X
শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৩ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

বাধ্য হয়েই স্কুলের সামনে দাঁড়িয়ে থাকা, বলছেন অভিভাবকরা

আপডেট : ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৫:২৮

চলতি বছরের জানুয়ারিতে স্কুলে ভর্তি হয়েছিল তাসফিয়া তাহসীন সুয়া। আর আজ (১৪ সেপ্টেম্বর) প্রথম বারের মতো সশরীরে স্কুলে এসেছে।

৯ মাস পর স্কুলে আসার উত্তেজনায় আগের রাতে তাসফিয়া ঘুমায়নি একটুও। কয়েকবার স্কুল ড্রেস আর জুতো পরে বাসায় দেখেছে সবকিছু ঠিকঠাক আছে কিনা। বন্ধুদের সঙ্গে ফোনে কথা বলেছে কে কে আসবে জানার জন্য।

তাসফিয়াকে স্কুলের ভেতরে ঢুকিয়ে দিয়ে মা মৌসুমি আক্তার দাঁড়িয়ে ছিলেন রাস্তার ওপরে।

মেয়ের স্কুলের প্রতি আগ্রহের কথা জানিয়ে বলেন, আসলে বাসায় পড়াশোনা হয় না। স্কুল খোলার দরকার ছিল। কারণ স্কুলের পরিবেশ, শিক্ষক-বন্ধুদের সঙ্গে দেখা হওয়া, স্কুলের মাঠে খেলা - এসব কিছু বন্ধ ছিল পুরো দেড়টা বছর। স্কুল বন্ধ হবার প্রথম কয়েকদিন প্রভাবটা অতো বোঝা যায়নি, কিন্তু দিন যতো গেল সমস্যা বাড়তে লাগলো। সারাক্ষণ জানালা দিয়ে বাইরে তাকিয়ে থাকতো, মেজাজ খিটখিটে হয়ে যাচ্ছিল। ছোট বোনটা কাঁদলে তাকে ধরার বদলে চুপচাপ বসে থাকতো-কেমন অদ্ভুত একটা জীবন।

মেয়েকে নিয়ে সকাল ১০টা বিশ মিনিটে স্কুলে পৌঁছেছেন দুই সন্তানের মা মৌসুমি। মেয়ে ফার্মগেটে অবস্থিত বটমলী হোম বালিক উচ্চ বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী। স্কুল ছুটি হবে সাড়ে ১২টায়। ততক্ষণ পর্যন্ত এখানেই দাঁড়িয়ে থাকবেন তিনি।

এতক্ষণ পর্যন্ত এখানেই দাঁড়িয়ে থাকবেন- প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, কিচ্ছু করার নেই তো।

মৌসুমি জানালেন, নাখালপাড়ার বনফুল এলাকাতে বাসা। বাসায় রয়েছে বৃদ্ধ শ্বশুড়। দুপুরে রান্নার আয়োজন এখনও বাকি। মেয়েকে স্কুলে দিয়ে তিনি ফোনেই বাসায় সহযোগীকে বলে দিচ্ছিলেন কী কী রান্না হবে আজ।

দ্বিতীয় শ্রেণিতে পড়ুয়া আরেক শিক্ষার্থী প্রান্তির মা লিপি আক্তার। তার বাসাও নাখালপাড়ায়। তিনিও মেয়েকে নিয়ে এসে দাঁড়িয়ে আছেন।

কখন এসেছেন জানতে চাইলে লিপি জানালেন, ১০টা ১০ এর দিকে এসেছেন, যেতে হবে স্কুল ছুটি হলে সাড়ে ১২টার পর।

এতোটা সময় এখানে দাঁড়িয়ে থাকবেন প্রশ্নে তিনি বলেন, আর কিছু করার নেই, কোনও উপায়ও নেই।

