X
রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৪ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

এখনও করোনার ভয়াবহতা বুঝতে নারাজ দোকান মালিকরা

আপডেট : ০৫ জুলাই ২০২১, ২২:২৪

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় (৪ জুলাই সকাল ৮টা থেকে ৫ জুলাই সকাল ৮টা) পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু এবং নতুন রোগী শনাক্তের নতুন রেকর্ড হয়েছে।

করোনার এই সংক্রমণ এবং মৃত্যুর ঊর্ধ্বগতিতেও দোকান খোলা রাখতে চান দোকান ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতি। সোমবার (৫ জুলাই) গণমাধ্যমে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ দাবির কথা জানান তারা।

প্রধানমন্ত্রী বরাবর পাঠানো খোলা চিঠিতে স্বাস্থ্যবিধি কঠোরভাবে মেনে অল্প সময়ের জন্য হলেও দোকান খুলে ব্যবসা পরিচালনা করার সুযোগ চান তারা।

চিঠিতে স্বাক্ষর করেছেন দোকান ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতি জাতীয় পরিষদের আহ্বায়ক তৌফিক এহেসান, সদস্য সচিব আনিসুল মান্নান সাহেদ, কার্যনির্বাহী পরিষদের সভাপতি নাজমুল হাসান মাহমুদ ও কার্যনির্বাহী পরিষদের সাধারণ সম্পাদক আরিফুর রহমান টিপু।

প্রধানমন্ত্রীর কাছে লেখা চিঠিতে তারা দোকান খুলে দেওয়ার পাশাপাশি আড়াই কোটি দোকান-কর্মচারীকে রেশন কার্ডের আওতায় আনার দাবি জানান। এছাড়া তারা বিদ্যুৎ বিল কিস্তি করে দেওয়ার জন্য অনুরোধ করেন।

চিঠিতে উল্লেখ করা হয়, ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির অনেকে পুঁজি ভেঙে খাচ্ছেন। তারা আজ নিঃস্ব। তাদের আবার ব্যবসায় ফিরিয়ে আনতে সহজ শর্তে ট্রেড লাইসেন্সের ভিত্তিতে আর্থিক ঋণ বা প্রণোদনা দেওয়ার দাবিও করা হয়।

সংক্রমণের এই ভয়ংকর পরিস্থিতিতে কী বুঝে দোকান খুলে দেওয়ার জন্য বলছেন জানতে চাইলে দোকান ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতি জাতীয় পরিষদের আহ্বায়ক তৌফিক এহেসান বলেন, এখন আমাদের ভয়াবহ অবস্থা। এখানে বিদ্যুৎ, পানি, গ্যাস, বাড়ি মালিক কিন্তু আমাদের ছাড় দেবে না। তারা তাদের বিল নেবেই। আমাদের এবং কর্মচারীদের চিকিৎসা ও খাওয়া দাওয়া কোত্থেকে আসবে। যদি অল্প কয়েক দিনের জন্য সীমিত পরিসরে কঠোর নির্দেশনা বেঁধে ঈদের সময় দোকান খোলার সুযোগ দেওয়া হয়, তাহলে আমরা কিছু সময় চলতে পারি।

কোরবানি ঈদে আমরা কর্মচারীদের হাফ বোনাস দিয়ে থাকি। রোজার ঈদে ফুল বোনাস দেই। এখন যদি দোকানপাট বন্ধ থাকে তাহলে আমরা এটা কীভাবে দেবো?

পূর্বে লকডাউনে দোকানপাট খোলা রাখার সুযোগ দেওয়া হয়েছে কিন্তু দোকানদারসহ কেউ শর্ত মানেনি কেন- এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমরা সবাই পুঁজি ভাঙতে ভাঙতে এ পর্যন্ত এসেছি। এখন অনেকেরই পুঁজি বন্ধ হয়ে গেছে। যারা ব্যাংকের ঋণ নিয়েছিল সেগুলো খেয়ে শেষ করে ফেলেছে। এখন আমরা প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন করেছি, উনি যদি সহনশীলতার সঙ্গে ট্রেড লাইসেন্স ও ব্যাংক ঋণ দিয়ে নতুন করে ব্যবসা করার সুযোগ তৈরি করে দেন, তাহলে আমরা বাঁচতে পারবো।

