছর ২০ মন্দিরে সীমিত পরিসরে পূজা অনুষ্ঠিত হয়েছিল। এবার ২১ মন্দিরে চলছে প্রতিমা তৈরির কাজ। ইতোমধ্যে অনেক মন্দিরে প্রতিমা শুকানোর কাজ চলছে। এরপর চলবে রংয়ের কাজ।

প্রতিমা তৈরির কারিগর স্বপন পাল বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, বর্তমানে খড়, মাটি ও পাটের সংমিশ্রণে বিভিন্ন আকৃতির প্রতিমা তৈরি করছি। গত বছর করোনার কারণে কিছুটা ছোট আকারের প্রতিমা তৈরি করেছি। এবার ভক্তদের চাহিদা অনুযায়ী প্রতিমায় আনা হয়েছে ভিন্নতা। আকার হয়েছে বড়। প্রতিমা তৈরির কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে। এখন হাতের আঙুলসহ অন্যান্য আনুষঙ্গিক যে কাজ আছে, কয়েকদিনের মধ্যে শেষ হবে। এরপর রংয়ের কাজ হবে। পূজার আগেই সবশেষ করে কমিটির কাছে প্রতিমা বুঝিয়ে দেবো।

তিনি আরও বলেন, আমরা বছরে ৩-৪ মাস প্রতিমা তৈরির কাজ করে যা আয় হয় তা দিয়ে সারা বছর সংসার চলে। গত বছর করোনার কারণে আয় অর্ধেকে নেমেছে। এতে পরিবার-পরিজন নিয়ে চরম বিপাকে পড়েছি। এবার করোনা পরিস্থিতি শিথিল হওয়ায় কাজ বেড়েছে। গতবারের চেয়ে বাড়তি আয়ের আশা করছি।

ইতোমধ্যে অনেক মন্দিরে প্রতিমা শুকানোর কাজ চলছে

প্রতিমা তৈরির কারিগর শ্রিদাম পাল বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, আমি গত নয় বছর ধরে হিলিতে প্রতিমা তৈরির কাজ করছি। কিন্তু করোনার কারণে আমরা যারা এই পেশায় জড়িত তারা চাহিদা মোতাবেক কাজ না পাওয়ায় উপার্জন কমে দুর্ভোগের মধ্যে পড়েছি। জীবিকার তাগিদে অনেকে পেশা ছেড়ে বিভিন্ন পেশায় নিয়োজিত হয়েছেন। যে প্রতিমা আমরা তৈরি করতাম ৮০ হাজার টাকায়; শুধুমাত্র করোনার কারণে গত বছর সেই প্রতিমার কাজ ৩০ হাজার টাকায় করেছি। আবার যেটি এক লাখ ছিল, সেটি হয়েছে ৪০ হাজার টাকায়। আমাদের মজুরি অর্ধেকও পাইনি। এবারও পরিস্থিতি খুব একটা ভালো নয়। তবে আগের চেয়ে করোনা পরিস্থিতির উন্নতি হওয়ায় কাজের চাহিদা বেড়েছে। আমি ছয়টি প্রতিমা তৈরির কাজ পেয়েছি। তবে প্রতিমা তৈরির স্বাভাবিক সময়ে যে মূল্য পেতাম এবারও সেটি পাচ্ছি না।

হিলির চন্ডিপুর সার্বজনীন দুর্গা মন্দিরের সাধারণ সম্পাদক পলাশ কুমার বসাক বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, গত বছর করোনার সংক্রমণ বেশি থাকায় আমরা অনেকটা ঘরোয়া পরিবেশে দুর্গাপূজা উদযাপন করেছি। এবার করোনা পরিস্থিতির উন্নতি হওয়ায় ইতোমধ্যে সরকার স্কুল-কলেজ খুলে দিয়েছে। যার কারণে আমরা মনে করছি, এবার ভালোভাবে দুর্গাপূজা উদযাপন করতে পারবো। সরকারি নির্দেশনা ও আমাদের কমিটি যে সিদ্ধান্ত দেয়, সে অনুযায়ী স্বাস্থ্যবিধি মেনে পূজা উদযাপন করবো। গত বছর প্রতিমার আকার কিছুটা ছোট হলেও এবার বড় আকারের প্রতিমা তৈরি করেছি। করোনার কারণে সবার অর্থনৈতিক সমস্যা আছে। বিষয়টি বিবেচনা করেই পূজা উদযাপন করা হবে।

হাকিমপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) মোস্তাফিজুর রহমান বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, হিলি যেহেতু সীমান্তবর্তী এলাকা সেহেতু সনাতন ধর্মের লোকজন যাতে সুন্দরভাবে পূজা উদযাপন করতে পারে, সে জন্য পুলিশ সব ধরনের ব্যবস্থা নেবে।

/এএম/

সম্পর্কিত

অপকর্মে জড়িতদের আ.লীগে স্থান নেই: তথ্যমন্ত্রী 

অপকর্মে জড়িতদের আ.লীগে স্থান নেই: তথ্যমন্ত্রী 

মোটরসাইকেলে ৩ জন, ট্রাকের ধাক্কায় রাজস্ব কর্মকর্তা নিহত

মোটরসাইকেলে ৩ জন, ট্রাকের ধাক্কায় রাজস্ব কর্মকর্তা নিহত

ধর্ষণ মামলায় বিএনপি নেতা গ্রেফতার

ধর্ষণ মামলায় বিএনপি নেতা গ্রেফতার

সোমবার খুলনা বিভাগের ৯৫ কেন্দ্রে ইভিএমে ভোট

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৬:১৫

খুলনা বিভাগের ১০ ইউনিয়ন পরিষদে প্রথমবারের মতো ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোট অনুষ্ঠিত হবে সোমবার (২০ সেপ্টেম্বর)। ইতোমধ্যে এসব ইউনিয়নের ভোটকেন্দ্রে মক ভোটিং অনুষ্ঠিত হয়েছে।

খুলনার আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মো. ইউনুচ আলী জানান, খুলনা, বাগেরহাট ও সাতক্ষীরা জেলার সাতটি উপজেলায় ১০টি ইউপির ৯৫টি কেন্দ্রে ইভিএমে ভোট অনুষ্ঠিত হবে। ইতোমধ্যে সব প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে।

তিনি আরও জানান, খুলনার বটিয়াঘাটা উপজেলার গংগারামপুর ইউনিয়নের ১০টি ভোট কেন্দ্রের ৪৯ ভোটকক্ষে, দিঘলিয়া উপজেলার বারাকপুর ইউনিয়নের ৯টি কেন্দ্রের ৫৭ ভোটকক্ষে, বাগেরহাটের ফকিরহাট উপজেলার বেতাগা ইউনিয়নের ৯টি কেন্দ্রের ৩৭ ভোটকক্ষে, রামপাল উপজেলার বাইনতলা ইউনিয়নের ৯টি কেন্দ্রের ৩৭ ভোটকক্ষে, মোংলা উপজেলার বুড়িরডাঙ্গা ইউনিয়নের ৯টি কেন্দ্রের ৩৭ ভোটকক্ষে, সোনাইল তলা ইউনিয়নের ৯টি কেন্দ্রের ২৫ ভোটকক্ষে, সাতক্ষীরার কলারোয়া উপজেলার হেলাতলা ইউনিয়নের ৯টি কেন্দ্রের ৪৪ ভোটকক্ষে এবং তালা উপজেলার তেঁতুলিয়া ইউনিয়নের ৯টি কেন্দ্রের ৫১ ভোটকক্ষে, তালা ইউনিয়নের ১১টি কেন্দ্রের ৭৭ ভোটকক্ষে ও খলিলনগর ইউনিয়নের ১১টি কেন্দ্রের ৬৪ ভোটকক্ষে ইভিএমে ভোটগ্রহণ হবে।

খুলনার সিনিয়র জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা এম মাজহারুল ইসলাম বলেন, ‘দিঘলিয়া উপজেলার বারাকপুর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে পাঁচ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এর মধ্যে আওয়ামী লীগের একজন, ইসলামী আন্দোলনের একজন এবং তিন জন স্বতন্ত্র প্রার্থী রয়েছেন। এ ছাড়া সংরক্ষিত ওয়ার্ডের সদস্য পদে ১৩ জন, সাধারণ ওয়ার্ডে ৪৫ জন প্রার্থী রয়েছেন। ইউনিয়নের ৯টি ভোট কেন্দ্রে ১৯ হাজার ৪৮৫ জন ভোটার রয়েছেন। এ ছাড়া বটিয়াঘাটা উপজেলার গংগারামপুর ইউনিয়ন পরিষদে ছয় জন চেয়ারম্যান প্রার্থী রয়েছেন। এর মধ্যে আওয়ামী লীগ ও ইসলামী আন্দোলনের একজন করে এবং সংরক্ষিত ওয়ার্ডের সদস্য পদে ১১ জন প্রার্থী ও সাধারণ ওয়ার্ডে ৪২ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। ইউনিয়নের ১০টি ভোট কেন্দ্রে ১৬ হাজার ১৪৭ জন ভোটার রয়েছেন।’