দীর্ঘ ১৭ মাস শেষে খুলেছে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। স্কুলগুলোর সামনে বেড়েছে অভিভাবকদের জটলা। অভিভাবকদের এ জটলা নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদফতর শঙ্কা প্রকাশ করেছে। বর্তমানে সংক্রমণের নিম্নগতিকে প্রভাবিত করবে বলে আশঙ্কার কথা জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদফতর। আর একাধিক স্কুল কর্তৃপক্ষও স্কুলের সামনে অভিভাবকদের জটলা না করার অনুরোধ জানিয়েছে।

আর অভিভাবকরাও এ নিয়ে কথা বলছেন। তারা বলছেন, দেড় থেকে দুই ঘণ্টার জন্য সপ্তাহে একদিন স্কুল খোলা। তারা করোনা সংক্রমণের ভয়ের কারণে স্কুল ভ্যানে সন্তানকে যেমন একা ছাড়তে এখনও ভরসা পাচ্ছেন না, তেমনি সন্তানকে একবার স্কুলে দিয়ে বাসায় ফেরত গিয়ে আবার তাকে নিতে আসার মতো পরিস্থিতি নেই ঢাকা শহরে।

একাধিক অভিভাবক এ প্রতিবেদককে বলেন,  আপনারা সাংবাদিকরা সমালোচনা করে লিখছেন, অভিভাবকরা দাঁড়িয়ে থাকছেন। কিন্তু কেন দাঁড়িয়ে থাকি আমরা‑ সে কথা জানতে চান না। এভাবে রোদে পুড়ে, গরম আর ধুলার ভেতরে, বৃষ্টিতে ভিজে, মাস্ক পড়ে রাস্তার উপর দাঁড়িয়ে থাকতে আমাদের কি ভালো লাগে বলে কারও মনে হয়? নিশ্চয় না, সেই সঙ্গে থাকে বাসায় রান্নাসহ নানা কাজ।

কিন্তু কেউ ভেবে দেখেন, মহাখালী থেকে সকালে একবার এসে সন্তানকে স্কুলে দিয়ে আবার ফেরত যাওয়া। এরপর আবার আসা এবং আবার যাওয়া। এটা কি সম্ভব? সেই সঙ্গে বাড়িতে সবারই বৃদ্ধ সদস্য রয়েছেন। এতবার যাতায়াতের কারণে আমরাদের কারণে তারাও সংক্রমিত হচ্ছেন কিনা বা হবেন কিনা-সে ভাবনটাও মাথায় থাকে।

তাই অপেক্ষা করে হলেও একবারে সন্তানকে নিয়ে বাসায় ফেরার চেষ্টাই করছেন সব অভিভাবক।

মেট্রোপলিটন হাসপাতালের কর্মকর্তা রত্না রেবেলের মেয়ে ঘুমি মার্থা সপ্তম শ্রেণিতে পড়ে। মেয়ের স্কুলের জন্য ছুটি নিয়েছেন তিনি। শিফটিং ডিউটি থাকাতে তিনি ছুটি নিতে পেরেছেন সহকর্মীর সঙ্গে মিলিয়ে।

তিনি জানালেন, করোনার আগে সন্তান ভ্যানে যাতায়াত করতো, কিন্তু করোনার কারণে ভ্যানেও দেওয়া হচ্ছে না। সপ্তাহে একদিন ক্লাস হবার পাশাপাশি করোনার সংক্রমণের ঝুঁকি রয়েছে।

কিন্তু অন্যদের মতো ছুটি নেবার বা সহকর্মীর সঙ্গে ডিউটি টাইম এক্সচেঞ্জ করার সুবিধা নেই, তার জন্য স্কুলে সন্তানকে আনা-নেওয়া অবশ্যই অনেক বড় সমস্যা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ৯-৫টা অফিস হলে এটা সম্ভব নয়।

তবে করোনার এই সময়ে যেহেতু সপ্তাহে একদিন করে ক্লাস হবে, তাই এটুকু ঝুঁকি নিতেই হবে।

