X
রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৪ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

বেড়িবাঁধ নিয়ে শঙ্কায় উপকূলবাসী

আপডেট : ২৬ মে ২০২১, ১২:৪২

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় ইয়াস অতিপ্রবল ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হয়েছে। আবহাওয়াবিদরা বলছেন, ঝড়টি বুধবার (২৬ মে) দুপুরে উত্তর উড়িষ্যা-পশ্চিমবঙ্গ উপকূল অতিক্রম করতে পারে। ঝড়ের প্রভাবে সকাল থেকে উপকূলীয় এলাকায় রোদ বৃষ্টির খেলা চলছে। কড়া রোদে শরীর পুড়ছে, আবার হালকা বৃষ্টিতে ভিজতে হচ্ছে। ইয়াস নিয়ে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠার কমতি নেই খুলনাসহ উপকূলীয় এলাকার মানুষের মধ্যে। তাদের দুশ্চিন্তার অন্যতম কারণ দুর্বল বেড়িবাঁধ। এখন পর্যন্ত খুলনার উপকূলীয় কোনও এলাকায় বেড়িবাঁধ ভাঙার খবর পাওয়া যায়নি। তবে, মঙ্গলবার কয়রার ২-৩টি স্থানে জোয়ারের চাপে বাঁধ উপচে পানি প্রবেশ করতে দেখা যায়। স্থানীয়রা বলছেন, দুপুরের জোয়ারের প্রভাব নিয়ে তারা উদ্বিগ্ন।

এদিকে সিডর, আইলা, বুলবুল, আম্পানের ক্ষত এখনও কাটিয়ে উঠতে পারেনি উপকূলের মানুষ। এখন ইয়াসের প্রভাবে খুলনার কয়রা, দাকোপ ও পাইকগাছার বিভিন্ন এলাকায় বাঁধ উপচে লোকালয়ে পানি ঢুকে পড়েছে। মঙ্গলবার দিনব্যাপী চলে রোদ বৃষ্টি-মেঘের লুকোচুরি। থেমে থেমে হালকা ও মাঝারি বৃষ্টি হয়েছে। ক্ষয়ক্ষতি কমাতে খোলে হয়েছে সহস্রাধিক সাইক্লোন শেল্টার।

কয়রার লিঙ্কন হাকদার জানান, সকালেই রোদ উঠেছে। আবার থেকে হালকা বৃষ্টিও হচ্ছে। এ অবস্থার মধ্যে মানুষের দৃষ্টি এখন বিভিন্ন এলাকার ঝুঁকিপুর্ণ বেড়িবাঁধে। দুপুরের জোয়ারের চাপে কী অবস্থা হবে তাই এখন দেখার অপেক্ষায় তারা।

কয়রা উন্নয়ন কমিটির সাধারণ সম্পাদক ইমতিয়াজ আহমেদ বলেন, প্রকৃতিক যে কোনও দুর্যোগের খবরে কয়রার মানুষ আতঙ্ক আর উদ্বেগের মধ্যে থাকেন। প্রবল ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের খবরেও কয়রার মানুষ চরমভাবে শঙ্কিত। এখনও পর্যন্ত কোনও বিপর্যয় না ঘটলেও মানুষ দুশ্চিন্তায় রয়েছে। দুপুরের জোয়ার ও পরবর্তী পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণের অপেক্ষা করছেন তারা।

এদিকে সিপিপি, রেড ক্রিসেন্টসহ বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবীর পাশাপাশি ঘূর্ণিঝড়ের পূর্ববর্তী ও পরবর্তী পরিস্থিতি মোকাবিলয়া এবং নিরাপত্তায় কাজ করছেন আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরাও।

খুলনার আঞ্চলিক আবহাওয়া কার্যালয়ের সিনিয়র আবহাওয়াবিদ আমিরুল আজাদ বলেন, অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড়টি আরও উত্তর ও উত্তর-পশ্চিম দিকে অগ্রসর হয়ে বুধবার দুপুর নাগাদ উত্তর উড়িষ্যা-পশ্চিমবঙ্গ উপকূল অতিক্রম করতে পারে। চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্কসংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। এই ঘূর্ণিঝড় অতিক্রমকালে উপকূলবর্তী জেলা এবং নিম্নাঞ্চলে ৮০ থেকে ১০০ কিলোমিটার বেগে দমকা হাওয়া এবং ভারী বর্ষণ হতে পারে। ঘূর্ণিঝড় আর পূর্ণিমার প্রভাব থাকায় নদীর পানি স্বাভাবিক জোয়ারের থেকে তিন থেকে চার ফুট উঁচু জলোচ্ছ্বাসে প্লাবিত হতে পারে।