তিনি আরও বলেন, করোনা তো এই পৃথিবীতে বেড়াতে আসেনি। সে থাকবে। করোনাকে সঙ্গে নিয়েই আমাদের যুদ্ধ করে থাকতে হবে। এই লকডাউন কত তারিখে শেষ হবে তারও কিন্তু দিন তারিখ নেই।

১৪ দিন কঠোর লকডাউনে সংক্রমণ কমে আসবে এমন তথ্যের জবাবে তিনি বলেন, ‘আমরা যেটা চেয়েছি সেটা হচ্ছে ঈদ সামনে রেখে কয়েক দিন যদি এই সুযোগ দেওয়া হয় তাহলে মানুষ কিছু কেনাকাটা করতে পারতো। সেই টাকাটা নিয়ে মানুষ বাড়িতে যেতে পারতো।’

এদিকে দোকান মালিকদের এমন দাবিতে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের গঠিত পাবলিক হেলথ কমিটির সদস্য জনস্বাস্থ্যবিদ আবু জামিল ফয়সাল। তিনি বলেন, সবকিছু খুলে দেওয়া হোক, আর কিছু বলার নেই।

তিনি আরও বলেন, সব খুলে দিয়ে একশভাগ মাস্ক পরার নির্দেশনা দেওয়া হোক। তবে মাস্ক পরার নির্দেশনা মানুষ মানবে কিনা- এ প্রসঙ্গেও আক্ষেপ করে তিনি বলেন, পুলিশ, বিজিবি, আর্মি নামিয়ে কিছুই হচ্ছে না। প্রধানমন্ত্রী যদি অনুমতি নাও দেন তাহলেও দোকান মালিক সমিতি সব খুলে দেবে হয়তো- তখন কী হবে, এমন প্রশ্ন তোলেন তিনি।

মহামারি বিশেষজ্ঞ ও রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠা (আইইডিসিআর)-এর উপদেষ্টা ডা. মুশতাক হোসেন বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র দোকানিদের সমস্যাটা বেশি। সরকার এবং স্থানীয় সরকার কর্তৃপক্ষের উচিত তাদের চলার একটা ব্যবস্থা করে দেওয়া।

দোকান খুলে দেওয়া অবশ্যই সমর্থন করি না মন্তব্য করে ডা. মুশতাক হোসেন বলেন, কিন্তু যারা কর্মচারী আছেন তাদের ঘরে ভাত রয়েছে কিনা তার ব্যবস্থা করা উচিত। আর এখানেই জনপ্রতিনিধিদের কাজ করতে হবে। সেটা ঠিকমতো হচ্ছে কিনা, মনিটর করা দরকার।

 

/জেএ/এসএস/এফএএন/এমওএফ/

সম্পর্কিত

৫ লাখেরও বেশি টিকা দেওয়া হয়েছে আজ 

৫ লাখেরও বেশি টিকা দেওয়া হয়েছে আজ 

আজও করোনায় নারীমৃত্যু বেশি

আজও করোনায় নারীমৃত্যু বেশি

চলতি মাসেই ডেঙ্গুতে আক্রান্ত ৫ হাজার ছাড়ালো  

চলতি মাসেই ডেঙ্গুতে আক্রান্ত ৫ হাজার ছাড়ালো  

এবার কেন ডেঙ্গু ভয়ংকর

এবার কেন ডেঙ্গু ভয়ংকর

সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বাবরের আত্মপক্ষ সমর্থন ২১ সেপ্টেম্বর

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৪:১৪

২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার ঘটনায়  মৃত্যুদণ্ড পাওয়া আসামি ও সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবরের বিরুদ্ধে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) দায়ের করা মামলায় আত্মপক্ষ সমর্থনের জন্য আগামী ২১ সেপ্টেম্বর দিন ধার্য করেছেন আদালত।

রবিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৭ এর বিচারক মোহাম্মদ শহীদুল ইসলামের আদালতে মামলাটির পুনরায় সাক্ষ্যগ্রহণ শেষ হলে আসামির আত্মপক্ষ সমর্থনের জন্য নতুন তারিখ ধার্য করেন আদালত।

এর আগে গত ২১ জানুয়ারি মামলাটি যুক্তিতর্ক উপস্থাপনের জন্য ধার্য  ছিল। কিন্তু রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী মোশারফ হোসেন কাজল মামলাটির পুনরায় সাক্ষ্যগ্রহনের জন্য আদালতে আবেদন করেন। তার আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আদালত তা মঞ্জুর করেন।