মেয়ের ক্লাস এক ঘণ্টা ২০ মিনিটের। মিরপুর থেকে এইটুকু সময়ের জন্য দুইবার যাতায়াত করা সম্ভব নয়। রাস্তায় তো আরও বেশি ঝুঁকি বলে জানালেন নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক আরেক অভিভাবক।

প্রসঙ্গত, গত বছর ৮ মার্চ দেশে করোনা রোগী শনাক্ত হওয়ার পর ওই বছর ১৭ মার্চ থেকে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করে সরকার। দফায় দফায় ছুটি বাড়িয়ে শেষ পর্যন্ত গত ১২ সেপ্টেম্বর থেকে স্কুল-কলেজ খুলে দেয় সরকার।

/জেএ/এমএস/

সম্পর্কিত

৫ লাখেরও বেশি টিকা দেওয়া হয়েছে আজ 

৫ লাখেরও বেশি টিকা দেওয়া হয়েছে আজ 

আজও করোনায় নারীমৃত্যু বেশি

আজও করোনায় নারীমৃত্যু বেশি

চলতি মাসেই ডেঙ্গুতে আক্রান্ত ৫ হাজার ছাড়ালো  

চলতি মাসেই ডেঙ্গুতে আক্রান্ত ৫ হাজার ছাড়ালো  

এবার কেন ডেঙ্গু ভয়ংকর

এবার কেন ডেঙ্গু ভয়ংকর

৫ লাখেরও বেশি টিকা দেওয়া হয়েছে আজ 

আপডেট : ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২২:২০

দেশে এখন পর্যন্ত টিকা এসেছে ৪ কোটি ৯৫ লাখ ৮৫ হাজার ৮০ ডোজ। এর মধ্যে ৩ কোটি ৬৭ লাখ ৪ হাজার ৩২ ডোজ টিকা দেওয়া হয়েছে। অর্থাৎ এই মুহূর্তে ১ কোটি ২৮ লাখ ৪১ হাজার ২৪ ডোজ টিকা মজুত  আছে। এখন পর্যন্ত প্রথম ডোজ দেওয়া হয়েছে ২ কোটি ২১ লাখ ৫১ হাজার ৬০৫ জনকে এবং দ্বিতীয় ডোজ পেয়েছেন ১ কোটি ৪৫ লাখ ৯৫ হাজার ৪২৭ জন। আজ মোট দেওয়া হয়েছে ৫ লাখ ১ হাজার ৪১ ডোজ টিকা। 

এগুলো দেওয়া হয়েছে অক্সফোর্ডের অ্যাস্ট্রাজেনেকা, চীনের তৈরি সিনোফার্ম, ফাইজার এবং মডার্নার ভ্যাকসিন। শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে পাঠানো টিকাদান বিষয়ক সংবাদ বিজ্ঞপ্তি থেকে এসব তথ্য জানা যায়।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের দেওয়া তথ্য মতে, আজ অ্যাস্ট্রাজেনেকার প্রথম ডোজ দেওয়া হয়েছে ৬ হাজার ২২৭ জনকে এবং দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া হয়েছে ১ হাজার ২২০ জনকে। 

পাশাপাশি আজ ফাইজারের প্রথম ডোজ এবং দ্বিতীয় ডোজ কাউকে দেওয়া হয়নি।

এছাড়া সিনোফার্মের টিকা আজ প্রথম ডোজ নিয়েছেন দুই লাখ ৮৬ হাজার ৫৪২ জন এবং দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন ১ লাখ ৯০ হাজার ৫১৬ জন।  

মডার্নার টিকা আজ প্রথম ডোজ নিয়েছেন ৪ হাজার ২৪৮ জন এবং দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া হয়েছে ১২ হাজার ২৮৮ জনকে।

