X
সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

করোনায় প্রাণ গেলো জাবি অধ্যাপকের

আপডেট : ২৬ জুলাই ২০২১, ১৩:০৪

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) প্রাণরসায়ন ও অনুপ্রাণ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. নজিবুর রহমান করোনাভাইরাসে মারা গেছেন। সোমবার (২৬ জুলাই) ভোরে সাড়ে ৪টার দিকে রাজধানীর বারডেম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দফতরের পরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) মোহাম্মদ মহিউদ্দিন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। আজ সকাল পৌনে ৯টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মসজিদে জানাজা শেষ হয়েছে। গ্রামের বাড়ি চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুর উপজেলার রহনপুরে ড. নজিবুর রহমানকে দাফন করা হবে।

ড. নজিবুর রহমানের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন জাবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলাম। এক শোক বার্তায় তিনি বলেন, অধ্যাপক ড. মু. নজিবুর রহমানের অকাল প্রয়াণে দেশ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের অনেক ক্ষতি হলো। খাদ্য ও পুষ্টি গবেষণায় তার অবদান স্মরণীয় হয়ে থাকবে। নজিবুর রহমানের পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনা প্রকাশ করে প্রয়াত অধ্যাপকের আত্মার শান্তি কামনা করেন তিনি।

আরেক শোকবার্তায় ছাত্র ইউনিয়ন জাবি সংসদ শোকসন্তপ্ত পরিবার, শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও তার গুণগ্রাহীদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানায়।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে হল-ক্যাম্পাস খোলার দাবিতে মশাল মিছিল

৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে হল-ক্যাম্পাস খোলার দাবিতে মশাল মিছিল

কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে জাবি শিক্ষার্থীরা, মশাল মিছিলের ডাক

কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে জাবি শিক্ষার্থীরা, মশাল মিছিলের ডাক

বিশ্ববিদ্যালয় খোলার দাবিতে আনু মুহাম্মদের প্রতীকী ক্লাস

বিশ্ববিদ্যালয় খোলার দাবিতে আনু মুহাম্মদের প্রতীকী ক্লাস

ক্যাম্পাস খোলার দাবিতে জাবিতে বিক্ষোভ

ক্যাম্পাস খোলার দাবিতে জাবিতে বিক্ষোভ

কবে খুলবে হাজী দানেশ বিশ্ববিদ্যালয়?

আপডেট : ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২০:১৫

দীর্ঘ ১৭ মাস ২৫ দিন বন্ধ থাকার পর ১২ সেপ্টেম্বর খুলেছে দেশের প্রাথমিক মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। বিশ্ববিদ্যালয়গুলো খুলতেও তোড়জোড় শুরু হয়েছে। ইতোমধ্যে হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (হাবিপ্রবি) প্রশাসন শিক্ষার্থীদের থেকে কয়েক ধাপে টিকা গ্রহণ সংক্রান্ত তথ্য চেয়েছে। তবে তথ্য দেওয়ার ক্ষেত্রে কিছু সংখ্যক শিক্ষার্থীর অনীহা লক্ষ্য করা গেছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসন বলছে, শিক্ষার্থীদের তথ্য দিতে অনীহার কারণে বিশ্ববিদ্যালয় খুলতে বিলম্ব হতে পারে। কারণ টিকা গ্রহণের তথ্যের ওপর নির্ভর করে বিশ্ববিদ্যালয় খোলা হবে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র পরামর্শ ও নির্দেশনা বিভাগ বলছে, করোনার টিকা সংক্রান্ত তথ্যের জন্য অনলাইনে লিঙ্ক তৈরির মাধ্যমে কয়েক ধাপে শিক্ষার্থীদের কাছে তথ্য চেয়েছিল বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। কিন্তু কয়েক দফা সময় বাড়ানোর পর এক-তৃতীয়াংশ শিক্ষার্থী তথ্য দেয়নি। রবিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) পর্যন্ত প্রশাসনের কাছে তথ্য এসেছে সাত হাজার ৫০০ শিক্ষার্থীর। অথচ শিক্ষার্থী সংখ্যা প্রায় ১১ হাজার।