মামলায় অভিযোগ থেকে জানা যায়, বাবরের বিরুদ্ধে ৭ কোটি ৫ লাখ ৯১ হাজার ৮৯৬ টাকার অবৈধ সম্পদ রাখার অভিযোগ আনা হয়। কিন্তু দুদকে ৬ কোটি ৭৭ লাখ ৩১ হাজার ৩১২ টাকার সম্পদের হিসাব দাখিল করেছিলেন তিনি। তার অবৈধ সম্পদের মধ্যে প্রাইম ব্যাংক এবং এইচএসবিসি ব্যাংকে দুইটি এফডিআরে ৬ কোটি ৭৯ লাখ ৪৯ হাজার ২১৮ টাকা এবং বাড়ি নির্মাণ বাবদ ২৬ লাখ ৪২ হাজার ৬৭৮ টাকা গোপন করার অভিযোগ করা হয়।

ওই ঘটনায় ২০০৮ সালের ১৩ জানুয়ারি এই আসামির বিরুদ্ধে অবৈধ সম্পদ অর্জন ও তথ্য গোপন করার অভিযোগে রমনা থানায় মামলাটি দায়ের করে দুদক। পরে তদন্তকারী কর্মকর্তা দুদকের উপ-সহকারী পরিচালক রূপক কুমার সাহা তদন্ত শেষে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

/এমএইচজে/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

সাংবাদিক রোজিনার পাসপোর্ট-মোবাইল ফেরতের আবেদন নামঞ্জুর

সাংবাদিক রোজিনার পাসপোর্ট-মোবাইল ফেরতের আবেদন নামঞ্জুর

‘নতুন শিক্ষাক্রম বাস্তবায়নে আগে শিক্ষকদের প্রস্তুত করতে হবে’

‘নতুন শিক্ষাক্রম বাস্তবায়নে আগে শিক্ষকদের প্রস্তুত করতে হবে’

ই-কমার্সের প্রতারণা কমাতে জনস্বার্থে প্রচারণার পরামর্শ

ই-কমার্সের প্রতারণা কমাতে জনস্বার্থে প্রচারণার পরামর্শ

ইভ্যালির বিরুদ্ধে এবার ব্যবসায়ীর মামলা, রাসেলসহ ১২ জন আসামি

ইভ্যালির বিরুদ্ধে এবার ব্যবসায়ীর মামলা, রাসেলসহ ১২ জন আসামি

উগ্রবাদী বইয়ের প্রকাশক গ্রেফতার

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৪:১৪

নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের (এবিটি) উগ্রবাদী মতাদর্শ প্রচার করা বইয়ের প্রকাশক হাবিবুর রহমান ওরফে শামীমকে গ্রেফতার করেছে পুলিশের অ্যান্টি টেরোরিজম ইউনিট (এটিইউ)।

শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর বাংলাবাজারের ইসলামি মার্কেট এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত শামীম আল রিহাব পাবলিকেশন্সের স্বত্বাধিকারী ও প্রকাশক।

রবিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) দুপুরে এ তথ্য নিশ্চিত করেন অ্যান্টি টেরোরিজম ইউনিটের মিডিয়া অ্যান্ড অ্যাওয়ারনেস শাখার পুলিশ সুপার মো. আসলাম খান।

তিনি বলেন, ২০১৬ সাল থেকে হাবিবুর রহমান ওরফে শামিম আল রিহাব পাবলিকেশন্স নামে একটি প্রকাশনা চালু করে। মুফতি জসীমউদ্দিন রাহমানীর একান্ত সহযোগী ফিরোজ তাকে মুফতি জসিম উদ্দিন রহমানের কিছু বই প্রকাশ করার জন্য দেয়। সে তার প্রকাশনা থেকে বইগুলো প্রকাশ ও বিক্রি করে। বই প্রকাশ সূত্রে সে মুফতি জসীমউদ্দিন রাহমানীর মতাআদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে আনসারুল্লাহ বাংলা টিম সমর্থন করা শুরু করে। সে আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের সক্রিয় সদস্য। প্রকাশনাসূত্রে আনসারুল্লাহ বাংলাটিমের কতিপয় সংগঠকের সাথে তার ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক গড়ে ওঠে।