এছাড়া এখন পর্যন্ত নিবন্ধন করেছেন ৪ কোটি ২৩ লাখ ৭১ হাজার ৫৪১ জন। 

 

/এসও/এমআর/

সম্পর্কিত

আজও করোনায় নারীমৃত্যু বেশি

আজও করোনায় নারীমৃত্যু বেশি

চলতি মাসেই ডেঙ্গুতে আক্রান্ত ৫ হাজার ছাড়ালো  

চলতি মাসেই ডেঙ্গুতে আক্রান্ত ৫ হাজার ছাড়ালো  

ফাইজার-মডার্নার টিকা না পাওয়ায় প্রবাসীদের বিক্ষোভ

ফাইজার-মডার্নার টিকা না পাওয়ায় প্রবাসীদের বিক্ষোভ

দেশে এলো সিনোফার্মের আরও ৫০ লাখ টিকা

দেশে এলো সিনোফার্মের আরও ৫০ লাখ টিকা

ওয়াকিটকি-মোটরবাইকসহ ভুয়া ইন্সপেক্টর গ্রেফতার

আপডেট : ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২০:৪৬

রাজধানীর দারুস সালাম থানা এলাকা থেকে সিআইডির ভুয়া ইন্সপেক্টর পরিচয় দেওয়া একজনকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) দারুস সালাম থানা পুলিশ। শুক্রবার (১৭ সেপ্টেম্বর) রাতে তাকে গ্রেফতার করা হয়। 

গ্রেফতারকৃতের নাম মো. হাবিবুল্লাহ তালুকদার অভি। তার বাড়ি ঢাকার সাভারে।

এ সময় তার কাছ থেকে স্পেশাল ডিশন সিবি হরনেট-১৬০আর মোটরবাইক, একটি ওয়াকিটকি, একটি পাসপোর্ট একটি পোকো মোবাইল সেট জব্দ করা হয়।

দারুস সালাম থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) জামাল হোসেন বলেন, শুক্রবার দারুস সালাম থানার গাবতলি তিন রাস্তার মোড়ে ট্রাফিক পুলিশ বক্সের পাশে পুলিশ সার্জেন্ট ও টহল পুলিশের সমন্বিত তল্লাশি চৌকিতে একজন মোটর আরোহীকে থামার সিগন্যাল দেওয়া হয়। চালক মোটরবাইক থামালে কর্তব্যরত অফিসার গাড়ির কাগজপত্র দেখতে চাইলে সে নিজেকে সিআইডির পুলিশ ইন্সপেক্টর হিসেবে পরিচয় দেন। তখন পরিচয়পত্র দেখতে চাইলে বাইক নিয়ে দ্রুত চলে যাওয়ার চেষ্টা করলে তাকে গ্রেফতার করা হয়। 

/আরটি/এনএইচ/

সম্পর্কিত

সবজির আড়ালে সৌদিতে ইয়াবা পাচারের চেষ্টা 

সবজির আড়ালে সৌদিতে ইয়াবা পাচারের চেষ্টা 

‘পারিবারিক নির্যাতন কমাতে মোটিভেশন চলছে’

‘পারিবারিক নির্যাতন কমাতে মোটিভেশন চলছে’

ফেসবুকে বন্ধুত্ব, অতঃপর প্রতারণা

ফেসবুকে বন্ধুত্ব, অতঃপর প্রতারণা

ইসলামি বক্তা মুফতি রিজওয়ান রফিকী গ্রেফতার

ইসলামি বক্তা মুফতি রিজওয়ান রফিকী গ্রেফতার

সবজির আড়ালে সৌদিতে ইয়াবা পাচারের চেষ্টা 

আপডেট : ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২০:১১

কাঁধের একটি ব্যাগ আর একটি কার্টন নিয়ে বিমানবন্দরে এসেছিলের  স্বপন মাতব্বর। তিনি যাবেন সৌদি আরবের দাম্মামে। তবে তার সৌদি আরব যাওয়া হয়নি।  শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) বিমানবন্দরে ব্যাগেজ স্ক্যানিংয়ের সময় তার কার্টনে ধরা পড়ে ইয়াবা। তাকে ইয়াবাসহ আটক করা হয়।