এ ছাড়া যেসব শিক্ষার্থীর জাতীয় পরিচয়পত্র নেই তাদের জন্মনিবন্ধন সনদের তথ্য বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন থেকে চাওয়া হয়েছিল। সেখানে তথ্য দিয়েছে ৪৬৮ জন। তাদের তথ্য ইতোমধ্যে ইউজিসির কাছে পাঠানো হয়েছে।

এদিকে, এখনও টিকা পাননি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিদেশি শিক্ষার্থীরা। কয়েক দফা তথ্য দিয়েও নিবন্ধন করতে পারেননি তারা।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ইন্টারন্যাশনাল হলের সুপার সহযোগী অধ্যাপক ড. মো. জামাল উদ্দীন বলেন, বর্তমানে ৪০ বিদেশি শিক্ষার্থী হলে অবস্থান করছেন। বিদেশি শিক্ষার্থীদের এনআইডি কার্ড না থাকায় একটু জটিলতা আছে। এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র পরামর্শ ও নির্দেশনা বিভাগ ইউজিসির সঙ্গে যোগাযোগ করছে। সব বিদেশি শিক্ষার্থীর পাসপোর্ট নম্বর, শিক্ষার্থীর নাম ও ফোন নম্বরসহ প্রয়োজনীয় সব তথ্য সংশ্লিষ্ট বিভাগকে দিয়েছি।

ছাত্র পরামর্শ ও নির্দেশনা বিভাগের পরিচালক অধ্যাপক ড. ইমরান পারভেজ বলেন, বিদেশি শিক্ষার্থীদের প্রয়োজনীয় সব তথ্য আমরা ইউজিসিতে পাঠিয়েছি। করোনার টিকার রেজিস্ট্রেশনের জন্য তৈরি সুরক্ষা অ্যাপে বিদেশি শিক্ষার্থীদের অপশন না থাকায় প্রাথমিকভাবে আবেদন করতে পারেননি। তবে খুব দ্রুতই বিদেশি শিক্ষার্থীদের রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন হবে বলে আশা করছি। 

বিশ্ববিদ্যালয় খোলার ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমার একার পক্ষে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত দেওয়া সম্ভব নয়। খুব শিগগিরই ৫৮তম একাডেমিক কাউন্সিল বসবে। সংগৃহীত সব তথ্যের ওপর ভিত্তি করেই একাডেমিক কাউন্সিল এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে। 

গত ১৪ সেপ্টেম্বর শিক্ষা মন্ত্রণালয় আয়োজিত বৈঠক শেষে জানানো হয়, আগামী ২৭ সেপ্টেম্বরের মধ্যে দেশের সব বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের টিকা গ্রহণের জন্য রেজিস্ট্রেশন কাজ শেষ করা হবে। এরপর বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ একাডেমিক কাউন্সিলের অনুমোদন নিয়ে পাঠদান কার্যক্রম শুরু ও আবাসিক হল খুলতে পারবে। ওই বৈঠকে সভাপতিত্ব করেছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

বৈঠকে বিভিন্ন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ও মঞ্জুরি কমিশনের চেয়ারম্যান ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্যসেবা বিভাগ, কোভিড-১৯ সম্পর্কিত কারিগরি উপদেষ্টা কমিটি, ফেডারেশন অব বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় সমিতি, স্বাস্থ্য অধিদফতরসহ সংশ্লিষ্ট অধিদফতরের কর্মকর্তারা।

