X
বৃহস্পতিবার, ২৯ জুলাই ২০২১, ১৪ শ্রাবণ ১৪২৮

সেকশনস

হাজী দানেশে দ্রুত উপাচার্য নিয়োগের আহ্বান

আপডেট : ১৭ জুন ২০২১, ২৩:৫১

প্রায় সাড়ে চার মাসেও উপাচার্য নিয়োগ না হওয়ায় দিনাজপুরের হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (হাবিপ্রবি) প্রশাসনিক এবং একাডেমিক কার্যক্রমে স্থবিরতা নেমে এসেছে। এ অবস্থায় দ্রুততম সময়ের মধ্যে পূর্ণাঙ্গ উপাচার্য নিয়োগের আহ্বান জানিয়েছে হাবিপ্রবির গণতান্ত্রিক শিক্ষক পরিষদ। বৃহস্পতিবার (১৭ জুন ২০২১) গণতান্ত্রিক শিক্ষক পরিষদের সভাপতি প্রফেসর ড. ফাহিমা খানম ও সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা প্রফেসর ডা. মো. ফজলুল হক স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ আহ্বান জানানো হয়।

গত জানুয়ারিতে নিয়োগসহ নানা দাবিতে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা উপাচার্যের বাসভবনের সামনে অবস্থান কর্মসূচি গ্রহণ করেন। সেদিন মধ্যরাতেই (১৩ জানুয়ারি) মেয়াদ শেষ হওয়ার ১৮ দিন আগেই ক্যাম্পাস ত্যাগ করেন সাবেক উপাচার্য প্রফেসর ড. মুহাম্মদ আবুল কাসেম। এরপর ৩১ জানুয়ারি অধ্যাপক আবুল কাসেমের উপাচার্যের মেয়াদ শেষ হলে শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে ২২ ফেব্রুয়ারি রুটিন উপাচার্য হিসেবে দায়িত্ব দেওয়া হয় বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. বিধান চন্দ্র হালদারকে। তখন থেকেই রুটিন উপাচার্য দিয়েই চলছে হাবিপ্রবির একাডেমিক এবং প্রশাসনিক কার্যক্রম। কিন্তু রুটিন উপাচার্য বিশ্ববিদ্যালয়ের সব কার্যক্রম সচল রাখতে অপারগ হওয়ায় অনেকদিন ধরেই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা উপাচার্য নিয়োগের দাবি জানিয়ে আসছিলেন।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে গণতান্ত্রিক শিক্ষক পরিষদ উল্লেখ করে, ‘মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মূল্যবোধে বিশ্বাসী গণতান্ত্রিক শিক্ষক পরিষদের কার্যনির্বাহী কমিটি আজ (বৃহস্পতিবার) দুপুর ১২.৩০ ঘটিকায় একযোগে স্বাস্থ্যবিধি মেনে স্বশরীরে ও অনলাইন প্লাটফর্মে বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে এক সভার আয়োজন করে। সভায় হাবিপ্রবিতে দ্রতততম সময়ে উপাচার্য নিয়োগের আহ্বান জানিয়ে বলা হয়, এ বিশ্ববিদ্যালয়ে দীর্ঘ প্রায় সাড়ে চার মাস ধরে নিয়মিত উপাচার্য না থাকায় একাডেমিক ও প্রশাসনিক কার্যক্রম মারাত্মকভাবে বিঘ্নিত হচ্ছে। এ অবস্থায় গণতান্ত্রিক শিক্ষক পরিষদ বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর চ্যান্সেলর মহামান্য রাষ্ট্রপতি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও শিক্ষামন্ত্রীর কাছে দ্রততম সময়ে উপাচার্য নিয়োগের জোর আবেদন জানাচ্ছে। উপাচার্য নিয়োগের ক্ষেত্রে সরকারি সিদ্ধান্তকে এ সংগঠন স্বাগত জানাবে। সরকারের নিয়োগ করা উপাচার্যকে সর্বাত্মক সহযোগিতার মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয়কে এগিয়ে নিতে গণতান্ত্রিক শিক্ষক পরিষদ বদ্ধপরিকর।’

