X
রবিবার, ২৫ জুলাই ২০২১, ১০ শ্রাবণ ১৪২৮

সেকশনস

মিতু হত্যা মামলার আসামি সাকু ৩ দিনের রিমান্ডে

আপডেট : ১৭ জুন ২০২১, ২১:৩৯

সাবেক পুলিশ সুপার বাবুল আক্তারের স্ত্রী মাহমুদা খানম মিতু হত্যা মামলার আসামি সাইদুল ইসলাম সিকদার ওরফে সাকুকে তিন দিনের রিমান্ডে পাঠিয়েছেন আদালত। বৃহস্পতিবার (১৭ জুন) চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট হোসেন মোহাম্মদ রেজার ভার্চুয়াল আদালত এ আদেশ দেন।

সাকুর আইনজীবী রশিদুল ইসলাম তালুকদার এ তথ্য জানিয়েছেন। বাংলা ট্রিবিউনকে তিনি বলেন, ‘মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সাইদুল ইসলাম সিকদারকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পাঁচ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন। শুনানি শেষে আদালত তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।’

প্রসঙ্গত, সাকু মিতু হত্যার মামলার কথিত মাস্টারমাইন্ড কামরুল সিকদার ওরফে মুছার বড় ভাই। মিতু হত্যার ঘটনায় সাকুকে এর আগে একবার গ্রেফতার করা হয়। ওই মামলায় সাকু উচ্চ আদালত থেকে জামিনে ছিল। গত ১২ মে মিতু হত্যা মামলায় তার বাবা মোশারফ হোসেন পাঁচলাইশ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের পর ওই তারিখ রাতেই র‌্যাব তাকে গ্রেফতার করে। বর্তমানে সাকু চট্টগ্রাম কারাগারে রয়েছে।

২০১৬ সালের ৫ জুন সকালে চট্টগ্রাম নগরীর জিইসি মোড়ে ছেলেকে স্কুলবাসে তুলে দিতে যাওয়ার সময় সড়কে খুন হন পুলিশ কর্মকর্তা বাবুল আক্তারের স্ত্রী মিতু। খুনিরা গুলি করার পাশাপাশি ছুরিকাঘাত করে তাকে হত্যা করে। ঘটনার সময় বাবুল আক্তার ঢাকায় ছিলেন। হত্যাকাণ্ডের পর বাবুল আক্তার নিজে নগরীর পাঁচলাইশ থানায় অজ্ঞাত পরিচয় কয়েকজনকে আসামি করে মামলা করেন। ওই মামলা তদন্ত করতে গিয়ে এই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে বাবুল আক্তারের সম্পৃক্ততার তথ্য পায় পুলিশ।

আরও খবর:

মিতু হত্যা মামলার আসামি সাকুকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব

খুনিদের ভাড়া করে পুলিশের সোর্স মুছা, তার গুলিতেই মিতু খুন

মিতু হত্যা মামলার অন্যতম আসামি মুছার স্ত্রীর জিডি

স্ত্রী হত্যা মামলায় সাবেক এসপি বাবুল গ্রেফতার

এসপি বাবুলের স্ত্রী মিতু হত্যা: তদন্তের অগ্রগতি জানতে চান হাইকোর্ট

খুনিদের ভাড়া করে পুলিশের সোর্স মুছা, তার গুলিতেই মিতু খুন

 

 
 
/এমএএ/

সম্পর্কিত

চট্টগ্রামে করোনায় মৃত অধিকাংশের বয়স ষাটোর্ধ্ব

চট্টগ্রামে করোনায় মৃত অধিকাংশের বয়স ষাটোর্ধ্ব

টেস্ট করাতে হাসপাতালে রোগীর চাপ 

টেস্ট করাতে হাসপাতালে রোগীর চাপ 

লকডাউনেও নৌ পথে ডিজে পার্টি

লকডাউনেও নৌ পথে ডিজে পার্টি

সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, অপমানে মাদ্রাসাছাত্রীর আত্মহত্যা!

সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, অপমানে মাদ্রাসাছাত্রীর আত্মহত্যা!

চট্টগ্রামে করোনায় মৃত অধিকাংশের বয়স ষাটোর্ধ্ব

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ১৭:১৯

চট্টগ্রামে করোনায় বয়স্কদের মৃত্যুর হার বাড়ছে। মৃতদের অধিকাংশের বয়স ৬০ বছরের বেশি। এই পর্যন্ত চট্টগ্রামে গড়ে ৬০ বছরের ঊর্ধ্বে থাকা ৫৫ দশমিক ২৫ শতাংশ করোনা রোগী মারা গেছেন বলে জানিয়েছেন সিভিল সার্জন সেখ ফজলে রাব্বি।

এদিকে চট্টগ্রামে বয়স্করা বেশি মারা গেলেও করোনায় সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হচ্ছে যুবকরা। ২১ থেকে ৪০ বছর বয়সীরাই বেশি আক্রান্ত হয়েছেন। মোট আক্রান্তের ৪৩ দশমিক ৩৭ শতাংশ এই বয়সী।

সেখ ফজলে রাব্বি বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, চট্টগ্রামে করোনায় আক্রান্তদের মধ্যে যুবকদের আক্রান্তের হার বেশি। মোট আক্রান্তের ২৩ দশমিক ১৪ শতাংশের বয়স ৩১ থেকে ৪০ বছর। এর পরই রয়েছে ২১ থেকে ৩০ বছর বয়সীরা। মোট আক্রান্তের ২০ দশমিক ২৩ শতাংশ এই বয়সী। অন্যদিকে মৃতদের মধ্যে ৬১ বছর থেকে তার বেশি যাদের বয়স, তারা সবচেয়ে বেশি মারা গেছেন। মোট মৃতদের ৫৫ দশমিক ২৫ শতাংশ ৬০ বছরের বেশি বয়সী।

সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, চট্টগ্রামে আক্রান্তদের মধ্যে শূন্য থেকে ১০ বছর বসয়ী রয়েছেন দুই হাজার ৫৩ জন, যা মোট আক্রান্তের দুই দশমিক ৭২ শতাংশ। ১১ থেকে ২০ বছর বয়সী পাঁচ হাজার ৭৭৫ জন, যা মোট আক্রান্তের সাত দশমিক ৬৬ শতাংশ। ২১ থেকে ৩০ বছর বয়সীদের সংখ্যা ১৫ হাজার ২৫০ জন, যা মোট আক্রান্তের ২০ দশমিক ২৩ শতাংশ। ৩১ থেকে ৪০ বছর বয়সী ১৭ হাজার ৪৪৬ জন, যা মোট আক্রান্তের ২৩ দশমিক ১৪ শতাংশ। ৪১ থেকে ৫০ বছর বয়সী ১৩ হাজার ২৩১ জন, যা মোট আক্রান্তের ১৭ দশমিক ৫৫ শতাংশ। ৫১ থেকে ৬০ বছর বয়সী ১১ হাজার ১৭৩ জন, যা মোট আক্রান্তের ১৪ দশমিক ৮২ শতাংশ। ৬১ বছরের ঊর্ধ্বে আক্রান্ত ১০ হাজার ৪৩৫ জন, যা মোট আক্রান্তের ১৩ দশমিক ৮৪ শতাংশ।

এদিকে মৃতদের মধ্যে শূন্য থেকে ১০ বছর বয়সী চার জন, যা মোট আক্রান্তের দশমিক ৪৫ শতাংশ। ১১ থেকে ২০ বছর বয়সী নয় জন, যা মোট আক্রান্তের এক দশমিক ০২ শতাংশ। ২১ থেকে ৩০ বছর বয়সী ১৭ জন, যা মোট আক্রান্তের এক দশমিক ৮০ শতাংশ। ৩১ থেকে ৪০ বছর বয়সী ৪২ জন, যা মোট আক্রান্তের চার দশমিক ৭৪ শতাংশ। ৪১ থেকে ৫০ বছর বয়সী ১১৬ জন, যা মোট আক্রান্তের ১৩ দশমিক ১০ শতাংশ। ৫১ থেকে ৬০ বছর বয়সী ২০৮ জন, যা মোট আক্রান্তের ২৩ দশমিক ৭৯ শতাংশ। ৬১ বছরের ঊর্ধ্বে মারা গেছেন ৪৮৯ জন, যা মোট আক্রান্তের ৫৫ দশমিক ২৫ শতাংশ।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