গ্রেফতারকৃত হাবিবুর এবিটি সদস্য ও অন্যান্য অনুসারীদের কাছে মুফতি জসীমুদ্দীন রাহমানীর উগ্রবাদী বই ছাড়াও অন্যান্য উগ্রপন্থী বই-পত্রিকার প্রকাশনা সরবরাহ, বিতরণ ও অনলাইন প্লাটফর্মে গোপনে বিক্রি করতো। এছাড়া বিভিন্ন সময়ে সে আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের মতাদর্শের বিভিন্ন প্রিন্ট ও ভিডিও কনটেন্ট সমর্থকদের সাথে শেয়ার করত।

এটিইউ’র মিডিয়া অ্যান্ড অ্যাওয়ারনেস শাখার এএসপি ওয়াহিদা বলেন, উগ্রপন্থী মতাদর্শের বিভিন্ন বই গোপনে অনলাইনে এবং অফলাইনে বিক্রি ও উগ্রপন্থী কর্মকাণ্ডকে উদ্বুদ্ধ করায় তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। গত ১৬ সেপ্টেম্বর ময়মনসিংহ থেকে গ্রেফতারকৃত আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের সদস্য কায়সার আহমেদ ওরফে মিলন ও জাহিদ মোস্তফা দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে বাংলাবাজার থেকে গ্রেফতার করা হয় হাবিবুরকে।

/আরটি/এমএস/

সম্পর্কিত

সাংবাদিক রোজিনার পাসপোর্ট-মোবাইল ফেরতের আবেদন নামঞ্জুর

সাংবাদিক রোজিনার পাসপোর্ট-মোবাইল ফেরতের আবেদন নামঞ্জুর

হাইকোর্টের রেজিস্ট্রারের গড়িমসির ব্যাখ্যা তলব

হাইকোর্টের রেজিস্ট্রারের গড়িমসির ব্যাখ্যা তলব

ইভ্যালির বিরুদ্ধে এবার ব্যবসায়ীর মামলা, রাসেলসহ ১২ জন আসামি

ইভ্যালির বিরুদ্ধে এবার ব্যবসায়ীর মামলা, রাসেলসহ ১২ জন আসামি

ফোনে আড়িপাতা বন্ধে তদন্ত চেয়ে রিটের আদেশ ২৯ সেপ্টেম্বর

ফোনে আড়িপাতা বন্ধে তদন্ত চেয়ে রিটের আদেশ ২৯ সেপ্টেম্বর

সাংবাদিক রোজিনার পাসপোর্ট-মোবাইল ফেরতের আবেদন নামঞ্জুর

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৪:০৩

সরকারি অফিস থেকে ‘তথ্য চুরি’র অভিযোগে শাহাবাগ থানায় দায়ের করা মামলায় দৈনিক প্রথম আলোর জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক রোজিনা ইসলামের পাসপোর্ট, দুটি মোবাইল ফোন ও পিআইডি অ্যাক্রেডিটেশন কার্ড ফেরতের আবেদন নামঞ্জুর করেছেন আদালত।

রবিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) ঢাকার অতিরিক্ত চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আবুবকর সিদ্দিকের আদালত এই আদেশ দেন। আদালতের সংশ্লিষ্ট সূত্র থেকে এ তথ্য জানা যায়।

এর আগে, গত ১৫ সেপ্টেম্বর ঢাকার অতিরিক্ত চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মো. আসাদুজ্জামান নূরের আদালতে এ আবেদন করেছিলেন রোজিনার আইনজীবী প্রশান্ত কুমার কর্মকার। এরপর এই বিষয়ে শুনানির জন্য আদালত আজকের দিন ধার্য করেন।

চলতি বছর ১৭ মে সচিবালয়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের কক্ষ থেকে ‘তথ্য চুরি’র অভিযোগ এনে সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে শাহবাগ থানায় সোপর্দ করা হয়। পরে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়। প্রায় এক সপ্তাহ দেশব্যাপি বিষয়টি নিয়ে তুমুল আলোচনার সৃষ্টি করে। গত ২৩ মে সকালে ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট বাকি বিল্লার আদালত পাঁচ হাজার টাকার মুচলেকায় সাংবাদিক রোজিনা ইসলামের জামিন মঞ্জুর করেন।

আরও পড়ুন:
সাংবাদিক রোজিনার রিমান্ড নামঞ্জুর, কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ 
সাংবাদিক রোজিনা ইসলামের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের

/এমএইচজে/ইউএস/

সম্পর্কিত

সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বাবরের আত্মপক্ষ সমর্থন ২১ সেপ্টেম্বর

সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বাবরের আত্মপক্ষ সমর্থন ২১ সেপ্টেম্বর

উগ্রবাদী বইয়ের প্রকাশক গ্রেফতার

উগ্রবাদী বইয়ের প্রকাশক গ্রেফতার

‘নতুন শিক্ষাক্রম বাস্তবায়নে আগে শিক্ষকদের প্রস্তুত করতে হবে’

‘নতুন শিক্ষাক্রম বাস্তবায়নে আগে শিক্ষকদের প্রস্তুত করতে হবে’

হাইকোর্টের রেজিস্ট্রারের গড়িমসির ব্যাখ্যা তলব

হাইকোর্টের রেজিস্ট্রারের গড়িমসির ব্যাখ্যা তলব

‘নতুন শিক্ষাক্রম বাস্তবায়নে আগে শিক্ষকদের প্রস্তুত করতে হবে’

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৪:০৩

বিষয়ভিত্তিক শিক্ষক নিয়োগ ও কর্মরত শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ দিয়ে দক্ষ হিসেবে প্রস্তুত করতে না পারলে নতুন জাতীয় শিক্ষাক্রম বাস্তবায়ন সম্ভব নয় বলে অভিমত দিয়েছেন বিশেষজ্ঞ ও সংশ্লিষ্টরা। তারা বলেছেন, নতুন শিক্ষাক্রম বাস্তবায়ন করতে হলে সবার আগে শিক্ষকদের প্রস্তুত করতে হবে।

শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) রাতে ‘আগামীর বাংলাদেশ’ আয়োজিত ‘নতুন জাতীয় শিক্ষাক্রম রূপরেখা-২০২০: চ্যালেঞ্জ ও করণীয়’ শীর্ষক ভার্চুয়াল আলোচনায় এই অভিমত উঠে আসে।

আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, জবাবদিহিমূলক অ্যাকাডেমিক ভিজিটের মাধ্যমে নতুন জাতীয় শিক্ষাক্রম বাস্তবায়ন সম্ভব হবে।

সাবেক শিক্ষা সচিব নজরুল ইসলাম আই খান বলেন, ‘নতুন জাতীয় শিক্ষাক্রম রূপরেখা-২০২০’ বাস্তবায়নের জন্য সকল পক্ষের জবাবদিহি নিশ্চিত করতে হবে। অ্যাকাডেমিক পরদর্শন, ফেস অনুযায়ী অ্যাকশন প্ল্যান বাস্তবায়ন, এলাকাভিত্তিক প্রান্তিক শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ, স্থানীয় রাজনীতিবিদ ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিচালনা কমিটিকে সম্পৃক্ত করতে হবে। বিষয়ভিত্তিক শিক্ষক নিয়োগ ও শিক্ষকদের শিক্ষা প্রশাসনের কাজের সুযোগ সৃষ্টি করতে হবে। শিক্ষকদের সামাজিক মর্যাদা বাড়াতে হবে। প্রশিক্ষণ দিয়ে শিক্ষকদের দক্ষ হিসেবে প্রস্তুত করা না গেলে এবং অ্যাকশন প্ল্যান বাস্তবায়ন সম্ভব না হলে, নতুন শিক্ষাক্রম বাস্তবায়ন সম্ভব হবে না।’

জাতীয় শিক্ষাক্রম উন্নয়ন কমিটির সদস্য অধ্যাপক ড. তারিক আহসান বলেন, ‘যুগের প্রয়োজনে নতুন জাতীয় শিক্ষাক্রমকে যুগোপযোগী করা হচ্ছে। এটি বাস্তবায়নের জন্য দক্ষ শিক্ষক ও স্থানীয় পর্যায়ের প্রশিক্ষণের বিষয়ে প্রতিবেদনে জোরোলো সুপারিশ করা হয়েছে। নবম-দশম শ্রেণিতে বিজ্ঞানের শিক্ষার্থীদের যথাযথ মৌলিক জ্ঞানের পাশাপাশি উদ্ভাবনী ও বাস্তবসম্মত জ্ঞান অর্জনের পথ তৈরি করা হয়েছে এই শিক্ষাক্রমে। মাদ্রাসা ও কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের কারিকুলামও  আধুনিকায়ন করা হবে।  পাঠ্যবই তৈরি হবে সেভাবেই।’

