X
বৃহস্পতিবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

মাস্ক সঙ্গে থাকলেই হবে?

আপডেট : ২৯ জুলাই ২০২১, ০৯:০০

করোনার প্রকোপে বাংলাদেশ বর্তমানে ভয়াবহ সময় পার করলেও সারাদেশে মাস্ক ব্যবহারে চরম অনীহা দেখা যাচ্ছে। শুরু থেকেই করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করা হলেও কেউ কানে তুলছে না। জেল জরিমানার ভয়ে পকেটে, থুতনির নিচে, গলায়, হাতব্যাগে মাস্ক রাখছে বটে কিন্তু সঠিকভাবে মাস্ক পরার হার এখনও কম। ভাবটা এমন মাস্কটা সঙ্গে থাকলেই হবে। জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা বলছেন, পুলিশের ভয়ে মাস্ক সঙ্গে রাখা মূল বিষয় নয়। নিজেকে ও পরিবারকে সুস্থ রাখতে হলে কারোর ভয়ে না, বাইরে বের হলে নিজ উদ্যোগে সঠিক নিয়মে মাস্ক পরতে হবে।

বর্তমান কঠোর বিধি-নিষেধে গত রবিবার বেসরকারি একটি সিকিউরিটি কোম্পানির গাড়ি চালক মিজানুর রহমান আসছিলেন ধানমণ্ডির ২ নম্বর সড়ক দিয়ে। গাড়ি চালাতে চালাতে খাচ্ছিলেন সিগারেট, আর থুতনিতে ঝুলছিল মাস্ক। তার সঙ্গে পাশে বসা সিকিউরিটি কোম্পানির গানম্যানের মাস্কও ছিল নাকের নিচে। চেকপোস্টে পুলিশ সদস্যরা গাড়িটি থামান এবং জেলা প্রশাসনের ম্যাজিস্ট্রেট তাকে ৫০০ টাকা জরিমানা করেন এবং অনাদায়ে সাতদিনের কারাবাস দেন। পরে তিনি ৫০০ টাকা জরিমানা দিয়ে মুক্তি পান। এরকম জেল জরিমানা করা হচ্ছে হরদম। কিন্তু কোনও ফল পাওয়া যাচ্ছে না।

গত বছর করোনা সংক্রমণের শুরু থেকেই এরকম পরিস্থিতির কারণে এ অবস্থায় সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে মাস্ক ছাড়া সেবা দেওয়া বন্ধের আদেশ দেয় সরকার। এছাড়া গণপরিবহন ও জনসমাগম হয় এমন স্থানেও মাস্কের ব্যবহারের বিষয়ে কঠোর নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলছে, ‘যতক্ষণ পর্যন্ত প্রতিটি মানুষ সুরক্ষিত নয়, ততক্ষণ পর্যন্ত কেউ সুরক্ষিত নয়।’ অথচ রাস্তায় বের হলে খুব কম মানুষ পাওয়া যাবে, যারা নিয়ম করে সঠিক নিয়মে মাস্ক পরছেন।

রিক্সাচালক সাইফুল দিনভর কত রকমের কতজনকে রিক্সায় বহন করেন বলতে পারেন না। তার মাস্ক আছে কিন্তু থুতনিতে।থুতনিতে মাস্ক রাখলে করোনা যাবে কিনা প্রশ্নে তিনি বলেন, পুলিশে ধরে তাই দিয়া রাখসি। কিন্তু মাস্ক পরা তার জন্যই জরুরি কিনা প্রশ্নে তিনি বলেন, মাস্ক পরে রিক্সা টানা যায় না, হাফ ধরে।