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের ২ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগের অধ্যাপক ড. মু. আবুল কাসেমকে চার বছরের জন্য হাবিপ্রবির ষষ্ঠ উপাচার্য হিসেবে নিয়োগ দেয় সরকার। গত ৩১ জানুয়ারি তার মেয়াদ শেষ হয়। এরপর থেকে বিশ্ববিদ্যালয়টি ভিসিশূন্য রয়েছে।

 

/এমএএ/

সম্পর্কিত

ঈদে হাজী দানেশের বিদেশি শিক্ষার্থীদের ভিন্নরকম অভিজ্ঞতা

ঈদে হাজী দানেশের বিদেশি শিক্ষার্থীদের ভিন্নরকম অভিজ্ঞতা

প্রথম দিনেই সেশনজট নিরসনে জোর দিলেন হাবিপ্রবি উপাচার্য

প্রথম দিনেই সেশনজট নিরসনে জোর দিলেন হাবিপ্রবি উপাচার্য

যোগ দিয়েই লিয়াজোঁ অফিস বন্ধের ঘোষণা দিলেন বেরোবি উপাচার্য

যোগ দিয়েই লিয়াজোঁ অফিস বন্ধের ঘোষণা দিলেন বেরোবি উপাচার্য

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙচুরের প্রতিবাদে হাবিপ্রবিতে শিক্ষকদের মানববন্ধন

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙচুরের প্রতিবাদে হাবিপ্রবিতে শিক্ষকদের মানববন্ধন

কর্মহীনদের সহায়তায় খাদ্যসামগ্রী অঙ্কুর ফাউন্ডেশনের

আপডেট : ২৮ জুলাই ২০২১, ১৮:৩৩

চলমান কঠোর লকডাউনের কারণে কর্মহীন হয়ে পড়া দেশের চারটি জেলায় অসহায়-দরিদ্র মানুষদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেছে অঙ্কুর ফাউন্ডেশন নামের একটি সমাজিক সংগঠন।

বুধবার (২৮ জুলাই) সিরাজগঞ্জ, বগুড়া, ফরিদপুর ও রাজবাড়িতে একযোগে ২০০টি পরিবারের মাঝে সংগঠনটির পক্ষ থেকে এই খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হয়।

খাদ্যসামগ্রী হিসেবে প্রতিটি পরিবারকে দেওয়া হয়— ৮ কেজি চাল, ১ কেজি পেঁয়াজ, ২ কেজি আলু, ১ কেজি ডাল, ১ কেজি লবণ ও ১ লিটার তেল।

অঙ্কুর ফাউন্ডেশনের  সিরাজগঞ্জ জেলা অ্যাম্বাসেডর মো. হেদায়েতুল ইসলাম বলেন, ‘অঙ্কুর ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে সিরাজগঞ্জ জেলার সলংগা থানায়  ৫০টি অসহায়দের পরিবারের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে।’

সংগঠনের বিশেষ অ্যাম্বাসেডর নিলয় কুমার বিশ্বাস বলেন, ‘অঙ্কুর ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠার পর থেকেই অসহায় মানুষদের জন্য কাজ করে যাচ্ছে। তারই ধারাবাহিকতায় আজকে ২০০ অসহায় পরিবারকে সাহায্য করা হলো।’

উল্ল্যেখ্য, অঙ্কুর ফাউন্ডেশনের  প্রেসিডেন্ট  বুয়েটের সাবেক শিক্ষক ও ইন্টেল করপোরেশনের প্রিন্সিপাল  ইঞ্জিনিয়ার (আমেরিকা প্রবাসী)  ড.  শায়েস্তাগীর চৌধুরী ২০০৭ সাল থেকে দেশে অন্ন, বস্ত্র, বাসস্থান, শিক্ষা, কর্মসংস্থান,  চিকিৎসা, কৃষি, নিরাপদ  পানির জন্য গভীর নলকূপ  স্থাপন, গৃহহীনদের জন্য ঘর নির্মাণ ইত্যাদি জন-গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে কাজ করে আসছেন। এছাড়াও তিনি ২০২০ সালে ‘সাড়া টেলিমেডিসিন’ নামে  ফ্রি  চিকিৎসা সেবা চালু করেন, যা এখনও চলমান।