/এমএএ/

সম্পর্কিত

বেনাপোল ইমিগ্রেশনে ভারতফেরত বাংলাদেশির মৃত্যু

বেনাপোল ইমিগ্রেশনে ভারতফেরত বাংলাদেশির মৃত্যু

বাগেরহাটে ইউপি নির্বাচনে সব কেন্দ্রই ঝুঁকিপূর্ণ

বাগেরহাটে ইউপি নির্বাচনে সব কেন্দ্রই ঝুঁকিপূর্ণ

দেড় বছর পর দর্শনা ইমিগ্রেশন চেকপোস্টের কার্যক্রম শুরু

দেড় বছর পর দর্শনা ইমিগ্রেশন চেকপোস্টের কার্যক্রম শুরু

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

বিয়েবাড়িতে ছবি তোলা নিয়ে দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষ, আহত ১৫

বিয়েবাড়িতে ছবি তোলা নিয়ে দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষ, আহত ১৫

শত কোটি টাকা ঋণ নিয়ে আত্মগোপনের ১০ বছর পর গ্রেফতার

শত কোটি টাকা ঋণ নিয়ে আত্মগোপনের ১০ বছর পর গ্রেফতার

যাত্রীবাহী গাড়িটিতে সন্ত্রাসীদের ৪০-৫০ রাউন্ড গুলিবর্ষণ

যাত্রীবাহী গাড়িটিতে সন্ত্রাসীদের ৪০-৫০ রাউন্ড গুলিবর্ষণ

কক্সবাজারে বছরজুড়ে খোঁড়াখুঁড়ি, দুর্ভোগের শেষ নেই

কক্সবাজারে বছরজুড়ে খোঁড়াখুঁড়ি, দুর্ভোগের শেষ নেই

বিদ্যালয়ের টয়লেট থেকে ছাত্রী উদ্ধার, প্রধান শিক্ষককে শোকজ

বিদ্যালয়ের টয়লেট থেকে ছাত্রী উদ্ধার, প্রধান শিক্ষককে শোকজ

বান্দরবানে যাত্রীবাহী গাড়িতে সন্ত্রাসীদের গুলিবর্ষণ

বান্দরবানে যাত্রীবাহী গাড়িতে সন্ত্রাসীদের গুলিবর্ষণ

গার্মেন্টসকর্মীকে তুলে নিয়ে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে আটক ৬

গার্মেন্টসকর্মীকে তুলে নিয়ে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে আটক ৬

খুতবার আজান নিয়ে সংঘর্ষে নিহত: যুবলীগ নেতা গ্রেফতার

খুতবার আজান নিয়ে সংঘর্ষে নিহত: যুবলীগ নেতা গ্রেফতার

সর্বশেষ

মৃত্যু বাড়লেও কমেছে শনাক্তের হার

মৃত্যু বাড়লেও কমেছে শনাক্তের হার

মানুষকে আতঙ্কে রাখতে চাই না: তালেবানের নৈতিকতা পুলিশ প্রধান

মানুষকে আতঙ্কে রাখতে চাই না: তালেবানের নৈতিকতা পুলিশ প্রধান

রাজারবাগ দরবারের বিষয়ে দুদক, সিটিটিসি ও সিআইডিকে তদন্তের নির্দেশ

রাজারবাগ দরবারের বিষয়ে দুদক, সিটিটিসি ও সিআইডিকে তদন্তের নির্দেশ

হাজার কোটি টাকা ফেরত চান গ্রাহকরা

হাজার কোটি টাকা ফেরত চান গ্রাহকরা

ঢাকার সঙ্গে উত্তর-দক্ষিণবঙ্গের রেল যোগাযোগ স্বাভাবিক

ঢাকার সঙ্গে উত্তর-দক্ষিণবঙ্গের রেল যোগাযোগ স্বাভাবিক

© 2021 Bangla Tribune