X
রবিবার, ১৭ অক্টোবর ২০২১, ১ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

সমুদ্র আইন সংশোধনের প্রস্তাব সংসদে

আপডেট : ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৪:৩০

সাগরে জলদস্যুতার অপরাধে সর্বোচ্চ যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের বিধান রেখে ১৯৭৪ সালের ‘টেরিটোরিয়াল ওয়াটারস অ্যান্ড মেরিটাইম জোন’ আইন সংশোধনের জন্য ‘টেরিটোরিয়াল ওয়াটারস অ্যান্ড মেরিটাইম জোন (অ্যামেন্ডমেন্ট) বিল-২০২১’ আনা হয়েছে সংসদে।

পররাষ্ট্র মন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন বিলটি বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) সংসদে তুললে তা ৪৫ দিনের মধ্যে পরীক্ষা করে সংসদে প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটিতে পাঠানো হয়।

বিলটি আইন হলে অভ্যন্তরীণ জলসীমা ও রাষ্ট্রীয় জলসীমা, ২০০ নটিক্যাল মাইল পর্যন্ত একচ্ছত্র অর্থনৈতিক অঞ্চল এবং ৩৫০ নটিক্যাল মাইল পর্যন্ত মহীসোপানে সমুদ্র সম্পদের ওপর বাংলাদেশের সার্বভৌম অধিকার প্রতিষ্ঠিত হবে।

বিলে বলা হয়েছে, জলদস্যুতা, সশস্ত্র চুরি, সমুদ্র সন্ত্রাস করতে গিয়ে কেউ খুন করলে মৃত্যুদণ্ড হবে। আর জলদস্যুতা বা সমুদ্র সন্ত্রাসের শাস্তি হবে সর্বোচ্চ যাবজ্জীবন কারাদণ্ড। এছাড়া দস্যুতা করে যা সে লুট করবে, তার জন্য জরিমানা হবে।

কোনও ব্যক্তি জলদস্যুতা বা সমুদ্র সন্ত্রাসের চেষ্টা বা সহায়তা করলে সেক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ১৪ বছরের কারাদণ্ড ও অর্থদণ্ডের বিধান রাখা হয়েছে।

রাষ্ট্রীয় জলসীমায় চলাকালে কোনও বিদেশি জাহাজে অপরাধ সংগঠিত হলে অপরাধী গ্রেফতার ও তদন্ত পরিচালনায় এ আইন প্রযোজ্য হবে।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সময় ১৯৭৪ সালে সর্বপ্রথম বাংলাদেশের মেরিটাইম অঞ্চলের সীমানা নির্ধারণ এবং সমুদ্র সম্পদ অনুসন্ধান ও আহরণে ‘দ্য টেরিটোরিয়াল ওয়াটারস অ্যান্ড মেরিটাইম অ্যাক্ট ১৯৭৪’ প্রণয়ন করা হয়।

পরে ১৯৮২ সালে ‘ইউনাইটেড নেশনস কনভেনশন অন দ্য ল অব দ্য সি’ শীর্ষক কনভেনশন জাতিসংঘ গ্রহণ করলে একই বছর ১০ ডিসেম্বর বাংলাদেশ ওই কনভেনশনে স্বাক্ষর করে।

আগের আইনে সামুদ্রিক দূষণের জন্য সর্বোচ্চ পাঁচ হাজার টাকা এবং সর্বোচ্চ এক বছরের কারাদণ্ডের বিধান ছিলো। প্রস্তাবিত আইনে সর্বোচ্চ তিন বছরের কারাদণ্ড অথবা সর্বনিম্ন দুই কোটি টাকা থেকে সর্বোচ্চ পাঁচ কোটি টাকা পর্যন্ত জরিমানার বিধান রাখা হয়েছে।

বিলে ওশান গভর্নেন্স, ব্লু ইকোনোমি, মেরিটাইম কোঅপারেশন সংক্রান্ত নির্দেশনামূলক বিধিবিধান সংযোজন করা হয়েছে। বিশেষ করে মেরিন সায়েন্টিফিক রিসার্চের পদ্ধতি ও অনুশাসন সংক্রান্ত বিধান অন্তর্ভুক্ত হয়েছে।