সেশনের শুরুতে শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী অধ্যাপক আবু জাফর আহমেদ মুকুল জাতীয় শিক্ষাক্রম রূপরেখা-২০২০ এর সার সংক্ষেপ উপস্থাপন ধরেন।

 

/এসএমএ/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বাবরের আত্মপক্ষ সমর্থন ২১ সেপ্টেম্বর

সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বাবরের আত্মপক্ষ সমর্থন ২১ সেপ্টেম্বর

সাংবাদিক রোজিনার পাসপোর্ট-মোবাইল ফেরতের আবেদন নামঞ্জুর

সাংবাদিক রোজিনার পাসপোর্ট-মোবাইল ফেরতের আবেদন নামঞ্জুর

ই-কমার্সের প্রতারণা কমাতে জনস্বার্থে প্রচারণার পরামর্শ

ই-কমার্সের প্রতারণা কমাতে জনস্বার্থে প্রচারণার পরামর্শ

ইভ্যালির বিরুদ্ধে এবার ব্যবসায়ীর মামলা, রাসেলসহ ১২ জন আসামি

ইভ্যালির বিরুদ্ধে এবার ব্যবসায়ীর মামলা, রাসেলসহ ১২ জন আসামি

হাইকোর্টের রেজিস্ট্রারের গড়িমসির ব্যাখ্যা তলব

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩:৫২

আদালতের আদেশ যথাসময়ে না পাঠানোয় হাইকোর্টের রেজিস্ট্রারের কাছে ব্যাখ্যা তলব করেছেন হাইকোর্ট। আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে হাইকোর্টের রেজিস্ট্রার মো. গোলাম রব্বানীকে এ বিষয়ে ব্যাখ্যা দাখিল করতে বলা হয়েছে।

সোমবার (১৯ সেপ্টেম্বর) বিচারপতি মো. মজিবুর রহমান মিয়া ও বিচারপতি মো. কামরুল হোসেন মোল্লার সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ বিষয়ে লিখিত আদেশ দেন।

আদালতে রিটকারীর অ্যাডভোকেট সৈয়দ নাসরিন শুনানিতে ছিলেন।

এর আগে গত ১৪ জুন কক্সবাজার সদরের বাঁকখালী নদীর তীরবর্তী উত্তর মুহুরিপাড়ার প্রায় ৬০ একর জমি অবৈধভাবে দখল ও ভরাটের অভিযোগের বিষয়ে বিচারিক অনুসন্ধান করতে নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। কক্সবাজারের চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটকে ৬০ দিনের মধ্যে অনুসন্ধান করে হাইকোর্টে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেওয়া হয়। একইসঙ্গে ভরাট কার্যক্রমের ওপর স্থিতাবস্থা বজায় রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়।

মানবাধিকার সংগঠন আইন ও সালিশ কেন্দ্রের (আসক) পক্ষে করা এক রিটের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে বিচারপতি মো. মুজিবর রহমান মিয়া ও বিচারপতি মো. কামরুল হোসেন মোল্লার বেঞ্চ রুলসহ এ আদেশ দেন।

আদালতের এই আদেশ কক্সবাজারের চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটসহ সংশ্লিষ্টদের কাছে কমিউনিকেট করতে হাইকোর্টের রেজিস্ট্রারকে বলা হয়। কিন্তু হাইকোর্টের রেজিস্ট্রার যথাসময়ে আদালতের আদেশ প্রেরণ না করায় হাইকোর্ট তাকে ব্যাখ্যা দিতে নির্দেশ দিলেন।

প্রসঙ্গত, চলতি বছরের ১৪ মার্চ একটি জাতীয় দৈনিকে ‘কক্সবাজার অবৈধভাবে ভরাট হচ্ছে ৬০ একর ফসলি জমি, জমির মালিকরা অসহায়, প্রশাসন নীরব’ শীর্ষক প্রকাশিত প্রতিবেদন যুক্ত করে এ রিট করে আইন ও সালিশ কেন্দ্র-আসক। প্রকাশিত ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, কক্সবাজার সদরের বাঁকখালী নদীর তীরবর্তী উত্তর মুহুরিপাড়ার তিন ফসলি প্রায় ৬০ একর উর্বর জমি ভরাট করে ফেলা হচ্ছে। দুই কিলোমিটার দূরত্বে গড়ে ওঠা রেলস্টেশনকে কেন্দ্র করে বাণিজ্যিক চিন্তায় আবাসন প্রকল্প গড়তেই আইন উপেক্ষা করে রাত-দিনে এসব জমি ভরাট করছে ভূমিদস্যু চক্র।