তিনি আরও বলেন, ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের প্রভাবে থেমে থেমে বৃষ্টি হচ্ছে। দুই দিনে খুলনায় ২১ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত হয়েছে। মঙ্গলবার রাত পর্যন্ত ৯ মিলিমিটার এবং সোমবার ১২ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে।

জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা মো. আজিজুল হক জোয়ার্দার বলেন, খুলনার ৯ উপজেলার এক হাজার ৪৮টি সাইক্লোন শেল্টার প্রস্তুত রয়েছে। এখানে ধারণক্ষমতা প্রায় চার লাখ। প্রস্তুত রয়েছে ১১৬টি মেডিক্যাল টিম।

খুলনার মধ্যে সবচেয়ে বেশি ঝুঁকিপূর্ণ বেড়িবাঁধ হলো কয়রা। উপজেলায় ১৫৫ কিলোমিটার বেড়িবাঁধ রয়েছে, যার প্রায় অর্ধেক ঝুঁকিপূর্ণ।

পাউবো সাতক্ষীরা বিভাগ-২-এর পরিচালন ও রক্ষণাবেক্ষণ শাখার নির্বাহী প্রকৌশলী মো. রাশিদুর রহমান বলেন, কয়রা উপজেলার ২৪টি স্থানের বাঁধ ঝুঁকিপূর্ণ। ইয়াসের প্রভাব থেকে কয়রাবাসীকে বাঁচাতে জরুরি ভিত্তিতে সেই স্থানগুলোতে কাজ করা হচ্ছে। তিনি আরও বলেন, মঙ্গলবার সকালে জোয়ারের পানি স্বাভাবিকের তুলনায় ৪ থেকে ৫ ফুট বেড়ে যায়। জোয়ারের পানি এমন থাকলে খুব বেশি সমস্যা হবে না। তবে যদি পানির উচ্চতা ৮ থেকে ১০ ফুট হয় ও বাতাসের তীব্রতা বাড়ে, তাহলে বাঁধ টিকিয়ে রাখা কঠিন হয়ে পড়বে।

খুলনার কয়রা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) অনিমেষ বিশ্বাস বলেন, জোয়ারের পানি বেড়েছে। দু-একটি স্থানে বেড়িবাঁধ উপচে পানি প্রবেশ করেছে। এসব স্থানে চেয়ারম্যান, স্বেচ্ছাসবক, স্থানীয় জনগণ বাঁধ রক্ষায় কাজ করছেন। উপজেলায় ১১৮টি আশ্রয়কেন্দ্র রয়েছে। এসব আশ্রয়কেন্দ্রে ৬৫ থেকে ৭০ হাজার মানুষের ব্যবস্থা রয়েছে।

পাইকগাছা ইউএনও এবিএম খালিদ হোসেন সিদ্দিকী বলেন, সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। উপজেলার ১০৮টি আশ্রয়কেন্দ্রে ৫৯ হাজার মানুষ থাকতে পারবে। তিন হাজার স্বেচ্ছাসেবক প্রস্তুত রয়েছেন। আশ্রয়কেন্দ্রে আসা মানুষের জন্য শুকনা খাবারের ব্যবস্থা করা হয়েছে। ৩০ হাজার বিশুদ্ধকরণ ট্যাবলেট রাখা হয়েছে। চিকিৎসাসেবায় ১১টি মেডিক্যাল টিম রয়েছে। একটি অ্যাম্বুলেন্স, পাঁচটি মাইক্রোবাস প্রস্তুত রয়েছে। প্রতিটি ইউনিয়নে দুটি নসিমন প্রস্তুত রাখা হয়েছে অতি জরুরি উদ্ধারকাজের জন্য। ঘূর্ণিঝড় বিষয়ে সচেতনতার জন্য মাইকিং করা হয়েছে।