সমুদ্রে যেসব অপরাধ সংঘটিত হয় তা ভিন্নমাত্রিক হওয়ায় পৃথক মেরিটাইম ট্রাইব্যুনাল প্রতিষ্ঠার বিধান বিলে রাখা হয়েছে। অপরাধ বা দুর্ঘটনা সংক্রান্ত ভিডিও, ছবি, ইলেকট্রনিক রেকর্ডকে সাক্ষ্য হিসেবে গ্রহণ করার বিধান রাখা হয়েছে প্রস্তাবিত আইনে।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জাতিসংঘ কনভেনশন, সমুদ্রসীমা সংক্রান্ত দুটি মামলার রায় (মিয়ানমার ও ভারত) এবং সংশ্লিষ্ট অন্যান্য আন্তর্জাতিক কনভেনশনের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে মেরিটাইম অঞ্চল ঘোষণা ও সীমা নির্ধারণ, সমুদ্র সম্পদ অনুসন্ধান ও আহরণ, জলদস্যুতা, সশস্ত্র ডাকাতি, চুরি, সমুদ্রে সন্ত্রাস, নৌচলাচলের নিরাপত্তাবিরোধী অবৈধ কর্মকাণ্ড দমন ও শাস্তি প্রদান, সামুদ্রিক পরিবেশ ও সামুদ্রিক সম্পদের সুরক্ষা নিশ্চিত করা, দূষণজনিত ক্ষয়ক্ষতি প্রতিরোধ, পরিবেশগত ভারসাম্য রক্ষা ও সংরক্ষণ, জনস্বাস্থ্য সুরক্ষা ও টেকসই অর্থনীতি উন্নয়ন ও সামাজিক উন্নয়ন, পর্যটন, বৈজ্ঞানিক গবেষণা, সুনীল অর্থনীতিসহ অন্যান্য বিষয় সংশ্লিষ্ট বিধিবিধান অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

কন্টিনেন্টাল শেলফের (Continental Shelf) সংজ্ঞা ও সীমা ইউএনক্লস-১৯৮২ (UNCLOS, 1982) এবং আন্তর্জাতিক আদালতের মামলার রায় অনুযায়ী বিদ্যমান আইনের সংশোধন প্রস্তাব রাখা হয়েছে। এই অঞ্চলে সেইফটি জোন নির্ধারণ, সাবমেরিন কেবল ও পাইপলাইন স্থাপন সংক্রান্ত বিধানাবলি সংযোজিত হয়েছে।

প্রস্তাবিত আইনে ‘ইকোনোমিক জোনের’ পরিবর্তে ‘এক্সক্লুসিভ ইকোনোমিক জোনের’ ব্যবহার করা হয়েছে এবং সকল প্রাণিজ ও অপ্রাণিজ সম্পদের উপর সার্বভৌম অধিকার প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে।

পূর্বের আইনের ‘কন্টিজুয়োস জোনের’ (Contiguous Zone) সংজ্ঞা ও সীমা ইউএনক্লস-১৯৮২ এর সাথে সামঞ্জস্য রেখে সংশোধন করা হয়েছে। কন্টিজুয়োস জোনের ব্যাপ্তি ১৮ থেকে ২৪ মাইল করা হয়েছে।