/এএম/

সম্পর্কিত

টিকা পায়নি বেশিরভাগ শিক্ষার্থী, কুবি খোলা নিয়ে অনিশ্চয়তা

টিকা পায়নি বেশিরভাগ শিক্ষার্থী, কুবি খোলা নিয়ে অনিশ্চয়তা

করোনায় ঘরবন্দি সময় কাজে লাগিয়ে সফল উদ্যোক্তা এলিজা

করোনায় ঘরবন্দি সময় কাজে লাগিয়ে সফল উদ্যোক্তা এলিজা

সব শিক্ষার্থীকে টিকা নিতে হবে: শাবি উপাচার্য

সব শিক্ষার্থীকে টিকা নিতে হবে: শাবি উপাচার্য

বিশ্ববিদ্যালয় খোলার দাবিতে জাবিতে আবার প্রতীকী ক্লাস

বিশ্ববিদ্যালয় খোলার দাবিতে জাবিতে আবার প্রতীকী ক্লাস

টিকা পায়নি বেশিরভাগ শিক্ষার্থী, কুবি খোলা নিয়ে অনিশ্চয়তা

আপডেট : ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৭:৫২

করোনাকালে দীর্ঘ বন্ধের পর দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলা শুরু হয়েছে। কিন্তু শিক্ষার্থীদের একটি বড় অংশ করোনা টিকার প্রথম ডোজ না পাওয়ায় দ্রুততম সময়ে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় (কুবি) খোলা নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে। 

বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (অতিরিক্ত দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. মো. আবু তাহের জানান, এ পর্যন্ত পাওয়া তথ্যমতে, আমাদের ১০ শতাংশ শিক্ষার্থীও টিকা নেয়নি। টিকার প্রথম ডোজ নিশ্চিত করে বিশ্ববিদ্যালয় খুলতে হবে।

খোঁজ নিয়ে দেখা গেছে, টিকা নেওয়ার ক্ষেত্রে অনেক বিশ্ববিদ্যালয়ের থেকেই পিছিয়ে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। তারা বলছেন, বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের টিকা দেওয়া শুরুর সময়ে কুবি প্রশাসন শিক্ষার্থীদের তালিকা পাঠানোতে দেরি করেছে। এ কারণে টিকা নেওয়ায় পিছিয়ে পড়েছেন তারা।

তবে, সম্প্রতি আবারও টিকার নিবন্ধন করতে না পারা শিক্ষার্থীদের তালিকা সংগ্রহ করেছে বিশ্ববিদ্যালয়। কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, এবার দ্রুতই টিকা পেয়ে যাবেন শিক্ষার্থীরা। টিকা পাওয়া সহজ করতে বিশ্ববিদ্যালয়ে বুথ স্থাপনের পরিকল্পনাও চলছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের লোকপ্রশাসন বিভাগের স্নাতকোত্তরের এক শিক্ষার্থী বলেন, শুরুতে আমাদের প্রশাসন তালিকা পাঠানোতে দেরি করায় টিকা নেওয়ার হার কম। তবে এখন আবার নতুন করে তথ্য নিয়েছে। অনেকেই টিকা নিচ্ছে।

রেজিস্ট্রার অধ্যাপক আবু তাহের বলেন, টিকার সর্বশেষ পরিস্থিতি নিয়ে আজ রাত ৮টায় একটা মিটিং আছে। আগামীকাল শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে উপাচার্যদের সভা। ওই সভায় সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। আবার আগামী ৭ অক্টোবর আমাদের একাডেমিক কাউন্সিলের সভা আছে। সেখান থেকে সিদ্ধান্ত আসবে।

কুবি উপাচার্য প্রফেসর ড. এমরান কবির চৌধুরী বলেন, আমরা বিশ্ববিদ্যালয় খুলে দিতে চাই। আজকে রাতে সভা থেকে টিকার ব্যাপারে তথ্য জানতে পারবো। এরপর আগামী ১১ অক্টোবর সিন্ডিকেট সভা আছে। এর আগে একাডেমিক কাউন্সিলের সভা আছে। সেখানে একটা সিদ্ধান্ত হবে। আমার শিক্ষার্থীদের বলবো, তারা যেন দ্রুত নিবন্ধন করে ফেলে। নিবন্ধন করে ফেললে আমরা বিশ্ববিদ্যালয়েই বুথ স্থাপন করে তাদের টিকা দিতে পারবো।