তিনি বলেন, উপজেলার গড়ইখালী উত্তর পুংখালী এবং দেলুটির একটি বেড়িবাঁধ ঝুঁকিপূর্ণ রয়েছে। সেখানে বালুর বস্তা ফেলা হয়েছে। সোলাদানা ইউনিয়নের একটি আশ্রয়ণ প্রকল্পের অবস্থা নাজুক। অতিজোয়ারে কী অবস্থা হবে বোঝা যাচ্ছে না। প্রচণ্ড জোয়ারের চাপ।

দাকোপ ইউএনও মিন্টু বিশ্বাস বলেন, উপজেলায় ১২৩টি আশ্রয়কেন্দ্র ৮০ হাজারের বেশি মানুষ থাকতে পারবে। ইতোমধ্যে খাবারের ব্যবস্থাসহ সব প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে।

খুলনার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মাহবুব হাসান বলেন, ঘূর্ণিঝড়ের পূর্ববর্তী এবং পরবর্তী পরিস্থিতি মোকাবিলায় জেলার প্রতিটি ওয়ার্ডে কমিটি গঠন করা হয়েছে। তাদের সঙ্গে মতবিনিময় করা হয়েছে। পুলিশ সদস্যদের কোনও ছুটি নেই। কয়রা, পাইকগাছা, দাকোপ ও বটিয়াঘাটা থানা এলাকায় সহস্রাধিক পুলিশ সদস্য কাজ করছেন। প্রতিটি আশ্রয়কেন্দ্রে নিরাপত্তায় পুলিশ সদস্যরা কাজ করবেন। মানুষের নিরাপত্তাকে মাথায় রেখে সকল প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে।

খুলনা জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হেলাল হোসেন বলেন, সাইক্লোন শেল্টারসহ সব প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে। বেশি গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে উপকূলীয় কয়রা, দাকোপ, পাইকগাছা ও বটিয়াঘাটা উপজেলাকে। বেড়িবাঁধকে আমরা বেশি গুরুত্ব দিচ্ছি। মেডিক্যাল টিম, পানি বিশুদ্ধকরণ ট্যাবলেট ও পর্যাপ্ত শুকনা খাবার প্রস্তুত রাখা হয়েছে। এছাড়া প্রস্তুত রয়েছে স্বেচ্ছাসেবক বাহিনীও। ঘূর্ণিঝড়-পরবর্তী পরিস্থিতি মোকাবিলার জন্য প্রস্তুত রয়েছে ফায়ার সার্ভিস, পানি উন্নয়ন বোর্ড ও কোস্টগার্ড।

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

যশোরে তিন ফুট উচ্চতার বর-কনের ধুমধামে বিয়ে

যশোরে তিন ফুট উচ্চতার বর-কনের ধুমধামে বিয়ে

এক ইউনিয়নের সব প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী

এক ইউনিয়নের সব প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী

বাগেরহাটে হার্ডবোর্ড কারখানায় আগুন

বাগেরহাটে হার্ডবোর্ড কারখানায় আগুন

মোংলা বন্দরে নির্মিত হচ্ছে আরও ৬টি জেটি

মোংলা বন্দরে নির্মিত হচ্ছে আরও ৬টি জেটি

যশোরে তিন ফুট উচ্চতার বর-কনের ধুমধামে বিয়ে

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩:০১

স্থানীয় লোকজন বেশ ঘটা করেই বিয়ে দিয়েছেন যশোর সদরের নরেন্দ্রপুর পোস্ট অফিস এলাকার আকবার আলীর ছেলে রবিউল ইসলাম এবং পাশের আন্দুলিয়া গ্রামের নাজির মোল্লার মেয়ে ময়না খাতুনের। তবে তারা দুজনই খর্বাকৃতির। বরের উচ্চতা তিন ফুট এবং কনের উচ্চতাও প্রায় তিন ফুট। গত ১৭ সেপ্টেম্বর বেশ ধুমধাম করে তাদের বিয়ে সম্পন্ন হয়।

রবিবার তাদের ফিরানি (বিয়ের পর মেয়েকে বাবার বাড়িতে নেওয়া) হবে। সে কারণে মেয়েপক্ষ একটি ঘোড়ার গাড়ি সাজিয়ে অন্যরকমভাবে নিয়ে যাওয়ার জন্যে আয়োজন করেছে। নরেন্দ্রপুর পোস্ট অফিসপাড়া ও আন্দুলিয়া গ্রামের দূরত্ব প্রায় দুই কিলোমিটার।