 

/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

উপাচার্য ভবন চত্বরে রুদ্রাক্ষের চারা রোপণ

উপাচার্য ভবন চত্বরে রুদ্রাক্ষের চারা রোপণ

গণমাধ্যমে দেওয়া বক্তব্য ‘অসম্পূর্ণ ও অর্ধসত্য’ দাবি কুবি প্রশাসনের

গণমাধ্যমে দেওয়া বক্তব্য ‘অসম্পূর্ণ ও অর্ধসত্য’ দাবি কুবি প্রশাসনের

তিন দফা দাবিতে ঢাবি উপাচার্যকে ৭ কলেজ শিক্ষার্থীদের স্মারকলিপি

তিন দফা দাবিতে ঢাবি উপাচার্যকে ৭ কলেজ শিক্ষার্থীদের স্মারকলিপি

রাবি শিক্ষার্থীদের জন্য ভ্যাকসিনের নিবন্ধন শুরু

রাবি শিক্ষার্থীদের জন্য ভ্যাকসিনের নিবন্ধন শুরু

করোনামুক্ত হয়েও রুয়েটের সাবেক ভিসির মৃত্যু

আপডেট : ২৬ জুলাই ২০২১, ১৭:০৯

করোনামুক্ত হয়ে পরবর্তী জটিলতায় রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (রুয়েট) সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক মর্ত্তুজা আলীর (৬৪) মৃত্যু হয়েছে।

রবিবার (২৫ জুলাই) দিবাগত রাত ২টার দিকে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। মৃত্যুকালে স্ত্রী, এক ছেলে ও এক মেয়েসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। তিনি রুয়েটের তড়িৎ ও ইলেকট্রনিক কৌশল বিভাগের শিক্ষক ছিলেন। রুয়েটের জনসংযোগ দফতরের উপ-পরিচালক গোলাম মুরতুজা প্রেরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

রুয়েট সূত্রে জানা যায়, অধ্যাপক মর্ত্তুজা আলী গত ৭ জুলাই করোনায় আক্রান্ত হন। চিকিৎসকের পরামর্শে ৯ জুলাই তাকে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাকে আইসিইউতে নেওয়া হয়। ১৮ জুলাই তার করোনা নেগেটিভ আসে। কিন্তু করোনা পরবর্তী জটিলতার কারণে চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি। রবিবার সন্ধ্যায় তার অক্সিজেনের মাত্রা কমে যায়। রাত ২টার দিকে মৃত্যু হয়।

সোমবার (২৬ জুলাই) সকালে রুয়েটের কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ প্রাঙ্গণে তার জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। বেলা সাড়ে ১১টায় তার লাশ গ্রামের বাড়ি নওগাঁর মহাদেবপুরে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে দ্বিতীয় জানাজা শেষে তাকে দাফন করা হয়।

তার মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন রুয়েটের বর্তমান উপাচার্য অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম সেখ। শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান তিনি। একই সঙ্গে মরহুমের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে রফিকুল ইসলাম বলেন, ড. মর্ত্তুজা আলী ছিলেন বিনয়ী, সহজ-সরল, ধর্মপরায়ণ ও নিবেদিতপ্রাণ শিক্ষক। যার কৃতিত্ব তিনি রেখে গেছেন প্রশাসনিক ও পেশাগত ক্ষেত্রে। তার অকাল মৃত্যুতে আমরা একজন সুযোগ্য শিক্ষককে হারালাম।