/ইএইচএস/এমএস/

সম্পর্কিত

দুটি বিল পাসের সুপারিশ সংসদীয় কমিটির

দুটি বিল পাসের সুপারিশ সংসদীয় কমিটির

স্পিকারের সঙ্গে ইউএনএফপিএ’র আশা টর্কেলসনের সৌজন্য সাক্ষাৎ

স্পিকারের সঙ্গে ইউএনএফপিএ’র আশা টর্কেলসনের সৌজন্য সাক্ষাৎ

স্পিকারের সঙ্গে ইতালির রাষ্ট্রদূতের সৌজন্য সাক্ষাৎ

স্পিকারের সঙ্গে ইতালির রাষ্ট্রদূতের সৌজন্য সাক্ষাৎ

অত্যাবশ্যক পরিষেবায় অবৈধ ধর্মঘট ডাকলে চাকরিচ্যুতি-কারাদণ্ড

অত্যাবশ্যক পরিষেবায় অবৈধ ধর্মঘট ডাকলে চাকরিচ্যুতি-কারাদণ্ড

করোনা টিকা দিতে ৯ কোটি সিরিঞ্জ কিনছে সরকার

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ১৮:২৪

জরুরি ভিত্তিতে ৯ কোটি ডিসপোজেবল সিরিঞ্জ কিনছে সরকার। করোনাভাইরাসের (কোভিড-৯) টিকা দিতে চীন থেকে এসব সিরিঞ্জ আনা হবে। সরাসরি ক্রয় পদ্ধতিতে (ডিপিএম) ক্রয়ের নীতি অনুসরণ করে এসব সিরিঞ্জ সরবরাহ করবে ‘চায়না ন্যাশনাল ফার্মাসিউটিক্যালস ফরেন ট্রেড করপোরেশন’।

রবিবার (১৭ অক্টোবর) অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের সভাপতিত্বে ভার্চুয়ালি অনুষ্ঠিত সরকারি ক্রয়-সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠকে এ সংক্রান্ত স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

বৈঠক শেষে অনলাইনে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব সামসুল আরেফিন সাংবাদিকদের বলেন, ‘বৈঠকে করোনার টিকা দিতে জরুরি ভিত্তিতে চীন থেকে ৯ কোটি ডিসপোজেবল সিরিঞ্জ সরাসরি ক্রয় পদ্ধতিতে (ডিপিএম) কেনার সিদ্ধান্ত হয়। চীন ছাড়া এই মুহূর্তে এই বিপুল সংখ্যক সিরিঞ্জ সরবরাহের ক্যাপাসিটি কারও নেই।’

তিনি বলেন, ‘সময় যত সংক্ষিপ্ত করা যায়। করোনা নিয়ন্ত্রণ করতে হবে। টিকা চলে এলে সিরিঞ্জ না থাকলে টিকা দেওয়া যাবে না। এ জন্য সরাসরি ক্রয় পদ্ধতিতে নিয়ে আসা হচ্ছে।’

ডিসপোজেবল সিরিঞ্জ ক্রয় সংক্রান্ত প্রস্তাবনায় বলা হয়, কোভিড-১৯ প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণে ১৩ কোটি ৮২ লাখ মানুষকে ২৭ কোটি ৬৪ লাখ ডোজ টিকা দিতে সমপরিমাণ সিরিঞ্জ প্রয়োজন। প্রতি মাসে দুই কোটি মানুষকে টিকা দিতে ৯ কোটি ডিসপোজেবল সিরিঞ্জ জরুরি ভিত্তিতে ক্রয় করতে হবে। এমতাবস্থায় রাষ্ট্রীয় জরুরি প্রয়োজনে পিপিএ ২০০৬-এর ধারা ৬৮ (১) ও পিপিআর, ২০০৮-এর বিধি ৭৬ (২) অনুযায়ী, সরাসরি ক্রয় পদ্ধতিতে (ডিপিএম) প্রস্তাবিত ৯ কোটি ও ভবিষ্যতে প্রয়োজনীয় সংখ্যক ডিসপোজেবল সিরিঞ্জ ক্রয়ের নীতিগত অনুমোদনে প্রস্তাব উপস্থাপন করা হলো।

 

/এসআই/আইএ/

সম্পর্কিত

পিছিয়ে যাচ্ছে সরকারিভাবে করোনা টিকা উৎপাদন

পিছিয়ে যাচ্ছে সরকারিভাবে করোনা টিকা উৎপাদন

৬ লাখ ডোজ টিকা দেওয়া হয়েছে আজ

৬ লাখ ডোজ টিকা দেওয়া হয়েছে আজ

স্কুল শিক্ষার্থীদের শিগগিরই টিকা দেওয়া হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

স্কুল শিক্ষার্থীদের শিগগিরই টিকা দেওয়া হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