বেসরকারী মধ্যম মানের একজন চাকুরিজীবী শিফায়েত অফিস ফেরত সময়ে বাসার কাছাকাছি কলিগের গাড়ি থেকে নেমেই মাস্কটা খুলে পকেটে রেখে গলি ধরে হাঁটতে শুরু করলেন। গাড়ির ভেতরে মাস্ক পরে বাইরে খুলে ফেললেন কেন প্রশ্নে তিনি বলেন, কলিগরা একই গাড়িতে যাতায়াত করি, মাস্ক না পরলে অস্বস্তি হয় কিন্তু হাঁসফাস লাগে। তাই নেমেই একটু খুলে ফেললাম।

প্রসঙ্গত, করোনা প্রতিরোধে মাস্ক ব্যবহার করার জন্য একাধিকবার স্বাস্থ্য বিভাগ নির্দেশনা দেয়। করোনার প্রাদুর্ভাবের পর গত বছর ৩০ মে স্বাস্থ্য অধিদফতর বাইরে চলাচলের সময় মাস্কসহ অন্যান্য স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে বলে জানায়। সেই তারিখ রাতে স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত ‘ঘোষণা’ শিরোনামে দেওয়া এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, এই নির্দেশ অমান্যকারীর বিরুদ্ধে সংক্রামক রোগ (প্রতিরোধ, নিয়ন্ত্রণ ও নির্মূল) আইন ২০১৮ অনুসারে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। জেলা প্রশাসক/যথাযথ কর্তৃপক্ষ সতর্কভাবে এটি বাস্তবায়ন করবেন।

জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ লেনিন চৌধুরী মনে করেন শুরুতে ক্যাম্পেইনটা সঠিক না হওয়ায় মানুষ হালকাভাবে নিয়েছে। লম্বা সময় ধরে কেবল ঢাকায় কিছু মানুষ মাস্ক পরেছে। করোনা গরীবের হয় না, করোনা গ্রামদেশে আসবে না ধরনের পাবলিক কনসেপ্ট তৈরি হয়েছে, ফলে এখন কঠিন হয়ে গেছে পরিস্থিতি। করোনা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে মাস্কের বিকল্প কিছু নেই। দিনে দুই শতাধিক মৃত্যু ঘটছে, এখন অন্তত মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করতে যা করণীয় সব করতে হবে। মানুষের কাছে বিনামূল্যে মাস্ক পৌঁছানোর ব্যবস্থা করতে হবে।

/এফএএন/

সম্পর্কিত

অবৈধ পদোন্নতির হিড়িক স্বাস্থ্য অধিদফতরে

অবৈধ পদোন্নতির হিড়িক স্বাস্থ্য অধিদফতরে

দ্বিতীয় ডোজের আওতায় ১ কোটি ৪২ লাখ মানুষ

দ্বিতীয় ডোজের আওতায় ১ কোটি ৪২ লাখ মানুষ

মেডিক্যাল সংক্রান্ত পুরনো দুটি আইন বাতিলে সংসদে বিল পাস

মেডিক্যাল সংক্রান্ত পুরনো দুটি আইন বাতিলে সংসদে বিল পাস

স্কুলের সামনের হকার উচ্ছেদ করবে কে?

স্কুলের সামনের হকার উচ্ছেদ করবে কে?

ইভ্যালির রাসেলের বাসায় র‍্যাবের অভিযান

আপডেট : ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৬:৩৯

এক গ্রাহকের মামলা দায়েরের পর পরই ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) ও প্রধান নির্বাহী (সিও) মোহাম্মদ রাসেলের বাসায় অভিযান শুরু করেছে র‍্যাব।

বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) বিকালে রাসেলের মোহাম্মদপুরের স্যার সৈয়দ রোডের বাসায় অভিযান শুরু করে র‍্যাব।

অভিযানের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন র‍্যাবের গোয়েন্দা শাখার পরিচালক লে. কর্নেল খায়রুল ইসলাম।

র‍্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মুঈন বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ইভ্যালির বিরুদ্ধে গ্রাহকের দায়ের করা মামলার প্রেক্ষিতে রাসেলের বাসায় অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে। অভিযান চলমান রয়েছে। পরে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানানো সম্ভব হবে।