নরেন্দ্রপুর পোস্ট অফিস এলাকার বাসিন্দা অবসরপ্রাপ্ত সরকারি কর্মচারী মোতাহার হোসেন বুলবুল বলেন, ‘রবিউলের বাবা নেই। মা অন্য জায়গায় বিয়ে করে চলে গেছেন। রবিউল থাকতো খালু জাহাঙ্গীর হোসেনের কাছে।’

তিনি বলেন, ‘দু’পক্ষের অভিভাবকদের সম্মতিতে বিয়ের অনুষ্ঠান করা হয়েছে। বরযাত্রী হিসেবে আমরা দুটি মাইক্রোবাস আর ২০টি মোটরসাইকেল নিয়ে ৬০ জনের মতো যাই। পরদিন বৌভাতে সেখান থেকে ৪০-৪২ কনে যাত্রীসহ আমরা প্রায় দুইশ’ মানুষের জন্যে আয়োজন করি। সাদাভাতের সঙ্গে গরুর মাংস, খাসির মাংস, ডিম ইত্যাদি ছিল। খাওয়া-দাওয়ায় কোনও সমস্যা হয়নি।’

বিয়ের অন্যতম আয়োজক গাজী কামারুল ইসলাম বলেন, ‘সবার সহযোগিতায় আমরা তাদের বিয়ে দিয়েছি। সবাই দোয়া করবেন তাদের জন্য। এ ধরনের মানুষকে সমাজের মূলস্রোতে আনতে সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে।’

বিয়ের অন্যতম আয়োজক আন্দুলিয়া গ্রামের মোদাচ্ছের মোল্লা বলেন, ‘মেয়েটির বাবা নেই। মা জুট মিলে কাজ করতেন। এখন কাজ নেই। মেয়েটার বয়সও হয়ে যাচ্ছিল। দু’পক্ষের দেখাশোনার মাধ্যমে আমরা বিয়ের আয়োজন করি। মেয়েপক্ষের যাবতীয় খরচ আমাদের গ্রামের ১০-১২ জন মিটিয়েছেন।’

তিনি সবার কাছে নবদম্পতির জন্যে দোয়া চেয়ে বলেন, ‘আজ (রবিবার) মেয়েকে আমরা তার মায়ের বাড়ি আনাবো। সেই কারণে একটু আলাদা ব্যবস্থা করেছি। একটি ঘোড়ার গাড়ি সাজিয়ে-গুছিয়ে তৈরি করা হয়েছে। বিয়েতে যিনি উকিল হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন, সেই তরিকুল ইসলাম যাবেন মেয়েকে আনতে।’

বরের খালু জাহাঙ্গীর হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, ‘রবিউলের জন্ম খুবই দরিদ্র পরিবারে। ছোট্ট অবস্থা থেকেই তার বাবা-মা কেউ নেই। আমরাই রবিউলকে মানুষ করেছি। কৃষিকাজ করেই সে জীবিকা নির্বাহ করে আসছে। তার বিয়ের বয়স হলেও অনেকদিন ধরে মেয়ে খুঁজে পাচ্ছিলাম না। অবশেষে পাশের আন্দুলিয়া গ্রামে একটি মেয়ে খুঁজে পাই। জানতে পারি, ওই গ্রামের নাজির মোল্লার মেয়েও কম উচ্চতার। স্থানীয় ব্যক্তিদের সার্বিক সহযোগিতায় তাদের বিয়ের কাজ সম্পন্ন হয়েছে।’

বর রবিউল বলেন, ‘আমাদের দুজনের সম্মতিতেই বিয়ে হয়েছে। বিয়ে করতে পেরে অনেক ভালো লাগছে।’ দেশবাসীর কাছে তিনি দোয়া চেয়েছেন।

কনে ময়না বলেন, ‘আমাদের বিয়ে খুব ধুমধামে হয়েছে। অনেক ভালো লাগছে। এভাবে বিয়ে হবে কখনও স্বপ্নেও ভাবিনি। বিয়েতে আসা দু’পক্ষই অনেক আনন্দ করেছে। আমাদের জন্য দোয়া করবেন সবাই।’