বাংলাদেশকে ২ লাখ অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা উপহার দেবে রোমানিয়া

বাংলাদেশকে ২ লাখ অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা উপহার দেবে রোমানিয়া

একমাস ধরে করোনা পরিস্থিতি স্বস্তিদায়ক

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ১৭:৫০

দেশে চলতি বছরের জুলাই মাসে সবচেয়ে বেশি করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছেন। পরের আগস্ট মাসে রোগী কমেছিল, সেপ্টেম্বরে সেটা আরও কমেছে। চলতি মাসেও কমতির দিকে। সর্বোপরি গত একমাস ধরেই করোনা পরিস্থিতি স্বস্তিদায়ক বলে মন্তব্য করেছেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের মুখপাত্র অধ্যাপক ডা. নাজমুল ইসলাম। রবিবার (১৭ অক্টোবর) ভার্চুয়াল বুলেটিনে তিনি এ মন্তব্য করেন।

অধ্যাপক নাজমুল ইসলাম বলেন, ‘প্রতিবেশী ভারতে গত সপ্তাহে এক হাজার ৬৮৭ জন করোনায় মৃত্যুবরণ করেছেন। প্রতি এক লাখে মৃত্যুহার ৩২ দশমিক ৭৪ শতাংশ। ইন্দোনেশিয়ায় এ সময় মারা গেছেন ২৮৮ জন, প্রতি লাখে মৃত্যুহার ৫২ শতাংশের কিছুটা বেশি। সেখানে বাংলাদেশে গত সাত দিনে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৮৩ জন, প্রতি লাখে মৃত্যুহার ১৬ দশমিক ৮৪ শতাংশ।’

গত সাত দিনে মৃতের সংখ্যা এর আগের সাত দিনের তুলনায় ৩৪ শতাংশের বেশি কমে এসেছে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘গত সাত দিনে সংক্রমণ পাঁচ শতাংশের নিচে, গত তিন সপ্তাহের বেশি সময় ধরে সংক্রমণের হার কমা অব্যাহত রয়েছে। গতকাল (১৬ অক্টোবর) শনাক্তের হার নেমে আসে এক দশমিক ৮৮ শতাংশে।’

নাজমুল ইসলাম বলেন, ‘সামগ্রিকভাবে গত ৩০ দিনের করোনা পরিস্থিতি অত্যন্ত স্বস্তিদায়ক। জুলাই মাসে সবচেয়ে বেশি রোগী- তিন লাখ ৩৬ হাজার ২২৬ জন, আগস্টে এসে সেটি কমেছিল, সেপ্টেম্বরে আরও কমেছে। আজ পর্যন্ত (১৭ অক্টোবর) ৯ হাজার ২৬৩ জন রোগী শনাক্ত হয়েছেন।’

জেলাভিত্তিক শীর্ষ ১০ জেলার মধ্যে সবচেয়ে বেশি রোগী শনাক্ত হয়েছেন ঢাকায়, পাঁচ লাখ ২৪ হাজার ১৪৩ জন এবং পর পরই চট্টগ্রামে ৯৯ হাজার ৩৮০ জন। প্রথম ১০ জেলার মধ্যে সবচেয়ে কম রোগী শনাক্ত হয়েছেন কক্সবাজারে।

 

 