উল্লেখ্য, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে সশরীরে স্নাতকোত্তর ও স্নাতকের চূড়ান্ত বর্ষের সেমিস্টার ফাইনাল পরীক্ষা চলছে। অনেক শিক্ষার্থীই হলে থেকে পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছেন।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

দেড় বছর পর ক্যাম্পাসে ফিরে উৎফুল্ল বাকৃবি শিক্ষার্থীরা

দেড় বছর পর ক্যাম্পাসে ফিরে উৎফুল্ল বাকৃবি শিক্ষার্থীরা

পরিবহন ফি নিয়ে বিভ্রান্তি, ভোগান্তিতে কুবি শিক্ষার্থীরা

পরিবহন ফি নিয়ে বিভ্রান্তি, ভোগান্তিতে কুবি শিক্ষার্থীরা

কুবিতে একসঙ্গে ৪০ শিক্ষার্থীকে কারণ দর্শানোর নোটিশ

কুবিতে একসঙ্গে ৪০ শিক্ষার্থীকে কারণ দর্শানোর নোটিশ

তাত্ত্বিক পদার্থবিজ্ঞান অলিম্পিয়াডে দেশসেরা খুবির ফার্মিনেফ

তাত্ত্বিক পদার্থবিজ্ঞান অলিম্পিয়াডে দেশসেরা খুবির ফার্মিনেফ

অবৈধ পন্থায় ভর্তি হওয়ায় ঢাবির দুই শিক্ষার্থীকে স্থায়ী বহিষ্কার

আপডেট : ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৫:২৯

ডিজিটাল জালিয়াতি ও অবৈধভাবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়া সাময়িকভাবে বহিষ্কৃত দুই শিক্ষার্থীকে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হয়েছে।

সোমবার (২৭ সেপ্টেম্বর) শৃঙ্খলা পরিষদের এক সভায় বহিষ্কারের এই সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় জনসংযোগ দফতর থেকে প্রেরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। সভায় সভাপতিত্ব করেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান।

স্থায়ীভাবে বহিষ্কৃতরা হলেন একাউন্টিং অ্যান্ড ইনফরমেশন সিস্টেমস বিভাগের ২০১৭-১৮ সেশনের শিক্ষার্থী মো. রাকিব হাসান এবং ভূতত্ত্ব বিভাগের ২০১৭-১৮সেশনের শিক্ষার্থী ইশরাক হোসেন রাফি। বিষয়টি পরবর্তী সময়ে সিন্ডিকেট সভায় উপস্থাপন করা হবে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়, সভায় আইনশৃঙ্খলা পরিপন্থী কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে ঢাবির বাংলা বিভাগের ২০১৪-২০১৫ শিক্ষাবর্ষের ছাত্র মো. আকতারুল করিম রুবেলকে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাময়িকভাবে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। ‘আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ দিয়ে কেন তাকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হবে না'-এই মর্মে কারণ দর্শানোর নোটিশ প্রদানের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। এছাড়া পরীক্ষায় অসদুপায় অবলম্বনের দায়ে ৭২ জন শিক্ষার্থীর বিভিন্ন মেয়াদে শাস্তি দেওয়া হয়েছে।

/ইউএস/

সম্পর্কিত

ঢাবিতে পদার্থ বিজ্ঞানে এমএস কোর্সে ভর্তির আবেদন আহ্বান

ঢাবিতে পদার্থ বিজ্ঞানে এমএস কোর্সে ভর্তির আবেদন আহ্বান

জুমে পরীক্ষা চলাকালেই পরীক্ষার্থী জানালেন- ‘মা আর নেই’

জুমে পরীক্ষা চলাকালেই পরীক্ষার্থী জানালেন- ‘মা আর নেই’