/এএম/

সম্পর্কিত

রাবির ভর্তি পরীক্ষা স্থগিত

রাবির ভর্তি পরীক্ষা স্থগিত

রাবি শিক্ষার্থীদের বাসে পাথর ছুড়েছে দুর্বৃত্তরা

রাবি শিক্ষার্থীদের বাসে পাথর ছুড়েছে দুর্বৃত্তরা

লকডাউনে আটকেপড়া শিক্ষার্থীদের বিভাগীয় শহরে পৌঁছে দেবে রাবি

লকডাউনে আটকেপড়া শিক্ষার্থীদের বিভাগীয় শহরে পৌঁছে দেবে রাবি

ভিসিশূন্য রাবি গুজব উৎপাদনের কারখানা?

ভিসিশূন্য রাবি গুজব উৎপাদনের কারখানা?

করোনায় প্রাণ গেলো জাবি অধ্যাপকের

আপডেট : ২৬ জুলাই ২০২১, ১৩:০৪

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) প্রাণরসায়ন ও অনুপ্রাণ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. নজিবুর রহমান করোনাভাইরাসে মারা গেছেন। সোমবার (২৬ জুলাই) ভোরে সাড়ে ৪টার দিকে রাজধানীর বারডেম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দফতরের পরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) মোহাম্মদ মহিউদ্দিন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। আজ সকাল পৌনে ৯টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মসজিদে জানাজা শেষ হয়েছে। গ্রামের বাড়ি চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুর উপজেলার রহনপুরে ড. নজিবুর রহমানকে দাফন করা হবে।

ড. নজিবুর রহমানের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন জাবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলাম। এক শোক বার্তায় তিনি বলেন, অধ্যাপক ড. মু. নজিবুর রহমানের অকাল প্রয়াণে দেশ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের অনেক ক্ষতি হলো। খাদ্য ও পুষ্টি গবেষণায় তার অবদান স্মরণীয় হয়ে থাকবে। নজিবুর রহমানের পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনা প্রকাশ করে প্রয়াত অধ্যাপকের আত্মার শান্তি কামনা করেন তিনি।

আরেক শোকবার্তায় ছাত্র ইউনিয়ন জাবি সংসদ শোকসন্তপ্ত পরিবার, শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও তার গুণগ্রাহীদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানায়।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

হাবিপ্রবিতে করোনায় এক দিনে দুই কর্মচারীর মৃত্যু

হাবিপ্রবিতে করোনায় এক দিনে দুই কর্মচারীর মৃত্যু

জাবি পড়ুয়া নিখোঁজ সন্তানের সন্ধানে মায়ের সংবাদ সম্মেলন

জাবি পড়ুয়া নিখোঁজ সন্তানের সন্ধানে মায়ের সংবাদ সম্মেলন

করোনায় মারা গেলেন ডুয়েটের ডেপুটি রেজিস্ট্রার

করোনায় মারা গেলেন ডুয়েটের ডেপুটি রেজিস্ট্রার

ঢাবি মুরাদনগর ছাত্রকল্যাণ পরিষদের নতুন কমিটি গঠন

আপডেট : ২৬ জুলাই ২০২১, ১২:৪৯

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) মুরাদনগর ছাত্রকল্যাণ পরিষদের নতুন কমিটি গঠন করা হয়েছে।

কমিটির সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী মো. আসফাক সরকার আবির এবং সাধারণ সম্পাদক হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন একই বর্ষের মার্কেটিং বিভাগের শিক্ষার্থী মো. কামরুজ্জামান।

রবিবার (২৫ জুলাই) অনলাইন প্লাটফর্মে সংগঠনের নবীন ও প্রবীণদের উপস্থিতিতে নতুন কমিটির নব-নির্বাচিতদের নাম ঘোষণা করেন বিদায়ী সভাপতি ফখরুল ইসলাম এবং সাধারণ সম্পাদক রমজান আলী।