এর আগে, রাসেল এবং তার স্ত্রী ও প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিনের বিরুদ্ধে গুলশান থানায় অর্থ আত্মসাৎ ও প্রাণনাশের হুমকির অভিযোগে মামলা করেন আরিফ বাকের নামে একজন ভুক্তভোগী।

আরও পড়ুন: স্ত্রীসহ ইভ্যালির রাসেলের বিরুদ্ধে গুলশান থানায় মামলা

ইভ্যালির বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপে যাচ্ছে মন্ত্রণালয়

/এনএল/আরটি/এমএস/

সম্পর্কিত

দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখতে আইনি নোটিশ

দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখতে আইনি নোটিশ

এনজিওদের পারিবারিক বিরোধ নিষ্পত্তির বৈধতা চ্যালেঞ্জ করা রিট খারিজ

এনজিওদের পারিবারিক বিরোধ নিষ্পত্তির বৈধতা চ্যালেঞ্জ করা রিট খারিজ

স্ত্রীসহ ইভ্যালির রাসেলের বিরুদ্ধে গুলশান থানায় মামলা

স্ত্রীসহ ইভ্যালির রাসেলের বিরুদ্ধে গুলশান থানায় মামলা

রাজধানীতে মাদকসহ গ্রেফতার ৫৭ 

রাজধানীতে মাদকসহ গ্রেফতার ৫৭ 

দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখতে আইনি নোটিশ

আপডেট : ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৬:১৩

করোনা মহামারি নির্মূল না হওয়া পর্যন্ত দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখতে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিবসহ ছয় জনকে আইনি নোটিশ নোটিশ পাঠানো হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী খন্দকার হাসান শাহরিয়ার এ নোটিশ পাঠান।

নোটিশে সাত দিনের মধ্যে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার সিদ্ধান্ত বাতিল করে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ ও প্রচার করতে হবে। অন্যথায় এ বিষয়ে প্রতিকার চেয়ে হাইকোর্টে রিট দায়ের করা হবে বলেও নোটিশে উল্লেখ করা হয়।

প্রসঙ্গত, গত বছর ৮ মার্চ দেশে করোনা রোগী শনাক্ত হওয়ায় ওই বছর ১৭ মার্চ থেকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হয়। এরপর থেকে দফায় দফায় বাড়িয়ে চলতি মাসের ১১ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ঘোষণা হয়। এরপর ১২ সেপ্টেম্বর থেকে খুলে দেওয়া সব স্কুল-কলেজ।

/এসএমএ/এনএইচ/

সম্পর্কিত

ইভ্যালির রাসেলের বাসায় র‍্যাবের অভিযান

ইভ্যালির রাসেলের বাসায় র‍্যাবের অভিযান

এনজিওদের পারিবারিক বিরোধ নিষ্পত্তির বৈধতা চ্যালেঞ্জ করা রিট খারিজ

এনজিওদের পারিবারিক বিরোধ নিষ্পত্তির বৈধতা চ্যালেঞ্জ করা রিট খারিজ

স্ত্রীসহ ইভ্যালির রাসেলের বিরুদ্ধে গুলশান থানায় মামলা

স্ত্রীসহ ইভ্যালির রাসেলের বিরুদ্ধে গুলশান থানায় মামলা

রাজধানীতে মাদকসহ গ্রেফতার ৫৭ 

রাজধানীতে মাদকসহ গ্রেফতার ৫৭ 

এনজিওদের পারিবারিক বিরোধ নিষ্পত্তির বৈধতা চ্যালেঞ্জ করা রিট খারিজ

আপডেট : ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩:৩০

পারিবারিক আদালতকে পাশ কাটিয়ে বিরোধ নিষ্পত্তির জন্য বাংলাদেশ জাতীয় মহিলা আইনজীবী সমিতির দেওয়া নোটিশের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করা রিট খারিজ করে দিয়েছেন হাইকোর্ট। 

বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন অ্যাডভোকেট মো. খুরশীদ আলম খান ও টাইটাস হিল্লোল রেমা।