টেস্ট করাতে হাসপাতালে রোগীর চাপ 

টেস্ট করাতে হাসপাতালে রোগীর চাপ 

লকডাউনেও নৌ পথে ডিজে পার্টি

লকডাউনেও নৌ পথে ডিজে পার্টি

বঙ্গবন্ধু সেতুর পশ্চিম স্টেশনে ভারত থেকে আসা অক্সিজেন

বঙ্গবন্ধু সেতুর পশ্চিম স্টেশনে ভারত থেকে আসা অক্সিজেন

প্রতিবন্ধী কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার ২

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ১৭:০৮

পিরোজপুরের স্বরূপকাঠি উপজেলার সুটিয়াকাঠি ইউনিয়নের বাররা গ্রামে বুদ্ধি প্রতিবন্ধী কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে দুই জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। স্বরূপকাঠী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবীর মোহাম্মদ হোসেন জানান, রবিবার (২৫ জুলাই) কিশোরীর বাবা হান্নান মিয়া ছয় জনকে আসামি করে থানায় মামলা করেন। এর পরেই পুলিশের কয়েকটি টিম বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে দুই জনকে গ্রেফতার করে।

গ্রেফতার আসামিরা হলো– আসামি উজ্জ্বল হোসেন (১৯) ও মকবুল হোসেন (২০)।

ধর্ষণের শিকার কিশোরীর বাবার অভিযোগ, তার বুদ্ধি প্রতিবন্ধী ১৫ বছরের মেয়েকে নানা প্রলোভন দেখিয়ে প্রতিবেশী আসামিরা বিভিন্ন সময় ধর্ষণ করে। এক পর্যায়ে সে অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হয়। বর্তমানে মেয়েটি পাঁচ মাসের অন্তঃসত্ত্বা। জিজ্ঞাসাবাদে মেয়েটি জড়িত ছয় জনের নাম বলেছে।

স্বরূপকাঠী থানার ওসি বলেন, ‘ওসি তদন্তসহ থানার সব অফিসারদের নিয়ে গোটা এলাকায় চিরুনি অভিযান চালানো হয়েছে। এ সময় দুই জনকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হই। আসামিদের আদালতে পাঠানো হয়েছে। ধর্ষণের শিকার কিশোরীর ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য পিরোজপুর সিভিল সার্জন অফিসে পাঠানো হয়েছে।’

 

/এমএএ/

সম্পর্কিত

শের-ই বাংলা মেডিক্যালে একদিনে ১৫ মৃত্যু

শের-ই বাংলা মেডিক্যালে একদিনে ১৫ মৃত্যু

সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, অপমানে মাদ্রাসাছাত্রীর আত্মহত্যা!

সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, অপমানে মাদ্রাসাছাত্রীর আত্মহত্যা!

অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যা

অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যা

স্ত্রীর সঙ্গে পরকীয়া, পিটিয়ে হত্যার পর ভাসিয়ে দিলেন লাশ

স্ত্রীর সঙ্গে পরকীয়া, পিটিয়ে হত্যার পর ভাসিয়ে দিলেন লাশ

৬ দিন পর হিলি দিয়ে আমদানি-রফতানি শুরু

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ১৭:০০

পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে টানা ছয় দিন বন্ধের পর দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দর দিয়ে দুই দেশের আমদানি-রফতানি কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

রবিবার (২৫ জুলাই) বেলা ১১টা থেকে আমদানি-রফতানি কার্যক্রম শুরু হয়। তবে পুরো কার্যক্রম স্বাভাবিক হতে আরও ২-৪ দিন সময় লাগবে বলে বন্দরের ব্যবসায়ীরা জানিয়েছেন।
 