/বিআই/এমএস/

সম্পর্কিত

সাংবাদিক রোজিনার পাসপোর্ট-মোবাইল ফেরতের আবেদন নামঞ্জুর

সাংবাদিক রোজিনার পাসপোর্ট-মোবাইল ফেরতের আবেদন নামঞ্জুর

ইভ্যালির বিরুদ্ধে এবার ব্যবসায়ীর মামলা, রাসেলসহ ১২ জন আসামি

ইভ্যালির বিরুদ্ধে এবার ব্যবসায়ীর মামলা, রাসেলসহ ১২ জন আসামি

ফোনে আড়িপাতা বন্ধে তদন্ত চেয়ে রিটের আদেশ ২৯ সেপ্টেম্বর

ফোনে আড়িপাতা বন্ধে তদন্ত চেয়ে রিটের আদেশ ২৯ সেপ্টেম্বর

মির্জা ফখরুলের মামলার চার্জগঠন পেছালো

মির্জা ফখরুলের মামলার চার্জগঠন পেছালো

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

৫ লাখেরও বেশি টিকা দেওয়া হয়েছে আজ 

৫ লাখেরও বেশি টিকা দেওয়া হয়েছে আজ 

আজও করোনায় নারীমৃত্যু বেশি

আজও করোনায় নারীমৃত্যু বেশি

চলতি মাসেই ডেঙ্গুতে আক্রান্ত ৫ হাজার ছাড়ালো  

চলতি মাসেই ডেঙ্গুতে আক্রান্ত ৫ হাজার ছাড়ালো  

এবার কেন ডেঙ্গু ভয়ংকর

এবার কেন ডেঙ্গু ভয়ংকর

করোনায় নারীমৃত্যু পুরুষের দ্বিগুণ

করোনায় নারীমৃত্যু পুরুষের দ্বিগুণ

‘ডেল্টার মতো ভ্যারিয়েন্টের পুনরায় সংক্রমণের আশঙ্কা উড়িয়ে দেওয়া যায় না’

‘ডেল্টার মতো ভ্যারিয়েন্টের পুনরায় সংক্রমণের আশঙ্কা উড়িয়ে দেওয়া যায় না’

ডেঙ্গু: সেপ্টেম্বরের ১৭ দিনেই শনাক্ত ৪৮৭২, মৃত্যু ১১

ডেঙ্গু: সেপ্টেম্বরের ১৭ দিনেই শনাক্ত ৪৮৭২, মৃত্যু ১১

নিয়ন্ত্রণে আসছে না ডেঙ্গু, দিনে ৩০০ রোগী

নিয়ন্ত্রণে আসছে না ডেঙ্গু, দিনে ৩০০ রোগী

আজ সিনোফার্মের ৪ লাখ ৩৬ হাজার ডোজ দেওয়া হয়েছে

আজ সিনোফার্মের ৪ লাখ ৩৬ হাজার ডোজ দেওয়া হয়েছে

ডেঙ্গুতে আরও ২৩৪ জন হাসপাতালে ভর্তি 

ডেঙ্গুতে আরও ২৩৪ জন হাসপাতালে ভর্তি 

সর্বশেষ

সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বাবরের আত্মপক্ষ সমর্থন ২১ সেপ্টেম্বর

সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বাবরের আত্মপক্ষ সমর্থন ২১ সেপ্টেম্বর

উগ্রবাদী বইয়ের প্রকাশক গ্রেফতার

উগ্রবাদী বইয়ের প্রকাশক গ্রেফতার

ইন্দোনেশিয়ার মোস্ট ওয়ান্টেড জঙ্গি নেতা অভিযানে নিহত

ইন্দোনেশিয়ার মোস্ট ওয়ান্টেড জঙ্গি নেতা অভিযানে নিহত

সাংবাদিক রোজিনার পাসপোর্ট-মোবাইল ফেরতের আবেদন নামঞ্জুর

সাংবাদিক রোজিনার পাসপোর্ট-মোবাইল ফেরতের আবেদন নামঞ্জুর

‘নতুন শিক্ষাক্রম বাস্তবায়নে আগে শিক্ষকদের প্রস্তুত করতে হবে’

‘নতুন শিক্ষাক্রম বাস্তবায়নে আগে শিক্ষকদের প্রস্তুত করতে হবে’

© 2021 Bangla Tribune