এর আগে পারিবারিক আদালতকে পাশ কাটিয়ে বিরোধ নিষ্পত্তির জন্য বাংলাদেশ জাতীয় মহিলা আইনজীবী সমিতির দেওয়া নোটিশের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করা হাইকোর্টে রিট দায়ের করা হয়েছিল। রিটে মহিলা আইনজীবী সমিতিসহ এ ধরণের এনজিওদের বিরোধ নিষ্পত্তির ক্ষমতার বৈধতাও চ্যালেঞ্জ করা হয়েছিল।

রাজধানীর প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী মোহাম্মদ নুরুল আকরামের পক্ষে অ্যাডভোকেট টাইটাস হিল্লোল রেমা এ রিট দায়ের করেন।

এর আগে গত ২২ আগস্ট বাংলাদেশ জাতীয় মহিলা আইনজীবী সমিতি থেকে মোহাম্মদ নুরুল আকরামকে তাদের পারিবারিক বিরোধ নিষ্পত্তির নোটিশ দেওয়া হয়। তার স্ত্রীর অভিযোগের ভিত্তিতে বিষয়টি মীমাংসার জন্য মহিলা সমিতির অফিসে ডাকা হয়। তাই আইনত সুযোগ না থাকায় সে বিষয়ে হাইকোর্টে রিট দায়ের করা হয়।

/বিআই/এনএইচ/ 

সম্পর্কিত

ইভ্যালির রাসেলের বাসায় র‍্যাবের অভিযান

ইভ্যালির রাসেলের বাসায় র‍্যাবের অভিযান

দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখতে আইনি নোটিশ

দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখতে আইনি নোটিশ

স্ত্রীসহ ইভ্যালির রাসেলের বিরুদ্ধে গুলশান থানায় মামলা

স্ত্রীসহ ইভ্যালির রাসেলের বিরুদ্ধে গুলশান থানায় মামলা

রাজধানীতে মাদকসহ গ্রেফতার ৫৭ 

রাজধানীতে মাদকসহ গ্রেফতার ৫৭ 

স্ত্রীসহ ইভ্যালির রাসেলের বিরুদ্ধে গুলশান থানায় মামলা

আপডেট : ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩:০০

ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির প্রধান নির্বাহী মো. রাসেল এবং তার স্ত্রী ও প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিনের বিরুদ্ধে গুলশান থানায় অর্থ আত্মসাৎ ও প্রাণনাশের হুমকির অভিযোগে মামলা করেছেন একজন ভুক্তভোগী।

বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) সকালে গুলশান থানার ডিউটি অফিসার উপ-পরিদর্শক (এসআই) অনিন্দ্য বাংলা ট্রিবিউনকে মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, গতকাল রাতে আরিফ বাকের নামে একজন ভুক্তভোগী মামলাটি করেছেন। মামলা নম্বর ১৯। মামলায় অর্থ আত্মসাৎ ও ভয়ভীতি দেখানোর অভিযোগ করা হয়েছে।

মামলার এজাহার থেকে জানা গেছে, গত মে মাসে ইভ্যালির চমকপ্রদ বিজ্ঞাপনে আকৃষ্ট হয়ে আরিফ বাকের তার বন্ধুদের নিয়ে কিছু পণ্য অর্ডার করেন। যার (ইনভয়েস) নম্বর ১। এ ছাড়া পণ্যের অর্ডার বাবদ সকল মূল্য বিকাশ, নগদ ও সিটি ব্যাংকের কার্ড‘র মাধ্যমে সম্পূর্ণ পরিশোধ করেন। 