যশোর সদর উপজেলার নরেন্দ্রপুর ইউনিয়ন পরিষদের ১ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য সুজিত বিশ্বাস জানান, বর রবিউল ইসলামের বয়স ২৬ বছর, কনে ময়না খাতুনের ৩৬ বছর। এলাকাবাসীর সার্বিক সহযোগিতায় বিয়ের গেট সাজিয়ে, প্যান্ডেল নির্মাণ করে ধুমধাম করে বিয়ে দেওয়া হয়েছে। ইসলামিক শরিয়াহ অনুযায়ী সব আনুষ্ঠানিকতা শেষে এক হাজার এক টাকার কাবিনে তাদের বিয়ে সম্পন্ন হয়। 

 

/এমএএ/

সম্পর্কিত

এক ইউনিয়নের সব প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী

এক ইউনিয়নের সব প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী

বাগেরহাটে হার্ডবোর্ড কারখানায় আগুন

বাগেরহাটে হার্ডবোর্ড কারখানায় আগুন

মোংলা বন্দরে নির্মিত হচ্ছে আরও ৬টি জেটি

মোংলা বন্দরে নির্মিত হচ্ছে আরও ৬টি জেটি

এহসান গ্রুপে ৪০ লাখ টাকা রেখেছেন সাবেক পুলিশ কর্মকর্তা

এহসান গ্রুপে ৪০ লাখ টাকা রেখেছেন সাবেক পুলিশ কর্মকর্তা

এক ইউনিয়নের সব প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:১৬

বাগেরহাটের কচুয়া উপজেলার রাঢ়ীপাড়া ইউনিয়নে (ইউপি) বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন সব প্রার্থী। ওই ইউপিতে চেয়ারম্যান, সদস্য এবং সংরক্ষিত নারী সদস্যের ১৩টি পদের সব কয়টিতে একজন করে প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দেন। তারা সবাই আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী।

রাঢ়ীপাড়া ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী নাজমা আক্তার।

জেলা নির্বাচন কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, বাগেরহাট জেলার ৯ উপজেলার ৬৬টি ইউপিতে নির্বাচন হবে ২০ সেপ্টেম্বর। তবে ভোট হচ্ছে ৬৫টি ইউপিতে। রাঢ়ীপাড়া ইউপিতে ভোট হচ্ছে না।

বাগেরহাট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ভূঁইয়া হেমায়েত উদ্দীন বলেন, ‘রাঢ়ীপাড়া ইউপিতে চেয়ারম্যান এবং সদস্য পদগুলোতে দল সমর্থিত সদস্য ছাড়া অন্য কোনও প্রার্থী অংশ গ্রহণ করেননি। সে কারণে সবাই বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।’

বাগেরহাট জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ফারাজী বেনজীর আহমেদ জানান, যাচাই-বাছাই ও প্রত্যাহারের পর একক প্রার্থী থাকায় সবাইকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত ঘোষণা করা হয়েছে।

/এমএএ/

সম্পর্কিত

যশোরে তিন ফুট উচ্চতার বর-কনের ধুমধামে বিয়ে

যশোরে তিন ফুট উচ্চতার বর-কনের ধুমধামে বিয়ে

বাগেরহাটে হার্ডবোর্ড কারখানায় আগুন

বাগেরহাটে হার্ডবোর্ড কারখানায় আগুন

আবারও লোকালয়ে সুন্দরবনের হরিণ  

আবারও লোকালয়ে সুন্দরবনের হরিণ  

বাগেরহাটে হার্ডবোর্ড কারখানায় আগুন

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩:১০

বাগেরহাটের যাত্রাপুর এলাকায় গ্রীনবোর্ড অ্যান্ড ফাইবার নামে টি কে গ্রুপের হার্ডবোর্ড কারখানায় আগুন লেগেছে। রবিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) সকালে লাগা এই আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করে ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট।

বাগেরহাট ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক (ডিএডি) মো. গোলাম সরোয়ার জানান, আগুনের খবর পেয়ে তারা পৌনে ১০টায় ঘটনাস্থলে পৌঁছান। কিছুক্ষণের মধ্যে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। কিন্তু তেলের একটা বড় ব্যারেলে আগুন নেভানো কঠিন হচ্ছিল। এজন্য খুলনা থেকে ফোমের গাড়ি আনা হয়।