কমিটির অন্যরা হলেন সহসভাপতি রাকিবুল ইসলাম, আদহাম হোসেন আলিফ; যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম, মেহেদী হাসান, ফাহিমা আক্তার; সাংগঠনিক সম্পাদক মো. শাকিল হোসাইন, জাহিদুল ইসলাম, তানজিনা আক্তার তৃপ্তি, মো. রুহুল আমিন; তথ্য, প্রচার ও প্রযুক্তি সম্পাদক মো: আবদুল্লাহ; উপ-তথ্য, প্রচার ও প্রযুক্তি সম্পাদক রবিউল হাসান; দপ্তর সম্পাদক রিফাত ইবনে জামান; অর্থ বিষয়ক সম্পাদক আহসান হাবিব; আইন বিষয়ক সম্পাদক গোলাম সারেয়ার; ক্রীড়া সম্পাদক ইব্রাহীম খলিল; আপ্যায়ন বিষয়ক সম্পাদক মো. সাকিল খান; ছাত্রী বিষয়ক সম্পাদক রিয়া আক্তার; শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক সাইদুল ইসলাম; সাহিত্য ও সংস্কৃতি সম্পাদক নাহিদা আক্তার খুশি

এছাড়াও সহসম্পাদক পদে বৃষ্টি আক্তার, মো. মেহেদী হাসান, মো. মিরাজ উদ্দিন এবং কার্যনির্বাহী সদস্য পদে মো.আরিফ, আয়মান আহমেদ তকি, আলফে সানি নির্বাচিত হয়েছেন।

নবনির্বাচিত সভাপতি মো. আশফাক সরকার আবির বলেন, কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলা থেকে যেন সামনের বছরগুলোতে আরও বেশি সংখ্যক শিক্ষার্থী স্বপ্নের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে চান্স পেয়ে মুরাদনগরকে আলোকিত করতে পারে সেদিকটায় আমি গুরুত্ব দিবো। সর্বোপরি সংগঠনের শিক্ষা, সাহিত্য, সংস্কৃতি ও ক্রীড়া কার্যক্রম ধারাবাহিকতার সাথে পরিচালনা করে একটি গতিশীল সংগঠন উপহার দেওয়ার ও আলোকিত মুরাদনগর গড়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করছি।

/এমএস/

সম্পর্কিত

ঢাবির ইমেরিটাস অধ্যাপক ড. আবদুল মতীনের মৃত্যু

ঢাবির ইমেরিটাস অধ্যাপক ড. আবদুল মতীনের মৃত্যু

টিকা নিতে ঢাবি শিক্ষার্থীদের দ্বিতীয় দফায় আবেদন শুরু

টিকা নিতে ঢাবি শিক্ষার্থীদের দ্বিতীয় দফায় আবেদন শুরু

আন্দোলনের পর ঢাবির আবাসন ও পরিবহন ফি মওকুফ

আন্দোলনের পর ঢাবির আবাসন ও পরিবহন ফি মওকুফ

ঢাবিতে ৮৩১ কোটি ৭৯ লাখ টাকার বাজেট পাস

ঢাবিতে ৮৩১ কোটি ৭৯ লাখ টাকার বাজেট পাস

ঈদে হাজী দানেশের বিদেশি শিক্ষার্থীদের ভিন্নরকম অভিজ্ঞতা

আপডেট : ২৩ জুলাই ২০২১, ২১:৫৩

করোনা ভয়াবহ পরিস্থিতিতে ত্যাগের মহিমায় ভিন্নরকম ঈদ উযযাপন করলো বাংলাদেশসহ বিশ্বের অন্যান্য দেশের ইসলাম ধর্মাবলম্বীরা। তবে নিজ পরিবার এবং মাতৃভূমি থেকে হাজার কিলোমিটার দূরে বাংলাদেশে পড়তে এসে কিছুটা ভিন্নরকম এক ঈদ উযযাপন করেছে দিনাজপুরের হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (হাবিপ্রবি) বিদেশি শিক্ষার্থীরা। বন্ধ বিশ্ববিদ্যালয় হয়তো খুলে দেওয়া হবে এই আশায় এবং ঝামেলা এড়াতে নিজ দেশে ফেরেননি হাজী দানেশের এসব শিক্ষার্থী। তাই পরিবার, আত্নীয়-স্বজন ছাড়াই ক্যাম্পাসের বাঙালি বন্ধুদের সাথে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করেছেন তারা।