জানা গেছে, সৌদিগামী বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের বিজি-৪০৪৯ ফ্লাইটের যাত্রী ছিলেন স্বপন। বোর্ডিং শেষে চেক ইন ব্যাগেজ স্ক্যানিং এর সময় তার সঙ্গে থাকা একটি কার্টনে ইয়াবা শনাক্ত হয়। কার্টনের কার্বন পেপারে মুড়িয়ে আলাদা লেয়ার করে ২২ হাজার ৪৯০ পিস ইয়াবা লুকানো ছিল।

সূত্র জানায়, জিজ্ঞাসাবাদে স্বপন মাতব্বর জানিয়েছেন, তার বাড়ি মাদারীপুরে। সৌদি আরবে থাকা পরিচিত একজন তাকে অনুরোধ জানিয়েছিলেন তার ভাইয়ের কাছ থেকে একটি সবজিসহ কার্টন নিয়ে আসার জন্য। 

বিমানবন্দরের নির্বাহী পরিচালক গ্রুপ ক্যাপ্টেন তৌহিদ-উল আহসান বলেন, বিমানবন্দরে ডি সারিতে স্ক্রিনার নুরুজ্জামান ও ইউনুস আলী ওই যাত্রীর ব্যাগ স্ক্যানিং করেন। এরপর তার ব্যাগ তল্লাশি করে ইয়াবা আটক করেন তারা। আটক যাত্রীর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিতে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

/সিএ/এমআর/

সম্পর্কিত

ওয়াকিটকি-মোটরবাইকসহ ভুয়া ইন্সপেক্টর গ্রেফতার

ওয়াকিটকি-মোটরবাইকসহ ভুয়া ইন্সপেক্টর গ্রেফতার

‘পারিবারিক নির্যাতন কমাতে মোটিভেশন চলছে’

‘পারিবারিক নির্যাতন কমাতে মোটিভেশন চলছে’

ফেসবুকে বন্ধুত্ব, অতঃপর প্রতারণা

ফেসবুকে বন্ধুত্ব, অতঃপর প্রতারণা

ইসলামি বক্তা মুফতি রিজওয়ান রফিকী গ্রেফতার

ইসলামি বক্তা মুফতি রিজওয়ান রফিকী গ্রেফতার

ট্রান্সফ্যাট নিয়ন্ত্রণ প্রবিধানমালা চূড়ান্তকরণে বিলম্ব নয়

আপডেট : ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২০:০৩

ট্রান্সফ্যাটের ক্ষতিকর প্রভাব এবং ট্রান্সফ্যাটমুক্ত বাংলাদেশ অর্জনে প্রক্রিয়াধীন ট্রান্সফ্যাট নিয়ন্ত্রণ প্রবিধানমালা দ্রুততম সময়ের মধ্যে চূড়ান্ত করার তাগিদ দিয়েছেন সাংবাদিকরা।

শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) গ্লোবাল হেলথ অ্যাডভোকেসি ইনকিউবেটর (জিএইচএআই)-এর সহায়তায় বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন (বিএমএ) ভবনের শহীদ ডাক্তার শামসুল আলম খান মিলন সভাকক্ষে ‘ট্রান্সফ্যাট নিয়ন্ত্রণ প্রবিধানমালা: অগ্রগতি ও করণীয়’ শীর্ষক সাংবাদিক  কর্মশালায় অংশগ্রহণকারী সাংবাদিকরা এ তাগিদ দেন। 