বন্দরের আমদানি-রফতানিকারক অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ঈদুল আজহা উপলক্ষে ১৮ জুলাই থেকে ২৪ জুলাই আমদানি-রফতানি কার্যক্রম বন্ধ ছিল। ঈদের ছুটি শেষে রবিবার দুপুর থেকে আমদানি-রফতানি শুরু হয়। একই সঙ্গে বন্দরের ভেতরে ভারতীয় ট্রাক থেকে পণ্য খালাস শুরু হয়।

/এএম/

সম্পর্কিত

পাথর শ্রমিকদের জালে ২৮ কেজির বাঘাইড়

পাথর শ্রমিকদের জালে ২৮ কেজির বাঘাইড়

পাইকার না আসায় চামড়া নিয়ে বিপাকে হিলির ব্যবসায়ীরা

পাইকার না আসায় চামড়া নিয়ে বিপাকে হিলির ব্যবসায়ীরা

রংপুরে প্রথম ত্বীন চাষ, সাত মাসে লাখ টাকা আয়

রংপুরে প্রথম ত্বীন চাষ, সাত মাসে লাখ টাকা আয়

পাথর শ্রমিকদের জালে ২৮ কেজির বাঘাইড়

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ১৬:৫৮

পাথর শ্রমিকদের জালে ধরা পড়েছে ২৮ কেজি ওজনের বাঘাইড় মাছ। রবিবার (২৫ জুলাই) দুপুরে পঞ্চগড় জেলার তেঁতুলিয়া উপজেলা সদরের সীমান্ত নদী মহানন্দা থেকে মাছটি ধরা পড়ে। এটি বাড়িতে নিয়ে আসলে উৎসুক জনতা দেখতে ভিড় করেন। পরে স্থানীয় পাথর ব্যবসায়ী হাসিনুর ২০ হাজার টাকায় মাছটি কিনে নেন।

জানা গেছে, তেঁতুলিয়া উপজেলার সর্দারপাড়া এলাকার রকি, বিপ্লব, আবু হাসান, আজিজ, শাহাদাতসহ কয়েকজন পাথর শ্রমিক শখের বসে সীমান্তনদী মহানন্দায় মাছ ধরতে যান। এক পর্যায়ে জালে বড় মাছ পড়েছে বুঝতে পেরে সবাই মিলে ডুব দিয়ে মাছটি ধরেন। পরে নদীর পাড়ে তোলার পর অনেকেই দেখতে ছুটে আসেন। পরে বাসায় নিয়ে গেলে খবর পেয়ে পাথর ব্যবসায়ী হাসিনুর রহমান মাছটি কিনে নেন।

মহানন্দা নদীর পানি কমে গেলে বড় মাছ পাওয়া যায়। নদীটি ভারত থেকে প্রবাহিত হয়ে তেঁতুলিয়ার সীমান্ত দিয়ে আবার ভারতে প্রবেশ করেছে।

পাথর শ্রমিক রকি জানান, নদী থেকে বড় মাছ ধরতে পেরে তারা অনেক আনন্দিত। মাছ বিক্রির টাকা সবাই সমান ভাগে ভাগ করে নিয়েছেন বলেও জানান তিনি।

পঞ্চগড়ের জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. শাহনেওয়াজ সিরাজী জানান, দেশি আইড় মাছেরই একটি প্রজাতি বাঘাইড় মাছ। এটি নদীতে পাওয়া যায়। পার্শ্ববর্তী ভারত থেকে যেসব নদীর সংযোগ রয়েছে, বিশেষ করে পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ার মহানন্দা, করতোয়া, নীলফামারীর তিস্তা ও গাইবান্ধার ব্রহ্মপুত্র নদীতে এই মাছ বেশি পাওয়া যায়। এটি অত্যন্ত সুস্বাদু এবং পুষ্টিমান সমৃদ্ধ মাছ। তবে দামও অনেক বেশি। এর আগেও এই নদীতে ৪৫ কেজি ওজনের মাছ পাওয়া গেছে।