১৮ মাস পর খুললো ঢাবির কেন্দ্রীয় লাইব্রেরি

১৮ মাস পর খুললো ঢাবির কেন্দ্রীয় লাইব্রেরি

ঢাকায় আন্তর্জাতিক আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় স্বল্পদৈর্ঘ চলচ্চিত্র উৎসব শুরু হচ্ছে আজ

ঢাকায় আন্তর্জাতিক আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় স্বল্পদৈর্ঘ চলচ্চিত্র উৎসব শুরু হচ্ছে আজ

দেড় বছর পর ক্যাম্পাসে ফিরে উৎফুল্ল বাকৃবি শিক্ষার্থীরা

আপডেট : ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:৩০

করোনা প্রাদুর্ভাবের কারণে দীর্ঘ দেড় বছর বন্ধ থাকার পর বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় (বাকৃবি) খুলে দেওয়া হয়েছে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে সোমবার (২৭ সেপ্টেম্বর) সকালে বাকৃবির শ্রেণিকক্ষ খুলে দেওয়া হয়।

প্রথম দিন কৃষি, পশুপালন ও মৎস্য অনুষদের বিএসসি অনার্স লেভেল চতুর্থ সেমিস্টার ১-এর শিক্ষার্থীদের ফাইনাল পরীক্ষা শুরু হয়েছে। শিক্ষার্থীদের শ্রেণিকক্ষে প্রবেশের সময় মাস্ক পরা নিশ্চিত করা হয়। এ ছাড়া সবার হাতে স্যানিটাইজার দিয়ে শ্রেণিকক্ষে প্রবেশ করানো হয়।

শিক্ষার্থীদের হাতে স্যানিটাইজার দিয়ে শ্রেণিকক্ষে প্রবেশ করানো হয়

দীর্ঘদিন পর ক্যাম্পাসে ফিরে উৎফুল্ল শিক্ষার্থীরা। পশুপালন অনুষদের বিএসসি অনার্স লেভেল ৪, সেমিস্টার-১ এর শিক্ষার্থী শামসুন্নাহার বলেন, করোনাভাইরাসের কারণে আমরা প্রায় দেড় বছর ক্যাম্পাসে আসতে পারিনি। এই সময়ে আমাদের লেখাপড়ার ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। দীর্ঘদিন পর ক্যাম্পাসে এসে খুব ভালো লাগছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর প্রফেসর ড. মহির উদ্দিন জানান, আজ থেকে বিএসসি অনার্স লেভেল ৪-এর এবং মাস্টার্স শিক্ষার্থীদের জন্য ক্লাস ও পরীক্ষা কার্যক্রম শুরু হয়েছে। সবকিছু সম্পূর্ণ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলছে। 

ক্যাম্পাসে ফিরে উৎফুল্ল বাকৃবি শিক্ষার্থীরা

তিনি আরও জানান, এর আগে গত শুক্রবার ছেলেদের নয়টি এবং মেয়েদের চারটিসহ ১৩টি ছাত্রাবাস খুলে দেওয়া হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড. লুৎফুল হাসান বাংলা ট্রিবিউনকে জানান, সিন্ডিকেট সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী সম্পূর্ণ স্বাস্থ্যবিধি মেনে গত গত শুক্রবার বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল ছাত্রাবাস খুলে দেওয়া হয়েছে। আজ সকাল থেকেই ক্লাস ও পরীক্ষা শুরু হয়েছে। এরপর পর্যায়ক্রমে সব শিক্ষার্থীকে ক্লাসে ও পরীক্ষায় ফিরিয়ে আনার জন্য ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