ক্ষয়ক্ষতির বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আগুনে লোকজনের কোনও ক্ষয়ক্ষতি হয়নি। তবে কারখানার মেশিনারিজ ও ঘর পুড়ে গেছে।’

/এমএএ/

সম্পর্কিত

যশোরে তিন ফুট উচ্চতার বর-কনের ধুমধামে বিয়ে

যশোরে তিন ফুট উচ্চতার বর-কনের ধুমধামে বিয়ে

এক ইউনিয়নের সব প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী

এক ইউনিয়নের সব প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী

আবারও লোকালয়ে সুন্দরবনের হরিণ  

আবারও লোকালয়ে সুন্দরবনের হরিণ  

রাজশাহী মেডিক্যালের করোনা ইউনিটে আরও ৪ মৃত্যু

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:১৬

রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের করোনা ইউনিটে একদিনে আরও চার জনের মৃত্যু হয়েছে। শনিবার সকাল ৮টা থেকে রবিবার সকাল ৮টার মধ্যে তাদের মৃত্যু হয়। তবে তারা কেউ করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়ে মারা যাননি।

রামেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী জানান, মৃতদের মধ্যে করোনা উপসর্গ নিয়ে তিন জনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া নেগেটিভ হওয়ার পরও অন্য জটিলতায় একজনের মৃত্যু হয়। মৃতদের মধ্যে দুজন নওগাঁর এবং জয়পুরহাট ও ঝিনাইদহ জেলার একজন করে আছেন।

তিনি আরও জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা ইউনিটে নতুন রোগী ভর্তি হয়েছেন ২২ জন। এ নিয়ে ২৪০ বেডের বিপরীতে মোট ভর্তি রোগী আছেন ১৩০ জন।

/এমএএ/

সম্পর্কিত

বাসের ধাক্কায় সেনা সদস্য নিহত

বাসের ধাক্কায় সেনা সদস্য নিহত

ট্রাকের সঙ্গে সংঘর্ষে অটোরিকশার ২ যাত্রী নিহত

ট্রাকের সঙ্গে সংঘর্ষে অটোরিকশার ২ যাত্রী নিহত

রামেক হাসপাতালে মৃত্যু বেড়েছে

রামেক হাসপাতালে মৃত্যু বেড়েছে

চলন্ত ট্রেনে সন্তান জন্ম দিলেন সাবিনা 

চলন্ত ট্রেনে সন্তান জন্ম দিলেন সাবিনা 

আবারও লোকালয়ে সুন্দরবনের হরিণ  

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:০২

বাগেরহাটের মোংলার লোকালয়ে এসে আটকে পড়া একটি মায়াবী হরিণ উদ্ধারের পর আবারও তা বনে ফেরত পাঠানো হয়েছে। রবিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) ভোরে মোংলা উপজেলার চিলা ইউনিয়নের জয়মনি গ্রামের একটি বাড়ির পেছন থেকে হরিণটিকে উদ্ধার করা হয়। এর আগে গত ১৩ সেপ্টেম্বর বনের ঘাগড়ামারি থেকে আরও একটি হরিণ উদ্ধার করা হয়েছিল।

পূর্ব সুন্দরবনের চাঁদপাই রেঞ্জের সহকারী বন সংরক্ষক মো. এনামুল হক জানান, প্রায় ১৮-২০ কেজি ওজনের একটি পুরুষ মায়াবী হরিণ উদ্ধার করে চিকিৎসা দিয়ে বনে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, বাঘের তাড়া খেয়ে অথবা খাদ্যের সন্ধানে হরিণটি লোকালয়ে চলে আসতে পারে।