 

/এমএএ/

সম্পর্কিত

৬ দিন পর হিলি দিয়ে আমদানি-রফতানি শুরু

৬ দিন পর হিলি দিয়ে আমদানি-রফতানি শুরু

পাইকার না আসায় চামড়া নিয়ে বিপাকে হিলির ব্যবসায়ীরা

পাইকার না আসায় চামড়া নিয়ে বিপাকে হিলির ব্যবসায়ীরা

রংপুরে প্রথম ত্বীন চাষ, সাত মাসে লাখ টাকা আয়

রংপুরে প্রথম ত্বীন চাষ, সাত মাসে লাখ টাকা আয়

লকডাউনেও জমজমাট পশুর হাট

লকডাউনেও জমজমাট পশুর হাট

১৫ লাখেও ‘শাকিব খান’ ‘ডিপজল’কে বিক্রি করেননি জিসান

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ১৬:৫৫

ঈদুল আজহাকে কেন্দ্র করে তরুণ উদ্যোক্তা ও কলেজছাত্র জোবায়ের ইসলাম জিসান দুইটি গরু প্রস্তুত করেন। তাদের নাম দেন ‘শাকিব খান’ ও ‘ডিপজল’। দুইটির ওজন প্রায় ৩১ মণ করে। কিন্তু কাঙ্ক্ষিত দাম না পেয়ে এবার তাদের বিক্রি করতে পারেননি তিনি। বিক্রি না হওয়ায় চরম দুশ্চিন্তায় পড়েছেন এই খামারি।

জানা গেছে, জিসান ঈদুল আজহায় বিক্রির জন্য ছয়টি ষাঁড় প্রস্তুত করেন। এর মধ্যে ‘শাকিব খান’ ও ‘ডিপজল’ নামের গরু দুইটি সবচেয়ে বড়। তারা ফ্রিজিয়ান জাতের। বয়স দুই বছর সাত মাস করে। করোনাভাইরাসের কারণে বড় গরুর দাম কম—এমন খবরে ষাঁড় দুইটিকে হাটে উঠাননি জিসান। হাটে না উঠালেও বাড়িতে এসেছিলেন একাধিক ক্রেতা। তারাও কাঙ্ক্ষিত দাম বলেননি। এজন্য ষাঁড় দুইটিকে বিক্রি করেননি জিসান। তবে বাকি চারটি বিক্রি করে দিয়েছেন।

ফ্রিজিয়ান জাতের এই গরুটির নাম শাকিব খান

জিসান বলেন, ‘কাঙ্ক্ষিত দাম না পেয়ে দুইটি ষাঁড়কে বিক্রি করা হয়নি। করোনার কারণে দাম কম থাকায় হাটেও তুলতে পারিনি। বাড়িতে একাধিক ক্রেতা এসেছিলেন। শাকিব খানের ১৩ লাখ ও ডিপজলের দাম ১২ লাখ টাকা হাঁকা হয়েছিল। কিন্তু ক্রেতারা শাকিব খানের দাম আট লাখ ও ডিপজলের দাম সাত লাখ টাকা বলেন।’

তিনি আরও বলেন, ‘ষাঁড় দুইটিকে বিক্রি করাটাই ভালো ছিল। এখন তাদের বিক্রি নিয়েই চরম দুশ্চিন্তায় আছি। আমার প্রতিটি দিন কাটছে চরম হতাশায়।’

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক ফাঁকা

ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক ফাঁকা

ঘাটে ঢাকামুখী যাত্রীর চাপ

ঘাটে ঢাকামুখী যাত্রীর চাপ

অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষককেই বিয়ে করলেন সহকারী শিক্ষিকা

অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষককেই বিয়ে করলেন সহকারী শিক্ষিকা

সর্বশেষ

চিকিৎসকসহ ৮৮৯০ স্বাস্থ্যকর্মী করোনায় আক্রান্ত

চিকিৎসকসহ ৮৮৯০ স্বাস্থ্যকর্মী করোনায় আক্রান্ত

কওমি মাদ্রাসার শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা টিকা পাবেন কবে?