টিকা পায়নি বেশিরভাগ শিক্ষার্থী, কুবি খোলা নিয়ে অনিশ্চয়তা

টিকা পায়নি বেশিরভাগ শিক্ষার্থী, কুবি খোলা নিয়ে অনিশ্চয়তা

পরিবহন ফি নিয়ে বিভ্রান্তি, ভোগান্তিতে কুবি শিক্ষার্থীরা

পরিবহন ফি নিয়ে বিভ্রান্তি, ভোগান্তিতে কুবি শিক্ষার্থীরা

শুক্রবার খুলছে বাকৃবির ছাত্রাবাস

শুক্রবার খুলছে বাকৃবির ছাত্রাবাস

কুবিতে একসঙ্গে ৪০ শিক্ষার্থীকে কারণ দর্শানোর নোটিশ

কুবিতে একসঙ্গে ৪০ শিক্ষার্থীকে কারণ দর্শানোর নোটিশ

গৃহনির্মাণ ঋণ পাবেন শাবির শিক্ষক ও কর্মকর্তা-কর্মচারীরা

আপডেট : ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৫৮

দীর্ঘ দিনের চেষ্টার পর গৃহনির্মাণ ঋণ পাওয়ার সুবিধায় এসেছেন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা। ২০১৩ সাল থেকে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন গৃহ নির্মাণে ঋণ প্রদানের জন্য বিভিন্ন ব্যাংকের সঙ্গে যোগাযোগ করা হচ্ছিল। এ ধারাবাহিকতায় সোনালী ব্যাংকের সঙ্গে হওয়া চুক্তির বলে স্বল্প সুদে হোলসেলে গৃহনির্মাণ ও পার্সোনাল ঋণ পাবেন শাবিতে কর্মরতরা। 

রবিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্যের সম্মেলন কক্ষে ব্যাংকিং ব্যবস্থার মাধ্যমে হোলসেল ভিত্তিতে ঋণের ব্যবস্থা করতে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ও সোনালী ব্যাংক লিমিটেডের মধ্যে পার্সোনাল ও গৃহনির্মাণ ঋণ প্রদানের সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষর হয়।

চুক্তি অনুসারে, এখন থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা তাদের চাকরির বয়সসীমা ও বেতন স্কেল অনুসারে গৃহ নির্মাণে ঋণ নিতে পাবেন। এজন্য বিশ্ববিদ্যালয়ে এ সংক্রান্ত গঠিত কমিটির কাছে নির্ধারিত ফরমে আবেদন করতে হবে। তবে ঋণ নিলে প্রায় ৯ শতাংশ হারে সুদ প্রদান সাপেক্ষে পাঁচ বছরের মধ্যে পরিশোধ করতে হবে বলে জানা গেছে।

এ বিষয়ে উপাচার্য বলেন, গৃহ নির্মাণে সহজ ঋণের ব্যবস্থা আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য একটি মাইলফলক। দীর্ঘদিন থেকে শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের দাবি ছিল গৃহ নির্মাণে ঋণের ব্যবস্থা করা। আমরা এই চুক্তির মাধ্যমে সেই সুবিধা সৃষ্টি করতে সক্ষম হয়েছি। সোনালী ব্যাংক আমাদেরকে সেই সুযোগ দিচ্ছে। 

সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষরকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষে কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মো. আনোয়ারুল ইসলাম, শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. তুলসি কুমার দাস, রেজিস্ট্রার মুহাম্মদ ইশফাকুল হোসেনসহ সিন্ডিকেট সদস্যবৃন্দ, বিভিন্ন অনুষদের ডিন, ছাত্র উপদেশ ও নির্দেশনা পরিচালক, প্রক্টর, শিক্ষক সমিতির নেতারা, বিভিন্ন দফতরের প্রধান ও কর্মকর্তা-কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।

অপর দিকে সোনালী ব্যাংকের পক্ষে সোনালী ব্যাংকের উপ ব্যবস্থাপনা পরিচালক ইঞ্জি. মো. ইদ্রিস, প্রধান অর্থ কর্মকর্তা ও হেড অফিসের মহাব্যবস্থাপক সুভাষ চন্দ্র দাস, সিলেট আঞ্চলিক অফিসের মহাব্যবস্থাপক বাবুল মো. আলম, সোনালী ব্যাংকের শাবি শাখা ব্যবস্থাপক এরশাদ আলীসহ ব্যাংকের বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তারা এসময় উপস্থিত ছিলেন।