/জেএ/আইএ/

সম্পর্কিত

দ্বিতীয় দিনের মতো আজও শনাক্তের হার ২-এর নিচে

দ্বিতীয় দিনের মতো আজও শনাক্তের হার ২-এর নিচে

ডিসেম্বরের মধ্যে প্রবাসীদের জন্য সাপোর্ট সেন্টার চালুর আশা

ডিসেম্বরের মধ্যে প্রবাসীদের জন্য সাপোর্ট সেন্টার চালুর আশা

দ্বিতীয় দিনের মতো আজও শনাক্তের হার ২-এর নিচে

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ১৭:৩০

দেশে করোনা সংক্রমণের নিম্নগতি অব্যাহত রয়েছে। গতকাল (১৬ অক্টোবর) চলতি বছরে প্রথম দিনের মতো দৈনিক শনাক্তের হার নেমে আসে দুইয়ের নিচে। সেই ধারা অব্যাহত রয়েছে আজও; গতকালের চেয়েও কমে এসেছে শনাক্তের হার। গত ২৪ ঘণ্টায় (১৬ অক্টোবর সকাল ৮টা থেকে ১৭ অক্টোবর সকাল ৮টা পর্যন্ত) করোনায় দৈনিক শনাক্তের হার এক দশমিক ৭৪ শতাংশ, গতকাল যা ছিল এক দশমিক ৮৮ শতাংশ।

তবে গতকালের তুলনার আজ শনাক্ত এবং মৃত্যু বেড়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন ৩১৪ জন এবং মারা গেছেন ১৬ জন। যেখানে গতকাল শনাক্ত ২৯৩ এবং মৃত্যু ছিল ছয় জন।

রবিবার (১৭ অক্টোবর) স্বাস্থ্য অধিদফতর আরও জানায়, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন শনাক্ত হওয়া ৩১৪ জনকে নিয়ে দেশে সরকারি হিসাবে এখন পর্যন্ত শনাক্ত হলেন ১৫ লাখ ৬৫ হাজার ৪৮৮ জন এবং ১৬ জনকে নিয়ে এখন পর্যন্ত মারা গেলেন ২৭ হাজার ৭৬৮ জন।

করোনা থেকে গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৫২৯ জন। এদের নিয়ে দেশে মোট সুস্থ হয়ে উঠলেন ১৫ লাখ ২৭ হাজার ৮৬২ জন।

দেশে এখন পর্যন্ত রোগী শনাক্তের হার ১৫ দশমিক ৫১ শতাংশ। ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৯৭ দশমিক ৬০ শতাংশ এবং মৃত্যুর হার এক দশমিক ৭৭ শতাংশ।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনার নমুনা সংগৃহীত হয়েছে ১৮ হাজার ৩০০টি, আর পরীক্ষা করা হয়েছে ১৮ হাজার ৯৭টি। দেশে এখন পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা হয়েছে এক লাখ ৯৪ হাজার ৯২২টি। এরমধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় পরীক্ষা করা হয়েছে ৭৩ লাখ ৮৯ হাজার ৪৩১টি এবং বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ২৭ লাখ পাঁচ হাজার ৪৯১টি। 

স্বাস্থ্য অধিদফতর জানাচ্ছে, গত ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়া ১৬ জনের মধ্যে পুরুষ ১০ জন এবং নারী ছয় জন। তাদের নিয়ে দেশে করোনা আক্রান্ত হয়ে মোট পুরুষ মারা গেলেন ১৭ হাজার ৭৮৯ জন এবং নারী ৯ হাজার ৯৭৯ জন।

১৬ জনের মধ্যে বয়স বিবেচনায় সবচেয়ে বেশি মারা গেছেন ৬১ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে, পাঁচ জন। এরপর ৪১ থেকে ৫০ এবং ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে আছেন চার জন করে, ৮১ থেকে ৯০ বছরের মধ্যে আছেন দুই জন এবং ৭১ থেকে ৮০ বছরের মধ্যে রয়েছেন একজন।

বিভাগভিত্তিক বিশ্লেষণে তাদের মধ্যে ঢাকা বিভাগের আছেন সর্বোচ্চ সাত জন, চট্টগ্রাম বিভাগের তিন জন এবং রাজশাহী, খুলনা ও ময়মনসিংহ বিভাগের আছেন দুই জন করে।

১৬ জনের মধ্যে সরকারি হাসপাতালে মারা গেছেন ১২ জন এবং বেসরকারি হাসপাতালে চার জন।

 

 

 