অ্যাডভোকেসি ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান প্রজ্ঞা (প্রগতির জন্য জ্ঞান) আয়োজিত কর্মশালায় প্রিন্ট এবং অনলাইন মিডিয়ায় কর্মরত ২৯ জন সাংবাদিক অংশগ্রহণ করেন। কর্মশালায় প্রজ্ঞা’র পক্ষ থেকে মূল উপস্থাপনা তুলে ধরেন ট্রান্সফ্যাট নির্মূল প্রকল্পের টিমলিডার হাসান শাহরিয়ার এবং প্রকল্প সমন্বয়ক মাহমুদ আল ইসলাম শিহাব।

এ সময় প্রজ্ঞার নির্বাহী পরিচালক এবিএম জুবায়ের, ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন হসপিটাল অ্যান্ড রিসার্চ ইনস্টিটিউটের ইপিডেমিওলজি অ্যান্ড রিসার্চ বিভাগের অধ্যাপক ডা. সোহেল রেজা চৌধুরী, ব্রাক ইউনিভার্সিটির অ্যাসোসিয়েট সায়েন্টিস্ট আবু আহমেদ শামীম, বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ’র (বিএফএসএ) সদস্য মঞ্জুর মোর্শেদ, জিএইচএআই’র বাংলাদেশ কান্ট্রি লিড রূহুল কুদ্দুস উপস্থিত ছিলেন।

প্রজ্ঞার পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে প্রজ্ঞা জানিয়েছে, খাদ্যে উচ্চমাত্রার শিল্পোৎপাদিত ট্রান্সফ্যাটের কারণে প্রতিবছর পৃথিবীতে প্রায় পাঁচ লাখ মানুষ হৃদরোগে মৃত্যুবরণ করেন। ডব্লিওএইচও’র প্রতিবেদন অনুযায়ী ট্রান্সফ্যাটঘটিত হৃদরোগে মৃত্যুর সর্বাধিক ঝুঁকিপূর্ণ ১৫টি দেশের তালিকায় বাংলাদেশের নাম থাকলেও ট্রান্সফ্যাট নিয়ন্ত্রণের খসড়া নীতিমালাটি এখনো চূড়ান্ত করতে পারেনি সরকার। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ২০২৩ সালের মধ্যে বিশ্বের খাদ্য সরবরাহ শৃঙ্খল থেকে ট্রান্সফ্যাট নির্মূলের লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে এবং এলক্ষ্যে বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ (বিএফএসএ) ‘খাদ্যদ্রব্যে ট্রান্স ফ্যাটি এসিড নিয়ন্ত্রণ প্রবিধানমালা, ২০২১’ প্রণয়নে কাজ করছে।

কর্মশালায় আবু আহমেদ শামীম বলেন, ডালডা বা বনস্পতি ঘি এবং তা দিয়ে তৈরি বিভিন্ন খাবার, ফাস্টফুড ও বেকারি পণ্যে ট্রান্সফ্যাট থাকে। অধ্যাপক ডা. সোহেল রেজা চৌধুরী বলেন, “আমাদের গবেষকদল ঢাকার ডালডা নমুনার ৯২ শতাংশে ডব্লিউএইচও সুপারিশকৃত ২% মাত্রার চেয়ে বেশি ট্রান্সফ্যাট (ট্রান্স ফ্যাটি এসিড) পেয়েছেন, যা অত্যন্ত উদ্বেগজনক।

মঞ্জুর মোর্শেদ জানিয়েছেন, খাদ্য মন্ত্রণালয় ইতিমধ্যেই খসড়া প্রবিধানমালাটি চূড়ান্ত করতে ভেটিংয়ের জন্য আইন মন্ত্রণালয়ে পাঠিয়েছে। আমরা আশা করছি দ্রুততম সময়ের মধ্যে এটি চূড়ান্ত হবে।

রূহুল কুদ্দুস বলেন, ‘ট্রান্সফ্যাট নির্মূলের অর্থনৈতিক গুরুত্বও অনেক। আমাদের প্রক্রিয়াজাত খাদ্যপণ্যের রফতানি বাজার দিন দিন বাড়ছে। ট্রান্সফ্যাটমুক্ত পণ্য তৈরি করতে না পারলে আমরা আন্তর্জাতিক বাজার হারাবো এবং দেশ অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