আরিফ অভিযোগ করেন, পণ্যগুলো ৭-৪৫ কার্যদিবসের মধ্যে সরবরাহে ব্যর্থ হলে উক্ত প্রতিষ্ঠান সমুদয় টাকা ফেরত দিতে অঙ্গীকারবদ্ধ ছিল। কিন্তু ওই সময়ের মধ্যে তারা পণ্য সরবরাহ করেনি।  আমি বহুবার ইভ্যালির কাস্টমার কেয়ার‘র প্রতিনিধির নম্বর ফোন করি। প্রতিবার তারা আমার পণ্যগুলো শিগগিরই দিচ্ছে বলে আশ্বস্ত করে যাচ্ছিল। এক পর্যায়ে ইভ্যালি পণ্য অথবা টাকা প্রদানে ব্যর্থ হওয়ার পর আমি তাদের অফিসে যাই। তখন প্রতিষ্ঠানটির নির্বাহী কর্মকর্তা (সিও) মো. রাসেলের সঙ্গে দেখা করতে চাইলে বাধাপ্রাপ্ত হয়েছি। 

এজাহারে আরিফ জানান, গত ১০ সেপ্টেম্বর তিনিসহ তার বন্ধুরা ইভ্যালি অফিসে গিয়ে পণ্যের অর্ডার সম্পর্কে কথা বলতে চাইলে তারা উত্তেজিত হয়ে চিৎকার-চেঁচামেচি করে। এক পর্যায়ে অফিসের অভ্যন্তরে থাকা ইভ্যালির সিইও রাসেল উত্তেজিত হয়ে তার রুম থেকে বেরিয়ে আরিফকে ভয়-ভীতি প্রদর্শন করে এবং পণ্য অথবা টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানায়। এক পর্যায়ে প্রাণনাশের হুমকিও দেয় বলেও অভিযোগ করেছেন আরিফ। 

পণ্য না পাওয়ায় আর্থিক ও মানসিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন জানিয়ে আরিফ বলেন, ইভ্যালি পণ্য বিক্রয়ের নামে নানা প্রতারণার আশ্রয় নিয়ে আমার মত বাংলাদেশের বিভিন্ন প্রান্তের অসংখ্য গ্রাহকের নিকট থেকে আনুমানিক ৭০০/৮০০ কোটি টাকা আত্মসাৎ করেছে।

/এআরআর/এনএইচ/

সম্পর্কিত

ইভ্যালির রাসেলের বাসায় র‍্যাবের অভিযান

ইভ্যালির রাসেলের বাসায় র‍্যাবের অভিযান

দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখতে আইনি নোটিশ

দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখতে আইনি নোটিশ

এনজিওদের পারিবারিক বিরোধ নিষ্পত্তির বৈধতা চ্যালেঞ্জ করা রিট খারিজ

এনজিওদের পারিবারিক বিরোধ নিষ্পত্তির বৈধতা চ্যালেঞ্জ করা রিট খারিজ

রাজধানীতে মাদকসহ গ্রেফতার ৫৭ 

রাজধানীতে মাদকসহ গ্রেফতার ৫৭ 

রাজধানীতে মাদকসহ গ্রেফতার ৫৭ 

আপডেট : ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:৩৩

হেরোইন, ইয়াবা, ফেনসিডিল ও গাঁজাসহ রাজধানীতে ৫৭ জনকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ ডিএমপি। ডিএমপির বিভিন্ন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

ডিএমপির গণমাধ্যম শাখার উপ-পুলিশ কমিশনার ফারুক হোসেন বলেন, বুধবার (১৫ সেপ্টেম্বর) সকাল ছয়টা থেকে আজ (বৃহস্পতিবার, ১৬ সেপ্টেম্বর) সকাল ছয়টা পর্যন্ত ডিএমপি এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে ৫৭ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

তিনি বলেন, অভিযান পরিচালনার সময় তাদের কাছ থেকে ৭ হাজার ৫৫৫ পিস ইয়াবা, ১২১ গ্রাম ১৭০ পুরিয়া হেরোইন, ৪ কেজি ১০০ গ্রাম গাঁজা ও ২৭ বোতল ফেনসিডিল জব্দ করা হয়েছে। 

সংশ্লিষ্ট থানায় মাদকদ্রব্য আইনে গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে চল্লিশটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