ভারত, ভুটান, নেপাল, সোমালিয়া, নাইজেরিয়াসহ ছয়টি দেশ থেকে আসা এসব বিদেশি শিক্ষার্থীরা জানিয়েছেন তাদের ঈদ অনুভূতি। বাংলাদেশে ঈদ কেমন উদযাপন হলো জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৭ তম ব্যাচের কৃষি অনুষদের সোমালিয়ার শিক্ষার্থী আব্দুল্লাহ্ আলী ইব্রাহিম বলেন, মহামারির সময়ে পরিবার থেকে হাজার হাজার কিলোমিটার দূরে ঈদ উদযাপন করাটা কিছুটা কঠিন ছিল। তবে এই অপূর্ণতা বুঝতে দেয়নি এখানকার বন্ধুরা। আমরা অনেক মজা করার চেষ্টা করেছি এবং মসজিদে ঈদের নামাজ আদায়ের পর এদিক-সেদিক ঘোরাঘুরি করেছি। প্রচুর ছবিও তুলেছি। এর ফাঁকে পরিবারের সঙ্গে ভিডিও কলেও আনন্দ ভাগাভাগি করেছি।

এই জীবনে স্মরণীয় হয়ে থাকবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ঈদ উপলক্ষ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের অনেক বাঙালি বন্ধু তাদের বাসায় আমন্ত্রণ জানিয়েছিল। একটু ভিন্নভাবে ঈদ উদযাপন করার সুযোগ করে দেওয়ায় মহান আল্লাহর কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করি।

কম্পিউটার সাইন্স অ্যান্ড  ইঞ্জিনিয়ারিং (সিএসই) অনুষদের নেপালি শিক্ষার্থী দিপক শাহ বলেন, প্রথমত আমি অনেক আনন্দিত যে সম্পূর্ণ ভিন্ন রকম এক সংস্কৃতিতে এবারের ঈদ উদযাপন করা দেখলাম। এখানকার বাংলাদেশি বন্ধুরা অনেক বেশি আন্তরিক। আমার রংপুরের বন্ধু আবির রহমান ঈদে তার বাসায় নিমন্ত্রণ জানিয়েছিল। সেখানে গিয়ে আমি তাদের সঙ্গে ঈদ উযযাপন করেছি। তার পরিবার ঈদে আমাকে উপহার হিসেবে নতুন পোশাক এবং নগদ টাকা দিয়েছে।

ঈদের দিন নতুন টাকা পেয়ে কিছুটা বিস্মিত এই শিক্ষার্থী বললেন, নতুন টাকা হাতে পেয়ে কিছুটা বিস্ময় লাগছিল। পরে বন্ধু জানালো ঈদের দিনে এমন রীতি আছে, ঈদ সেলামি হিসেবে এই টাকা দেওয়া হয়। তা ছাড়াও তার পরিবারের সবাই আমার অনেক যত্ন-আত্তি করেছে। বন্ধু আবির রহমান ও তার পরিবারের জন্য অনেক ভালোবাসা রইলো।