 

/এসআই/এফএএন/

সম্পর্কিত

ঢাকার কূটনৈতিক এলাকায় জঙ্গি হামলার চেষ্টা

ঢাকার কূটনৈতিক এলাকায় জঙ্গি হামলার চেষ্টা

মাস্ক ব্যবহারে অনীহা বেড়েছে

মাস্ক ব্যবহারে অনীহা বেড়েছে

রাসেলের মুক্তি দাবি

রাসেলের মুক্তি দাবি

নির্বাচন কমিশন গঠনে আইনের দাবি

নির্বাচন কমিশন গঠনে আইনের দাবি

‘হাসপাতাল দরকার আছে তবে প্রাকৃতিক হাসপাতালকে ধ্বংস করে নয়’ 

আপডেট : ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২০:০০

আমাদের দেশে হাসপাতাল দরকার আছে। সেটা সরকারি হাসপাতাল। কিন্তু প্রাকৃতিক হাসপাতালকে ধ্বংস করে নয়-বলে মন্তব্য করেছেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক ড. আনু মুহাম্মদ। 

শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) সিআরবিতে গাছ কেটে বাণিজ্যিক হাসপাতাল নির্মাণের প্রতিবাদে ‘প্রাণ-প্রকৃতি ধ্বংস করে বাণিজ্যিক স্থাপনা বন্ধ করো, সিআরবি বাঁচাও’ ব্যানারে আয়োজিত সাংস্কৃতিক সমাবেশে উপস্থিত থেকে তিনি একথা বলেন। 

অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ বলেন, সিআরবি নামক একটি জীবন্ত জায়গাকে নষ্ট করে বাণিজ্যিক হাসপাতাল নির্মাণের  যে চক্রান্ত তার বিরুদ্ধে দীর্ঘদিন ধরে আন্দোলন চলছে। হাসপাতালের কথা বলা হচ্ছে, হাসপাতাল হবে মানুষের চিকিৎসার জন্য।  কিন্তু অসুস্থতা কোত্থেকে আসে, মানুষ কেন অসুস্থ হয়, সেই জায়গাটি যেন আমরা খেয়াল করি। বুড়িগঙ্গা নদীতে যদি স্বচ্ছ পানি প্রবাহিত হতো, ঢাকা শহরে যদি গাছপালা থাকতো, তাহলে ঢাকা শহরের মানুষ যেসকল রোগে আক্রান্ত হচ্ছে যেমন,ফুসফুস, কিডনি,হৃৎপিণ্ড, মস্তিষ্ক, পাকস্থলীসহ বিভিন্ন ধরনের নিউরোলজিকাল সমস্যা যেগুলো আছে তার অর্ধেকও থাকতো না। একটা অসুখ তৈরির কারখানা তৈরি হয়েছে বাংলাদেশ। বিভিন্ন প্রকল্প আসলে হচ্ছে অসুখ তৈরির কারখানা।

দেশে  হাসপাতালের দরকার আছে তবে সেটা প্রকৃতি ধ্বংস করে নয় উল্লেখ করে তিনি বলেন, প্রকৃতি নষ্ট করে কিছু লোকের ব্যবসা করার জন্য, মুনাফা অর্জন করার জন্য হাসপাতাল নামে দখল বৈধতা দেওয়ার বিরুদ্ধে আমাদের কঠিন প্রতিরোধ অব্যাহত রাখতে হবে।