/আরটি/এনএইচ/

সম্পর্কিত

ইভ্যালির রাসেলের বাসায় র‍্যাবের অভিযান

ইভ্যালির রাসেলের বাসায় র‍্যাবের অভিযান

দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখতে আইনি নোটিশ

দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখতে আইনি নোটিশ

এনজিওদের পারিবারিক বিরোধ নিষ্পত্তির বৈধতা চ্যালেঞ্জ করা রিট খারিজ

এনজিওদের পারিবারিক বিরোধ নিষ্পত্তির বৈধতা চ্যালেঞ্জ করা রিট খারিজ

স্ত্রীসহ ইভ্যালির রাসেলের বিরুদ্ধে গুলশান থানায় মামলা

স্ত্রীসহ ইভ্যালির রাসেলের বিরুদ্ধে গুলশান থানায় মামলা

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

অবৈধ পদোন্নতির হিড়িক স্বাস্থ্য অধিদফতরে

অবৈধ পদোন্নতির হিড়িক স্বাস্থ্য অধিদফতরে

দ্বিতীয় ডোজের আওতায় ১ কোটি ৪২ লাখ মানুষ

দ্বিতীয় ডোজের আওতায় ১ কোটি ৪২ লাখ মানুষ

মেডিক্যাল সংক্রান্ত পুরনো দুটি আইন বাতিলে সংসদে বিল পাস

মেডিক্যাল সংক্রান্ত পুরনো দুটি আইন বাতিলে সংসদে বিল পাস

স্কুলের সামনের হকার উচ্ছেদ করবে কে?

স্কুলের সামনের হকার উচ্ছেদ করবে কে?

সৌদি বসে ঢাকার ভিওআইপি ব্যবসার নিয়ন্ত্রণ 

সৌদি বসে ঢাকার ভিওআইপি ব্যবসার নিয়ন্ত্রণ 

৩ কোটি ৫৪ লাখ ডোজ টিকা দেওয়া শেষ

৩ কোটি ৫৪ লাখ ডোজ টিকা দেওয়া শেষ

বাড়ি ফেরার কারণে সারা দেশে করোনার বিস্তার: গবেষণা 

বাড়ি ফেরার কারণে সারা দেশে করোনার বিস্তার: গবেষণা 

ডেঙ্গুতে আরও তিন জনের মৃত্যু

ডেঙ্গুতে আরও তিন জনের মৃত্যু

২৭ হাজার মৃত্যুর ১১ হাজারই ঢাকা বিভাগের

২৭ হাজার মৃত্যুর ১১ হাজারই ঢাকা বিভাগের

মাস্টারকার্ডের স্পেন্ড অ্যান্ড উইন ক্যাম্পেইনে বিজয়ীদের নাম ঘোষণা

মাস্টারকার্ডের স্পেন্ড অ্যান্ড উইন ক্যাম্পেইনে বিজয়ীদের নাম ঘোষণা

সর্বশেষ

আইয়ুব বাচ্চুকে নিয়ে কন্যা সাফরার না বলা কথা

আইয়ুব বাচ্চুকে নিয়ে কন্যা সাফরার না বলা কথা

সংসদে কাদের মির্জার বিচার চেয়েছে জাপা

সংসদে কাদের মির্জার বিচার চেয়েছে জাপা

সুদিনের মৌমাছিদের কমিটিতে স্থান নেই: কৃষিমন্ত্রী

সুদিনের মৌমাছিদের কমিটিতে স্থান নেই: কৃষিমন্ত্রী

ওমরাহ করতে গেলেন তাসকিন-সোহানরা

ওমরাহ করতে গেলেন তাসকিন-সোহানরা

‘বঙ্গবন্ধুর ছবি আদর্শ ও অনুপ্রেরণার উৎস’

‘বঙ্গবন্ধুর ছবি আদর্শ ও অনুপ্রেরণার উৎস’

© 2021 Bangla Tribune