কওমি মাদ্রাসার শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা টিকা পাবেন কবে?

শ্রেষ্ঠত্ব আর থাকছে না মারের

অলিম্পিক টেনিসশ্রেষ্ঠত্ব আর থাকছে না মারের

সাইফউদ্দিন উইকেট নিলেও জিম্বাবুয়ের আগ্রাসী ব্যাটিং

সাইফউদ্দিন উইকেট নিলেও জিম্বাবুয়ের আগ্রাসী ব্যাটিং

চট্টগ্রামে করোনায় মৃত অধিকাংশের বয়স ষাটোর্ধ্ব

চট্টগ্রামে করোনায় মৃত অধিকাংশের বয়স ষাটোর্ধ্ব

ইরাকের মাটিতে মার্কিন সেনার প্রয়োজন নেই: প্রধানমন্ত্রী আল-খাদিমি

ইরাকের মাটিতে মার্কিন সেনার প্রয়োজন নেই: প্রধানমন্ত্রী আল-খাদিমি

নতুন যেসব সুবিধা পাচ্ছেন ইউনিলিভারের কর্মীরা

নতুন যেসব সুবিধা পাচ্ছেন ইউনিলিভারের কর্মীরা

প্রতিবন্ধী কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার ২

প্রতিবন্ধী কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার ২

৯৯৯ নম্বরে ফোন দিয়ে উদ্ধার পেলো তরুণী

৯৯৯ নম্বরে ফোন দিয়ে উদ্ধার পেলো তরুণী

৬ দিন পর হিলি দিয়ে আমদানি-রফতানি শুরু

৬ দিন পর হিলি দিয়ে আমদানি-রফতানি শুরু

ঢাকায় আরও ১০২ ডেঙ্গু রোগী

ঢাকায় আরও ১০২ ডেঙ্গু রোগী

কর্মীর দক্ষতা বাড়ালে রেমিট্যান্সও বাড়বে: প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী

কর্মীর দক্ষতা বাড়ালে রেমিট্যান্সও বাড়বে: প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

চট্টগ্রামে করোনায় মৃত অধিকাংশের বয়স ষাটোর্ধ্ব

চট্টগ্রামে করোনায় মৃত অধিকাংশের বয়স ষাটোর্ধ্ব

টেস্ট করাতে হাসপাতালে রোগীর চাপ 

টেস্ট করাতে হাসপাতালে রোগীর চাপ 

লকডাউনেও নৌ পথে ডিজে পার্টি

লকডাউনেও নৌ পথে ডিজে পার্টি

সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, অপমানে মাদ্রাসাছাত্রীর আত্মহত্যা!

সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, অপমানে মাদ্রাসাছাত্রীর আত্মহত্যা!

চট্টগ্রামে আরও ১১ মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ৮০১

চট্টগ্রামে আরও ১১ মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ৮০১

অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যা

অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যা

স্ত্রীর সঙ্গে পরকীয়া, পিটিয়ে হত্যার পর ভাসিয়ে দিলেন লাশ

স্ত্রীর সঙ্গে পরকীয়া, পিটিয়ে হত্যার পর ভাসিয়ে দিলেন লাশ

যৌতুকের জন্য স্ত্রীকে রশিতে বেঁধে পেটানোর অভিযোগ

যৌতুকের জন্য স্ত্রীকে রশিতে বেঁধে পেটানোর অভিযোগ

শরীরে ক্যামেরা নিয়ে চলবে চট্টগ্রামের ৪ থানার পুলিশ

শরীরে ক্যামেরা নিয়ে চলবে চট্টগ্রামের ৪ থানার পুলিশ

শান্তির প্রস্তাব নিয়ে প্রতিপক্ষের বাড়িতে কাদের মির্জা

শান্তির প্রস্তাব নিয়ে প্রতিপক্ষের বাড়িতে কাদের মির্জা

© 2021 Bangla Tribune