/এমআর/

সম্পর্কিত

৫ লাখেরও বেশি টিকা দেওয়া হয়েছে আজ 

৫ লাখেরও বেশি টিকা দেওয়া হয়েছে আজ 

ওয়াকিটকি-মোটরবাইকসহ ভুয়া ইন্সপেক্টর গ্রেফতার

ওয়াকিটকি-মোটরবাইকসহ ভুয়া ইন্সপেক্টর গ্রেফতার

সবজির আড়ালে সৌদিতে ইয়াবা পাচারের চেষ্টা 

সবজির আড়ালে সৌদিতে ইয়াবা পাচারের চেষ্টা 

ট্রান্সফ্যাট নিয়ন্ত্রণ প্রবিধানমালা চূড়ান্তকরণে বিলম্ব নয়

ট্রান্সফ্যাট নিয়ন্ত্রণ প্রবিধানমালা চূড়ান্তকরণে বিলম্ব নয়

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

৫ লাখেরও বেশি টিকা দেওয়া হয়েছে আজ 

৫ লাখেরও বেশি টিকা দেওয়া হয়েছে আজ 

আজও করোনায় নারীমৃত্যু বেশি

আজও করোনায় নারীমৃত্যু বেশি

চলতি মাসেই ডেঙ্গুতে আক্রান্ত ৫ হাজার ছাড়ালো  

চলতি মাসেই ডেঙ্গুতে আক্রান্ত ৫ হাজার ছাড়ালো  

এবার কেন ডেঙ্গু ভয়ংকর

এবার কেন ডেঙ্গু ভয়ংকর

করোনায় নারীমৃত্যু পুরুষের দ্বিগুণ

করোনায় নারীমৃত্যু পুরুষের দ্বিগুণ

‘ডেল্টার মতো ভ্যারিয়েন্টের পুনরায় সংক্রমণের আশঙ্কা উড়িয়ে দেওয়া যায় না’

‘ডেল্টার মতো ভ্যারিয়েন্টের পুনরায় সংক্রমণের আশঙ্কা উড়িয়ে দেওয়া যায় না’

ডেঙ্গু: সেপ্টেম্বরের ১৭ দিনেই শনাক্ত ৪৮৭২, মৃত্যু ১১

ডেঙ্গু: সেপ্টেম্বরের ১৭ দিনেই শনাক্ত ৪৮৭২, মৃত্যু ১১

নিয়ন্ত্রণে আসছে না ডেঙ্গু, দিনে ৩০০ রোগী

নিয়ন্ত্রণে আসছে না ডেঙ্গু, দিনে ৩০০ রোগী

আজ সিনোফার্মের ৪ লাখ ৩৬ হাজার ডোজ দেওয়া হয়েছে

আজ সিনোফার্মের ৪ লাখ ৩৬ হাজার ডোজ দেওয়া হয়েছে

ডেঙ্গুতে আরও ২৩৪ জন হাসপাতালে ভর্তি 

ডেঙ্গুতে আরও ২৩৪ জন হাসপাতালে ভর্তি 

সর্বশেষ

তালেবান খুঁজে পেলে হত্যা করবে, আতঙ্কে সমকামীরা

তালেবান খুঁজে পেলে হত্যা করবে, আতঙ্কে সমকামীরা

কক্সবাজারে বছরজুড়ে খোঁড়াখুঁড়ি, দুর্ভোগের শেষ নেই

কক্সবাজারে বছরজুড়ে খোঁড়াখুঁড়ি, দুর্ভোগের শেষ নেই

মোটরসাইকেলে ৩ জন, ট্রাকের ধাক্কায় রাজস্ব কর্মকর্তা নিহত

মোটরসাইকেলে ৩ জন, ট্রাকের ধাক্কায় রাজস্ব কর্মকর্তা নিহত

ধর্ষণ মামলায় বিএনপি নেতা গ্রেফতার

ধর্ষণ মামলায় বিএনপি নেতা গ্রেফতার

৫ লাখেরও বেশি টিকা দেওয়া হয়েছে আজ 

৫ লাখেরও বেশি টিকা দেওয়া হয়েছে আজ 

© 2021 Bangla Tribune