তিনি আরও জানান, রবিবার ভোর ৬টার দিকে সুন্দরবন সংলগ্ন মোংলার চিলা ইউনিয়নের জয়মনি এলাকার গাজী বাড়ির পেছনে একটি হরিণ দেখতে পেয়ে স্থানীয়রা তাদের খবর দেন। এরপর বন বিভাগের সদস্যরা সেখান থেকে হরিণটিকে উদ্ধার করেন। উদ্ধার হওয়া হরিণ শরীরে ক্ষতচিহ্ন ছিল। কারণ হরিণটি বন থেকে লোকালয়ে এসে গাজী বাড়ির পেছনের সীমানা বেড়ার নেট জালে জড়িয়ে আটকে পড়ে। সেখান থেকে ছোটাছুটির চেষ্টা করলে হরিণটির শরীরে এ ক্ষয় হয়। পরে চাঁদপাই রেঞ্জ কার্যালয়ে এনে চিকিৎসা দিয়ে সকাল ৮টার দিকে আবারও বনে ছেড়ে দেওয়া হয় হরিণটিকে। এ সময় চাঁদপাই রেঞ্জের স্টেশন অফিসার মো. ওবায়দুর রহমান, বনপ্রহরী মো. মিজানুর রহমান, ওহিবুল ইসলাম, সিপিজি সদস্য এনামুল সরদার ও স্বপন মোল্লা উপস্থিত ছিলেন।

 

/এমএএ/

সম্পর্কিত

এক ইউনিয়নের সব প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী

এক ইউনিয়নের সব প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী

বাগেরহাটে হার্ডবোর্ড কারখানায় আগুন

বাগেরহাটে হার্ডবোর্ড কারখানায় আগুন

মোংলা বন্দরে নির্মিত হচ্ছে আরও ৬টি জেটি

মোংলা বন্দরে নির্মিত হচ্ছে আরও ৬টি জেটি

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

যশোরে তিন ফুট উচ্চতার বর-কনের ধুমধামে বিয়ে

যশোরে তিন ফুট উচ্চতার বর-কনের ধুমধামে বিয়ে

এক ইউনিয়নের সব প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী

এক ইউনিয়নের সব প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী

বাগেরহাটে হার্ডবোর্ড কারখানায় আগুন

বাগেরহাটে হার্ডবোর্ড কারখানায় আগুন

মোংলা বন্দরে নির্মিত হচ্ছে আরও ৬টি জেটি

মোংলা বন্দরে নির্মিত হচ্ছে আরও ৬টি জেটি

এহসান গ্রুপে ৪০ লাখ টাকা রেখেছেন সাবেক পুলিশ কর্মকর্তা

এহসান গ্রুপে ৪০ লাখ টাকা রেখেছেন সাবেক পুলিশ কর্মকর্তা

ইভ্যালির রাসেলের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ

ইভ্যালির রাসেলের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ

বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হচ্ছেন ডা. প্রাণ গোপাল  

কুমিল্লা-৭ উপনির্বাচনবিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হচ্ছেন ডা. প্রাণ গোপাল  

স্কুলের শিক্ষার্থীরা পাবে ফাইজারের টিকা: স্বাস্থ্যমন্ত্রী 

স্কুলের শিক্ষার্থীরা পাবে ফাইজারের টিকা: স্বাস্থ্যমন্ত্রী 

এবার আলুর ন্যায্য দাম পাবেন না কৃষকরা: বাণিজ্যমন্ত্রী 

এবার আলুর ন্যায্য দাম পাবেন না কৃষকরা: বাণিজ্যমন্ত্রী 

ছাত্রলীগের পদ পেতে অছাত্র ও হত্যা মামলার আসামির দৌড়ঝাঁপ

ছাত্রলীগের পদ পেতে অছাত্র ও হত্যা মামলার আসামির দৌড়ঝাঁপ

সর্বশেষ

ই-কমার্সের প্রতারণা কমাতে জনস্বার্থে প্রচারণার পরামর্শ

ই-কমার্সের প্রতারণা কমাতে জনস্বার্থে প্রচারণার পরামর্শ

ইভ্যালির বিরুদ্ধে এবার ব্যবসায়ীর মামলা, রাসেলসহ ১২ জন আসামি

ইভ্যালির বিরুদ্ধে এবার ব্যবসায়ীর মামলা, রাসেলসহ ১২ জন আসামি

নায়ককে নিয়ে শাবনূরের আবেগঘন স্মরণ

৫০-এ সালমান শাহনায়ককে নিয়ে শাবনূরের আবেগঘন স্মরণ

অনুশীলনে সাকিব, ভালো করার প্রত্যাশা (ভিডিও)

অনুশীলনে সাকিব, ভালো করার প্রত্যাশা (ভিডিও)

মিনা ক্লিকে চাকরির সুযোগ

মিনা ক্লিকে চাকরির সুযোগ

© 2021 Bangla Tribune