কথা হয় নাইজেরিয়ার শিক্ষার্থী আবু বকর সাঈদু-র সঙ্গে। তিনি বলেন, উচ্চশিক্ষার জন্যই হাজার-হাজার কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে এখানে এসেছি। এখন পরিবারের বাইরেও আরেকটি পরিবার হয়ে উঠেছে, যার নাম হাবিপ্রবি পরিবার। বাঙালিসহ সকল বিদেশি বন্ধুরা একসাথে ঘোরাঘুরি ও আনন্দ করেছি। আমার ডায়েরির অনেকগুলো পাতায় লিখে নিয়েছি এই ঈদের অভিজ্ঞতা। এই ঈদ আমার জীবনের স্মরণীয় একটি ঘটনা হয়ে থাকবে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৮তম ব্যাচের কৃষি অনুষদের ভারতীয় শিক্ষার্থী মোহাম্মদ সফিউল্লাহ জানান, কোভিড-১৯ পরিস্থিতির জন্য প্রায় দেড় বছর ধরে আমাদের বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ রয়েছে। এজন্য বিশ্ববিদ্যালয় হয়তো খুলে দিবে এই আশায় থেকে আর দেশে ফেরা হয়নি। এজন্য আগের মতো ঈদের আনন্দ তেমনভাবে উপভোগ করতে পারিনি। আসলে বন্ধু-পরিবারের সাথে ঈদ উদযাপন করতে পারাটা অনেক মজার। যাইহোক, ঈদে ক্যাম্পাসের কেন্দ্রীয় মসজিদে নামাজ পড়ে বাংলাদেশি বন্ধুরাসহ অন্যান্য দেশের বন্ধুদের সাথে বেশ মজা করেছি এবং প্রচুর ছবি তুলেছি। এসব ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করার মাঝেই ঈদের আনন্দকে খুঁজে পেতে চেষ্টা করেছি। 

কৃষি অনুষদের সোমালিয়ার শিক্ষার্থী লিবান আলী মাহমুদ ঈদের অনুভূতি জানিয়ে বলেন, 'আসলে করোনা পরিস্থিতির জন্য এবছর সোমালিয়ায় গিয়ে ঈদ উযযাপন করতে পারিনি। এজন্য কিছুটা খারাপ লাগছে যদিও। তবে এখানে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের আন্তরিকতায় এই খারাপ লাগা কিছুটা হলেও কমে গিয়েছে। এছাড়াও ঈদে অন্যান্য বাংলাদেশি এবং বিদেশি বন্ধুদের সাথে বেশ ভালোই সময় কাটিয়েছি'।

বিদেশি এসব শিক্ষার্থীকে ঈদে ঘুরে নিয়ে বেড়িয়েছেন বাংলাদেশি শিক্ষার্থীরা। তাদের মধ্যে একজন বিশ্ববিদ্যালয়ের মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষার্থী মেহেদী হাসান। তিনি বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ঈদে বিদেশি শিক্ষার্থীদের সাথে বেশ ভালো সময় কাটিয়েছি। নানা কারণে ঈদে এবার আমারও বাড়ি ফেরা হয়নি। এজন্য বিদেশি এসব বন্ধুদের সাথেই ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করেছি, অনেক আড্ডা দিয়েছি। আড্ডায় তাদের ছোটোবেলার ঈদ স্মৃতিচারণ শুনে বেশ ভালো লেগেছে। বিভিন্ন দেশের বন্ধুরা একসাথে নিজেদের রীতি-রেওয়াজ সম্পর্কে  শুনে অনেক কিছু জেনেছি, শিখেছি। এবারের ঈদে আমার বিদেশি বন্ধুদের একাকিত্ব অনুভব করার সুযোগ দেইনি।

উল্লেখ্য, বর্তমানে বিশ্ববিদ্যালয়টিতে ভারত, ভুটান, নেপাল, সোমালিয়া, নাইজেরিয়াসহ ছয়টি দেশের শিক্ষার্থী পড়াশোনা করছে। ইউজিসির সর্বশেষ বার্ষিক প্রতিবেদন অনুযায়ী বিদেশি শিক্ষার্থী অধ্যয়নের দিক থেকে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলির মধ্যে হাজী দানেশের অবস্থান দ্বিতীয়।

/ইউএস/

সম্পর্কিত

প্রথম দিনেই সেশনজট নিরসনে জোর দিলেন হাবিপ্রবি উপাচার্য

প্রথম দিনেই সেশনজট নিরসনে জোর দিলেন হাবিপ্রবি উপাচার্য

হাজী দানেশে দ্রুত উপাচার্য নিয়োগের আহ্বান

হাজী দানেশে দ্রুত উপাচার্য নিয়োগের আহ্বান

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙচুরের প্রতিবাদে হাবিপ্রবিতে শিক্ষকদের মানববন্ধন