/জেএ/আইএ/এমওএফ/

সম্পর্কিত

একমাস ধরে করোনা পরিস্থিতি স্বস্তিদায়ক

একমাস ধরে করোনা পরিস্থিতি স্বস্তিদায়ক

ডিসেম্বরের মধ্যে প্রবাসীদের জন্য সাপোর্ট সেন্টার চালুর আশা

ডিসেম্বরের মধ্যে প্রবাসীদের জন্য সাপোর্ট সেন্টার চালুর আশা

ঈদে মিলাদুন্নবীর ছুটি ২০ অক্টোবর

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ১৬:৪৫

সরকার পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবীর (সা.) ছুটি ১৯ অক্টোবরের পরিবর্তে আগামী ২০ অক্টোবর (বুধবার) পুননির্ধারণ করে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে। রবিবার (১৭ অক্টোবর) জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে জারি করা প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, অ্যালোকেশন অব বিজনেস অ্যামং দ্য ডিফারেন্স মিনিস্ট্রিস অ্যান্ড ডিভিশন্স-এর জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় অংশে ৩৭ নম্বর ক্রমিকের বিধানে দেওয়া ক্ষমতাবলে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) উপলক্ষে সরকারি ছুটি আগামী ১৯ অক্টোবরের পরিবর্তে ২০ অক্টোবর পুননির্ধারণ করা হলো।

উল্লেখ্য, গত ৭ অক্টোবর সন্ধ্যায় অনুষ্ঠিত ইসলামিক ফাউন্ডেশনের বায়তুল মোকাররম সভাকক্ষে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভায় জানানো হয়, বাংলাদেশের আকাশে কোথাও সফর মাসের চাঁদ দেখা যায়নি। সেই হিসাবে ২০ অক্টোবর ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) পালিত হবে।

প্রজ্ঞাপনে আরও উল্লেখ করা হয়েছে- যে সব অফিসের সময়সূচি ও ছুটি তাদের নিজস্ব আইন-কানুন দিয়ে নিয়ন্ত্রিত হয় বা যেসব অফিস, সংস্থা ও প্রতিষ্ঠানের চাকরি সরকারের অত্যাবশ্যক চাকরি হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে সেক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট অফিস, সংস্থা ও প্রতিষ্ঠান নিজস্ব আইন-কানুন অনুযায়ী জনস্বার্থ বিবেচনা করে এই ছুটি পুননির্ধারণ করবে।

মুসলিম ধর্মাবলম্বীরা ১২ রবিউল আউয়াল মহানবী হজরত মুহম্মদ (সা.) এর জন্ম ও মৃত্যু (ওফাত) দিবস হিসেবে পালন করে। কারণ এই দিনে রাসুল (সা.) ইন্তেকালও করেন। সেই হিসাবে আগামী ২০ অক্টোবর হবে ১২ রবিউল আউয়াল।

২০২১ সালের ছুটির বর্ষপঞ্জি অনুযায়ী, ৮ অক্টোবর রবিউল আউয়াল মাস শুরু ধরে ১৯ অক্টোবর (মঙ্গলবার) ঈদে মিলাদুন্নবীর সরকারি ছুটি নির্ধারিত ছিল। কিন্তু এবার আরবি সফর মাস ৩০ দিনে শেষ হয় এবং রবিউল আউয়াল মাস শুরু হয় গত ৯ অক্টোবর। সেই হিসাবে এবার ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) ২০ অক্টোবর।

/এসআই/এমআর/

সম্পর্কিত

একমাস ধরে করোনা পরিস্থিতি স্বস্তিদায়ক

একমাস ধরে করোনা পরিস্থিতি স্বস্তিদায়ক

দ্বিতীয় দিনের মতো আজও শনাক্তের হার ২-এর নিচে

দ্বিতীয় দিনের মতো আজও শনাক্তের হার ২-এর নিচে

ডিসেম্বরের মধ্যে প্রবাসীদের জন্য সাপোর্ট সেন্টার চালুর আশা

ডিসেম্বরের মধ্যে প্রবাসীদের জন্য সাপোর্ট সেন্টার চালুর আশা

‘বহির্বিশ্বে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি নষ্টের অপচেষ্টা চলছে’

‘বহির্বিশ্বে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি নষ্টের অপচেষ্টা চলছে’