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

গবেষণায় চুরি ঠেকাতে শাবিতে কর্মশালা

গবেষণায় চুরি ঠেকাতে শাবিতে কর্মশালা

শাবি শিক্ষার্থীদের হল ভাড়া ও পরিবহন ফি মওকুফ

শাবি শিক্ষার্থীদের হল ভাড়া ও পরিবহন ফি মওকুফ

আরও ৪ বছর শাবিপ্রবির উপাচার্য থাকছেন ফরিদ আহমেদ

আরও ৪ বছর শাবিপ্রবির উপাচার্য থাকছেন ফরিদ আহমেদ

ভূমিকম্পে শাবির কয়েকটি ভবনে ফাটল

ভূমিকম্পে শাবির কয়েকটি ভবনে ফাটল

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে হল-ক্যাম্পাস খোলার দাবিতে মশাল মিছিল

৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে হল-ক্যাম্পাস খোলার দাবিতে মশাল মিছিল

কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে জাবি শিক্ষার্থীরা, মশাল মিছিলের ডাক

কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে জাবি শিক্ষার্থীরা, মশাল মিছিলের ডাক

বিশ্ববিদ্যালয় খোলার দাবিতে আনু মুহাম্মদের প্রতীকী ক্লাস

বিশ্ববিদ্যালয় খোলার দাবিতে আনু মুহাম্মদের প্রতীকী ক্লাস

ক্যাম্পাস খোলার দাবিতে জাবিতে বিক্ষোভ

ক্যাম্পাস খোলার দাবিতে জাবিতে বিক্ষোভ

বিশ্ববিদ্যালয় খোলার দাবিতে জাবিতে আবার প্রতীকী ক্লাস

বিশ্ববিদ্যালয় খোলার দাবিতে জাবিতে আবার প্রতীকী ক্লাস

আবাসন ফি মওকুফের দাবি জাবি ছাত্র ইউনিয়নের

আবাসন ফি মওকুফের দাবি জাবি ছাত্র ইউনিয়নের

বিশ্ববিদ্যালয় খুলতে প্রস্তুত জাবি কর্তৃপক্ষ

বিশ্ববিদ্যালয় খুলতে প্রস্তুত জাবি কর্তৃপক্ষ

শিক্ষার্থীদের টিকা না দিয়েই শুরু হচ্ছে ৭ কলেজের পরীক্ষা

শিক্ষার্থীদের টিকা না দিয়েই শুরু হচ্ছে ৭ কলেজের পরীক্ষা

করোনায় প্রাণ গেলো রাবি শিক্ষকের

করোনায় প্রাণ গেলো রাবি শিক্ষকের

সর্বশেষ

শেখ হাসিনা ছোটবেলা থেকেই সংগ্রামী ও সাহসী: আমু

শেখ হাসিনা ছোটবেলা থেকেই সংগ্রামী ও সাহসী: আমু

কবে খুলবে হাজী দানেশ বিশ্ববিদ্যালয়?

কবে খুলবে হাজী দানেশ বিশ্ববিদ্যালয়?

চাল আমদানিতে এলসি খোলার সময় ৭ দিন বাড়লো

চাল আমদানিতে এলসি খোলার সময় ৭ দিন বাড়লো

বাংলাদেশের চূড়ান্ত দলে নেই কিংসলে, চমক হৃদয়

সাফ চ্যাম্পিয়নশিপবাংলাদেশের চূড়ান্ত দলে নেই কিংসলে, চমক হৃদয়

স্পিকারের সঙ্গে মালদ্বীপের হাইকমিশনারের সৌজন্য সাক্ষাৎ

স্পিকারের সঙ্গে মালদ্বীপের হাইকমিশনারের সৌজন্য সাক্ষাৎ

© 2021 Bangla Tribune