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙচুরের প্রতিবাদে হাবিপ্রবিতে শিক্ষকদের মানববন্ধন

সর্বশেষ

বিনা দোষে মিনুর কারাভোগ, কুলসুম ও তার সহযোগী রিমান্ডে 

বিনা দোষে মিনুর কারাভোগ, কুলসুম ও তার সহযোগী রিমান্ডে 

জেলের বড়শিতে বিশাল বোয়াল

জেলের বড়শিতে বিশাল বোয়াল

অনির্দিষ্টকাল ইরানের সঙ্গে আলোচনা চলতে পারে না: মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

অনির্দিষ্টকাল ইরানের সঙ্গে আলোচনা চলতে পারে না: মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

বিয়ের চার দিনের মাথায় কিশোরীর ‘আত্মহত্যা’

বিয়ের চার দিনের মাথায় কিশোরীর ‘আত্মহত্যা’

হেলেনা জাহাঙ্গীরের বাসায় র‌্যাবের অভিযান

হেলেনা জাহাঙ্গীরের বাসায় র‌্যাবের অভিযান

করোনার 'সুপার স্প্রেডার' রাষ্ট্র হওয়ার পথে মিয়ানমার

করোনার 'সুপার স্প্রেডার' রাষ্ট্র হওয়ার পথে মিয়ানমার

লকডাউনে মায়ের চেহলাম আয়োজন করায় ছেলেকে জরিমানা

লকডাউনে মায়ের চেহলাম আয়োজন করায় ছেলেকে জরিমানা

ফেরি ‘শাহজালাল’ দুর্ঘটনার অনুসন্ধানে চার সদস্যের কমিটি

ফেরি ‘শাহজালাল’ দুর্ঘটনার অনুসন্ধানে চার সদস্যের কমিটি

অসংক্রামক রোগ প্রতিরোধে নীতিমালা প্রণয়নের আহ্বান

অসংক্রামক রোগ প্রতিরোধে নীতিমালা প্রণয়নের আহ্বান

অধস্তন আদালতের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কালো ব্যাজ পরিধানের নির্দেশ

অধস্তন আদালতের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কালো ব্যাজ পরিধানের নির্দেশ

অবৈধ মজুতদারদের বিরুদ্ধে অভিযান শুরু হবে: খাদ্যমন্ত্রী

অবৈধ মজুতদারদের বিরুদ্ধে অভিযান শুরু হবে: খাদ্যমন্ত্রী

২৪ ঘণ্টায় ঢাকায় মৃত্যু ৭৬, শনাক্ত ৬৯৯৬

২৪ ঘণ্টায় ঢাকায় মৃত্যু ৭৬, শনাক্ত ৬৯৯৬

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ঈদে হাজী দানেশের বিদেশি শিক্ষার্থীদের ভিন্নরকম অভিজ্ঞতা

ঈদে হাজী দানেশের বিদেশি শিক্ষার্থীদের ভিন্নরকম অভিজ্ঞতা

প্রথম দিনেই সেশনজট নিরসনে জোর দিলেন হাবিপ্রবি উপাচার্য

প্রথম দিনেই সেশনজট নিরসনে জোর দিলেন হাবিপ্রবি উপাচার্য

যোগ দিয়েই লিয়াজোঁ অফিস বন্ধের ঘোষণা দিলেন বেরোবি উপাচার্য

যোগ দিয়েই লিয়াজোঁ অফিস বন্ধের ঘোষণা দিলেন বেরোবি উপাচার্য

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙচুরের প্রতিবাদে হাবিপ্রবিতে শিক্ষকদের মানববন্ধন

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙচুরের প্রতিবাদে হাবিপ্রবিতে শিক্ষকদের মানববন্ধন

© 2021 Bangla Tribune