ডিসেম্বরের মধ্যে প্রবাসীদের জন্য সাপোর্ট সেন্টার চালুর আশা

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ১৬:৩৭

চলতি বছরের ডিসেম্বরের মধ্যে রাজধানীর হযরত শাহজালাল (রহ.) বিমানবন্দরের পাশে প্রবাসী কর্মীদের জন্য একটি সাপোর্ট সেন্টার চালু করতে চায় সরকার। একইসঙ্গে প্রবাসীদের জন্য কম খরচে চিকিৎসা প্রদানের জন্য ভাটারায় একটি মেডিক্যাল সেন্টার করার প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে।

রবিবার (১৭ অক্টোবর) প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ে প্রবাসী কর্মীদের জন্য ওয়েজ কল্যাণ বোর্ড কর্তৃক ‘প্রতিবন্ধী ভাতা’ প্রদান অনুষ্ঠানে এসব তথ্য জানান প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ।

প্রবাসী কর্মীদের জন্য সাপোর্ট সেন্টার করা প্রসঙ্গে প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী জানান, যারা বিদেশে যেতে ইচ্ছুক এবং যারা বিদেশে যাবেন তাদের সহায়তা দেওয়ার জন্য এই সাপোর্ট সেন্টারটি করা হবে। আশা করি এটা ডিসেম্বরের মধ্যে চালু করতে পারবো।

প্রবাসীদের জন্য যা কিছু করা দরকার এক এক করে সরকার সব করবে আশ্বাস দিয়ে ইমরান আহমদ বলেন, ‘আমরা প্রবাসীদের কল্যাণে একটা মেডিক্যাল সেন্টারও করবো। যেখানে প্রবাসীরা কম খরচে চিকিৎসা সেবা নিতে পারবেন। এটার কাজ এখনও শুরু হয়নি।’

প্রবাসীদের সেবা দেওয়ার জন্য সরকার নতুন নতুন প্রকল্প হাতে নিচ্ছে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, ‘আমরা মন্ত্রণালয় থেকে ওয়েজ কল্যাণ বোর্ডের মাধ্যমে প্রবাসীদের জন্য ৩৩২ কোটি টাকা প্রবাসীদের সহায়তায় খরচ করেছি। সৌদিগামীদের কোয়ারেন্টাইনে ২৫ হাজার টাকা করে দিয়েছি। আমিরাত প্রবাসীদের জন্য পিসিআর টেস্টের জন্য ১ হাজার ৬০০ টাকা করে দিচ্ছি। বিদেশ ফেরত ৯২০ জন নারী কর্মীকে ২০ হাজার টাকা করে দেওয়া হয়েছে।’

এ সময় মন্ত্রী কল্যাণ বোর্ডের মহাপরিচালককে উদ্দেশ করে বলেন, ‘প্রবাসীদের যেসব সন্তাদের ভাতা প্রদান করা হচ্ছে, তাদের মধ্যে যেসব প্রতিবন্ধী চিকিৎসার মাধ্যমে স্বাভাবিক অবস্থানে ফিরতে আসতে পারবে তাদের স্থায়ী চিকিৎসার ব্যবস্থা করেন।’ প্রবাসীদের কল্যাণে সব সেবা অনলাইনভিত্তিক করা হচ্ছে বলেও জানান মন্ত্রী ইমরান।

অনুষ্ঠানে প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. আহমেদ মুনিরুছ সালেহীন বলেন, ‘যারা বৈধভাবে বিদেশ যায়, প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয় তাদের জন্য কাজ করছে। আজ যাদের ভাতা দেওয়া হচ্ছে, তারা পাঁচ বছরে মোট ৬০ হাজার টাকা পাবেন। সবার ব্যাংক অ্যাকাউন্টে টাকা চলে যাবে। বর্তমানে আগের বাংলাদেশ নেই। উন্নয়নের ছোঁয়া গ্রামেও চলে গেছে, এতে প্রবাসীদের অবদান বিশেষ ভূমিকা রেখেছেন।’

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডের মহাপরিচালক মো. হামিদুর রহমান। এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরোর মহাপরিচালক মো. শহীদুল আলম প্রমুখ।

/এসও/ইউএস/

সম্পর্কিত

একমাস ধরে করোনা পরিস্থিতি স্বস্তিদায়ক

একমাস ধরে করোনা পরিস্থিতি স্বস্তিদায়ক

দ্বিতীয় দিনের মতো আজও শনাক্তের হার ২-এর নিচে

দ্বিতীয় দিনের মতো আজও শনাক্তের হার ২-এর নিচে

‘বহির্বিশ্বে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি নষ্টের অপচেষ্টা চলছে’

‘বহির্বিশ্বে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি নষ্টের অপচেষ্টা চলছে’

এজেন্ডায় থাকতে পারে ‘অপপ্রচারকারীদের’ ফিরিয়ে আনার ইস্যু

এজেন্ডায় থাকতে পারে ‘অপপ্রচারকারীদের’ ফিরিয়ে আনার ইস্যু

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

দুটি বিল পাসের সুপারিশ সংসদীয় কমিটির

দুটি বিল পাসের সুপারিশ সংসদীয় কমিটির

স্পিকারের সঙ্গে ইউএনএফপিএ’র আশা টর্কেলসনের সৌজন্য সাক্ষাৎ

স্পিকারের সঙ্গে ইউএনএফপিএ’র আশা টর্কেলসনের সৌজন্য সাক্ষাৎ

স্পিকারের সঙ্গে ইতালির রাষ্ট্রদূতের সৌজন্য সাক্ষাৎ

স্পিকারের সঙ্গে ইতালির রাষ্ট্রদূতের সৌজন্য সাক্ষাৎ

অত্যাবশ্যক পরিষেবায় অবৈধ ধর্মঘট ডাকলে চাকরিচ্যুতি-কারাদণ্ড

অত্যাবশ্যক পরিষেবায় অবৈধ ধর্মঘট ডাকলে চাকরিচ্যুতি-কারাদণ্ড

ই-কমার্সে প্রতারিতদের পাওনা বুঝিয়ে দিক সরকার, দাবি সংসদে

ই-কমার্সে প্রতারিতদের পাওনা বুঝিয়ে দিক সরকার, দাবি সংসদে

'লাশের নামে একটা বাক্সো সাজিয়ে-গুজিয়ে আনা হয়েছিল'

'লাশের নামে একটা বাক্সো সাজিয়ে-গুজিয়ে আনা হয়েছিল'

শেষ হলো সংসদ অধিবেশন

শেষ হলো সংসদ অধিবেশন

চন্দ্রিমায় জিয়াউর রহমানের কবর নিয়ে সংসদে বিতর্ক

চন্দ্রিমায় জিয়াউর রহমানের কবর নিয়ে সংসদে বিতর্ক

কুড়িগ্রামে কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনে সংসদে বিল পাস

কুড়িগ্রামে কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনে সংসদে বিল পাস

ঢাকা শিশু হাসপাতালকে ইনস্টিটিউট করতে বিল পাস

ঢাকা শিশু হাসপাতালকে ইনস্টিটিউট করতে বিল পাস

সর্বশেষ

করোনা টিকা দিতে ৯ কোটি সিরিঞ্জ কিনছে সরকার

করোনা টিকা দিতে ৯ কোটি সিরিঞ্জ কিনছে সরকার

ভারতের আইএসএল থেকে ডাক পেলেন তপু বর্মণ

ভারতের আইএসএল থেকে ডাক পেলেন তপু বর্মণ

বাংলাদেশ ছাড়ছে মুহিবুল্লাহর পরিবার?

বাংলাদেশ ছাড়ছে মুহিবুল্লাহর পরিবার?

করোনার গেম চেঞ্জার হবে 'মলনুপিরাভির'

করোনার গেম চেঞ্জার হবে 'মলনুপিরাভির'

আইয়ুব বাচ্চু স্মরণে পিয়ানো ইন্সট্রুমেন্টাল (ভিডিও)

আইয়ুব বাচ্চু স্মরণে পিয়ানো ইন্সট্রুমেন্টাল (ভিডিও)

© 2021 Bangla Tribune